নতুন ডিজিটাল লেনদেন সেবা ‘ট্যাপ’

অনলাইন ডেস্ক

নতুন ডিজিটাল লেনদেন সেবা ‘ট্যাপ’

চালু হলো নতুন মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস (এমএফএস) ট্রাস্ট আজিয়াটা পে বা ‘ট্যাপ’।  

বুধবার ট্রাস্ট ব্যাংকের হেড অফিসে বাণিজ্যিক কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন ট্রাস্ট আজিয়াটা ডিজিটাল লিমিটেড চেয়ারম্যান ও সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। 

সেবাটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সেনা প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেন, বর্তমান প্রযুক্তির যুগে মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস বা এমএফএস একটি অত্যাধুনিক ও উপযোগী প্রযুক্তি। তাই আর্মি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের একটি কোম্পানি ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড এবং এশিয়ার টেকনিক্যাল জায়েন্ট আজিয়াটা ডিজিটাল সার্ভিসের যৌথ উদ্যোগে আমরা চালু করতে যাচ্ছি ট্রাস্ট আজিয়াটা পে বা ট্যাপ। জাতির পিতার জন্মশত বার্ষিকী এবং আমাদের মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর এই শুভক্ষণে দেশে এমন একটি প্রযুক্তি চালু করতে পেরে আমি সত্যিই আনন্দিত এবং গর্বিত। আমি আশাকরি ট্যাপ’র এই সেবা আমরা দেশের জনগণের দোর গোড়ায় পৌঁছে দিতে সক্ষম হব।

সেবাটির আওতায় প্রাহকরা অর্থ জমা-লেনদেন, ইউটিলিটি বিল পরিশোধ, বিমার কিস্তি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ফি, তিন বাহিনীর নিয়োগ সংক্রান্ত ফি জমা দেওয়া, রেমিট্যান্স গ্রহণ, অনলাইন মার্চেন্ট পেমেন্ট এবং সকল মোবাইল ফোন অপারেটরের রিচার্জ সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।

‘ট্যাপ’ এর বিশেষত্ব হচ্ছে শুধু জাতীয় পরিচয়পত্র ও সেলফির মাধ্যমে সেবাটি গ্রহণের জন্য নিবন্ধন করতে পারবেন গ্রাহকরা। একমাত্র এই সেবাটির মাধ্যমে ৫৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ফি, তিন বাহিনীর নিয়োগ সংক্রান্ত ফি এবং জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্টের ফি পরিশোধ করা যাবে। 

টি-ক্যাশ (ট্রাস্ট ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং) এর সকল গ্রাহক এখন ট্যাপ’র গ্রাহকে পরিণত হবেন এবং পূর্ববর্তী সকল সুযোগ সুবিধা অক্ষুণ্ন রেখে আরও আকর্ষণীয় ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন।

ট্রাস্ট আজিয়াটা ডিজিটাল লিমিটেডের ভারপ্রাপ্ত সিইও দেওয়ান নাজমুল হাসান বলেন,“ডিজিটাল বাংলাদেশের ভিশনকে সামনে রেখে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর প্রাক্কালে ‘ট্যাপ’ চালু করতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমাদের বিশ্বাস বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাবে সর্বস্তরের জনগণ। মোবাইলে অর্থ লেনদেনে আস্থার প্রতীক হয়ে উঠবে ট্রাস্ট আজিয়াটা পে বা ‘ট্যাপ’।”


কিশোরকে ধর্ষণ করে অন্তঃসত্ত্বা তরুণী!

দেশে আত্মহত্যা বেড়েছে ৪০ শতাংশ

মৃত্যু যন্ত্রণা থেকে বাঁচার দোয়া


 

অনুষ্ঠানে ট্রাস্ট ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও হুমায়রা আজম, আর্মি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট এর ভাইস চেয়ারম্যান, মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক আর্মি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল মনসুর মো. আশরাফ খান, আজিয়াটা ডিজিটাল সার্ভিসেস’র চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার খাইরিল আব্দুল্লাহ, চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার এন্থনি শেয়ান্থা আবেকুন, বোর্ড অব ডিরেক্টরস সুব্বারমন বৈদ্যনাথন এবং চিফ স্ট্রাটেজি অফিসার তোমু মারুয়ামাসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ডিসেম্বরেই চালু হবে ৫জি নেটওয়ার্ক: মোস্তাফা জব্বার

অনলাইন ডেস্ক

ডিসেম্বরেই চালু হবে ৫জি নেটওয়ার্ক: মোস্তাফা জব্বার

দেশে আগামী ডিসেম্বর মাস থেকেই পরীক্ষামূলকভাবে চালু হতে যাচ্ছে ৫জি সেবা। ডিসেম্বরের ১২ বা ১৬ তারিখ থেকে রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর ‘টেলিটক’ এই সেবা চালু করবে।

শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর) টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ (টিআরএনবি) আয়োজিত ‘৫জি ইকোসিস্টেম ইন বাংলাদেশ অ্যান্ড আপকামিং টেকনোলজিস’ শীর্ষক এক ওয়েবিনারে এ তথ্য জানান ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ডিসেম্বর মাসেই পরীক্ষামূলকভাবে ৫জি চালু হবে। ডিসেম্বর মাসের ১২ তারিখ হলো ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস, ১৬ ডিসেম্বর আমাদের বিজয় দিবস, এই দুইটি দিন যেহেতু বিশেষ দিন তাই ওই সময়টাতে চালু করা হতে পারে।

দেশেই এখন ৫জি ফোন তৈরি হচ্ছে, ফলে ৫জি ডিভাইসের সংকট থাকলেও সেবাটি চালুর আগেই ডিভাইসের সংকট কেটে যাবে বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী। পাশাপাশি দেশের মোট চাহিদার ৯০ শতাংশ ৪জি স্মার্টফোন এখন দেশেই তৈরি হচ্ছে বলেও জানান তিনি। 

রও পড়ুন:

সব ফোনের একই চার্জার তৈরির প্রস্তাব, অ্যাপলের আপত্তি

বিয়ের আগেই পাত্রের মাকে নিয়ে পালিয়ে গেল পাত্রীর বাবা!

শরীর আর আগের মতো ছিলো না, বিচ্ছেদের কারণ জানিয়ে রোশান

জেলেদের জালে ২ কেজি ৯০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ মাছ


এর আগে, চলতি বছরের শেষের দিকে পরীক্ষামূলকভাবে ৫জি চালুর পরিকল্পনার কথা জানান প্রধানমন্ত্রীর তথ্য এবং যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

সব ফোনের একই চার্জার তৈরির প্রস্তাব, অ্যাপলের আপত্তি

অনলাইন ডেস্ক

সব ফোনের একই চার্জার তৈরির প্রস্তাব, অ্যাপলের আপত্তি

স্মার্টফোন এবং ছোট আকারের ইলেকট্রনিক যন্ত্রের ব্যাটারি চার্জ দেয়ার জন্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে একই ধরনের চার্জার তৈরি করতে হবে - এমন একটি নতুন নিয়ম তৈরির প্রস্তাব করেছে ইউরোপিয়ান কমিশন। এই পদক্ষেপ নেয়ার পেছনে মূল লক্ষ্য বর্জ্য কমানো। এরকম নিয়ম তৈরি হলে নতুন যন্ত্র কিনলেও গ্রাহকরা পুরনো চার্জার ব্যবহার অব্যাহত রাখবে বলে মনে করছে সংস্থাটি।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে বিক্রি হওয়া সব স্মার্টফোনে ইউএসবি-সি চার্জার থাকতে হবে বলে প্রস্তাবটিতে বলা হয়েছে। তবে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপল এই প্রস্তাবে আপত্তি জানিয়েছে। অ্যাপল আশঙ্কা প্রকাশ করেছে যে এই পদক্ষেপ প্রযুক্তির ক্ষেত্রে উদ্ভাবনীকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

অ্যাপলের স্মার্টফোনের জন্য আলাদা চার্জিং পোর্ট ব্যবহার হয়। তাদের আইফোন সিরিজে চার্জ দেয়ার জন্য অ্যাপলেরই তৈরি 'লাইটনিং' পোর্ট ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে প্রতিষ্ঠানটি জানাায়, "আমাদের আশঙ্কা এক ধরণের চার্জার তৈরিতে কড়া বাধ্যবাধকতা থাকলে তা উদ্ভাবনকে উৎসাহিত করা বদলে ব্যহত করবে, যার ফলে ইউরোপ এবং সারাবিশ্বের গ্রাহকরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।"

বর্তমানে অধিকাংশ অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সাথে একটি ইউএসবি মাইক্রো-বি চার্জিং পোর্ট থাকে। অনেক অ্যান্ড্রয়েড ফোনেই বর্তমানে ইউএসবি-সি চার্জিং পোর্টও থাকে।

আইপ্যাড ও ম্যাকবুকের নতুন মডেলে ইউএসবি-সি চার্জিং পোর্ট দেখা যায়। স্যামসাং এবং হুয়াওয়ের মত জনপ্রিয় ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের হাই-এন্ড মডেলেও ইউএসবি-সি চার্জিং পোর্ট থাকে।

প্রস্তাবে চার্জিং স্পিডের বিষয়টিও উল্লিখিত হয়েছে - অর্থাৎ ফাস্ট চার্জ হতে পারে, এমন সব ডিভাইজ একই সময়ের মধ্যে চার্জ হবে বলে বলা হচ্ছে।

রও পড়ুন:

প্রেমের স্বীকৃতি না পেয়ে প্রেট্রোল ঢেলে আগুন দিলেন নারী!

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

শুক্রবার রাজধানীর যেসব মার্কেট ও দর্শনীয় স্থান বন্ধ থাকবে

মাদাগাস্কারে গরু চুরি নিয়ে সংঘর্ষে ৪৬ জন নিহত


বর্তমানে প্রস্তাবিত নিয়ম অনুযায়ী যেসব ডিভাইসের জন্য একই ধরণের চার্জার থাকতে হবে, সেগুলো হল: স্মার্টফোন, ট্যাবলেট, ক্যামেরা, হেডফোন, পোর্টেবল স্পিকার, হাতে ধরে ব্যবহার করারর ভিডিও গেম কনসোল।

ইয়ারবাড, স্মার্ট ওয়াচ এবং ফিটনেস ট্র্যাকারকে এই তালিকার অর্ন্তভুক্ত করা হয়নি।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

অনলাইনে থেকেও অফলাইনে চ্যাট!

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইনে থেকেও অফলাইনে চ্যাট!

মেসেঞ্জারের মতো হোয়াটসঅ্যাপেও শেষ কখন অনলাইনে ছিলেন সেটা দেখা যায়। তবে তা লুকিয়ে রাখার উপায় এখন অনেকেই জানেন না। অনলাইনে থেকেও অন্যের চোখ এড়ানোর সুবিধা চালু করেছে জনপ্রিয় ম্যাসেজিং অ্যাপস হোয়াটসঅ্যাপ।

এই ক্ষেত্রে অনলাইনে থেকেও অফলাইন মুডের জন্য প্রথমত হোয়াটসঅ্যাপের নোটিফিকেশন অপশনটি চালু করতে হবে। তা হলে হোয়াটসঅ্যাপে কোনো মেসেজ এলে মোবাইল ফোনের উপরের স্ক্রিনেই তা দেখা যাবে। সেখান থেকেই চ্যাট করা যায়। এই অপশনেও যদি কারও অসুবিধা থাকে সেক্ষেত্রেও অন্য উপায় রয়েছে। গুগল প্লে স্টোর থেকে ‘হোয়াটসঅ্যাপ বাবল ফর চ্যাট’ অ্যাপটি ইনস্টল করে সেই সুবিধা পাওয়া যাবে। এই অ্যাপের মাধ্যমে কারও সঙ্গে কথা বললে অনলাইন দেখাবে না। আনন্দবাজার পত্রিকা এই তথ্যগুলো প্রকাশ করেছে।

অন্য একটি সহজ উপায়ও রয়েছে। কোনো মেসেজের উত্তর যদি অনলাইন না দেখিয়ে দিতে চান তা হলে ওই মেসেজটি আসার পর প্রথমে ফোনের ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করতে হবে। তারপর হোয়াটসঅ্যাপে ঢুকে উত্তর দিতে হবে। হোয়াটসঅ্যাপ থেকে পুরোপুরি বাইরে বেরিয়ে গিয়ে ফের ইন্টারনেট সংযোগ চালু করে দিতে হবে। তা হলে আপনার মেসেজ ঠিক জায়গায় পৌঁছে যাবে কিন্তু আপনাকে অনলাইন দেখাবে না। 

news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

হোয়াটসঅ্যাপ নিয়ে এলো বিশেষ ফিচার

অনলাইন ডেস্ক

হোয়াটসঅ্যাপ নিয়ে এলো বিশেষ ফিচার

জনপ্রিয় একটি মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ। ভারতে প্রায় ৪০০ মিলিয়নের বেশি ব্যবহারকারী এটি অ্যাক্সেস করেন। অনেক সময় হোয়াটসঅ্যাপে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ সেভ করার প্রয়োজন হয়ে থাকে। গুরুত্বপূর্ণ মেসেজগুলি সেইভ করার পাশাপাশি ভবিষ্যতে খুব সহজেই প্রয়োজন অনুযায়ী সেই মেসেজগুলিকে সহজেই খুঁজে পেতে এবং সেগুলোকে অ্যাক্সেস করতে পারেন।

বিশেষ এই ফিচার 'Starred messages,' নামে পরিচিত। যা ব্যবহারকারীদের নির্দিষ্ট মেসেজগুলোকে বুকমার্ক করার অনুমতি দেয় এবং ইউজাররা দ্রুত সেই মেসেজগুলিকে ভবিষ্যতে রেফারেন্স হিসাবে পেতে পারে।

ডেইলি হান্টের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী হোয়াটসঅ্যাপে কোনও মেসেজ সেভ করতে হলে প্রথমে কোনও নির্দিষ্ট একটি চ্যাট ওপেন করতে হবে এবং যে মেসেজটি আপনি সেইভ করতে চাইছেন সেটি লং প্রেস করে রাখতে হবে।


আরও পড়ুন

নিজেদের চাহিদা পূরণ হলেই টিকা রপ্তানি করা হবে : ভারতের পররাষ্ট্রসচিব

ইভার গান গাওয়া নিয়ে কী চান নতুন স্বামী?

ই-কমার্স উদ্যোক্তাদের জেলখানায় পাঠিয়ে লাভ নেই: বাণিজ্যমন্ত্রী

কেন মন ভাঙালো তরুণদের ক্রাশ রাশমিকার!


এবার স্ক্রিনের ওপরের দিকে একটি স্টার আইকন দেখা যাবে। কোনও একটি গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ সেইভ করে রাখতে এটি প্রেস করতে হবে। আবার মেসেজটি প্রয়োজনে আনস্টারও করতে পারেন একই ভাবে স্টার আইকন প্রেস করে।

সকল স্টারমার্ক করা মেসেজগুলি স্টার মেসেজ বিভাগে সংরক্ষিত থাকবে। সার্চবার আইকনের থ্রি ডট অপশন প্রেস করলে এটি আপনি দেখতে পাবেন। ড্রপ-ডাউন মেনুতে একটি স্টার মেসেজ অপশন দেখাবে। কেবল এটি প্রেস করতে হবে এবং সকল সেইভড মেসেজগুলো দেখা যাবে।

আপনি এই সেকশনে কোন একটি নির্দিষ্ট মেসেজও আনস্টার করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে মেসেজের ওপর লং প্রেস করে স্টার আইকনে ক্লিক করে সেই মেসেজটিকে আনস্টার করতে পারেন। আপনি একই সঙ্গে সমস্ত সেভড মেসেজ আনস্টার করে ফেলতে পারেন। স্ক্রিনের ওপরে থ্রি ডট আইকনে ক্লিক করে খুব সহজেই আপনি এই কাজটি করতে পারেন, এর জন্য আপনার কোনও মেসেজ ডিলিট হবে না। শুধুমাত্র স্টার মেসেজ সেকশন থেকে সেগুলিকে বাইরে বের করে আনতে পারবেন। যদি এই বিভাগে প্রচুর মেসেজ জমা হয়ে থাকে তবে আপনি যে মেসেজটি খুঁজছেন তা খুঁজে পেতে আপনি কেবল সার্চ বারে গিয়ে সেটিকে টাইপ করতে পারেন।

গুরুত্বপূর্ণ মসেজ খুঁজে পেতে আরেকটি বিকল্প পদ্ধতি হলো আপনি যদি মেসেজগুলিকে বুকমার্ক করতে না চান, তবে সহজেই আপনি WhatsApp-এর সার্চ অপশন ফলো করে সেই মেসেজটিকে খুঁজে পেতে পারেন। মেসেজিং অ্যাপটি পৃথক চ্যাটের পাশাপাশি ডিসপ্লে উইন্ডোতে একটি সার্চ অপশন আপনাকে দেবে যখন আপনি অ্যাপটি খুলবেন। আপনাকে কেবলমাত্র সার্চ বারে গিয়ে মেসেজটিকে টাইপ করতে হবে। তখন তত্‍ক্ষণাত্‍ সার্চ সম্বন্ধীয় মেসেজগুলি হোয়াটসঅ্যাপে দেখা যাবে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত    

পরবর্তী খবর

ই-কমার্সে চমকপ্রদ অফারের ফাঁদ, এক বছরে ১৯ হাজার অভিযোগ

রিশাদ হাসান

২০২০-২১ অর্থ বছরে দেশের ১৯টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভোক্তাদের অভিযোগ ১৩ হাজারের বেশী। এছাড়াও শেষ ২ মাসে অভিযোগের সংখ্যা  বেড়েছে আরো ৬ হাজার। প্রতিষ্ঠানগুলোর চমকপ্রদ অফারে প্রলুব্ধ হওয়ার কারনেই এই দশা বলছেন প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা। তাই এধরনের অফারে ক্রেতাদের লোভে না পড়ার পরামর্শ দিচ্ছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

রাজধানীর কারওয়ান বাজার এলাকার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এখানে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের নামে অভিযোগ দিতে এসেছেন দুই ব্যাক্তি।

অধিদপ্তরের তথ্যমতে চলতি বছরের জুন মাস পর্যন্ত দেশের মোট ১৯টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভোক্তাদের অভিযোগ ১৩৩১৭টি।

এরচেয়ে ভয়াবহ তথ্য হলো সবশেষ দুই মাসে অভিযোগ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯৩০৪টি। সবচেয়ে বেশী অভিযোগ ইভ্যালির ৭১৩৮টি। ই অরেঞ্জের নামে শুরুতে মাত্র ১০টি অভিযোগ থাকলেও মাত্র ৭ দিনে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৬৪৩টিতে।

রও পড়ুন:

ধীর জীবন মানেই অলস জীবন নয়

একটি হটডগ আয়ু কমাতে পারে ৩৬ মিনিট পর্যন্ত!

ইভ্যালি ধরলেও সমস্যা, ছাড়লেও সমস্যা! কোথায় যাবেন ফারিয়া?

তৃতীয় স্বামীর কাছে শুধু বিচ্ছেদই নয়, খরচও চাইলেন শ্রাবন্তী


 

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অফারের নামে গ্রাহকের সাথে প্রতারণা দেশের ই-কমার্স ব্যবসায় নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে।

আকর্ষণীয় অফারে প্রলুব্ধ না হয়ে প্রতিষ্ঠান বুঝে পন্য ক্রয়ের পরামর্শ দিচ্ছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।

তিনি জানান, এই মুহুর্তে দুটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের প্রধান আইনের আওতায় থাকায় ভোক্তাদের অভিযোগ নিষ্পত্তি করতে পারছেনা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর