রাঙামাটিতে সেনাবাহিনীর অভিযানে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক ৪

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি

রাঙামাটিতে সেনাবাহিনীর অভিযানে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক ৪

রাঙামাটিতে অস্ত্র ও গুলিসহ ৪ জনকে আটক করেছে সেনাবাহিনী। শনিবার সকালে লংগদু উপজেলার দূর্গম ছোট কাট্টলী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

এসময় তাদের আস্তানা তল্লাশি চালিয়ে একটি একে ২২ রাইফেল, ৭৭ রাউন্ড এ্যামুনিশন, একটি ম্যাগাজিন, একটি ওয়াকিটকি সেট, ৪টি মোবাইল সেট, একটি সোলার চার্জার, ১টি ভূয়া আইডি কার্ড, রাষ্ট্র বিরোধী শ্লোগান সম্বলিত ব্যানার, চাঁদার রশিদ নগদ অর্থসহ অন্যান্য সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, সাইমন চাকমা (৪০), অন্নাসং চাকমা (৪৫), সুরেন চাকমা (৬৩), অনিল চাকমা(১৯)। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা নিজেদের ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট সংক্ষেপে ইউপিডিএফ এর সক্রিয় সশস্ত্র সদস্য বলে দাবি করেন।

সেনাবাহিনী সূত্রে জানা যায়, রাঙামাটির লংগদু উপজেলার দূর্গম ছোট কাট্টলী এলাকায় সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গোপন আস্তানার খবর পেয়ে অভিযানে নামে সেনা সদস্যরা। এসময় ওই এলাকায় অবস্থান করছিল তারা। পরে সেনা সদস্যরা চারপাশ ঘেরাও করে তাদের অস্ত্রসহ আটক করতে সক্ষম হয়। এসময় তাদের আস্তানা তল্লাশি চালিয়ে অস্ত্র-গুলি ও বিভিন্ন সরঞ্জম উদ্ধার করেন।

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশসহ চার দেশে দুবাইগামী ফ্লাইট বন্ধ ৭ আগস্ট পর্যন্ত

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন বেসামরিক পদে ছয় শতাধিক নিয়োগ


রাঙামাটি লংগদু উপজেলা থানার কর্মকর্তা মো. আরিফুল আমিন এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, প্রার্থমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর আটক সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের থানায় হস্তান্তর করেছে। এদের বিরুদ্ধে অস্ত্র, গুলি, চাঁদাবাজি বিরুদ্ধে আইনি মামলা করার প্রক্রিয়া চলছে।

সেনাবাহিনী জানায়, পার্বত্য চট্টগ্রামের অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ ও আঞ্চলিক সশস্ত্র সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে একটি সফল অভিযান এটি। পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি বজায় রাখতে নিরাপত্তা বাহিনীর এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

কুমিল্লায় ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ, জানালার কাঁচ ভেঙে শিশুসহ আহত ৩

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লায় ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ, জানালার কাঁচ ভেঙে শিশুসহ আহত ৩

নোয়াখালীগামী আন্তনগর উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে দুষ্কৃতিকারীদের ছোঁড়া পাথর নিক্ষেপে শিশুসহ তিন যাত্রী আহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার বানাশুয়া ব্রিজের আগে এই ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নোয়াখালীগামী উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেন কুমিল্লার বানাশুয়া এলাকায় পৌঁছালে দুষ্কৃতিকারীরা ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ করে। এতে ৬০১৭ নম্বর বগির ১ নম্বর এসি কেবিনের জানালার গ্লাস ভেঙে পাথর ভেতরে ঢুকে যায়। এ সময় পাথরের আঘাতে শিশু নুসরাত জাহান মুন (৮) ও কামরুল ইসলামসহ (৫০) তিন যাত্রী আহত হয়।

আরও পড়ুন


ট্রফি জিতে অবসর নিয়ে যা বললেন ধোনি

শনিবার রাজধানীর যে সব মার্কেট ও দর্শনীয় স্থান বন্ধ

যে কারণে ম্যান্ডেলার জিনিসপত্র নিলামে উঠেছে

রেকর্ড ভাঙার দ্বারপ্রান্তে বিটকয়েনের দাম!


আরও জানা যায়, আহত যাত্রীরা ট্রেনের এটেনডেন্ট বদিউল আলমকে জানালে তিনি রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিষয়টি জানান। এরপর ট্রেনটি লাকসাম পৌঁছলে ট্রেনের যান্ত্রিক বিভাগের কর্মচারীরা ক্ষতিগ্রস্ত গ্লাসের উপর একটি কাগজ লাগিয়ে দেয়।

লাকসাম রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ‘ট্রেনে পাথর নিক্ষেপের ঘটনাটি শুনেছি। পাথরের আঘাতে শিশুসহ তিন যাত্রী আহত হয়েছে। আমরা বিষয়টির খোঁজ নিচ্ছি।’

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

মোবাইলে স্বামীর সঙ্গে কথা বলতে বলতে স্ত্রীর আত্নহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

মোবাইলে স্বামীর সঙ্গে কথা বলতে বলতে স্ত্রীর আত্নহত্যা

স্বামীর সঙ্গে মোবাইলে কথা বলতে বলতে গতকাল শুক্রবার ফাঁসিতে ঝুলে নারীর আত্নহত্যার খবর পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, দাম্পত্য কলহের জেরে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের লক্ষ্মীপুরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম মরিয়ম বেগম (২১)। তিনি সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর থানাধীন পরজোনা গ্রামের মনিরুল ইসলামের স্ত্রী।

এলাকাবসী ও গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) সদর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) সৈয়দ রাফিউল করিম জানান, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের লক্ষ্মীপুরা এলাকায় স্বামীর সঙ্গে ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় নলজানী এলাকার একটি গার্মেন্টে চাকরি করতেন মরিয়ম বেগম। করোনা পরিস্থিতির কারণে তার স্বামী গার্মেন্ট কর্মী মনিরুল ইসলাম গত কয়েক মাস ধরে বেকার। সংসারের খরচ জোগাতে না পারায় কিছুদিন ধরে স্বামীর সঙ্গে মরিয়মের ঝগড়া-বিবাদ চলছিল। এর জেরে কয়েক দিন আগে স্ত্রীর সঙ্গে রাগ করে মনিরুল গ্রামের বাড়ি চলে যান। গতকাল দুপুরে মরিয়ম মোবাইল ফোনে স্বামীর সঙ্গে কথা বলছিলেন। কথা বলতে বলতে হঠাৎ ঘরের জানালার গ্রিলের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে পড়েন মরিয়ম। তার সাড়া-শব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীরা ঘরের দরজা ভেঙে ভিতরে ঢুকে মরিয়মের লাশ দেখতে পান।

আরও পড়ুন:


যে কারণে ম্যান্ডেলার জিনিসপত্র নিলামে উঠেছে

রেকর্ড ভাঙার দ্বারপ্রান্তে বিটকয়েনের দাম!

আইপিএল: কে কোন পুরস্কার পেলেন জেনে নিন

মোবাইলে টুজি সচল, থ্রিজি ও ফোরজির জন্য নেটিজেনদের আক্ষেপ


খবর পেয়ে সন্ধ্যায় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে।

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

ধর্ষণ শেষে হত্যা, একজনের যাবজ্জীবন

অনলাইন ডেস্ক

ধর্ষণ শেষে হত্যা, একজনের যাবজ্জীবন

নারী এনজিও কর্মীকে ধর্ষণ শেষে হত্যার ঘটনায় জড়িত রিপন মোল্যা নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। এছাড়া ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। 

দন্ডপ্রাপ্ত রিপন মোল্যার বাড়ি ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর গ্রামে। তার পিতার নাম কুরবান মোল্যা। গত বৃহস্পতিবার ফরিদপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে বিচারক প্রদীপ কুমার এ রায় দেন। 

রায়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত না থাকায় অপর ৮ জনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়। 

খালাসপ্রাপ্তরা হলেন, সাইদ মাতুব্বর, ফজর খাঁ, বক্কার মোল্যা, রফিক মোল্যা, মিকু মাতুব্বর, রঞ্জু সরদার, বিপুল সরদার ও ওবায়দুর মোল্যা।

আরও পড়ুন:


মোবাইলে টুজি সচল, থ্রিজি ও ফোরজির জন্য নেটিজেনদের আক্ষেপ

সন্তান জন্ম দিয়েই মারা গেলেন নির্যাতনের শিকার গায়ে আগুন দেয়া সেই কিশোরী

নতুন সুখবর দিলেন জয়া

চট্টগ্রামে মা ও দুই শিশু সন্তানের মরদেহ উদ্ধার

বাংলাদেশের সেই খুদে লেগস্পিনারকে নিয়ে যা বললেন শচীন! (ভিডিও)


মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালের ১২ জুলাই এসডিসি নামক এনজিও কর্মী শিউলী আক্তার বোয়ালমারী অফিস থেকে সন্ধ্যার পর বাড়ি ফেরার পথে পূর্ব পরিচিত রিপন মোল্যা ও তার সহযোগীরা অপহরণ করে একটি পাটখেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে শিউলী আক্তারকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের পিতা বারেক মোল্যা বাদী হয়ে  বোয়ালমারী থানায় ৯ জনকে আসামি করে একটি মামলা করে। দীর্ঘ শুনানি শেষে এ রায় ঘোষণা করা হয়। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

ইউপি নির্বাচনে প্রার্থিতা নিয়ে সংঘর্ষ

মাগুরায় সংঘর্ষে নিহত চারজনের পরিচয় জানা গেছে

অনলাইন ডেস্ক

মাগুরা সদর উপজেলায় আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে দলাদলির ঘটনায় প্রতিপক্ষের হামলায় চারজন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে উপজেলার জগদল ইউনিয়নের দক্ষিণ জগদল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

নিহতরা হলেন- ওই গ্রামের সাহাবাজ মোল্যার ছেলে সবুর মোল্যা, কবির হোসেন, চাচাতো ভাই রহমান মোল্যা এবং ইমরান। 

আরও পড়ুন


থেমে-থেমে জ্বর আসছে খালেদা জিয়ার, খাচ্ছেনও খুবই অল্প

কুমিল্লার ঘটনা উদ্দেশ্যমূলক ও পরিকল্পিত: রিজভী

যুক্তরাষ্ট্রে উড়াল দিলেন মৌসুমী, ভিসা মেলেনি ওমর সানীর

ক্ষমতায় যাওয়ার বিএনপির রঙিন খোয়াব অচিরেই দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে: কাদের


এলাকাবাসী জানায়, এই ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি মেম্বার নজরুল হোসেন। কিন্তু দ্বিতীয় ধাপে তফসিল ঘোষণার পর এই ওয়ার্ড থেকে সৈয়দ আলি নামে অপর একজন মেম্বার প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেয়। 

এ ঘটনার পর থেকেই গত কয়েকদিন ধরে এলাকায় নজরুল মেম্বার এবং সৈয়দ আলি সমর্থিতদের মধ্যে বাদ বিবাদ চলছিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

পাসপোর্ট অফিসে টাকা দিলে সব মেলে

সৈয়দ রাসেল, সিলেট

অনিয়ম-দুনীর্তির কারণে দুর্ভোগ আর যন্ত্রণার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছে সিলেট বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিস। সেবা গ্রহীতাদের অভিযোগ, এসব অভিযোগে এ প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে একাধিকবার উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত হলেও তারা রয়েছেন বহাল তবিয়তে। এ কারণে দুর্নীতির মায়াজালে বন্দি হয়ে পড়েছে এ প্রতিষ্ঠান। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

নানা তৎপরতার পর থেমে নেই সিলেট বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের অনিয়ম ও দুর্নীতি। সেবা গ্রহীতাদের অভিযোগ, পুলিশ ভেরিফিকেশন, জন্মনিবন্ধন সনদ আর সত্যায়িত করার সিল সবই আছে দালালের কাছে। দরকার শুধু টাকা। 

এসব অবৈধ কাজ দিনের পর দিন করছে এ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীরা। এতে প্রতিনিয়ত চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন তারা।

২০১১ সালে অনিয়মের অভিযোগে বদলি হন সিলেট পাসপোর্ট অফিসের তৎকালীন উপ পরিচালক এ.কে.এম মাজহারুল ইসলাম। ২০১৭ সালে ডিডি হয়ে সিলেটে এসে ফের অনিয়মে জড়ান এই কর্মকর্তা। আবারও বদলি করা হয়।  

আরও পড়ুন


থেমে-থেমে জ্বর আসছে খালেদা জিয়ার, খাচ্ছেনও খুবই অল্প

কুমিল্লার ঘটনা উদ্দেশ্যমূলক ও পরিকল্পিত: রিজভী

যুক্তরাষ্ট্রে উড়াল দিলেন মৌসুমী, ভিসা মেলেনি ওমর সানীর

ক্ষমতায় যাওয়ার বিএনপির রঙিন খোয়াব অচিরেই দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে: কাদের


তবে ২০১৯ সালে তৎকালীন মন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তার আস্থাভাজন হিসেবে পরিচালক হয়ে ফেরেন এই অফিসে। ফের  নতুন করে নানা অনিয়মের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠে এই পাসপোর্ট অফিস।

নানা অভিযোগে এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে সরকারের একাধিক সংস্থা। তবে বরাবরের মতো অভিযোগ অস্বীকার করলেন এই কর্মকর্তা। এই প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম- দুর্নীতি বন্ধে সরকার দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নেবে এমন প্রত্যাশা ভুক্তভোগীদের।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর