পদত্যাগে না : প্রেসিডেন্ট প্যালেসে মারধর করা হয় প্রধানমন্ত্রীকে

অনলাইন ডেস্ক

পদত্যাগে না :  প্রেসিডেন্ট প্যালেসে মারধর করা হয় প্রধানমন্ত্রীকে

তিউনিসিয়ার প্রেসিডেন্ট কাইস সাঈদ (বাঁয়ে)ও প্রধানমন্ত্রী হিশাম মেশিশি(ডানে)

ক্ষমতাচ্যুত করার পূর্বে রোববার তিউনিসিয়ার প্রেসিডেন্ট কাইস সাঈদ প্রধানমন্ত্রী হিশাম মেশিশিকে প্রেসিডেন্ট প্যালেসে ডাকেন। সেখানে তিনি মেশিশিকে পদত্যাগ করতে বলেন। প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করতে রাজি না হলে তাকে মারধর করা হয়। এ সময় প্রেসিডেন্ট প্যালেসে তিউনিসিয়ার বাইরের দেশের নাগরিকও ছিলেন। 

সেসময় প্রেসিডেন্ট প্যালেসে মিশরের নিরাপত্তা কর্মকর্তারা ছিলেন। তারা প্রেসিডেন্টকে অভ্যুত্থানের বিভিন্ন নির্দেশনা দিচ্ছিলেন। তবে প্রধানমন্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ বা মারধরের সময় মিশরের কর্মকর্তারা কী ধরনের ভূমিকা রেখেছে সেটা জানা যায়নি। 

মিডলইস্ট আইয়ের এক খবরে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য জানানো হয়েছে। 

মারধরের পর প্রধানমন্ত্রী হিশাম মেশিশি কতটা আহত হয়েছেন সংবাদমাধ্যমটি সেটা যাচাই করতে না পারলেও খবরে বলা হয়েছে, ৪৭ বছর বয়সী ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী হিশাম মেশিশি উল্লেখভাবে আহত হয়েছেন। তিনি মুখে আঘাত পেয়েছেন। এ কারণে ঘটনার পর তিনি আর জনসম্মুখে বের হননি। 

রোববার রাতেই প্রেসিডেন্ট কাইস সাঈদ প্রধানমন্ত্রী হিশাম মেশিশিকে বরখাস্ত এবং পার্লামেন্ট স্থগিত করেন। সংসদ স্থগিতের পর মিশরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল সিসি প্রেসিডেন্টকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন। 


কিশোরকে ধর্ষণ করে অন্তঃসত্ত্বা তরুণী!

দেশে আত্মহত্যা বেড়েছে ৪০ শতাংশ

মৃত্যু যন্ত্রণা থেকে বাঁচার দোয়া


 

এদিকে, ঘটনার পর তিউনিসিয়ায় চরম রাজনৈতিক অসন্তোষ বিরাজ করছে। পার্লামেন্ট স্থগিত করার পর স্পিকার রাশেদ ঘানৌচির ডাকে রাস্তায় নেমে আসেন সরকার-সমর্থকেরা। এ ছাড়া প্রেসিডেন্ট সাঈদ বিরোধীরা এই ঘটনাকে সেনা অভ্যুত্থান হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

৯০ বছর গোপন রাখা হবে প্রিন্স ফিলিপের উইল

অনলাইন ডেস্ক

৯০ বছর গোপন রাখা হবে প্রিন্স ফিলিপের উইল

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের প্রয়াত স্বামী প্রিন্স ফিলিপের করা উইল অন্তত ৯০ বছর গোপন থাকবে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে জানা গেছে, লন্ডনের হাইকোর্টের একজন বিচারক এই রায় দিয়েছেন।

ক্যামব্রিজ নিউজ এর সূত্রে জানা যায়, রাজপরিবারের মর্যাদা রক্ষায় এই উইল গোপন রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ৯৯ বছর বয়সে গত ৯ এপ্রিল উইন্ডসর প্রাসাদে মৃত্যু হয় প্রিন্স ফিলিপের। 

বিচারক অ্যান্ড্রু ম্যাকফারলেন বলেছেন, এর আগে প্রিন্স ফ্রান্সিসের মৃত্যুর পর উইলের সঙ্গে ৩০টি খামও গোপন রাখা হয়।

ম্যাকফারলেন গত বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক রায়ে বলেছেন, সার্বভৌমত্বের মর্যাদা রক্ষার লক্ষ্যে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ-ও বলা হয়, উইল গোপন করার আবেদনটি পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে।
 
সর্বশেষ যার উইল গোপন করা হয়েছে তিনি হলেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মা এলিজাবেথ এবং তার বোন প্রিন্সেস মার্গারেট।

৯৫ বছর বয়সী রানি এলিজাবেথ প্রায় ৭০ বছর একসঙ্গে জীবন কাটিয়েছেন প্রিন্স ফিলিপের সঙ্গে। ব্রিটিশ রাজপরিবারের ইতিহাসে তিনি সবচেয়ে দীর্ঘদিনের জীবনসঙ্গী ছিলেন।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর

১ রুপির কয়েন ১০ কোটি!

অনলাইন ডেস্ক

১ রুপির কয়েন ১০ কোটি!

১৩৬ বছরের পুরোনো একটি কয়েন অনলাইন নিলামে ১০ কোটি রুপিতে বিক্রি হয়েছে। এটি হয়েছে প্রতিবেশি দেশ ভারতে। শত বছরেরও বেশি এই কয়েনটি পরিধিতে ভারতের বর্তমান ১ রুপির কয়েনের চেয়ে কিছুটা বড়। এর এক পিঠে খোদাই করা আছে ইংল্যান্ডের রানি ভিক্টোরিয়ার ছবি, অপর পিঠে ইংরেজী অক্ষরে লেখা ‘ওয়ান রুপি ইন্ডিয়া ১৮৮৫। আনন্দবাজার পত্রিকার সূত্রে এই তথ্য জানা যায়।

তবে অ্যান্টিক এই কয়েনটির ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়ের নাম গোপন রাখা হয়েছে।  জানা যায়, ইন্টারনেটের একটি পুরনো মুদ্রা কেনা-বেচার সাইটে কয়েনের ছবি পোস্ট করেছিলেন এক সংগ্রাহক। এরপরই কয়েনটি কেনার জন্য হুড়োহুড়ি পড়ে যায় সংগ্রাহকদের মধ্যে। 

প্রাচীন মুদ্রা বিশারদদের ধারণা, ভারতে ব্রিটিশ শাসনামলে ১৮৮৫ সালে মুম্বাইয়ে তৈরি করা হয়েছিল এই কয়েনটি। তার ৯ বছর আগেই ভারতীয় মুদ্রায় সামান্য পরিবর্তন এসেছিল। ব্রিটিশশাসিত ভারতের মুদ্রায় রানি ভিক্টোরিয়ার বদলে লেখা শুরু হয়েছিল সম্রাজ্ঞী ভিক্টোরিয়া বা ‘ভিক্টোরিয়া এমপ্রেস’। নিলামে ওঠা কয়েনটি সেই সময়কালের।

এর আগে গত জুন মাসে যুক্তরাষ্ট্রের ১৯৩৩ সালের একটি কয়েন এক কোটি ৮৯ লক্ষ ডলারে বিক্রি হয়েছিল। ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ১৩৮ কোটি রুপির সমান।


আরও পডুন

ভরা মৌসুমেও দেখা মিলছে না ইলিশের

যে দেশে সর্বনিম্ন বেকারত্বের রেকর্ড

ইভ্যালির লাখো গ্রাহকের মাথায় হাত!

সালমানকে নিয়ে আবেগঘন বার্তা দিলেন শাবনূর!


news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর

চার অপেশাদার নভোচারীকে নিয়ে পৃথিবীতে ফিরলো রকেট (ভিডিও)

ডেস্ক রিপোর্ট

মহাকাশও এখন বেড়াবার জন্য উন্মুক্ত। আর এই সুযোগটি করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ধনাঢ্য ব্যবসায়ী এলন মাস্কের স্পেস এক্স এবং জেফ বেজোসের ব্লু অরিজিন। কিছুদিন আগেই তিন নভোচারীকে সঙ্গে নিয়ে ১০ মিনিটের জন্য মহাকাশে বেড়িয়ে এসেছেন বেজোস। আর এবার চার অপেশাদার নভোচারী স্পেস এক্সের রকেটে করে মহাকাশে তিন দিন কাটিয়ে শনিবার পৃথিবীর বুকে নিরাপদে ফিরে এসেছেন। বিবিসি ও রয়টার্সের এর প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া যায়।

প্রথমবারের মতো চার অপেশাদার ব্যক্তি পৃথিবীর বাইরে মহাকাশে গিয়ে ঘুরে এলেন। বুধবার ফ্লোরিডার স্পেস এক্স এর ফ্যালকন-নাইন রকেটে করে মহাকাশের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। এই চার নভোচারীকে বলা হচ্ছে ইনসপিরেশন-ফোর নামে। আর এই টিমের নেতৃত্ব দিয়েছেন ই-কমার্স কোম্পানি শিফট-ফোর পেমেন্ট ইঙ্ক এর নির্বাহী মার্কিন ধনকুবের জেরেড ইসাকম্যান।


আরও পডুন

ভরা মৌসুমেও দেখা মিলছে না ইলিশের

যে দেশে সর্বনিম্ন বেকারত্বের রেকর্ড

ইভ্যালির লাখো গ্রাহকের মাথায় হাত!

সালমানকে নিয়ে আবেগঘন বার্তা দিলেন শাবনূর!


তার দলে রয়েছেন নাসার একজন সাবেক ভূতত্ত্ববিজ্ঞানী, একজন চিকিৎসক, বিমান বাহিনীর অভিজ্ঞ প্রকৌশলী। এই মিশনে অংশ নিতে জেরেড ইসাকম্যানকে তার সতীর্থ ব্যবসায়ী এবং স্পেস এক্সের মালিক এলন মাস্ককে দিতে হয়েছে আনুমানিক ২০ কোটি ডলার। যদিও টাকার অঙ্কটা এখনো কেউই আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেননি। শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় আটলান্টিক মহাসাগরে ক্যাপসুলে করে নিরাপদে নেমে নভোচারীরা। তাদের শুভেচ্ছা জানিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে টুইট করেন এলন মাস্ক। এটি ছিলো স্পেস এক্সের পক্ষ থেকে মানুষকে মহাকাশে পাঠানোর তৃতীয় মিশন। যা মহাকাশ-পযটনের জন্য একটি মাইলফলক।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর

কারাগার থেকে পালানো ফিলিস্তিনি বন্দী গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

কারাগার থেকে পালানো ফিলিস্তিনি বন্দী গ্রেপ্তার

ইসরায়েলের গিলবোয়া কারাগার থেকে পালানো ফিলিস্তিনি বন্দীদের মধ্যে পলাতক থাকা সর্বশেষ দুই জনকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ রবিবার অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড পশ্চিম তীরের জেনিন থেকে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী, অভ্যন্তরীণ গোয়েন্দা সংস্থা শিনবেত ও পুলিশের যৌথ অভিযানে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।  ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র আভিখায়ি আদরায়ি এক টুইট বার্তায় এ তথ্য জানান। আলজাজিরার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়।

টুইটারে তিনি বলেন, 'দুই নাশকতাকারী, নায়েফ কামামজি ও মুনাদেল ইয়াকুব আনফিয়াত জেনিনে তাদের লুকিয়ে থাকা বাড়ি সেনাবাহিনী ও পুলিশ ঘেরাও করার পর আত্মসমর্পণ করেছে।' আভিখায়ি আদরায়ি বলেন, সেনাবাহিনী ও পুলিশের সদস্যরা বাড়ির চারপাশে ঘেরাও করে নায়েফ ও মুনাদেলের বের হয়ে না আসা পর্যন্ত গুলি করতে থাকে। পরে তারা নিরস্ত্র অবস্থায় বের হয়ে এলে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

টুইট বার্তায় দুই বন্দীর ছবিও প্রকাশ করেন আভিখায়ি আদরায়ি। কারাগার পালানো ফিলিস্তিনি বন্দীদের আইনজীবীদের ভাষ্য অনুযায়ী, বন্দীরা গত বছরের ডিসেম্বর থেকে নিজেদের কারাগারের সিঙ্কের নিচে একটি সুড়ঙ্গ খনন শুরু করে। এই কাজে তারা চামচ, প্লেট এমনকি কেতলির হাতলও ব্যবহার করে।

পালিয়ে যাওয়া এই ছয় বন্দী হলেন, ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সংগঠন ইসলামি জিহাদের সদস্য মাহমুদ আবদুল্লাহ আল-আরিদা, মোহাম্মদ কাসিম আল-আরিদা, ইয়াকুব মোহাম্মদ কাদরি, আয়হাম নায়েফ কামামজি, মুনাদিল ইয়াকুব আনফিয়াত ও ফিলিস্তিনি রাজনৈতিক দল ফাতাহ আন্দোলনের সামরিক শাখা আল-আকসা শহীদ ব্রিগেডের নেতা যাকারিয়া জুবাইদি।


আরও পডুন

যে দেশে সর্বনিম্ন বেকারত্বের রেকর্ড

ইভ্যালির লাখো গ্রাহকের মাথায় হাত!

সালমানকে নিয়ে আবেগঘন বার্তা দিলেন শাবনূর!

আদালতের দ্বারস্থ জেমস


এর আগে ২০০৬ সালে গাজা-ইসরায়েল সীমান্তে দায়িত্বরত ইসরায়েলি সৈন্য গিলাদ শালিতকে অপহরণ করেন ইজ্জুদ্দিন আল-কাসসাম ব্রিগেডের সদস্যরা। গিলাদ শালিতের মুক্তির জন্য হামাসের সঙ্গে দীর্ঘ পাঁচ বছরের দর কষাকষির পর ২০১১ সালে এক হাজার ২৭ ফিলিস্তিনি বন্দীর বিনিময়ে গিলাদ শালিতকে মুক্তি দেওয়া হয়।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর

বাবা-ছেলেকে একসঙ্গে ছাদ থেকে ছুঁড়ে ফেলল যুবক!

অনলাইন ডেস্ক

বাবা-ছেলেকে একসঙ্গে ছাদ থেকে ছুঁড়ে ফেলল যুবক!

বাড়ির ছাদে ঘুড়ি ওড়াচ্ছিলেন বাবা ও ছেলে। খেলা নিয়ে পাশের বাড়ির সঙ্গে অল্পস্বল্প কথা-কাটাকাটিও চলছিল। সেই সময়েই ছাদে উঠে আসে প্রতিবেশী এক যুবক। নেশাগ্রস্ত ওই যুবক দাবি করে, কোনও ঝগড়া নয়। চুপ করে থাকতে হবে। কিন্তু তার কথা না শোনায় বাবা ও ছেলেকে চারতলা বাড়ির ছাদ থেকে এক রকম ছুড়েই নীচে ফেলে দেয় ওই যুবক।

বিশ্বকর্মা পূজার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের বরাহনগরে। আজ রোববার এ খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।


আরও পডুন

যে দেশে সর্বনিম্ন বেকারত্বের রেকর্ড

ইভ্যালির লাখো গ্রাহকের মাথায় হাত!

সালমানকে নিয়ে আবেগঘন বার্তা দিলেন শাবনূর!

আদালতের দ্বারস্থ জেমস


খবর অনুযায়ী, প্রাণে বেঁচে গেলেও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর আঘাত পেয়েছেন বাবা শুকদেব হালদার (৪৮) ও ছেলে সুশান্ত হালদার (২৫)। এর পরে রাতেই অজিত রাজবংশী নামে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে বরাহনগর থানার পুলিশ।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর