সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে পিকনিক স্পটে নিয়ে ৫ বন্ধু মিলে ধর্ষণ
সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে পিকনিক স্পটে নিয়ে ৫ বন্ধু মিলে ধর্ষণ

সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে পিকনিক স্পটে নিয়ে ৫ বন্ধু মিলে ধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

জামালপুরের বকশীগঞ্জের ভারতীয় সীমান্তবর্তী একটি পিকনিক স্পটে নিয়ে সপ্তম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ৫ তরুণের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত পাঁচ তরুণকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাত ৮ টার দিকে বকশীগঞ্জ উপজেলার ওই পিকনিক স্পটের পাশ থেকে তাদের আটক করা হয়।

স্থানীয়রা জানান,  এক তরুণের সঙ্গে নির্যাতিতা ওই স্কুলছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ওই ছাত্রীকে লাউচাপড়া পিকনিক স্পটে নিয়ে যায় ওই তরুণ। লকডাউনের কারণে পিকনিক স্পটটি বন্ধ রয়েছে। তারা লুকিয়ে অন্য স্থান দিয়ে স্পটের পাশের পাহাড়ে ওঠে। ওই তরুণের সঙ্গে তার আরও চার বন্ধুও ছিলো। পরে ওই পাহাড়ে ৫ বন্ধু মিলে ছাত্রীটিকে দলবেঁধে ধর্ষণ করে।

আরও পড়ুন


সবচেয়ে দীর্ঘ সুড়ঙ্গ পথ উন্মোচন করল ইরান

স্বামীর পর্নকাণ্ড: ক্ষতিপূরণ দাবি করে মামলা করলেন শিল্পা শেঠি

চট্টগ্রামে একদিনে রেকর্ড শনাক্ত, মৃত্যু ৯

‘নাগার্নো-কারাবাখ অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠায় কাজ করবে ইরান’


ছাত্রীটির চিৎকার শুনে স্থানীয় দুজন ঘটনাস্থলে যান। তারা ওই যুবকদের আটক করে টাকা দাবি করেন। পরে আরও লোকজন ঘটনাস্থলে জড়ো হন। স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পাঁচজনকে আটক করে।

বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম সম্রাট বলেন, ওই স্কুলছাত্রীকে ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ওই পিকনিক স্পটে আনা হয়েছিল। পরে পালাক্রমে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়। স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে সেখান থেকে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। আটক তরুণেরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। স্কুলছাত্রীর পরিবারকে খবর দেওয়া হয়েছে।

news24bd.tv এসএম