শিবচরে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে ট্রাক খাদে পড়ে ৬ জন নিহত

মাদারীপুর প্রতিনিধি

শিবচরে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে ট্রাক খাদে পড়ে ৬ জন নিহত

মাদারীপুর জেলার শিবচরে ট্রাক উল্টে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (৩১ জুলাই) রাত সাড়ে নয়টার দিকে উপজেলার আড়িয়াল খাঁ নদের টোলপ্লাজার কাছে দুর্ঘটনাটি ঘটে। এ সময় আহত হয়েছে আরো ৪ জন। ট্রাকটিতে ছাদ ঢালাইয়ের সেন্টারিং এর মালামাল ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। ফরিদপুর মেডিকেলে আরো একজনকে আশংকাজনক অবস্থায় পাঠানোর পরে মারা গেছে।

নিহতরা হলেন শিবচরের  আড়িয়াল খাঁ টোলের কর্মরত শ্রমিক নির্মল, সোহান, পুলক। দুর্ঘটনায় ট্রাকে থাকা শ্রমিক ভোলার লালমোহন উপজেলার রমাগঞ্চ গ্রামের কবির হোসেনের ছেলে মিরাজ (২৮), চরফ্যাশন উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে আরিফ (২৪) ও পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার পসারিয়া গ্রামের বিল্লাল গাজীর ছেলে হান্নান গাজী (২৬)।

শিবচর হাইওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বরগুনা থেকে ছাদ ঢালাইয়ের সেন্টারিং এর মালামাল নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাচ্ছিল ট্রাকটি। ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের মাদারীপুরের শিবচরের আড়িয়াল খাঁ সেতুর টোলপ্লাজার কাছে এলে মহাসড়ক থেকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ছিটকে রেলিং ভেঙে সংযোগ সড়কের উপর আছড়ে পড়ে। এসময় ব্রিজ টোলের এক কর্মচারী সহ ঘটনাস্থলেই দুইজনের মৃত্যু হয়। আহত অবস্থায়  বিভিন্ন হাসপাতালে আরও ৪জন মারা গেছে।

দুর্ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী  মেহেদী হাসান বলেন, ট্রাকটি হাইওয়ে দিয়ে দ্রুত গতিতে টোলপ্লাজার কাছে এসে রেলিং ভেঙে নিচের সংযোগ সড়কের উপর পড়ে। ট্রাকটিতে ছাদ ঢালাইয়ের পাইপসহ অন্যান্য মালামাল ছিল। এর উপরে ৮/১০ জন সাধারণ যাত্রী বসেছিল। ঘটনাস্থলেই ২ জন মারা যায়। ফরিদপুর মেডিকেলে আরো একজন আশংকাজনক অবস্থায় মারা গেছে।'

'শিবচর হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোহাম্মদ আলী বলেন,'দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিভিন্ন হাসপাতালে আরও ৪জন মারা গেছে।

আরও পড়ুন:


বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত করোনার মতো বারবার রূপ পরিবর্তন করছে: বাহাউদ্দিন নাছিম

টিকা নেয়ার পরেও করোনা পজিটিভ ফারুকী

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা


তিনি আরও জানান, 'ট্রাকটি মালামাল নেয়ার সাথে ঢাকাগামী যাত্রীদেরও নিয়ে যাচ্ছিল। টোলের কাছে এসে সম্ভবত ব্রেক কষলে কাত হয়ে উল্টে গিয়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বিরিয়ানি খেয়ে ঢাকা মেডিকেলে স্বামী-স্ত্রী!

অনলাইন ডেস্ক

বিরিয়ানি খেয়ে ঢাকা মেডিকেলে স্বামী-স্ত্রী!

রাজধানীতে বিরিয়ানি খেয়ে স্বামী-স্ত্রী অচেতন হয়ে পড়েছে। অচেতন অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অচেতন স্বামী-স্ত্রী হলেন- ওই বাসার বাড়িটির কেয়ারটেকার জিল্লুর রহমান (৫৫) ও স্ত্রী পারুল বেগম (৫০)। পারুল অন্যের বাসায় গৃহপরিচারিকার কাজ করেন। তাদের বাড়ি রাজশাহীর দূর্গাপুর উপজেলায়।

জানা গেছে, মঙ্গলবার রাজধানীর আদাবর থানাধীন মুনসুরাবাদ হাউজিং এলাকার একটি বাসায় স্বামী-স্ত্রীকে বিরিয়ানির সঙ্গে চেতনানাশক খাইয়ে অচেতন করেন অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা। দুপুর ১টার দিকে মনসুরাবাদ হাউজিংয়ের ৪ নম্বর রোডের ২৫ নম্বর বাড়ি থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। 

বাড়িটির দারোয়ান বশির আহমেদ জানান, স্বামী-স্ত্রী ওই বাড়িটির নিচ তলাতে থাকেন। ৭ বছর ধরে জিল্লুর কেয়ারটেকার হিসেবে ওই বাড়িতে কাজ করেন। আজ দুপুরে বাড়ির গেটের পাশে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে তাদের ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাদের স্টোমাক ওয়াশ করানোর পর মিটফোর্ড হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। 


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


 

পারুল বেগম বলেন, ৬ তলার এক ভাড়াটিয়া দুপুরে তাদের এক বক্স বিরিয়ানি দিয়ে যায় খাবার জন্য। তখন স্বামী-স্ত্রী মিলে সেই বিরিয়ানি খায়। এর কিছুক্ষণ পরই দুজনই অসুস্থবোধ শুরু করেন। এক পর্যায়ে অচেতন হয়ে পড়েন তারা। খাওয়ার সময়ই বিরিয়ানি তেতো লেগেছিলো বলে জানান তিনি।

 দিকে এই ঘটনার পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া জানান, অচেতন অবস্থায় বিকেলে তাদের হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তাদের স্টোমাক ওয়াশ করানোর পর মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। ঘটনাটি আদাবর থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে। তারা এই বিষয়ে বিস্তারিত জানাবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে দুর্ঘটনায় ২ শ্রমিক নিহত

অনলাইন ডেস্ক


রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে দুর্ঘটনায় ২ শ্রমিক নিহত

পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের রিঅ্যাক্টর ভবনে কাজ করার সময় দুর্ঘটনায় মো. মনিরুজ্জামান (৩২) ও মাধব কুণ্ডু (৪৪) নামের দুই শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় একজন আহত হয়েছেন। আহত শ্রমিককে রাজশাহী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

আজ দুপুরে বিদ্যুৎ প্রকল্পের দুই নম্বর ইউনিটের রিঅ্যাক্টর ভবনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

নিহত মনিরুজ্জামান, পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার রূপপুর গ্রামের বাসিন্দা। আর মাধব কুণ্ডুর গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলায়।

আরও পড়ুন:


২০৪১ সালের মধ্যে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন লক্ষ্য ৬০ হাজার মেগাওয়াট

খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ল

দুর্নীতি ও মানি লন্ডারিং মামলায় ডিআইজি পার্থ গোপাল কারাগারে

নতুন লুকে পর্দায় ফিরছেন শুভ!


ঈশ্বরদী থানার ওসি মো. আসাদুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় ঈশ্বরদী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হবে। যেহেতু প্রকল্পের ভেতরে দুর্ঘটনা ঘটেছে, সে কারণে নিহত শ্রমিকদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ঘাতক ট্রাকচাপায় গেল প্রকৌশলীর প্রাণ

রেজাউল করিম মানিক, রংপুর

ঘাতক ট্রাকচাপায় গেল প্রকৌশলীর প্রাণ

রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় হাবিবুর রহমান (৪৮) নামে এক প্রকৌশলীর মৃত্যু হয়েছে।

বিস্তারিত আসছে...


পাঁচ বিভাগে বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টির আশঙ্কা

এই হচ্ছে বিএনপি, আর সব দোষ আওয়ামী লীগের?

রাজপথে নামার আহ্বান মোশাররফ-মান্নার

বাগেরহাটে ৩ ঘণ্টা পর প্লাইউড ফ্যাক্টরির আগুন নিয়ন্ত্রণে


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

বাগেরহাটে ৩ ঘণ্টা পর প্লাইউড ফ্যাক্টরির আগুন নিয়ন্ত্রণে

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট

বাগেরহাটে ৩ ঘণ্টা পর প্লাইউড ফ্যাক্টরির আগুন নিয়ন্ত্রণে

বাগেরহাট সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নে চাঁপাতলা এলাকায় (টিকে গ্রুপের) প্লাইউড ফ্যাক্টরিতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। রোববার সকালে এলাকাবাসী ধোয়ার কুন্ডলী দেখতে পেয়ে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। ৩ ঘণ্টা চেষ্টার পর বাগেরহাট ও খুলনার ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

তবে এ অগ্নিকাণ্ডে কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সে বিষয়ে ফায়ার সার্ভিস ও কোম্পানীর মালিক পক্ষের কেউ কিছু বলতে
পারেনি।

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক গোলাম সরোয়ার জানান, চাঁপাতলা এলাকায় অবস্থিত টিকে গ্রুপের প্লাইউড ফ্যাক্টরি গ্রীন বোর্ড এন্ড ফাইবার মিলস লিমিটেডে সকালে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে বাগেরহাট ও খুলনার ফায়ার সার্ভিসের ৬টি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। ফ্যাক্টরির ইঞ্জিন রুমে মজুত রাখা তেল থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এ জন্য আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে তাদের বেগ পেতে হয়। আগুন নেভাতে সোডিয়াম বাই কার্বনেট ও অ্যালমিনিয়াম সালফেড দিয়ে তৈরি বিশেষ ফোম ব্যবহার করতে হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

মাদারীপুরে নানা বাড়ি বেড়াতে গিয়ে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুরে নানা বাড়ি বেড়াতে গিয়ে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

মাদারীপুরের কুমার নদীর পাড়ে খেলা করতে এসে নদীর পানিতে ডুবে আবদুল্লাহ (৭) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। মাদারীপুর সদর উপজেলার পেয়ারপুর নানা বাড়ি বেড়াতে গিয়ে আজ শনিবার দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। বিকেলে খোঁজাখুজির পর একটি ডুবুরি দল শিশুটির মৃতদেহ উদ্ধার করে।

নিহত আবদুল্লাহ মাদারীপুর সদর উপজেলার মস্তফাপুর ইউনিয়নের মস্তফাপুর এলাকার আরিফ মৃধার ছেলে।

পরিবার ও স্থানীয় এবং ফায়ার সার্ভিসের তথ্য মতে, আব্দুল্লাহ তার নানা বাড়ি পেয়ারপুর ইউনিয়নের গাছ বাড়িয়া এলাকায় বেড়াতে গেলে স্থানীয় শিশুদের সাথে নদীর পাড়ে খেলতে যায় যায়। 

খেলা করতে করতে এক সময় নদীর পাশে পড়ে যায় এ সময় নদীর তীব্র স্রোতে সে তলিয়ে যায়। পরবর্তীতে স্থানীয়রা খোঁজাখুজি করে না পেলে, মাদারীপুর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে তারা এসে বরিশালের ডুবুরি দলকে সংবাদ দিলে তারা বিকেলের দিকে ওই নদী একটু দূর থেকে মৃত আব্দুল্লার লাশ উদ্ধার করে।

আরও পড়ুন:


নোটিশ দিয়ে ইভ্যালির অফিস বন্ধ রাখার ঘোষণা

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার যশোরে লিখিত অভিযোগ

ইভ্যালী-পঞ্জি স্কীমস: কই এর তেলে তিমি ভাজা!

যদি পারি অবশ্যই আমি বাংলায় গান গাইবো : ইয়োহানি


নিহত আবদুল্লাহ নানা বলেন, যখন আমার নাতি পানিতে ডুবছে সে সময় ডুবুরি আসলে আমার নাতিকে জীবিত পেতাম।

নিহতের বাবা আরিফ মৃধা বলেন, নানা বাড়ি বেড়াতে গিয়েছিল আর জীবিত ফিরে পেলাম না। মাদারীপুর ডুবুরি দল থাকলে আমার সন্তান জীবিত পেতাম। মাদারীপুর একটি ডুবুরি দল প্রয়োজন।

মাদারীপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নুর মোহাম্মদ শিকদার বলেন, আমরা ঘটনা শোনার পরে দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই। কিন্তু নদীতে অনেক স্রোত থাকায় আমরা বরিশাল ডুবুরি দলকে ফোন দেই। তারা ঘটনাস্থলের পাশ থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর