বৃষ্টির দিনে অন্য স্বাদের ইলিশ-খিচুড়ি বানানোর সহজ রেসিপি

অনলাইন ডেস্ক

বৃষ্টির দিনে অন্য স্বাদের ইলিশ-খিচুড়ি বানানোর সহজ রেসিপি

মেঘলা আকাশটা দেখে ভাবলেন এই দিনটাতে বেশ কফির কাপ, খোলা জানলা আর অবসরের বই হলে মন্দ হত না। তার উপর দুপুরের খাবারে যদি থাকে ইলিশ, তা হলে তো ব্যাপারটা জমে যেত! যেমন ভাবা, তেমন কাজ। এখানে রইল অন্য স্বাদের খিচুড়ি আর ইলিশের যুগলবন্দি, ইলিশ-খিচুড়ি। 

ইলিশ-খিচুড়ি উপকরণ:

ইলিশ মাছ: ১/২ কিলোগ্রাম

বাসমতি চাল: ৪ কাপ

মুসুর ডাল: ১ কাপ

মুগ ডাল: ১ কাপ

সাদা তেল: ১/৩ কাপ

সরিষার তেল: ১/৩ কাপ

পেঁয়াজকুচি: ১ কাপ

আদাবাটা: ১ টেবিল চামচ

রসুনবাটা: ১ টেবিল চামচ

কাঁচা মরিচ: ৪-৫টি

শাহি জিরে: ১ চা চামচ

হলুদ গুঁড়ো: ১ চা চামচ

মরিচ গুঁড়ো: ১/২ চা চামচ

দারচিনি: ২-৩টি

এলাচ: ৪-৫টি

তেজপাতা: ২টি

লবণ: স্বাদমতো

প্রণালী: 

কড়াই গরম করে শুকনো খোলায় মুগডাল ভেজে নিন। মুগডাল লালচে হয়ে গেলে নামিয়ে নিন। এরপর একটি পাত্রে চাল, ভাজা মুগডাল ও মুসুরডাল মিশিয়ে ভাল করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রেখে দিন। 

এবার ইলিশ মাছের টুকরোগুলিতে লবণ, হলুদগুঁড়ো ও মরিচগুঁড়ো দিয়ে ভাল করে মাখিয়ে নিন। এরপর হাঁড়িতে/পাত্রে সরিষার তেল ও সাদা তেল এক সঙ্গে দিন। তেল গরম হলে ইলিশমাছগুলি ভেজে আলাদা করে সরিয়ে রাখুন। ওই তেলে দারচিনি, তেজপাতা, এলাচ ও শাহি জিরে ফোড় দিন। একটু নাড়ার পর গন্ধ বার হলে পেঁয়াজকুচি দিন। পেঁয়াজ একটু বাদামি হয়ে এলে তাতে আদাবাটা, রসুনবাটা, মরিচগুঁড়ো ও হলুদগুঁড়ো দিয়ে কষতে থাকুন। কষতে কষতে ১/৪ কাপ পানি দিন। কষা হয়ে গেলে চাল ও ডালের মিশ্রণটি দিয়ে দিন। সঙ্গে স্বাদমতো লবণ ছড়িয়ে দিন।

আরও পড়ুন


যেসব মারাত্মক ভুলে ছেলেদের চুল পড়ে

ফল খাওয়ার উপযুক্ত সময় কোনটি জেনে নিন

জাহাজে হামলার ঘটনায় ইরানকে দায়ী করল ইসরায়েল

নওগাঁয় হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের শিকার প্রতিবন্ধী শিশুটির দায়িত্ব নিলেন পুলিশ সুপার

এবার ভাল করে কষতে থাকুন। একটু ভাজা ভাজা হয়ে গেলে এতে ১০ কাপ গরম পানি দিন।একটু ফুটে উঠলে আঁচ মাঝারি করে হাঁড়িতে ঢাকা দিয়ে দিন। এরপর পানি খানিকটা কবে এলে হাঁড়ি থেকে খানিকটা খিচুড়ি সরিয়ে ইলিশমাছগুলো দিয়ে দিন।

এবার ১০ মিনিটের মত দমে রাখুন। মাখোমাখো হয়ে গেলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন। 

news24bd.tv রিমু 

পরবর্তী খবর

ঘরেই রেস্টুরেন্টের মতো মোগলাই পরোটা

অনলাইন ডেস্ক

ঘরেই রেস্টুরেন্টের মতো মোগলাই পরোটা

মুঘল আমল অনেক আগে শেষ হলেও তাদের প্রভাব রয়ে গেছে বিভিন্ন খাবারে। এমনই একটি খাবার হলো মোগলাই পরোটা। মজাদার এই পরোটা খেতে কমবেশি সবাই ভালোবাসেন।

তবে বাড়িতে খুব কমই করা হয়। কারণ অনেকেই বলেন রেস্টুরেন্টের মতো মজার হয় না খেতে, কিন্তু এবার থেকে ঘরেই তৈরি করতে পারেন এই মোগলাই। চলুন জেনে নেই কীভাবে ঘরেই তৈরি করবেন এই রেসিপি। 

উপকরণ:

ময়দা- দুই কাপ, তেল- তিন চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি- এক চা চামচ, পেঁয়াজ কুচি- দুই চা চামচ, ডিম- তিনটি, লবণ ও পানি পরিমাণমতো, ভাজার জন্য তেল

প্রণালী :

প্রথমে ময়দা, লবণ ও তেল একসাথে মিশিয়ে হালকা গরম পানি দিয়ে মেখে আধাঘণ্টা ঢেকে রেখে দিন। 

পেঁয়াজ কুচি, কাঁচামরিচ কুচি, ডিম ও লবণ একসঙ্গে ফেটে নিন।

এবার পিঁড়িতে তেল মেখে বানানো খামির পরিমাণ ময়দা নিয়ে রুটি বেলে নিন। রুটির মাঝে ফেটানো ডিম ছড়িয়ে দিয়ে চার পাশ ভাঁজ করে নিন।

ভাঁজটা এমন হতে হবে যেন ভেতরের ডিম বাইরে বেরিয়ে না আসে। এবার মাঝারি আঁচে একটা ছড়ানো ফ্রাই প্যানে ডুবোতেলে সাবধানে পরোটা বাদামি করে ভেজে নিতে নিন।  

এবার টুকরো করে কেটে পছন্দের সালাদ বা সসের সঙ্গে পরিবেশন করুন মোগলাই পরোটা।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত 

পরবর্তী খবর

রুই মাছের কোফতা কারি

অনলাইন ডেস্ক

রুই মাছের কোফতা কারি

মাছ ভাত বাঙালির পছন্দের খাবার। আর তাই বলা হয় মাছ ভাতে বাঙালি। আর রুই মাছ তো সাবারই প্রিয় । তাহলে চলুন ঘরেই রান্না করে ফেলি রুই মাছের কোফতা কারি। রুই মাছের ভুনা তো অনেক খেয়েছেন এবার নতুন কিছু রান্না করুন।

রান্নায় করতে যা প্রয়োজন

রুই মাছ ২৫০ গ্রাম, ফ্রেশ ক্রিম ১/২ কাপ, পেয়াজ বেরেস্তা ২ টেবিল চামচ, সেদ্ধ আলু (মাঝারি) ১টা, পেঁয়াজ বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ, বাদাম বাটা ১ চা চামচ, ডিম ১টা, কাঁচামরিচ ফালি ৭/৮ টা, লবণ ১/২ চা চামচ, চিনি ১/২ চা চামচ, তেল ৪ টেবিল চামচ, ঘি ১ টেবিল চামচ।

যেভাবে রান্না করবেন

প্রথমে রুই মাছ ১/৪ চা চামচ লবণ এবং ১ কাপ পানি দিয়ে সেদ্ধ করতে হবে। মাছ সেদ্ধ হয়ে এলে কাঁটা ছাড়িয়ে নিন। এবার কাটা ছাড়ানো মাছে সেদ্ধ আলু চটকে দিন। সঙ্গে ডিম এবং সামান্য লবণ দিয়ে ভালোভাবে চটকে নিন। এবার পছন্দ মতো আকারে গোলা পাকিয়ে মাঝারি আঁচে তেল গরম করে তাতে হালকা বাদামি করে কোফতা ভেজে নিন। এবার কারি বানাতে প্যানে কোফতা ভাজা তেল থেকে ১ টেবিল চামচ তেল এবং ঘি গরম করে এতে পেঁয়াজ বাটা, রসুন বাটা, বাদাম বাটা, গরম মসলার গুঁড়া দিয়ে হালকা কষিয়ে নিন।

এরপর তাতে ফ্রেশ ক্রিম, পেঁয়াজ বেরেস্তা, কাঁচামরিচ ফালি, চিনি এবং বাকি লবণ দিয়ে বলক এসে তেল উপরে উঠে আসলেই তাতে কোফতাগুলো দিয়ে ২ মিনিট ঢেকে দমে রাখুন।

এবার চুলা বন্ধ করে ৫ মিনিট অপেক্ষা করলেই দেখবেন কোফতা ফুলে দ্বিগুণ হয়ে গেছে। এবার গরম পোলাও এর সঙ্গে পরিবেশন করুন মজার স্বাদের রুই কোফতা কারি।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

যাদের লইট্টা মাছ পছন্দ তাদের জন্য

ফাতেমা জান্নাত মুমু

যাদের লইট্টা মাছ পছন্দ তাদের জন্য

বৃষ্টির দুপুরে গরম ভাতের সাথে লইট্টা মাছ ফ্রাই কার না ভালোলাগে। এ জন্য মাওয়া কিংবা কক্সবাজার যেতে হবে না। লইট্টা মাছ ফ্রাই এখন আপনি ঘরেই তৈরি করতে পারেন।

রেসিপি:
লইট্টা মাছ আধা কেজি। (কিংবা ঘরের পরিবারের সদস্য সংখ্যা মাথায় রেখে আপনার ইচ্ছামতো নিতে পারেন। সে ক্ষেত্রে উপকরণের পরিমাণও বাড়বে)।

আধা কেজি লইট্টা মাছের জন্য লাগবে আদা-বাটা আধা চা-চামচ। রসুন-বাটা আধা চা-চামচ। হলুদ-গুঁড়া আধা চা-চামচ। লাল মরিচ-গুঁড়া আধা চা-চামচ। পেঁয়াজ বাটা আধা চা-চামচ। জিরা, ধনিয়া, গরম মসলা গুঁড়া এক সাথে আধা চা-চামচ। লবণ স্বাদ মতো। আর ময়দা ও তেল পরিমাণ মতো।

পদ্ধতি:
মাছ ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। পছন্দ মতো কেটে কিচেন টিস্যু দিয়ে চেপে মুছে নিন। যাতে বাড়তি পানি না থাকে।
এরপর ময়দা ছাড়া সব উপকরণ দিয়ে মাছ মাখিয়ে এক ঘণ্টা মেরিনেইট করে ফ্রিজে রেখে দিন। তবে উপকরণের সাথে কয়েক ফোটা তেল দিতে পারেন। এতে মাছটা ঝড়ঝড়া থাকবে। এক ঘণ্টা বা আধা ঘণ্টা হয়ে গেলে ফ্রিজ থেকে মাছ বের করে অল্প অল্প করে মাছগুলো ময়দায় গড়িয়ে নিন। এ আগে একটি ফ্রাই পেনে তেল গরম করে নিন। তারপর ডুবো তেলে বাদামি করে মাছ ভেজে তুলুন। মাছ ভাজার সময় বেশি উল্টাবেন না। এতে মাছ ভেঙে যেতে পারে। একটু শক্ত হয়ে আসলে একবার উল্টে দিতে পারেন। মাছ ভাজা হয়ে গেলে টিস্যুর উপর রেখে দিন। এতে অতিরিক্ত তেল টিস্যু টেনে নেয়।

পরিবেশন:
ভাজা মাছের উপর ধনিয়াপাতা, কাঁচা মরিচ ও ভাজা পেঁয়াজ দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

রেসিপি- ফাতেমা জান্নাত মুমু
(সাংবাদিক)।

আরও পড়ুন:


‌‘কস্ট সহ্য করতে’ না পেরে স্বামীর বিশেষ অঙ্গ ও গলাকেটে হত্যা

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার সম্ভাব্য সূচি

প্রথম স্বামীর কথার জবাব দিলেন মাহি

পাঁচ বিভাগে বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টির আশঙ্কা

এই হচ্ছে বিএনপি, আর সব দোষ আওয়ামী লীগের?

রাজপথে নামার আহ্বান মোশাররফ-মান্নার

বাগেরহাটে ৩ ঘণ্টা পর প্লাইউড ফ্যাক্টরির আগুন নিয়ন্ত্রণে


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

সুস্বাদু কাপ কেক রেসিপি

অনলাইন ডেস্ক

সুস্বাদু কাপ কেক রেসিপি

কাপ কেক দেখতেও যেমন সুন্দর; খেতেও ভীষণ মজাদার। বিশেষ করে ছোেদের কাপ কেক বেশি পছন্দ।

কাপ কেক তৈরি করা যায় খুব সহজেই। তাও আবার চুলায়। ঘরে থাকা চায়ের কাপেই বসাতে পারেন এই কেক। ঝটপট তৈরি করা যায় কাপ কেক। তাহলে আর দেরি কেন, জেনে নিন রেসিপি-

উপকরণ

১. ডিম ২টি
২. চিনি ১/৪ এক কাপ
৩. তেল ১/৪ কাপ
৪. ময়দা আধা কাপ
৫. বেকিং পাউডার আধা চামচ
৬. অরেঞ্জ ফ্লেভার ১ চামচ (পছন্দমতো যেকোনো ফ্লেভার ব্যবহার করতে পারেন)

প্রণালী:

ডিম, চিনি এবং তেল একটা পাত্রে ভালো করে ফেটে নিতে হবে; যতক্ষণ পর্যন্ত চিনিগুলো গলে না যায়। এরপর ময়দা এবং বেকিং পাওডার মিশ্রণের ভেতরে দিয়ে আবারো ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে।

সময় নিয়ে হ্যান্ড বিটারের সাহায্যে মিশ্রণটি ফেটিয়ে নিতে হবে। এরপর মিশ্রণের মধ্যে অরেঞ্জ ফ্লেভার দিয়ে দিন। কেউ চাইলে নিজের পছন্দমতো চকলেট, ভ্যানিলা, স্টবেরিসহ যেকোনো ফ্লেভার মেশাতে পারেন।

এরপর চায়ের কাপের ভেতরে আলতো করে তেল লাগিয়ে নিন। যাতে কেকটি তৈরি হয়ে গেলে তা কাপের গায়ে লেগে না যায় এবং ভালোভাবে উঠে আসে। এরপর মিশ্রণটা কাপের মধ্যে ঢালতে হবে।

কাপের অর্ধেকটা খালি রাখুন। যেন কেক ফুলে ওঠে পুরোটা ভরে যায়। 

এরপর কাপগুলো একটি ফ্রাইপেন বা বড় পাত্রে রেখে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ১৫ থেকে ২০ মিনিট হালকা আঁচে বেক করে নিন। এক্ষেত্রে কাচের ঢাকনা দিয়ে ঢাকলে সুবিধা হবে।

কারণ বাইরে থেকেই দেখা যাবে কেকটা কতটুকু বেক হয়েছে এবং সে হিসেবে নামানো যাবো। কেক হয়ে গেলে চুলা থেকে নামানোর আগে একটি টুথপিক ঢুকিয়ে দেখতে পারেন ভালোভাবে বেক হয়েছে কি-না। এবার পরিবেশন করুন সুস্বাদু কাপ কেক।

 news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

ঘরে বসেই গার্লিক নান তৈরির সহজ রেসিপি

অনলাইন ডেস্ক

ঘরে বসেই গার্লিক নান তৈরির সহজ রেসিপি

রসুন আর বাটার দিয়ে তৈরি নান রুটি গার্লিক নান হিসেবে পরিচিত। তবে এটি নানাভাবে তৈরি করা যায়। এক নজরে দেখে নেয়া যাক গার্লিক নান তৈরির সহজ রেসিপি-

উপকরণ:

ময়দা- ২ কাপ

ইস্ট- ১ চা চামচ

গরম দুধ- ১ কাপ

লবণ- পরিমাণমতো

বেকিং পাউডার- ১ চিমটি

গলানো মাখন- ৪ চা চামচ

রসুন মিহি কুচি করা- ২ চা চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন:

হালকা গরম দুধের সঙ্গে ইস্ট মিশিয়ে ভালোভাবে নাড়ুন। এরপর মিনিট দশেকের জন্য ঢেকে রাখুন। এবার বড় একটি পাত্রে ময়দা, বেকিং পাউডার ও লবণ ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর তাতে মেশান রসুন কুচি ও বাটার। ভালোভাবে মেশানো হলে তাতে ইস্টযুক্ত দুধ অল্প অল্প করে ঢেলে খামির তৈরি করে নিন। বাটারের পরিবর্তে তেলও ব্যবহার করতে পারেন। প্রয়োজন হলে গরম পানি যোগ করুন। ডো খুব নরম করে বানান। এতে রুটি ভালোভাবে ফুলবে।

রও পড়ুন:

তৃতীয় স্বামীর কাছ থেকে মুক্তি পেতে মামলা করলেন শ্রাবন্তী

কুড়িগ্রামে ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেপ্তার

অবশেষে ফুঁ দিয়ে আগুন ধরানো সেই সাধুবাবা গ্রেপ্তার

ইভ্যালি ধরলেও সমস্যা, ছাড়লেও সমস্যা! কোথায় যাবেন ফারিয়া?

ডো এর উপর অল্প তেল বা বাটার মাখিয়ে ভেজা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন। কিছুক্ষণ পর ডো ফুলে দ্বিগুণ হয়ে যাবে। এবার ভালোভাবে হাত দিয়ে মেখে নিন। ডো ভাগ ভাগ করে নিয়ে রুটির মতো বেলে নিন। পছন্দ মতো শেপে নান তৈরি করুন। চুলায় তাওয়া গরম করতে দিন। বাটার দিয়ে মাঝারি আঁচে নানগুলো সেঁকে নিতে হবে। নানের উপরের অংশ ফুলে উঠলে সাবধানে উল্টে দিন। এভাবে একটি একটি করে নান সেঁকে তুলে নিন।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর