ভ্যাকসিন ছাড়া বাইরে বেরোলেই শাস্তি

অনলাইন ডেস্ক

ভ্যাকসিন ছাড়া বাইরে বেরোলেই শাস্তি

আগামী এক সপ্তাহে এক কোটি মানুষকে কোভিড ভ্যাকসিন দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী। ১৪ হাজার কেন্দ্র থেকে একযোগে এই ভ্যাকসিন দেয়া হবে। ভ্যাকসিন ছাড়া কেও কর্মস্থলে যেতে পারবে না বলেও জানান মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী। মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এই তথ্য জানান।

মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী ১ সপ্তাহে ১ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনেটেড করবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ওয়ার্ড-ইউনিয়নে ৫ থেকে ৭টা কেন্দ্র করে এক কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া হবে। মানুষকে ভ্যাকসিন নিতে দৌড়াতে হবে না, আমাদের লোকজনই তাদের কাছে পৌঁছে যাবে।’

মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী বলেন, ‘ভ্যাকসিন ছাড়া ১৮ বছরের বেশি বয়সের কোনো মানুষ মুভমন্ট করলে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে বিবেচনা করা হবে। সরকার দরকার হলে অধ্যাদেশ জারি করেও শাস্তি দেয়া হতে পারে। যেহেতু এখন সংসদ অধিবেশন নেই, তাই অধ্যাদেশ জারি করা হতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ৭ দিনে ১ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করেছে। সুতরাং ভ্যাকসিন ছাড়া ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে কেউ রাস্তায় বের হলে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে।’

এসময় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, আগামী ১১ তারিখ থেকে যেন দোকানপাট খুলতে পারে সে ব্যবস্থা করা হচ্ছে। একই সাথে কঠোর বিধিনিষেধ আরো এক সপ্তাহ বাড়িয়ে আগামী ১০ আগষ্ট পর্যন্ত বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত এসেছে মন্ত্রী পরিষদ থেকে। যতো দ্রুত সম্ভব নিজ উদ্বোগে অথবা অন্য দেশের সাথে যৌথ ভাবে ভ্যাকসিন উৎপাদনে জোর দিয়েছে সরকার।

আরও পড়ুন

সুন্দরী ২০-২৫ জন রমণীকে নিয়ে জমজমাট আসর বসাতো পিয়াসা

ভয়াবহ দাবানল থেকে বাঁচাতে সমুদ্র সৈকতে নেয়া হচ্ছে গবাদিপশুদের

ফ্লোরিডায় অদ্ভুতদর্শন ‘সেসিলিয়ান’-এর খোঁজ

১৬ই আগস্ট ভারতে ‘খেলা হবে’ দিবস


মন্ত্রী জানান, বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় আগামী শনিবার থেকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের অধিনে কোভিড ডেডিকেটেড ৬০০ শয্যার আইসিইউ চালু হতে যাচ্ছে। সোমবার দুপুরে মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের বৈঠক শেষে এই তথ্য দেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। অর্থাৎ পরিস্থিতি বিবেচনায় আগামী ১১ তারিখ থেকে তুলে দেয়া হচ্ছে লকডাউন । একই সাথে ১১ তারিখ থেকে ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের ভ্যাকসিনেশন হয়ে চলাচলে গুরুত্ব দিয়েছেন।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

৮ অতিরিক্ত পুলিশ সুপাকে বদলি

অনলাইন ডেস্ক

৮ অতিরিক্ত পুলিশ সুপাকে বদলি

বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদমর্যাদার আটজন কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে। শুক্রবার পুলিশ সদর দফতর এ তথ্য জানায়। 

বৃহস্পতিবার পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এই বদলি করা হয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ সাহেদ মিয়া, মো. মনিরুজ্জামান, মো. নাজমুল ইসলাম, মো. শরিফুল আলম, আতিকুর রহমান চৌধুরী এবং টুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিনহাজুল ইসলাম চৌধুরী ও সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফাতেমা ইসলামকে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (টিআর) হিসেবে বদলি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:


স্ত্রীকে পরকীয়া থেকে ফেরাতে না পেরে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবলীগ নেতার আত্মহত্যা

সংস্কারের অভাবে বেহাল রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট

গাজীপুরে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভেসে আসা তিমির ওজন ৩০ হাজার কেজি, দৈর্ঘ্য ৪০ ফুট


 

এ ছাড়া, একই দিন পৃথক এক প্রজ্ঞাপনে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. দেলোয়ার হোসেনকে শিল্পাঞ্চল পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে বদলি করা হয়।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

জাতিসংঘে বাংলায় ভাষণ দিলেন শেখ হাসিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতিসংঘে বাংলায় ভাষণ দিলেন শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৭৬তম অধিবেশনের উচ্চ পর্যায়ের সাধারণ আলোচনায় বাংলায় ভাষণ দিয়েছেন। শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত পৌনে বারোটায় এ ভাষণ শুরু হয়। 

ভাষণে প্রধানমন্ত্রী জরুরি ভিত্তিতে ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে করোনা ভাইরাসের টিকা বৈষম্য দূর করার আহ্বান জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি বাংলাদেশসহ উৎপাদন সক্ষমতা আছে এমন দেশগুলোর কাছে করোনা ভাইরাসের টিকা উৎপাদনের প্রযুক্তি হস্তান্তর করারও অনুরোধ জানিয়েছেন।

ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে টিকা বৈষম্য বাড়ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে টিকা বৈষম্য বাড়তে দেখেছি। বিশ্বব্যাংকের তথ্য মতে, এ পর্যন্ত উৎপাদিত টিকার ৮৪ শতাংশ উচ্চ ও উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশগুলোর মানুষের কাছে পৌঁছেছে। অন্যদিকে, নিম্ন আয়ের দেশগুলো ১ শতাশেরও কম টিকা পেয়েছে।

তিনি বলেন, জরুরি ভিত্তিতে এ টিকা বৈষম্য দূর করতে হবে। লাখ লাখ মানুষকে টিকা থেকে দূরে রেখে কখনই টেকসই পুনরুদ্ধার সম্ভব নয়। আমরা পুরোপুরি নিরাপদও থাকতে পারব না।  

প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে রোহিঙ্গা, জলবায়ু পরিবর্তন এবং কোভিড-১৯ পরবর্তী অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে বক্তব্য রাখেন। ভাষণে তিনি টেকসই উন্নয়ন, খাদ্য নিরাপত্তা ও অসমতা দূরীকরণের বিষয়গুলো গুরুত্ব দিয়ে তুলে ধরছেন।

আরও পড়ুন:


স্ত্রীকে পরকীয়া থেকে ফেরাতে না পেরে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবলীগ নেতার আত্মহত্যা

সংস্কারের অভাবে বেহাল রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট

গাজীপুরে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভেসে আসা তিমির ওজন ৩০ হাজার কেজি, দৈর্ঘ্য ৪০ ফুট


 

উল্লেখ্য, এবার নিয়ে এটি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১৮তম ভাষণ। নির্বাচিত রাষ্ট্র বা সরকার প্রধানদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক জাতিসংঘ অধিবেশনে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে শেখ হাসিনা অন্যতম।

গত ২১ সেপ্টেম্বর বিভিন্ন রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের নিয়ে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের (ইউইনজিএ) উদ্বোধনী সেশনে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর এবারের ইউএনজিএ সমাপ্ত হবে।

শতাধিক রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান জাতিসংঘের নীতি নির্ধারণী উচ্চ পর্যায়ের এ সাধারণ পরিষদ অধিবেশনে সশরীরে অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

২১ তারিখ উচ্চ পর্যায়ের সাধারণ আলোচনা শুরুর আগে গত ১৪ সেপ্টেম্বর ইউএনজিএ’র ৭৬তম অধিবেশন শুরু হয়। ওই দিন সাধারণ পরিষদের প্রেসিডেন্ট হিসেবে মালদ্বীপের আব্দুল্লাহ শহিদ শপথ গ্রহণ করেন এবং তিনি বর্তমান অধিবেশন উদ্বোধন করেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশে প্রথম মোবাইল ও ইন্টারনেট এনেছেন: দীপু মনি

অনলাইন ডেস্ক

বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশে প্রথম মোবাইল ও ইন্টারনেট এনেছেন: দীপু মনি

শিক্ষামন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের এ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দিপু মনি এমপি বলেছেন, ‘মিডিয়ার ওপর ভর করে মিথ্যাচারের মাধ্যমে বিএনপি নেতাকর্মীরা অপরাজনীতি করছে। বিএনপির কিছু লোককে সারাদিন কয়েকটি মিডিয়াতে দেখা যায়। মানুষের সঙ্গে তারা নেই। অথচ আওয়ামী লীগের অসংখ্য নেতাকর্মী মানুষের জন্য কাজ করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন।’

শুক্রবার সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অপরদিকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের হাতে গড়া আওয়ামী লীগ সরকার আজ দেশকে দুর্বার গতিতে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন:


স্ত্রীকে পরকীয়া থেকে ফেরাতে না পেরে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবলীগ নেতার আত্মহত্যা

সংস্কারের অভাবে বেহাল রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট

গাজীপুরে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভেসে আসা তিমির ওজন ৩০ হাজার কেজি, দৈর্ঘ্য ৪০ ফুট


এ বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশে প্রথম মোবাইল আনলেন ও ইন্টারনেট এনেছিলেন। করোনাকালীন শিক্ষাক্ষেত্রে ঘাটতি পূরণে এই ইন্টারনেট সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করেছেন। ফলে সারা পৃথিবীর সাথে তাল মিলিয়ে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে আজ বাংলাদেশ।’

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, সংস্কৃতিক সম্পাদক বাবু অসীম কুমার উকিল এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য মারুফা আক্তার পপি ও রেমন্ড আরেং।

এছাড়াও আরও বক্তব্য দেন- জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক খোকা, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এহতেশামুল আলম ও সঞ্চালনায় ছিলেন সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

জাতিসংঘে কর্মব্যস্ত প্রধানমন্ত্রী, বাংলাদেশের প্রশংসা গুতেরেসের

প্লাবন রহমান

নিউইয়র্ক সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন। জাতিসংঘের ৭৬তম সাধারন অধিবেশনের সাইডলাইনে বিভিন্ন উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাস, সবার জন্য খাদ্য ও টিকা নিশ্চিতসহ বিভিন্ন ইস্যুতে সোচ্চার ভূমিকা রাখছেন। ঐক্যবদ্ধভাবে মহামারির মোকাবিলা করে এগিয়ের যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছেন বিশ্ব নেতাদের। আজ শুক্রবার জাতিসংঘের বাংলায় বক্তব্য রাখবেন বাংলাদেশের সরকার প্রধান। 

জাতিসংঘের ৭৬তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্র সফরে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদরদপ্তরে অধিবেশন আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর, জাতিসংঘের উচ্চ পর্যায়ের বিভিন্ন বৈঠকে অংশগ্রহণ করেছেন বাংলাদেশের সরকার প্রধান।

এরইমধ্যে করোনা টিকা সার্বজনীন করতে বিশ্বনেতাদের পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের বড় সমস্যা রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসনেরও অনুরোধ করেছেন তিনি।

এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার ‘জাতিসংঘ ফুড সিস্টেমস সামিট ২০২১’ শীর্ষক  বৈঠকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেন, পর্যাপ্ত খাবার পাওয়া মানুষের মৌলিক অধিকার। বিশেষ গুরুত্ব দেন উৎপাদন বৃদ্ধি ও সবার খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতের উপর।


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


এসময় পাঁচ দফা সুপারিশ তুলে ধরেন শেখ হাসিনা। একটি বৈশ্বিক জোট ও অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার পাশাপাশি দেশগুলোর মধ্যে সহযোগীতার মাধ্যমে খাদ্য হ্রাসের প্রয়োজনীয়তাও তুলে ধরেন বাংলাদেশের সরকার প্রধান।

জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তেনিও গুতেরেসের সভাপতিত্বে এই বৈঠকে অংশ নেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ বিভিন্ন দেশের সরকার ও রাষ্ট্র প্রধানরা। সাইডলাইনে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সাথেও দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

৫ দেশ ভ্রমণে আর থাকছে না বিধিনিষেধ

অনলাইন ডেস্ক

৫ দেশ ভ্রমণে আর থাকছে না বিধিনিষেধ

বাংলাদেশিদের জন্য সুখবর। বাংলাদেশে সহ পাঁচ দেশ ভ্রমণে বিধি-নিষেধ শিথিল করা হয়েছে। বিশেষ করে মালয়েশিয়া, জাপান, থাইল্যান্ড ও যুক্তরাজ্য বাংলাদেশিদের ওপর ভ্রমণে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করে।

তবে করোনা সংক্রমণ কমে যাওয়ায় এসব দেশ ভ্রমণ বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

তবে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ভ্রমণ বিধিনিষেধ শিথিল হলেও এখনই সব দেশের ট্যুরিস্ট ভিসা চালু হচ্ছে না।

জাপানের: গত জুন মাস থেকে বাংলাদেশসহ আরও ৬ টি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করে জাপান। তবে ২০ সেপ্টেম্বর থেকে এ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয় দেশটি। ফলে দেশটিতে ভ্রমণে আর কোনো বিধি নিষেধ থাকল না।

থাইল্যান্ড: গত ১০ মে থেকে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও নেপালের নাগরিকদের জন্য ভ্রমণ ভিসা বন্ধ করে দেয় থাইল্যান্ড। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর গত ২০ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য আবারও ভিসা চালু করেছে থাইল্যান্ড। তবে জুড়ে দেওয়া হয়েছে দুটি শর্ত। এর মধ্যে থাইল্যান্ডে গিয়ে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এছাড়া থাইল্যান্ড যেতে সার্টিফিকেট অব অ্যান্ট্রি- সিওই নিতে হবে।

মালয়েশিয়া: গত ২১ সেপ্টেম্বর থেকে বিশেষ অনুমতি সাপেক্ষে বাংলাদেশিরা মালয়েশিয়ায় যেতে পারছেন। মালয়েশিয়ায় পার্মানেন্ট রেসিডেন্ট, লং টার্ম পাস হোল্ডার, ব্যবসায়ী, বিনিয়োগকারীরা দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগের অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন। বাংলাদেশসহ বেশ কয়েকটি দেশের নাগরিকদের গত ৮ মে থেকে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয় মালয়েশিয়া সরকার। তবে মালয়েশিয়া প্রবেশে কেস বাই কেস বেসিসে অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া ভ্যালিড ভিসা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত টিকা ডোজ, কোভিড নেগেটিভ সনদ নিতে হবে। একইসঙ্গে সেখানে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

আরও পড়ুন:


স্ত্রীকে পরকীয়া থেকে ফেরাতে না পেরে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবলীগ নেতার আত্মহত্যা

সংস্কারের অভাবে বেহাল রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট

গাজীপুরে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভেসে আসা তিমির ওজন ৩০ হাজার কেজি, দৈর্ঘ্য ৪০ ফুট


 

যুক্তরাজ্য: গত ২২ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশের রেড অ্যালার্ট জারি করে যুক্তরাজ্য। রেড অ্যালার্ট প্রত্যাহারে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে দীর্ঘ দিন কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখে বাংলাদেশ। শেষপর্যন্ত গত ১৭ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্য সরকার রেড অ্যালার্ট প্রত্যাহার করে নেয়।

নেদারল্যান্ডস: বাংলাদেশি নাগরিকদের পুরো ডোজ টিকা নেওয়া থাকলে গত ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে নেদারল্যান্ডসে যাওয়ার পর তাদের আর হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার প্রয়োজন নেই। তবে ভ্রমণকারীদের বাংলাদেশ থেকে যাত্রা শুরুর আগে অবশ্যই করোনা পরীক্ষা করাতে হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর