স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা
স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা

অনলাইন ডেস্ক

পর্নকাণ্ডে গ্রেপ্তার বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা জেলে। এই মামলায় শিল্পার নামও বারবার উঠে এসেছে। মুম্বাই পুলিশের পক্ষ থেকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এ মামলায় শিল্পাকে কোন ক্লিনচিট দেওয়া হয়নি, সবরকম সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এদিকে স্বামীর পর্নকাণ্ডে কয়েকটি মিডিয়া ও সোশ্যাল মিডিয়া তার ভাবমূর্তি নষ্ট করতে উঠে পড়ে লেগেছে বলে অভিযোগ করে ২৫ কোটি রুপির মানহানির মামলা করেছেন শিল্পা শেঠি।

শুক্রবার মুম্বাই হাইকোর্টে এই মামলার শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এদিন বিচারপতি গৌতম এস প্যাটেলের এজলাসে শিল্পার দায়ের করা মানহানির মামলার শুনানি হয়। এ সময় রীতিমতো আদালতের ভর্ৎসনার মুখে পড়েন শিল্পা শেঠি। পুলিশের দেওয়া তথ্য চ্যানেলে সম্প্রচার করা হলে বা সংবাদপত্রে অথবা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে প্রকাশিত হলে সেটা কিভাবে মানহানিকর? শিল্পার আইনজীবীর কাছে জানতে চান হাইকোর্ট।  

আদালতের সাফ বক্তব্য, পুলিশ অথবা ক্রাইম ব্রাঞ্চের পক্ষ থেকে দেওয়া কোনও তথ্য পেশ করা কখনই মানহানিকর বলে বিবেচ্য হতে পারে না। সেই কারণেই এই মামলার কোনওরকম অন্তর্বতীকালীন অব্যাহতি পেলেন না শিল্পা।

আরও পড়ুন


আফগানিস্তানে চলা সংঘর্ষ ও প্রাণহানির জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী: চীন

তুরস্কের ভয়াবহ দাবানল নেভাতে সহযোগিতার আশ্বাস ইরানের

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

আফগানিস্তানের জাতিসংঘের দপ্তরে হামলা, এক পুলিশ নিহত


পাশাপাশি মুম্বাই হাইকোর্ট নিজের পর্যবেক্ষণে এও জানায় যে, ‘প্রেসের স্বাধীনতা এবং গোপনীয়তার অধিকার (রাইট টু প্রাইভেসি)-এর মধ্যে একটা সমতা বজায় রাখতে হবে। বাকস্বাধীনতার পথ সংকীর্ণভাবে তৈরি করতে হতে পারে,কিন্তু গোপনীয়তার অধিকার প্রত্যেকের মৌলিক অধিকার এবং তা সংবিধানসিদ্ধ। তাই কোনও মানুষ পাবলিক ফিগার মানে এই নয়, তাকে নিজের ব্যক্তি স্বাধীনতা বিসর্জন দিতে হবে। ’

আদালত নিজের পর্যবেক্ষণে আরও বলেন, শিল্পা শেঠি দুই নাবালক সন্তানের মা, সেকথা সকলকে মাথায় রাখতে হবে। সেই কারণে একজন পাবলিক ফিগার হলেও তার ব্যক্তিগত জীবনের গোপনীয়তা নিয়ে কাটাছেঁড়া করা অনুচিত। তবে এটার অর্থ কোনওভাবেই এটা নয় যে আদালত স্বাধীন ও নিরপেক্ষভাবে সত্য ঘটনা তুলে ধরতে মিডিয়ার ওপর কোনওরকম নিষেধাজ্ঞা জানাচ্ছে- তা পর্যবেক্ষণে স্পষ্ট করে বলেন বিচারপতি। এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর।

news24bd.tv এসএম

;