যুক্তরাজ্যে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভা

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাজ্যে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভা

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি যুক্তরাজ্য শাখার নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

৩১ জুলাই শনিবার এই সভা অনুষ্টিত হয়। সংগঠনের সেক্রেটারি রুবি হকের পরিচালনায় সভাপতিত্ব করেন প্রেসিডেন্ট সৈয়দ এনামুল ইসলাম।

সভায় সংগঠনের আগামী ১ বছরের কর্মপরিকল্পনা করা হয়। ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালনের মধ্যে দিয়ে আগামী ১ বছরের কর্মপরিকল্পনার সূচনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন অনারারি প্রেসিডন্ট নূর উদ্দিন আহমেদ, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আনসার আহমেদ উল্লাহ, যুক্তরাজ্য কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট মতিয়ার চৌধুরী, নিলুফা ইয়াসমীন হাসান, জামাল আহমেদ খান, ট্রেজারার এনামুল হক, অর্গানাইজিং সেক্রেটারী শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল, এসিস্টেন্ট জেনারেল সেক্রেটারী স্মৃতি আজাদ, ইন্টারন্যাশনাল সেক্রেটারি কাউন্সিলার পুস্পিতা গুপ্তা, প্রেস সেক্রেটারি আ স ম মাসুম, পাবলিকেশন সেক্রেটারি জুয়েল রাজ, কালচারাল সেক্রেটারি সেলিনা আক্তার জোছনা, নির্বাহী সদস্য সুশান্ত দাশ প্রশান্ত ও জোছনা পারভীন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ইতালি আ. লীগের সঙ্গে রাষ্ট্রদূতের মত বিনিময় সভা

ইতালি প্রতিনিধি:

ইতালি আ. লীগের সঙ্গে রাষ্ট্রদূতের মত বিনিময় সভা

করোনা পরিস্থিতির মধ্যে ইতালিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত শামীম আহসান যোগদান করেন। তখন সল্প পরিসরে ইতালি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা দেখা করেন। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ইতালি আসেন ইতালি আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মো. ইদ্রিস ফরাজী। 

ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত শামীম আহসানের সাথে আনুষ্ঠানিক সাক্ষাৎ করেন ইতালি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। ইতালি আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মো. ইদ্রিস ফরাজী ও সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবালের নেতৃত্বে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন। 

দূতাবাসে প্রবেশ করে প্রথমে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান নেতৃবৃন্দ। পরে দূতাবাসের হল রুমে রাষ্ট্রদূতের সাথে ইতালি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মত বিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। 

প্রবাসীদের পাসপোর্ট সমস্যা যাতে দ্রুত সমাধান করা সে ব্যাপারে রাষ্ট্রদূতের কাছে অনুরোধ জানান ইতালি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। ইতালি আওয়ামী লীগের  সভাপতি বলেন, ইতালির অফিস আদালতের মত সকলের জন্য এপোয়েনমেন্ট উন্মুক্ত করতে হবে, শুধু শুক্রবার নয় সব সময় যেন প্রবাসীরা অনলাইনে প্রবেশ করেই যার যার প্রয়োজন মত এপোয়েনম্যান্ট নিতে পারে। এ ছাড়া প্রবাসীদের নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করে রাষ্ট্রদূত শামীম আহসানের সাথে। 

আরও পড়ুন:


কিশোরীকে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করায় নারী আটক

করোনায় স্কুল বন্ধ থাকায় শ্রেণিকক্ষে সপরিবারে বসবাস

বগুড়ায় বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার দুই নারী যাত্রী নিহত

যশোরের ১৮টি রুটে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে


রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে বলেন, কোন শোনা কথায় কান দিবেন না, দূতাবাসের কোন কর্মকর্তা বা কর্মচারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে প্রমানসহ আমার কাছে নিয়ে আসবেন, বাকিটা আমি দেখব। দূতাবাস প্রবাসীদের জন্য, আমরা সব সময় সেবা দিতে প্রস্তুত। কোন অযোক্তিক দাবি করলে সেই সেবা আমরা দিতে পারব না। বাপ, ছেলে একই বয়সের পাসপোর্ট চাইলে সেটাত আর দেওয়া যায় না। বর্তমান সরকার প্রবাস বান্ধব সরকার, দূতাবাসও প্রবাসী বান্ধব। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে আমরা প্রবাসীদের পাশে আছি সব সময়। 

ইতালি আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রদূত মহাদয়কে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এ সময় ইতালি আওয়ামী লীগের কার্য নির্বাহী পরিষদের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

রায়পুরা সমিতির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

ইতালি প্রতিনিধি:

রায়পুরা সমিতির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

ইতালিস্থ নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলা সমিতির নেতৃবৃন্দ ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত শামীম আহসানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হয়।

রায়পুরা উপজেলা সমিতির সভাপতি মিয়া আলম (জুয়েল) ও সাধারণ সম্পাদক এমরান হোসেন এর নেতৃত্বে বুধবার দূতাবাস কার্যালয়ে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ইতালি আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মো. ইদ্রিস ফরাজী, সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবাল, রায়পুরা উপজেলা সমিতির সাবেক ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এস এ আল মাহমুদ (রফিক),বর্তমান সহ-সভাপতি মো. ফজলুল হক, সহ-সভাপতি অহিদ  মিয়া, সহ সভাপতি জাহিদ মিয়া, সহ-সভাপতি মো. হারুন-অর-রশিদ সহ আরও অনেকে। 

এ সময় সমিতির নেতৃবৃন্দ ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে তাদের পরিচয় তুলে ধরেন। এ সময় দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

নিজেকে কানাডার সরকারের ‘প্রথম বাংলাদেশি মন্ত্রী’ বললেন বিল ব্লেয়ার

লায়লা নুসরাত, কানাডা

নিজেকে কানাডার সরকারের ‘প্রথম বাংলাদেশি মন্ত্রী’ বললেন বিল ব্লেয়ার

নিজেকে কানাডায় ‘প্রথম বাংলাদেশি মন্ত্রী’ হিসেবে দাবি করেছেন ফেডারেল জননিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী বিল ব্লেয়ার। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যখন আমাকে মন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে, আমি তাঁকে বলেছি, আমি হচ্ছি কানাডীয়ান সরকারে প্রথম বাংলাদেশি মন্ত্রী। কারণ আমি সবচেয়ে বেশি সংখ্যক বাংলাদেশি কানাডীয়ানদের প্রতিনিধিত্ব করি, তাদের সেবা করি।

কানাডার বাংলা পত্রিকা নতুনদেশ এর প্রধান সম্পাদক শওগাত আলী সাগরের সঞ্চালনায় সম্প্রচারিত ‘শওগাত আলী সাগর লাইভের’ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এই কথা বলেন।

প্রসঙ্গত, আগামী ২০ সেপ্টেম্বরের নির্বাচনে তিনি লিবারেল পার্টির মনোনয়নে স্কারবোরো সাউথওয়েষ্ট নির্বাচনী এলাকা থেকে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। স্কারবোরো সাউথওয়েস্ট এলাকায় সর্বাধিক সংখ্যক বাংলাদেশি কানাডিয়ান ভোটার বসবাস করেন। এই নির্বাচনী এলাকা থেকেই প্রভিন্সিয়াল সংসদে এমপি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ডলি বেগম।

আলোচনায় বিল ব্লেয়ার বলেন, কানাডার তিনটি নির্বাচনী আসনে বাংলাদেশি ভোটারের প্রাধান্য-সেগুলো হচ্ছে তাঁর নিজের স্কারবোরো সাউথওয়েষ্ট, বিচেস ইস্ট ইয়র্ক এবং কুইবেকের পাপিন্যু। তিনি আরও বলেন, স্কারবোরো সাউথওয়েষ্টে আমি, বিচেস ইষ্ট ইয়র্কে নাথানিয়াল আরস্কিন স্মিথ এবং পাপিন্যূতে জাস্টিন ট্রুডো- এমপি হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করছেন।

আরও পড়ুন


জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী

একবার বিদ্রোহী হলে আজীবন নৌকা থেকে বঞ্চিত

নীলফামারীতে নসিমন-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৩

দেড় কোটি ছাড়িয়ে ফলোয়ার, ভক্তদের উদ্দেশে যা বললেন সাকিব


বিল ব্লেয়ার বলেন, আমরা তিনজন প্রায়ই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলি এবং বাংলাদেশি কমিউনিটির নানা বিষয় নিয়ে আমাদের মধ্যে আলাপ হয়। আমি জাস্টিন ট্রুডোকে বলেছি- আমি হচ্ছি কানাডা সরকারে প্রথম বাংলাদেশি মন্ত্রী, কারণ আমি সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি কানাডীয়ানদের প্রতিনিধিত্ব করি।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো আমাকে স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন তিনিও সর্বাধিক সংখ্যক বাংলাদেশি কমিউনিটির প্রতিনিধিত্ব করেন করেন এবং সে জন্য তিনি গর্বিত। কানাডায় বাংলাদেশি কমিউনিটি কতোটা গুরুত্বপূর্ণ, কতোটা গতিশীল- সেটা জাস্টিন ট্রুডো এবং আমি হৃদয় দিয়ে উপলব্দি করি।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

ইতালির সিটি নির্বাচনে লড়ছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৩ নারী

ইতালি প্রতিনিধি:

ইতালির সিটি নির্বাচনে লড়ছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৩ নারী

আগামী ৩ ও ৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে ইতালির রাজধানী রোমের সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। এবারের নির্বাচনেমহিলা কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হয়েছেন তিন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নারী। লায়লা শাহ ও জুমানা মাহমুদ এই দুই বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নারী রোম সিটি কর্পোরেশনে আলাদাভাবে ভিন্ন দুটি এলাকার প্রার্থী হয়েছেন। এ ছাড়া ফ্রাসকাটি সিটিতে বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত পাপিয়া আক্তার কাউন্সিলর নির্বাচন করছেন। 

এর মধ্যে লায়লা শাহ ৫ ও জুমানা মাহমুদ ৭ নম্বর মিউনিসিপি এলাকায়  কাউন্সিলর পদে রাজনৈতিক দল থেকে মনোনয়ন পেয়ে প্রার্থীপদ ঘোষণা করেছেন। ইতোমধ্যে তারা নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায় প্রচারণা চালাচ্ছেন। 

এ বিষয়ে প্রার্থী লায়লা শাহ বলেন, বর্তমানে ইতালিতে অনেক বাংলাদেশী রয়েছেন। আমাদের নিজেদের অবস্থান শক্ত করতে সবাইকে একত্রিত হয়ে কাজ করতে হবে। এছাড়াও স্থানীয় রাজনৈতিক দলে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে পারলে বাঙ্গালী কমিউনিটি আরো সুনাম অর্জন করবে বলে আসা করি। 

এছাড়াও আরেক প্রার্থী জুমানা মাহমুদ বলেন, দেশটির মূলধারার রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত হতে পারলে অভিবাসীদেড় সমস্যার কথাগুলো আমরা সহজেই স্থানীয় সরকারের কাছে পৌছাতে পারবো।

পাপিয়া আক্তার বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করেন কিন্তু তিনি ফ্রাসকাটি শহরে বেড়ে উঠেছেন। এই শহরেই তিনি ২৫ বছরেরও অধিক সময় ধরে বসবাস করছেন। কর্মজীবনের শুরুতে তিনি ইতালিতে ন্যাশনাল সিভিল সার্ভিস করেন। পাপিয়া আক্তার ARCI ROMA এর নির্বাচিত ডিরেক্টর এবং বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের অভিবাসীদের জন্য আইনি নির্দেশিকা ডেস্কের একজন দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন


আশ্রয়ণ প্রকল্প: এটা তো দুর্নীতির জন্য হয়নি, এটা কারা করলো?

আগের স্ত্রীকে তালাক না দিয়েই মাহিকে বিয়ে করেছে রাকিব

আমরা কখনো জানতামও না যে এই সম্পদ আমাদেরই ছিলো

নাশকতার মামলায় নওগাঁর পৌর মেয়র সনিসহ বিএনপির ৩ নেতা কারাগারে


এদিকে ইতালির মূলধারার রাজনীতিতে তিন বাংলাদেশি নারীর অংশগ্রহণে প্রবাসীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। তারা আশা করছেন, ইতালির সিটি নির্বাচনে বাংলাদেশি নারীদের বিজয় প্রবাসীদের এক নতুন মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে

 news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পর্তুগালে প্রবাসীদের টি-১০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

অনলাইন ডেস্ক

পর্তুগালে প্রবাসীদের টি-১০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

প্রবাসী  বাংলাদেশিদের আয়োজনে দুই দিনব্যাপী টি-১০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে। 
টুর্নামেন্টে বাংলাদেশিদের ৮টি দল এতে অংশ নেয়। গত ১৩ সেপ্টেম্বর (সোমবার) দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত তারিক আহসান ক্রিকেট টুর্নামেন্টটির উদ্বোধন করেন।

লিসবনের কেন্দ্রীয় ক্রীড়া কমপ্লেক্স জামোরের মাঠে ১৩ এবং ১৪ সেপ্টেম্বর এই টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়। এবারের টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে লিসবন সিক্সার ক্রিকেট ক্লাব। তাদের প্রতিপক্ষ ছিল ফরিদপুর রাইডার্স ক্রিকেট ক্লাব।

টুর্নামেন্টে মোট ৮টি দল অংশ নেয়। বিজয়ী এবং রানারআপ ছাড়াও মূল পর্বের বাকি ৬টি দল হচ্ছে-  ফ্রেন্ডশিপ ক্রিকেট ক্লাব, ইয়াং টাইগার্স ক্রিকেট ক্লাব, ফরিদপুর রাইডার্স ক্রিকেট ক্লাব, বাইরো আলতো স্টার্স ক্রিকেট ক্লাব, ঘরোয়া রাইডার্স ক্রিকেট ক্লাব, কোস্টাকাপারিকা ক্রিকেট ক্লাব ও বরিশাল রাইডার্স ক্রিকেট ক্লাব।


বিয়ে ছাড়াই আবারও মা হচ্ছেন কাইলি জেনার

বলিউড পরিচালক বিশাল ভরদ্বাজের প্রস্তাবে মিমের না!

দেশমাতা, আমাকে কি একটু নিরাপত্তা দিতে পারেন


 

ফাইনালে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হন লিসবন সিক্সারের লিকসন আহমেদ। পুরো টুর্নামেন্টে ম্যান অব দ্যা সিরিজ হয়েছেন শাহজাহান সম্রাট। টুর্নামেন্টের সার্বিক সহযোগিতায় ছিল পর্তুগাল মাল্টি কালচারাল একাডেমি, বিপিই ফকির ইউনিপেছোয়াল এলডিএ এবং পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাব।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর