১০০ টাকার প্রাইজবন্ডের ড্র অনুষ্ঠিত

অনলাইন ডেস্ক

১০০ টাকার প্রাইজবন্ডের ড্র অনুষ্ঠিত

১০০ টাকা মূল্যমানের প্রাইজবন্ডের ১০৪তম ‘ড্র’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১ আগস্ট) ঢাকা বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মো. খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার অফিসের সম্মেলন কক্ষে এ ড্র অনুষ্ঠিত হয়।

ছয় লাখ টাকার প্রথম পুরস্কার বিজয়ীর নম্বর ০২১৮৪০৭। এছাড়া ৩ লাখ ২৫ হাজার টাকার দ্বিতীয় পুরস্কারের নম্বর ০৫৫১৯৮৫; এক লাখ টাকা করে তৃতীয় পুরস্কারের নম্বর ০৩৮৪৪৫৪ ও ০৯২৪১৩১ এবং প্রতিটি ৫০ হাজার টাকা করে দুটি চতুর্থ পুরস্কারের বিজয়ীর নম্বর ০২৭৬০৫৮ ও ০৯৫৫৮৪৮।

একক সাধারণ পদ্ধতিতে (অর্থাৎ প্রত্যেক সিরিজের জন্য একই নম্বর) এই ‘ড্র’ পরিচালিত হয় এবং বর্তমানে প্রচলনযোগ্য ১০০ (একশত) টাকা মূল্যমানের ৬৫টি (পঁয়ষট্টি) সিরিজ যথা- কক, কখ, কগ, কঘ, কঙ, কচ, কছ, কজ, কঝ, কঞ, কট, কঠ, কড, কঢ, কথ, কদ, কন, কপ, কফ, কব, কম, কল, কশ, কষ, কস, কহ, খক, খখ, খগ, খঘ, খঙ, খচ, খছ, খজ, খঝ, খঞ, খট, খঠ, খড,
খঢ, খথ, খদ, খন, খপ, খফ, খব, খম, খল, খশ, খষ, খস, খহ, গক, গখ, গগ, গঘ, গঙ, গচ, গছ, গজ, গঝ, গঞ, গট, গঠ এবং গড এই ‘ড্র’-এর আওতাভুক্ত।

উপরোক্ত সিরিজগুলোর অন্তর্ভুক্ত ৪৬টি সাধারণ সংখ্যা পুরস্কারের যোগ্য বলে ঘোষিত হয়। নিম্নে বর্ণিত সংখ্যার বন্ডগুলো সাধারণভাবে প্রতিটি সিরিজের ক্ষেত্রে পুরস্কারের যোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

আরও পড়ুন:


সঙ্কটে মানুষের পাশে দাঁড়ালে বঙ্গবন্ধুর আত্মা শান্তি পাবে: কাদের

৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ

বিশ্বাস করতে হবে আমরা টি-টোয়েন্টিতেও ভালো দল: ডমিঙ্গো


৫ম পুরস্কার প্রতিটি ১০,০০০ টাকার বিজয়ী প্রতিটি সিরিজের ৪০টি নম্বর হলো: ০০০৪৮৮৩, ০১৬৪৮৪৪, ০৪৬৮২৪৬, ০৭০৪৯৩৭, ০৮৬৭৬৮৬, ০০১৪৪৫৭, ০২১৮২৯৮, ০৪৮২২৪৬, ০৭৪০৫৯৬, ০৮৯৮৮৮৬, ০০৩৫৮০৭, ০২৫৯৮৫৮, ০৪৯৫১৫১, ০৭৪৫০৭৬, ০৯৩০২৯৯, ০০৮০২১৭, ০২৯৩৪৩৪, ০৫৩২৭৬১, ০৭৯৫১২৩, ০৯৩৯২৮৬, ০১০৮৬১৮, ০২৯৩৯৩৮, ০৫৪৭৯২২, ০৮০৭৬৯৫, ০৯৫৫৭১২, ০১৩৫৩৯৬, ০২৯৮৩৪২, ০৬২৪৭০৮, ০৮৩৭৬২১, ০৯৬৮৫৮৭, ০১৬২৪২৬, ০৩৭২৯৫৬, ০৬৪৮৯৯৮, ০৮৫৩৬৮৫, ০৯৭৭২৬৭, ০১৬২৭০৬, ০৪২১৩৬৭, ০৬৫৮৪৮৪, ০৮৬০৬৯৬ ও ০৯৮৬৪৪৪।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

চাকরিচ্যুত ব্যাংক কর্মীদের ভাগ্য খুলল

অনলাইন ডেস্ক

চাকরিচ্যুত ব্যাংক কর্মীদের ভাগ্য খুলল

সুনির্দিষ্ট ও প্রমাণিত অভিযোগ ছাড়া ব্যাংক কর্মীদের চাকরিচ্যুত করা যাবে না বলে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

পাশাপাশি মহামারি কোভিডকালীন সময়ে চাকরিচ্যুত বা পদত্যাগে বাধ্য হওয়া ব্যাংক কর্মীদের চাকরিতে পুনর্বহালের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংক ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে।

আরও পড়ুন: 


রাসেলের বাসায় র‌্যাবের অভিযান চলছে

স্ত্রী হত্যার অভিযোগ, স্বামী-শ্বশুর পলাতক

চীনে ১০ কি.মি. গভীরতার শক্তিশালী ভূমিকম্পের হানা

দুবলার চর থেকে খুলনা কাঁকড়া পরিবহনে বাধা নেই: হাইকোর্ট


কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, সম্প্রতি কিছু সংখ্যক ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীর কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়া গেছে, সুনির্দিষ্ট ও প্রমাণিত কোনো অভিযোগ না থাকা সত্ত্বেও কোভিডকালীন শুধুমাত্র লক্ষ্যমাত্রা অর্জন না করা বা অদক্ষতার অজুহাতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকরিচ্যুত করা হচ্ছে ও চাকরি থেকে পদত্যাগে বাধ্য করা হচ্ছে। আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে পদত্যাগ করার পর কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে প্রাপ্য আর্থিক সুবিধা দেওয়া হচ্ছে না। যা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনার পরিপন্থি।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ এর কারণে সৃষ্ট আর্থিক ক্ষতি থেকে দেশের অর্থনীতি পুনরুজ্জীবিতকরার লক্ষ্যে সরকার এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের নিজস্ব অর্থায়নে বিপুল অংকের আর্থিক প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে, যা তফসিলি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এসব প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়নসহ দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে ফ্রন্টলাইনার হিসেবে ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিরবচ্ছিন্নভাবে সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যাংকিং সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ব্যাংক কর্মীদের চাকরি নিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা

অনলাইন ডেস্ক

ব্যাংক কর্মীদের চাকরি নিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা

সারা দেশে ব্যাংকিং সেবায় নিয়োজিত ব্যাংক কর্মীদের ছাঁটাই বন্ধে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। নির্দেশনায় বলা হয়েছে,এখন থেকে সুনির্দিষ্ট ও প্রমাণিত অভিযোগ ছাড়া কোন কর্মীদের  ব্যাংক কর্তৃপক্ষ চাকরিচ্যুত করতে পারবে না। পাশাপাশি করোনার সময়ে যারা চাকরিচ্যুত বা পদত্যাগে বাধ্য হয়েছেন সেসব ব্যাংক কর্মীদের চাকরিতে পুনর্বহালের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংক ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে। ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ সার্কুলার জারি করা হলো জানিয়ে এ নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর করতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

নির্দেশনায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, সম্প্রতি কিছু সংখ্যক ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীর কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়া গেছে, সুনির্দিষ্ট ও প্রমাণিত কোনো অভিযোগ না থাকা সত্ত্বেও কোভিডকালীন শুধুমাত্র লক্ষ্যমাত্রা অর্জন না করা বা অদক্ষতার অজুহাতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকরিচ্যুত করা হচ্ছে ও চাকরি থেকে পদত্যাগে বাধ্য করা হচ্ছে। আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে পদত্যাগ করার পর কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে প্রাপ্য আর্থিক সুবিধা দেওয়া হচ্ছে না। যা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনার পরিপন্থি।

আরও পড়ুন


আশ্রয়ণ প্রকল্প: এটা তো দুর্নীতির জন্য হয়নি, এটা কারা করলো?

আগের স্ত্রীকে তালাক না দিয়েই মাহিকে বিয়ে করেছে রাকিব

আমরা কখনো জানতামও না যে এই সম্পদ আমাদেরই ছিলো

নাশকতার মামলায় নওগাঁর পৌর মেয়র সনিসহ বিএনপির ৩ নেতা কারাগারে


 

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ এর কারণে সৃষ্ট সংকটময় পরিস্থিতিতে ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে চাকরিচ্যুত করা হলে ব্যাংকে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে আতংকের সৃষ্টি হবে এবং তাদের মনোবল ও কর্মস্পৃহা হ্রাস পাবে। ফলে, ভবিষ্যতে মেধাবী ও অভিজ্ঞ ব্যক্তিরা ব্যাংকে যোগদানে অনীহা প্রকাশ করবে, যা দীর্ঘমেয়াদে ব্যাংকিং খাতের জন্য ক্ষতিকর হবে মর্মে আশংকা করা হচ্ছে।

নির্দেশনায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক  আরও জানিয়েছে, সুনির্দিষ্ট ও প্রমাণিত কোনো অভিযোগ না থাকলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকরিচ্যুত না করা। ২০২০ সালের ১ এপ্রিল থেকে চলতি বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকের যেসব কর্মকর্তা-কর্মচারী সুনির্দিষ্ট ও প্রমাণিত কোনো অভিযোগ না থাকা সত্ত্বেও চাকরিচ্যুত হয়েছে কিংবা চাকরি থেকে পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছে, তাদেরকে (আবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে) বিধি অনুযায়ী চাকরিতে বহাল করার বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সংঘবদ্ধ চক্রের আক্রমণের শিকার হচ্ছে ‘নগদ’

‘নগদ’ নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়ানো হচ্ছে

অনলাইন ডেস্ক

‘নগদ’ নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়ানো হচ্ছে

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ভার্চুয়াল বিশ্বের বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে নানা পন্থায় ডিজিটাল আক্রমণের শিকার হচ্ছে ডাক বিভাগের মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’। তবে সাম্প্রতিক সময়ে এই আক্রমণের এই তীব্রতা আগের চেয়ে বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে।

দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ভুয়া নাম-পরিচয় ব্যবহার করে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। পেছন থেকে একটি সুবিধাবাদী পক্ষ এক্ষেত্রে মদদ দিচ্ছে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। ভুয়া এই আইডিগুলো থেকে ‘নগদ’-এর লোগো বিকৃত করাসহ বিভিন্ন গুজব ছড়ানো হচ্ছে। একই সঙ্গে ‘নগদ’-এর সেবা ব্যবহার করে সুবিধাপ্রাপ্ত গ্রাহকদের সেবাটি পরিহার করতে উসকানিমূলক বক্তব্য প্রচার করছে গোষ্ঠীটি।  এসব নেতিবাচক প্রোপাগান্ডা ও অপপ্রচার প্রতিরোধে আইনগত সহায়তা নেওয়ার বিষয়টি সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করছে ‘নগদ’ কর্তৃপক্ষ।

চলতি মাসের শুরুতে একটি স্বার্থান্বেষী মহল ‘নগদ’-এর অ্যাপের ওপর সংঘব্ধ আক্রমণ চালায়। চক্রটি ভাড়াটিয়া লোকদের মাধ্যমে ‘নগদ’-এর অ্যাপের রেটিং কমিয়ে দিতে নেগেটিভি রেটিং দিতে শুরু করে।

‘নগদ’ কর্তৃপক্ষ ধারণা করছে, উদ্ভাবনী সব সেবা নিয়ে ডাক বিভাগের এই মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসটি বাজারে আসার পর এই খাতে গত এক দশক ধরে চলে আসা গ্রাহক বঞ্চণার অবসান ঘটাতে সক্ষম হয়েছে। এতে করে ‘নগদ’-এর জনপ্রিয়তা হু হু করে বাড়তে থাকে। গ্রাহক বৃদ্ধির সঙ্গে তাল মিলিয়ে লেনদেনের পরিমাণও বৃদ্ধি পেতে থাকে। তাতে করে যাত্রার মাত্র আড়াই বছরে ‘নগদ’ সাড়ে ৫ কোটি গ্রাহক পেয়ে যায়। একই সঙ্গে দৈনিক গড় লেনদেন ছাড়িয়ে যায় ৭০০ কোটি টাকা। সেবাটির প্রতি গ্রাহকদের এমন আস্থা আর ভালোবাসার কারণেই একটি চক্র ‘নগদ’-এর ওপর রুষ্ঠ হয়ে দফায় দফায় আক্রমণ চালাচ্ছে।

ব্যবসায়ীক প্রতিদ্বন্দ্বী ঘায়েল করতে ছড়ানো এসব গুজবে কান না দিতে গ্রাহকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে ‘নগদ’-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক বলেন, “যে ভালোবাসা দিয়ে গত আড়াই বছর আপনারা ‘নগদ’-এর সঙ্গে ছিলেন সেই একই আস্থা নিয়ে আমাদের সঙ্গে থাকুন। গ্রাহকদের জীবনকে ডিজিটাল করতে আমরা সর্বদাই কাজ করে যাচ্ছি। গ্রাহকদের অর্থের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে আমরা বদ্ধপরিকর।

আরও পড়ুন


আশ্রয়ণ প্রকল্প: এটা তো দুর্নীতির জন্য হয়নি, এটা কারা করলো?

আগের স্ত্রীকে তালাক না দিয়েই মাহিকে বিয়ে করেছে রাকিব

আমরা কখনো জানতামও না যে এই সম্পদ আমাদেরই ছিলো

নাশকতার মামলায় নওগাঁর পৌর মেয়র সনিসহ বিএনপির ৩ নেতা কারাগারে


 

ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. সিরাজ উদ্দিন বলেন, “একমাত্র ‘নগদ’ দেশের এমএফএস বাজারের একচেটিয়াত্ব ভাঙতে সক্ষম হয়েছে। আর সে কারণে অনেকে ‘নগদ’-এর বিরুদ্ধে গুজব ও বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়াচ্ছেন। আমরা আশা করব এমন হীন ও অপচেষ্টা থেকে সকলে বিরত থাকবেন। রাষ্ট্রীয় একটি সেবার সুন্দর অগ্রযাত্রার জন্য আমরা যেকোনো গুজব ও অপপ্রচার প্রতিরোধ করতে সদা প্রস্তুত রয়েছি। মনে রাখবেন, রাষ্ট্রীয় সেবার বিরুদ্ধে যেকোনো ধরনের গুজব ও মিথ্যা রটানো একটি রাষ্ট্রীয় গুরুতর অপরাধ।”

এর আগে  ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. আফজাল হোসেনও ‘নগদ’ নিয়ে বিভ্রান্তি ও অপ্রচার না ছড়াতে আহ্বান জানান।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সিলেট সিটিতে ৮৩৯ কোটি টাকার বাজেট পেশ

অনলাইন ডেস্ক

সিলেট সিটিতে ৮৩৯ কোটি টাকার বাজেট পেশ

সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য ৮৩৯ কোটি ২০ লাখ ৭৬ হাজার টাকা আয় ও সম পরিমাণ ব্যয় ধরে বাজেট পেশ করা হয়েছে।  

আজ বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বাজেট ঘোষণা করেন।

গত বাজেটের চেয়ে এবারের বাজেটের আকার ৯৫ কোটি ৬৪ লাখ ৮৩ হাজার টাকা বেশি। ২০২০-২১ অর্থবছরে বাজেটের আকার ছিল ৭৪৩ কোটি ৫৫ লাখ ৯৩ হজাজর টাকা। 

এরও আগে ২০১৯-২০ অর্থ বছরে বাজেটের আকার ছিল ৭৪৩ কোটি ৩৮ লাখ ৪৭ হাজার টাকা।  

বিস্তারিত আসছে.... 

আরও পড়ুন:


আইএস বধূ শামীমা বাংলাদেশে নয়, ফিরতে চান ব্রিটেনে

করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় আবারও ১০ হাজারের কাছাকাছি মৃত্যু

রদ্রিগোর গোলে ইন্টার মিলানকে হারাল রিয়াল মাদ্রিদ

চট্টগ্রামের উপকূলে মিলল তিনটি মৃত ডলফিন!


NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

প্রতিদিন ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে সিএনজি স্টেশন

অনলাইন ডেস্ক

প্রতিদিন ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে সিএনজি স্টেশন

আগামী রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) থেকে বিদ্যুৎকেন্দ্রে গ্যাস সরবরাহ বাড়াতে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত মোট চার ঘণ্টা সিএনজি ফিলিং স্টেশন বন্ধ থাকবে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাতে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা (উপ-প্রধান তথ্য অফিসার) মীর মোহাম্মদ আসলাম উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতিদিন বিকেল ৫টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত মোট ছয় ঘণ্টা সিএনজি স্টেশন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার। কিন্তু সিএনজি স্টেশন মালিকদের আপত্তির মুখে সেই সিদ্ধান্তে পরিবর্তন আসলো।

জনসংযোগ কর্মকর্তা বলেন, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের লক্ষ্যে গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোতে চাহিদা অনুযায়ী গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে বিদ্যুতের দৈনিক পিক আওয়ারে সন্ধ্যা ৬টা হতে রাত ১০টা পর্যন্ত চার ঘণ্টা সিএনজি স্টেশনগুলোতে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখা হবে।

গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোর গ্যাসের চাহিদা ও সরবরাহের স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা প্রণয়ন বিষয়ে গত ১৯ জুলাই প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ-বিষয়ক উপদেষ্টার উপস্থিতিতে ও বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল সভায় ‘বিদ্যুতের দৈনিক পিক-আওয়ারে সিএনজি স্টেশন বন্ধ রাখতে হবে’ বলে সিদ্ধান্ত হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৩ সেপ্টেম্বর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় জানায়, প্রতিদিন বিকেল ৫টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত সিএনজি স্টেশন বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে।

কিন্তু ওই দিন বিকেলেই সিদ্ধান্ত কার্যকরের তারিখ থেকে সরে আসে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়।

বিকেলে মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মঙ্গলবার সকাল ১১টায় পেট্রোবাংলা সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের নিয়ে এ সিদ্ধান্ত কার্যকরের বিষয়ে একটি সভা করবে।

পরে সেই সভায় সিএনজি স্টেশন মালিকরা প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টা সিএনজি স্টেশন বন্ধ রাখার প্রস্তাব দেয়। কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয় সেই সভাটি। শেষে সভায় দেয়া মালিকদের মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে জ্বালানি মন্ত্রণালয়।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর