মহেশপুর সীমান্ত থেকে মাদক ব্যবসায়ী আটক

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ:

মহেশপুর সীমান্ত থেকে মাদক ব্যবসায়ী আটক

ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার যাদবপুর সীমান্ত এলাকা থেকে ভারতীয় ফেন্সিডিলসহ নুরুল ইসলাম (৩৮) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে বিজিবি।

শনিবার সকালে যাদরপুর সীমান্তের বড়বাড়ি গ্রাম থেকে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত ব্যবসায়ী মহেশপুর উপজেলার হাটযাদবপুর গ্রামের বড়বাড়ি গ্রামের মৃত আয়তাল হকের ছেলে।

খালিশপুর ৫৮ বিজিবির সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম খান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে ভারত থেকে ফেন্সিডিল নিয়ে এক ব্যবসায়ী অবস্থান করছে। 

এ সময় বিওপি টহলদল সীমান্তের যাদবপুর এলাকায় অভিযান চালায়। সে সময় সন্দেহ হলে মাদক চোরাকারবারী নুরুল ইসলামকে আটক করে। 

পরে তার কাছ থেকে ৩৪ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করে ফেন্সিডিলসহ আটককৃত ব্যবসায়ীকে মহেশপুর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:


পর্যটকদের জন্য খুলছে সৌদির দরজা

বাংলাদেশসহ চার দেশে দুবাইগামী ফ্লাইট বন্ধ ৭ আগস্ট পর্যন্ত

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

দক্ষিণাঞ্চলের মানুষে স্বপ্নের পায়রা সেতুর উদ্বোধন রোববার

সঞ্জয় কুমার দাস, পটুয়াখালী

দক্ষিণাঞ্চলের মানুষে স্বপ্নের পায়রা সেতুর উদ্বোধন রোববার

আগামী ২৪ অক্টোবর (রোববার) পটুয়াখালী-বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়কের পায়রা নদীর লেবুখালী পয়েন্টে নির্মিত দৃষ্টি নন্দন পায়রা সেতু জনসাধারণের পারাপারের জন্য খুলে দেয়া হবে। সেতুটির উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন পায়রা সেতুর প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী আবদুল হালিম। এই সেতুটি যাতায়াতের জন্য খুলে দেয়া হলে কুয়াকাটার থেকে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশের সাথে দক্ষিণাঞ্চলের যোগাযোগের নতুন অধ্যায়ের সূচনা হবে।

জানা যায়, বরিশাল-পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কের দুমকি উপজেলার লেবুখালীতে পায়রা নদীর উপর ২০১৬ সালে লেবুখালী-পায়রা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। ইতোমধ্যে মূল সেতুর শত ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। এই সেতুতে বেশ কিছু নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। বিশেষ করে নদীর মধ্যে এবং পাশে থাকা পিয়ারে যাতে কোন নৌ যান ধাক্কা দিতে না পারে সে জন্য পিয়ারের পাশে নিরাপত্তা পিলার স্থাপন করা হচ্ছে। এ ছাড়া বজ্রপাত কিংবা ভূমিকম্পের মত প্রাকৃতিক দূর্যোগে সেতুর কোন ক্ষতি হলো কিনা সেটি মনিটরিং করারও ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

চীনের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ‘লনজিয়ান রোড এন্ড ব্রীজ কনেস্টাকশন’ এর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করেছে। ১ হাজার ৪৭০ মিটার দৈঘ্য এবং ১৯.৭৬ মিটার প্রস্থের এই ব্রীজটি এক্সট্রা ডোজ ক্যাবল দিয়ে দুই পাশে সংযুক্ত করা হয়েছে। ফলে নদীর মাঝ খানে একটি মাত্র পিলার ব্যবহার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন


ঠাকুরগাঁওয়ে অসময়ের বৃষ্টিতে আমন ধান ও সবজি ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি

যমুনায় ধরা পড়ল ৩১ কেজির জোড়া বাঘাইড়, কেজি হাজার টাকা

নাটোরে কলেজ এমপিওভুক্ত না হওয়ায় শিক্ষক এখন দোকান কর্মচারী

সামাজিক দ্বন্দ্বে শৈলকুপায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ভেঙ্গে দিল প্রতিপক্ষরা


এক্সট্রা ডোজ ক্যাবেল সিস্টেম এ তৈরী করা এই সেতুটি দৃষ্টি নন্দন। যা ইতিমধ্যেই ভ্রমন পিপাষুদের নজর কেরেছে। তাই এটি হয়েছে উঠেছে ভ্রমন স্পট। কুয়েত ফান্ড ফর আরব ইকোনমিক ডেভলপমেন্ট, ওপেক ফান্ড ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভলপমেন্ট এবং বাংলাদেশ সরকারের যৌথ বিনিয়োগে ব্রীজের নির্মান ব্যায় ধরা হয়েছে ১ হাজার ৪শ কোটি টাকা।

এদিকে পায়রা সেতু এখন নতুন একটি বিনোদন স্পটে পরিনত হয়েছে। প্রতিদিন বিকেল ও সন্ধ্যার পরে স্থানীয়রা এবং আশপাশের জেলা থেকে সেতুর দু’পাড়ে এ্যাপ্রোচ সড়কে ভীড় করে দর্শনার্থীরা।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

ঠাকুরগাঁওয়ে অসময়ের বৃষ্টিতে আমন ধান ও সবজি ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি

আব্দুল লতিফ লিটু, ঠাকুরগাঁও

ঠাকুরগাঁওয়ে অসময়ের বৃষ্টিতে আমন ধান ও সবজি ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি

গত দুই দিনের বৃষ্টি ও দমকা হাওয়ায় ঠাকুরগাঁওয়ের শত শত বিঘা জমির আমন ধান মাটিতে নুয়ে পড়েছে। বিভিন্ন এলাকায় আমনচাষিদের পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন আগাম শীতকালীন সবজি ও আলুচাষিরা। তবে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, থেমে থেমে বৃষ্টিপাত হলে ফসলের মাঠে পানি বেশি দিন জমে থাকতে পারবে না। তাই ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা কম।

গত সোমবার বিকেল থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টি ও দমকা হাওয়ায় ঘরবাড়ি ও গাছপালার ক্ষয়ক্ষতি না হলেও জেলার শতাধিক হেক্টর জমির আমন ধান মাটিতে নুয়ে গেছে। ১০-১৫ দিনের মধ্যে এসব ধান কেটে ঘরে তুলতেন কৃষকেরা। এখন বড় ধরনের লোকসানের আশঙ্কা করছেন তাঁরা। অপরদিকে আগাম সবজি ও আলু চাষিদের মাথাঁয় হাত। বর্তমানে আলুর দাম নেই, আগাম আলু করে লাভ করার আশায় এখন লসের মুখে কৃষক।

বুধবার সদর উপজেলার শীবগঞ্জ, জগন্নাথপুর, নারগুনসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, আধা-পাকা ধানের গাছ ও সবজিখেত পানিতে ডুবে আছে। মাটিতে নুয়ে পড়া ধানগাছ গোছা বেঁধে দাঁড় করানোর চেষ্টা করছেন অনেক কৃষক। অনেকে আবার সবজি ও আলু ক্ষেতের পানি ড্রেন করে বের করতে ব্যাস্ত।

সদর উপজেলার শীবগঞ্জ এলাকার কৃষক মকলেস উদ্দিন বলেন, আর মাত্র ১০-১৫ দিন পরই খেতের ধান পাকতে শুরু করবে। কিন্তু হঠাৎ এই বৃষ্টি ও দমকা হাওয়ায় ৭০-৮০ শতাংশ জমির আমন ধান মাটিতে হেলে পড়েছে। এই ধান এখন কি হবে, কিভাবে এই লস পুরণ হবে ভেবে পাচ্ছি না।

ওই এলাকার আরেক কৃষক দুলাল হোসেন বলেন, ‘তিন বিঘা জমিতে আগাম ব্রি সুমন স্বর্ণা জাতের ধান লাগিয়েছি। মাঠে ধান পেকে গেছে। দু-এক দিন পর ঘরে তুলব। অসময়ের বৃষ্টিতে পাকা ধান নুয়ে পড়েছে। এতে ধান তুলতে পারলেও গুণগত মান নষ্ট হয়ে যাবে।’ এখন লোকসান হবে ৮-১০ হাজার টাকার মতো।

আরও পড়ুন


যমুনায় ধরা পড়ল ৩১ কেজির জোড়া বাঘাইড়, কেজি হাজার টাকা

নাটোরে কলেজ এমপিওভুক্ত না হওয়ায় শিক্ষক এখন দোকান কর্মচারী

সামাজিক দ্বন্দ্বে শৈলকুপায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ভেঙ্গে দিল প্রতিপক্ষরা

ভারতের ঢলে বন্যার কবলে তিস্তাপাড়ের মানুষ, আতঙ্কে ঘর ছাড়ছে সবাই


নারগুন এলাকার কৃষক তসলিম উদ্দিন বলেন, আগাম সবজি ও আলু করেছি লাভের আশায়। কিন্তু এই বৃষ্টি সব শেষ করে দিল। আলু ক্ষেত পানিতে ডুবে আছে। আলু যেগুলো লাগানো হয়েছে আর বৃষ্টি হলে সব আলু পচেঁ যাবে। সবজি ক্ষেতেও বিজগুলো পানিতে পচেঁ যাওয়া শুরু করছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রশিক্ষন অফিসার সিরাজুল ইসলাম বলেন, যেসব জমির ধানে সবেমাত্র শিষ এসেছে বা বের হয়নি, ওই জমির ধানের কিছুটা ক্ষতি হতে পারে। পাশাপাশি আলুখেতে পানি জমে থাকায় চাষিরা কিছুটা ক্ষয়ক্ষতির মুখে পড়তে পারেন। চলতি মৌসুমে জেলায় ১ লাখ ৩৭ হাজার ৩৫০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ হয়েছে বলে কৃষি অফিস জানায়।

দিনাজপুর অঞ্চল কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শাহ আলম কৃষকের মাঠ পর্যবেক্ষন করতে এসে জানান, মাঠ পর্যবেক্ষন করে আমরা দেখলাম প্রায় ৬হাজার হেক্টর জমির ধান, সবজি ও আলুর ক্ষতি হয়েছে। কৃষকদের নামের তালিকা করা শুরু হয়েছে। ক্ষতি পুরণ দেওয়ার জন্য আলোচনা করে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

যমুনায় ধরা পড়ল ৩১ কেজির জোড়া বাঘাইড়, কেজি হাজার টাকা

অনলাইন ডেস্ক

যমুনায় ধরা পড়ল ৩১ কেজির জোড়া বাঘাইড়, কেজি হাজার টাকা

বগুড়ার যমুনা নদীতে ধরা পড়েছে জোড়া বাঘাইড় মাছ। দুটির ওজন ৩১ কেজি। বগুড়ার ধুনট উপজেলার মাছ ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসেন বেশি দামের আশায় বুধবার সকালে নাটোরের সিংড়া উপজেলা চত্বরে মাছ দুটি বিক্রি করতে আসেন।

সিংড়া উপজেলা চত্ত্বর বাজারে ৩১ কেজি ওজনের দুটি বাঘাইড় মাছ বিক্রির জন্য বাজারে উঠলে এক নজর দেখার জন্য ভিড় করে উৎসুক জনতা।

মাছ ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসেন জানান, যমুনা নদীতে মাছ দুটি ধরা পড়ে। পরে আমি ক্রয় করে সিংড়ায় নিয়ে এসেছি। বড় মাছ ২০ কেজি ওজনের এবং ছোট মাছ ১১ কেজি ওজনের। ছোট মাছটি ৮০০ টাকা কেজি দরে ক্রয় করেন শহরবাড়ি গ্রামের আব্দুস সোবাহান নামের এক ব্যক্তি। অপরদিকে বড় মাছটি এক হাজার টাকা কেজি দরে কয়েকজন মিলে ক্রয় করেন।

মাছ ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসেন বলেন, দীর্ঘ প্রায় ৫৫ বছর যাবৎ মাছের ব্যবসা করে আসছি। বাঘাইরসহ বড় বড় মাছ সিংড়ায় নিয়ে আসি। মাছ দুটি বিক্রি হওয়ায় আমি খুব খুশি।

news24bd.tv এসএম

আরও পড়ুন


নাটোরে কলেজ এমপিওভুক্ত না হওয়ায় শিক্ষক এখন দোকান কর্মচারী

সামাজিক দ্বন্দ্বে শৈলকুপায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ভেঙ্গে দিল প্রতিপক্ষরা

ভারতের ঢলে বন্যার কবলে তিস্তাপাড়ের মানুষ, আতঙ্কে ঘর ছাড়ছে সবাই

উঠতি নায়িকার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে যে আলাপ হতো আরিয়ানের


 

পরবর্তী খবর

গুরুদাসপুরে মহিলা ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম

নাটোর প্রতিনিধি:

গুরুদাসপুরে মহিলা ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা ইউনিয়ন পরিষদের ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত ইউপি সদস্য মোছা. মর্জিনা খাতুন(৪৮) কে কুপিয়ে রক্তাক্ত করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশি মৃত লজের আলীর ছেলে আব্দুল বারীর বিরুদ্ধে। বুধবার সকাল আনুমানিক ৬টার দিকে শিকারপুর নদীর উত্তরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জেরে গত ১৯ অক্টোবর মঙ্গলবার ইউপি সদস্য মর্জিনার ছেলেকে মারপিট করে একটি হাত ভেঙ্গে দেয় প্রতিবেশি আব্দুল বারী, শাহাদত হোসেন, বুদ্দু মোল্লাসহ বেশ কয়েকজন। 

বুধবার সকালে বাড়ির সামনের রাস্তা দিয়ে হাঁটছিল ইউপি সদস্য মর্জিনা বেগম। হাঁটা অবস্থায় অভিযুক্ত ব্যক্তিরা অতর্কিত ভাবে তার শরিরে এলাপাথারিভাবে পিটিয়ে জখম করে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার বাম পায়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। 

আরও পড়ুন


লক্ষ্মীপুরে খোঁজ মিলছে না দুই কিশোরীর

আশুগঞ্জে অজ্ঞাত গাড়ির চাপায় দুই চালকল শ্রমিক নিহত

তিস্তার সব গেট খুলে দেওয়ায় বড় বন্যার আশঙ্কা

প্রবাল দ্বীপ সেন্ট মার্টিন ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা


আহত ইউপি সদস্য মর্জিনা বেগম জানান, তার ছেলে ও তাকে হত্যা চেষ্টার জন্য এই হামলা চালানো হয়েছে। তিনি অপরাধীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানান।

অভিযুক্ত আব্দুল বারীর মুঠোফন বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো.আব্দুল মতিন জানান, ইউপি সদস্যের ছেলেকে মারপিটের ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। ইউপি সদস্যকে মারপিট করার ঘটনায় সরেজমিনে তদন্ত চলছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে আইনআনুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে বিয়ে করা সেই তরুণী এখন নিজের বাড়ি

অনলাইন ডেস্ক

কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে বিয়ে করা সেই তরুণী এখন নিজের বাড়ি

পটুয়াখালীতে কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে জোর করে বিয়ে করা সেই তরুণী ইশরাত জাহান পাখি অবশেষে নিজের বাবার বাড়িতে ফিরে গেছেন।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে ওই তরুণী তার বাবার বাড়িতে ফিরে যায়। এদিকে তার দাবি অনুযায়ী স্বামী নাজমুলসহ ৩ জনকে আসামি করে পাখির পক্ষ থেকে গত ১২ অক্টোবর পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে যৌতুক মামলা করা হয়।

এ বিষয়ে পাখির আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘পাখির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরেই তাদের বিয়ে হয়েছে। কিন্তু বিয়ের পর নাজমুল নানা অজুহাতে পাখির পরিবারের কাছে যৌতুক দাবি করেন। এ ঘটনায় পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. আমিরুল ইসলাম মামলাটি গ্রহণ করে আসামিদের আগামী ৬ ডিসেম্বর আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।


আরও পড়ুন

লক্ষ্মীপুরে খোঁজ মিলছে না দুই কিশোরীর

আশুগঞ্জে অজ্ঞাত গাড়ির চাপায় দুই চালকল শ্রমিক নিহত

তিস্তার সব গেট খুলে দেওয়ায় বড় বন্যার আশঙ্কা

প্রবাল দ্বীপ সেন্ট মার্টিন ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা


এদিকে পাখির বিরুদ্ধে মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, গত ২৭ সেপ্টেম্বর ঢাকায় ইশরাত জাহান পাখির সঙ্গে নাজমুলের বিয়ে হয়। একই দিন নাজমুল তাকে অপহরণ করে বিয়ে করা হয়েছে বলে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। একই মানুষ একই দিনে দুই জায়গায় থাকতে পারেন না। এ বিষয় আমার ক্লায়েন্ট পাখি আইনিভাবে মোকাবিলা করবেন।

পটুয়াখালী সদর থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান জানান, আদালতের নির্দেশে অভিযোগটি এজাহার হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্ত করে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত 

পরবর্তী খবর