ইরান ও সিরিয়া সন্ত্রাসবাদের মূলোৎপাটন পর্যন্ত লড়বে: আসাদ

অনলাইন ডেস্ক

ইরান ও সিরিয়া সন্ত্রাসবাদের মূলোৎপাটন পর্যন্ত লড়বে: আসাদ

ইরানকে সিরিয়ার ‘প্রধান সহযোগী’ উল্লেখ করে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ বলেছেন, সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর মূলোৎপাটন পর্যন্ত দু’দেশ যৌথভাবে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবে।

সিরিয়া সফররত ইরানের সংসদ স্পিকার মোহাম্মাদ-বাকের কলিবফ বুধবার দামেস্কে প্রেসিডেন্ট আসাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে এ মন্তব্য করেন তিনি। এসময় তিনি বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইরান সত্যিকার অর্থে সিরীয় জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে এবং সর্বাত্মক সহযোগিতা দিয়েছে।

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে দু’দেশের যৌথ যুদ্ধ ইতিবাচক ফল দিয়েছে এবং সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর হাত থেকে সিরিয়ার প্রতি ইঞ্চি ভূমি পুনরুদ্ধার না করা পর্যন্ত এ যুদ্ধ চলবে।

সাক্ষাতে ইরানের সংসদ স্পিকার তার দেশের পাশাপাশি সিরিয়ায় অনুষ্ঠিত সাম্প্রতিক প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, এসব নির্বাচনে ইরান ও সিরিয়ার জনগণ প্রমাণ করেছে, চাপ প্রয়োগ করে তাদেরকে কাবু করা যাবে না। দুই দেশের জনগণের ইচ্ছার বিরুদ্ধে গিয়ে বিশ্বের কোনো শক্তিই সফলতা লাভ করতে পারবে না।

আরও পড়ুন


সম্পাদক পরিষদ থেকে পদত্যাগের কারণ জানালেন নঈম নিজাম

জিম্বাবুয়ে সফল মিশন শেষ করে দেশে পৌঁছেছে টাইগাররা

সারা বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ৪২ লাখ ছাড়াল

কভিড-১৯ টিকা উৎপাদনে বাংলাদেশকে অগ্রাধিকার দেবে যুক্তরাষ্ট্র


সাক্ষাতে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট ও ইরানের পার্লামেন্ট স্পিকার দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার পাশাপাশি আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা ও মতবিনিময় করেন।

মোহাম্মাদ-বাকের কলিবফ ইরানের একটি সংসদীয় প্রতিনিধিদল নিয়ে মঙ্গলবার সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে পৌঁছান। তেহরান ও দামেস্কের মধ্যে অর্থনৈতিক সহযোগিতা শক্তিশালী করা হচ্ছে তার এ সফরের অন্যতম লক্ষ্য। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

সুচ বিঁধিয়ে কন্য সন্তানকে খুন, শেষ রক্ষা হলো না সেই মায়ের

অনলাইন ডেস্ক

সুচ বিঁধিয়ে কন্য সন্তানকে খুন, শেষ রক্ষা হলো না সেই মায়ের

তিন বছরের শিশু কন্যটিই মায়ের বিবাহবহির্ভুক সম্পর্কের মাঝে বাঁধা হয়ে দাড়িয়েছিলো। কিন্তু জন্মদাত্রী সেই মাই তার শিশু কন্যটিকে পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে মিলে হত্যার পরিকল্পনা করে। তার পর তদের পরিকল্পনা অনুযায়ী সেই কন্যটিকে তারা সুচ বিঁধিয়ে তিলে তিলে হত্যা করে।চার বছর আগের সেই ঘটনায় নিহত শিশুর মা এবং তার প্রেমিককে ফাঁসির সাজা দিলো আদালত।

ভারতের পুরুলিয়ার সুচ-কাণ্ডে নিহত শিশুর মা এবং তার প্রেমিক দুজনকেই মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। ষড়যন্ত্র করে সুচ ফুটিয়ে শিশুকন্যাকে হত্যার মামলায় গত শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) পুরুলিয়ার একটি দ্রুত বিচার আদালত দুজনকে দোষি সাব্যস্ত করে। সরকারি আইনজীবীর আবেদনের প্রেক্ষিতে মামলাটির রায় স্থগিত রাখার পর আজ (২১ সেপ্টেম্বর) শিশুটির মা মঙ্গলা গোস্বামী এবং তার প্রেমিক সনাতন গোস্বামী ঠাকুরকে আদালত ফাঁসির নির্দেশ দিয়েছে।

২০১৭ সালের ১১ জুলাই জ্বর ও সর্দি-কাশির উপসর্গ নিয়ে সাড়ে তিন বছরের মেয়েকে পুরুলিয়ার সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছিল মা মঙ্গলা। 


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


সে সময়ে চিকিৎসকেরা জানিয়েছিলেন, সেই সময়েই শিশুটির শরীরে একাধিক ক্ষত এবং আঁচড়ের চিহ্ন ছিল। এমনকি শিশুটির নিম্নাঙ্গে রক্তের দাগও ছিল বলে জানিয়েছিলেন তারা। এইসব ক্ষতের কারণ জানতে মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করে এক্সরে করা হলে দেখা যায় তার শরীরের ভেতর বিঁধে রয়েছে সাতটি সূচ। কীভাবে সুচ বেঁধানো হলো, তা জানতে চাওয়া হলেও তার সদুত্তর মেলেনি মঙ্গলার কাছে। 

পরে সে দাবি করে, প্রাক্তন হোমগার্ড সনাতনের বাড়ির পরিচারিকা সে। তার ধারণা সনাতনই তার মেয়ের উপরে নির্যাতন চালিয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জ আগ্নেয়গিরি: সরিয়ে নেওয়া হয়েছে শত শত লোক

অনলাইন ডেস্ক

ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জ আগ্নেয়গিরি: সরিয়ে নেওয়া হয়েছে শত শত লোক

স্প্যানিশ ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের লা পালমায় একটি অগ্ন্যুত্পাতের কারণে কর্তৃপক্ষকে আরেকটি গ্রাম উচ্ছেদ করতে বাধ্য করেছে। 

বিবিস‘র সূত্রে জানা যায়, কুম্বরে ভিয়েজা আগ্নেয়গিরির নতুন ফাটল থেকে লাভা বের হতে শুরু করার পর এল পাসোকে সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

গত রোববার অগ্ন্যুৎপাত শুরু হওয়ার পর থেকে অনেক মানুষ লাভা থেকে পালিয়ে গেছে।
নতুন বিস্ফোরণ বায়ু খোলার পরপরই চারটি ভূমিকম্প দ্বীপে আঘাত হানে।

স্থানীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, লাভা একটি রাসায়নিক বিক্রিয়া ঘটাতে পারে যা বিস্ফোরণ ঘটায় এবং সমুদ্রে পৌঁছলে বিষাক্ত গ্যাস নিঃসরণ করে।

বিশেষজ্ঞরা স্থানীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, মঙ্গলবার প্রায় ১২ টার দিকে এ লাভা সমুদ্রে পৌঁছবে বলে ধারণা করা হয়। বাসিন্দাদের যে এলাকা থেকে দূরে থাকতে বলা হয়েছে, তা পুলিশ ঘিরে রেখেছে।

ইতিমধ্যে, লাভা আগ্নেয়গিরির পশ্চিমাংশে অগ্রসর হতে থাকে এবং সবকিছু ধ্বংস করে দেয়।


আরও পড়ুন

শিশুকন্যাকে সূচ ফুটিয়ে হত্যা! মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ

পুলিশের পোশাকে টিকটক ভিডিও শেয়ারে নিষেধাজ্ঞা

সুদানে ষড়যন্ত্রকারীদের শনাক্ত করা হয়নি

বঙ্গবন্ধুর নামে জাতিসংঘের বাগানে বেঞ্চ উৎসর্গ


news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

গাড়িচাপা দেওয়া ইসরাইলি ২ পুলিশের অবস্থা আশঙ্কাজনক

অনলাইন ডেস্ক

গাড়িচাপা দেওয়া ইসরাইলি ২ পুলিশের অবস্থা আশঙ্কাজনক

ইসরাইলের উত্তরাঞ্চলীয় নাহারিয়া শহরে যে দুই ইসরাইলি পুলিশকে গাড়িচাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ইসরাইলি দৈনিক ইয়েদিউত আহারোনোত জানিয়েছে, শহরের একটি পুলিশ চেকপোস্টেই কাছেই এই ঘটনা ঘটেছে।

তবে এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি ইসরাইলি পুলিশ। তবে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এ ক্ষেত্রে পুলিশ হেলিকপ্টারও ব্যবহার করছে।

আরও পড়ুন:


পাঁচ বিভাগে বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টির আশঙ্কা

এই হচ্ছে বিএনপি, আর সব দোষ আওয়ামী লীগের?

রাজপথে নামার আহ্বান মোশাররফ-মান্নার

বাগেরহাটে ৩ ঘণ্টা পর প্লাইউড ফ্যাক্টরির আগুন নিয়ন্ত্রণে


ইসরাইলের টিভি চ্যানেল-টুয়েলভ জানিয়েছে, পুলিশের ওপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে দিয়েই দ্রুত পালিয়ে গেছে গাড়ির চালক।

এর আগে গত বুধবারও পশ্চিম বায়তুল মুকাদ্দাসে ইহুদিবাদীদের বিরুদ্ধে একটি হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে ইসরাইলি সূত্রগুলো খবর দিয়েছে।

ইসরাইলি বাহিনী ফিলিস্তিনিদের উপর হামলার আশঙ্কায় সম্প্রতি সর্বত্রই নিরাপত্তা জোরদার করেছে।

বিশেষকরে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে ছয় ফিলিস্তিনি বন্দী জেল থেকে পালাতে সক্ষম হওয়ার পর ইসরাইলিদের মধ্যে নিরাপত্তা নিয়ে আশঙ্কা আগের চেয়ে বেড়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

সুদানে ষড়যন্ত্রকারীদের শনাক্ত করা হয়নি

অনলাইন ডেস্ক

সুদানে ষড়যন্ত্রকারীদের শনাক্ত করা হয়নি

সুদানে একটি অভ্যুত্থান চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, ষড়যন্ত্রকারীদের শনাক্ত করা হয়নি।

আল-জাজিরার সূত্রে জানা যায় স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ভোরে অভ্যুত্থান চেষ্টাকে ব্যর্থ করা হয়েছে। অভ্যুত্থান ঠেকাতে জনগণকে এর মোকাবিলা করতে হবে বলে রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে।
 
দেশটির শাসক পরিষদের একজন সদস্য রয়টার্সকে বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।
 
শাসকদলের এক মুখপাত্র মোহাম্মদ আল ফাকি সুলেমান জানিয়েছেন, সোমবারের অভ্যুত্থানের এ অপচেষ্টায় জড়িত সন্দেহভাজনদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হওয়ার কথা ছিল এবং সামরিক বাহিনী শিগগিরই একটি বিবৃতি দেবে।


আরও পড়ুন

বঙ্গবন্ধুর নামে জাতিসংঘের বাগানে বেঞ্চ উৎসর্গ


নাম প্রকাশ না করার শর্তে একটি সূত্র এএফপিকে জানিয়েছে, অভ্যুত্থানকারীরা রাজধানী খারতুম থেকে নীল নদের ওপারে ওমদুরমানে রাষ্ট্রীয় রেডিওর নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার অপচেষ্টায় জড়িত ছিল।
 
একটি সরকারি সূত্র আল-জাজিরাকে জানায়, সাঁজোয়া যান নিয়ে অভ্যুত্থানের অপ্রচেষ্টাটি ওয়াদি সিডনা এবং ওমদুরমান অঞ্চল থেকে করা হয়েছে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

কানাডার নির্বাচনে ট্রুডোর হ্যাট্রিক বিজয়

অনলাইন ডেস্ক

কানাডার নির্বাচনে ট্রুডোর হ্যাট্রিক বিজয়

তৃতীয়বারের মত কানাডার প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন জাস্টিন ট্রুডো। সোমবার অনুষ্ঠিত ৪৪তম সাধারণ নির্বাচনে জয় পেয়েছেন তিনি। 

জয়ের খবরে এক বক্তব্যে জাস্টিন ট্রুডো একে ‘ক্লিয়ার ম্যান্ডেট’ বলে উল্লেখ করেছেন বলে জানিয়েছে দ্য গার্ডিয়ান। তবে করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যেই সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের জন্য যে দুই বছর আগেই নির্বাচন দিয়েছেন ট্রুডো, সেই উদ্দেশ্য পূরণ হয়নি তার। 

মঙ্গলবার মন্ট্রিলে বক্তব্য প্রদানকালে জাস্টিন ট্রুডো সমর্থকসহ, বিরোধী দলীয় নেতা ও নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, কয়েক বছর ধরে আমরা কঠোর পরিশ্রম করছি। আমরা অনেক এগিয়েছি। চলুন, সবাই একসঙ্গে কাজ করি। এসময় কানাডায় নতুন দিন সূচনা করার প্রতিশ্রুতিও দেন ট্রুডো।

নির্বাচনের প্রাথমিক ফলাফলের পাওয়া তথ্যে জাস্টিন ট্রুডোর লিবারেল পার্টি ১৫৬টি আসনে এগিয়ে রয়েছে। যেখানে এককভাবে সরকার গঠনে যেকোনো দলকে কমপক্ষে ১৭০টি আসনে জয় পেতে হবে। ​অন্যদিকে, বিরোধী নেতা এরিন ও’টুলের রক্ষণশীল দল ১২১ এগিয়ে রয়েছে।

রও পড়ুন:

ধীর জীবন মানেই অলস জীবন নয়

ইভা রহমান এখন ইভা 'আরমান'

সরলতার সুযোগে রোনালদোর ৩ কোটি টাকা আত্মসাৎ

রণবীরকে দাম্পত্য বিষয়ক সমস্যার সমাধান দিলেন কারিনা!


সংসদের ৩৩৮টি আসনে ভোটার দুই কোটি ৭০ লাখ। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাত ৯টা ৩০ মিনিটে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। এবার মেইলের মাধ্যমে প্রায় ১০ লাখ ভোট পড়েছে।

করোনা মহামারি ছাড়াও এবারের ভোটে দেশের অর্থনীতি, আবাসন, স্বাস্থ্যসেবার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোও ভোটারদের মনে দাগ কেটেছে।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর