হেলেনাকে ৫ দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক

হেলেনাকে ৫ দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ

আওয়ামী লীগের উপকমিটির সদস্য পদ হারানো এফবিসিসিআইর পরিচালক হেলেনা জাহাঙ্গীরের  বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকেলে গুলশান থানায় এ দুই মামলা দায়ের করা হয়। 

এদিকে গুলশান থানার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তার পাঁচ দিনের রিমান্ড চাওয়া হবে বলে আদালতের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। 

ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরীর আদালতে আজ রিমান্ড শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে হেলেনাকে জিজ্ঞাসাবাদের পর বিকেলে ব্রিফিংয়ে র‍্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন জানান, হেলেনা জাহাঙ্গীরের সঙ্গে ১৩ টি ক্লাবের সখ্যতা রয়েছে। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে চাঁদাবাজি করতেন।

'হেলেনা জাহাঙ্গীর একজন উচ্চাভিলাষী মহিলা। বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিদের সঙ্গে ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম দিয়ে নিজের উদ্দেশ্য হাসিল করতো।'

'সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিদেশে বসে সেফাতুল্লাহ নামে এক ব্যক্তি যে অশ্লীল শব্দ উচ্চারণ করতো সেই ব্যক্তির সঙ্গে অবৈধ লেনদেনসহ নিয়মিত যোগাযোগ রাখত হেলেনা জাহাঙ্গীর।'

খন্দকার আল মঈন বলেন, 'যেসব অবৈধ মদের বোতল উদ্ধার করা হয়েছে সবকিছু হেলেনা জাহাঙ্গীরের নিজ কক্ষে ছিল।

হেলেনা জাহাঙ্গীর এসব বিষয় স্বীকার করেছেন বলে জানান খন্দকার আল মঈন। পরে তাকে গুলশান থানায় হস্তান্ত করা হয়।

এর আগে ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে অবৈধ মাদক, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুল তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে একাধিক মামলা দায়ের করা হয়।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। পরে তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‍্যাব সদর দপ্তরে নেওয়া হয়।

আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্যপদ থেকে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি দিয়ে গত রোববার আনুষ্ঠানিক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য ছিলেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত তার সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড সংগঠনের নীতি বহির্ভূত হওয়ায় আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্যপদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

শ্যালিকা অন্তঃসত্ত্বা খবর শুনে পালায় দুলাভাই, অবশেষে গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

শ্যালিকা অন্তঃসত্ত্বা খবর শুনে পালায় দুলাভাই, অবশেষে গ্রেপ্তার

নেত্রকোনার মদনে শ্যালিকাকে ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত দুলাভাইকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যে শ্যালিকা একটি সন্তানও প্রসব করেছে। অভিযুক্ত দুলাভাইয়ের নাম মানিক মিয়া (৩০)।

গ্রেপ্তারকে রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নেত্রকোনা আদালতে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার রাতে নোয়াখালীর সোনামুড়ীর বগাদিয়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নোয়াখালী জেলার সোনামুড়ী উপজেলার বগাদিয়া গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে মানিকের সঙ্গে রং নাম্বারে প্রেমের সম্পর্ক হয় নেত্রকোনার মদন উপজেলার ভুক্তভোগী তরুণীর (১৯) বড় বোনের। দীর্ঘদিন আগে প্রেমের টানে মানিক মিয়া মদন উপজেলায় এসে ওই তরুণীর বড় বোনকে বিয়ে করে মদনেই সংসার জীবন শুরু করে। সংসার জীবনে ৭ বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তান রয়েছে তাদের।

সম্প্রতি মানিক মিয়া তার শ্যালিকাকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। পরে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণে এক পর্যায়ে ওই তরুণী (শ্যালিকা) অন্তঃসত্ত্বা হয়।

অন্তঃসত্ত্বার খবর জানতে পেরে মানিক মিয়া পালিয়ে নোয়াখালীতে যায়।

আরও পড়ুন:


হংকংয়ের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের মেয়েদের বড় জয়

তালেবান ক্ষমতায় আসায় বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত উৎফুল্ল: কৃষিমন্ত্রী

সৌদি আরবে বাংলাদেশির মৃত্যু

দুই ডোজ টিকা নিয়েও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার করোনা শনাক্ত


এদিকে গত জুন মাসে ওই তরুণী (শ্যালিকা) একটি ছেলে সন্তান জন্ম দেয়।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী তরুণী নেত্রকোনা আদালতে তিনজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

আদালতের নির্দেশে গত ২১ সেপ্টেম্বর মদন থানায় মামলা করা হয়। এরই প্রেক্ষিতে মদন থানার এসআই আব্দুল আজিজ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে শনিবার রাতে নোয়াখালীর সোনামুড়ী উপজেলার বগাদিয়া গ্রাম থেকে মানিক মিয়াকে গ্রেপ্তার করে মদন থানায় নিয়ে আসে।

মদন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস আলম বলেন, এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে মানিক মিয়াসহ তিনজনকে আসামি করে মামলা করেছে। প্রধান আসামি মানিক মিয়াকে গ্রেপ্তার করে রোববার বিকেলে নেত্রকোনা আদালতে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

‘পরকীয়া প্রেমিককে’ নিয়ে স্বামীকে হত্যা করে স্ত্রী

ফখরুল হাসান পলাশ, দিনাজপুর

‘পরকীয়া প্রেমিককে’ নিয়ে স্বামীকে হত্যা করে স্ত্রী

দিনাজপুরে স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রী ও তার কথিত প্রেমিকর যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের রায় দিয়েছেন আদালত।

একইসাথে তাদেরকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

রোববার বিকেলে দিনাজপুর সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আজিজ আহমদ ভুঞা এই রায় দেন।

দিনাজপুর আদালত পুলিশ পরিদর্শক মনিরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আসামিরা হলেন- দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের মৃত মজিদ প্রামানিকের মেয়ে ফাহমিনা বেগম ৪৩) ও তার প্রেমিক একই উপজেলার নিয়ামতপুর নতুনবাজার এলাকার সুশিল রবিদাসের ছেলে মানিক রবিদাস ওরফে আর্ট মানিক (৪৫)।

আরও পড়ুন:


হংকংয়ের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের মেয়েদের বড় জয়

তালেবান ক্ষমতায় আসায় বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত উৎফুল্ল: কৃষিমন্ত্রী

সৌদি আরবে বাংলাদেশির মৃত্যু

দুই ডোজ টিকা নিয়েও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার করোনা শনাক্ত


মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২০১৫ সালের ২৫ অক্টোবর পার্বতীপুর উপজেলা শহরের মোজাফফর হোসেন মহল্লার বাসিন্দা মুদী ব্যবসায়ী আবু ছালাম মোল্লার মরদেহ নিজ ঘরের ফ্যানে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনায় নিহতের বড় ভাই আবু হোসেন মোল্লা বাদী হয়ে পার্বতীপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্ত চলাকালে আসামি ফাহমিনা বেগম স্বেচ্ছায় জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

জবানবন্দিতে উল্লেখ করা হয়, তারা দুজনে (অভিযুক্ত দু’জন) মিলে লাইলনের রশি দিয়ে ফাঁস দিয়ে আবু ছালাম মোল্লাকে হত্যা করে। পরে মরদেহ ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে দেয়। মামলা দায়েরের পর পুলিশ নিহতের স্ত্রী ফাহমিনা বেগম ও মানিক রবি দাসের বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল করে।

এই মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে ২১ জন স্বাক্ষী স্বাক্ষ্য প্রদান করেন।

এছাড়াও আসামি ফাহমিনা বেগম নিজেই সাফাই সাক্ষ্য দেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট রবিউল ইসলাম ও আসামীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট হযরত আলী বেলাল।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

পাঠ্যবইয়ে ভুল, ব্যাখ্যা দিতে বোর্ডের চেয়ারম্যানকে হাইকোর্টে তলব

অনলাইন ডেস্ক

মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্যবইয়ে থাকা ভুলের ব্যাখ্যা দিতে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যানকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ১০ নভেম্বর তাকে সশরীরে হাজির হতে বলা হয়েছে।

রোববার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। শুনানিতে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি ক্ষমতায় থাকার সময় পাঠ্য বইয়ে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে এত ভুল নিয়ে প্রশ্ন তোলেন হাইকোর্ট।

এ সময় আদালত বলেছেন, পাঠ্য বইয়ে এত ভুল থাকা দুর্ভাগ্যজনক। ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক শিক্ষার্থীর অভিভাবকের করা রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আদালত রুলসহ এ আদেশ দিয়েছেন।

আরও পড়ুন:


বিমানবন্দরে শুরু আরটি-পিসিআর ল্যাবের কার্যক্রম

নির্মাণশৈলী ও রাতে নৈসর্গিক দৃশ্য দেখতে পায়রা সেতুতে পর্যটকদের ভিড়

কাল লাখ লাখ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বন্ধ হয়ে যাবে!

জাপার ফিরোজ রশীদের বিরুদ্ধে সম্পত্তি দখলের অভিযোগ, হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত


রুলে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্য বইতে থাকা ভুল সংশোধনে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় মিনুসহ ৩ বিএনপি নেতার জামিন

অনলাইন ডেস্ক

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় মিনুসহ ৩ বিএনপি নেতার জামিন

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনুসহ বিএনপির তিন কেন্দ্রীয় নেতার জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ সকালে মিজানুর রহমান মিনু, মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল এবং অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন আদালতে আত্মসমর্পণের পর জামিনের আবেদন করেন।

পরে দুপুর পৌনে ৩টার দিকে রাজশাহী মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক ওএইচএম ইলিয়াস হোসাইন এ আদেশ দেন।

আরও পড়ুন:


বিমানবন্দরে শুরু আরটি-পিসিআর ল্যাবের কার্যক্রম

নির্মাণশৈলী ও রাতে নৈসর্গিক দৃশ্য দেখতে পায়রা সেতুতে পর্যটকদের ভিড়

কাল লাখ লাখ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বন্ধ হয়ে যাবে!

জাপার ফিরোজ রশীদের বিরুদ্ধে সম্পত্তি দখলের অভিযোগ, হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত


আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত ৫ হাজার টাকার বন্ডে তিনজনের প্রত্যেকের জামিন মঞ্জুর করেন বিচারক। 

এদিকে, বিএনপি নেতাদের আত্মসমর্পণকে কেন্দ্র করে এ সময় আদালত প্রাঙ্গণে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

কুমিল্লার আদালতে মামুনুল হকের পরবর্তী হাজিরা ২৩ ডিসেম্বর

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লার আদালতে মামুনুল হকের পরবর্তী হাজিরা ২৩ ডিসেম্বর

পুলিশের মামলায় হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হক ও মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবীর পরবর্তী হাজিরা ২৩ ডিসেম্বর ধার্য করেছেন কুমিল্লার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

আজ দুপুরে আমলি আদালতের বিচারক ইরফানুল হক চৌধুরী এ তারিখ নির্ধারণ করেন। 

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ভারপ্রাপ্ত পিপি অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন:


বিমানবন্দরে শুরু আরটি-পিসিআর ল্যাবের কার্যক্রম

নির্মাণশৈলী ও রাতে নৈসর্গিক দৃশ্য দেখতে পায়রা সেতুতে পর্যটকদের ভিড়

কাল লাখ লাখ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বন্ধ হয়ে যাবে!

জাপার ফিরোজ রশীদের বিরুদ্ধে সম্পত্তি দখলের অভিযোগ, হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত


জানা গেছে, কুমিল্লার চান্দিনায় প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া আয়োজিত মাহফিলে অংশগ্রহণ এবং উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর পুলিশ এই মামলা করে। 

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর