৬ উইকেট হারিয়ে ধুকছে অস্ট্রেলিয়া
৬ উইকেট হারিয়ে ধুকছে অস্ট্রেলিয়া

৬ উইকেট হারিয়ে ধুকছে অস্ট্রেলিয়া

অনলাইন ডেস্ক

ব্যাটিংয়ে স্বল্প পুঁজি। ম্যাচ জিততে চাই ভিন্ন কিছু। দায়িত্বটা স্বভাবতই বর্তায় বোলারদের ওপর। বোলিংয়ে এসে সেটার প্রমাণ মিলল শুরুতেই।

বাংলাদেশের তিন স্পিনারই নিজের প্রথম ওভারে বল করতে এসে ব্রেক থ্রু এনে দিলেন।

মেহেদী, নাসুম আর সাকিব মিলে যা করলেন, তা রেকর্ড হয়ে থাকল। দলীয় মাত্র ১১ রানেই ৩ উইকেট নেই অজিদের। টি-টোয়েন্টিতে এত কম রানে ৩ উইকেট এর আগে মাত্র একবারই হারিয়েছিল তারা। এবার দ্বিতীয়বারের মত এই দৃশ্যের অবতারণা হল। এর আগে ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৮ রানে ৩ উইকেট পড়েছিল অজিদের।

ইনিংসের প্রথম বলেই মেহেদী হাসানের বাজিমাত। সরাসরি বোল্ড হয়ে শূন্য রানে ফিরে যান অ্যালেক্স ক্যারি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের বিপক্ষে এই প্রথম অস্ট্রেলিয়ার কোনো ব্যাটসম্যান ইনিংসের প্রথম বলে আউট হয়েছেন। ১৩২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে রানের খাতা খোলার আগে ফিরে যান তিনি। রাউন্ড দ্য উইকেট থেকে করা বলের লাইন মিস করে হয়েছেন বোল্ড।

মেহেদীর পর নাসুমের বলে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন ফিলিপে। তিনি ফিরে যান ৫ বলে ৯ রান করে। পরপর দুই উইকেট হারিয়ে শুরুতেই চাপে পড়ে যায় সফরকারীরা। তবে পরের ওভারে আরও চেপে ধরেন সাকিব আল হাসান। বোলিংয়ে এসেই ফেরান ময়েসেজ হেনড্রিকসকে। মাত্র ১ রান করে সাকিবের বলে বোল্ড হয়ে ফিরে যান তিনি।   

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সফরকারীদের সংগ্রহ ১২ ওভারে ৪ উইকেটে ৬৭ রান।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৩১ রানে থেমেছে স্বাগতিক বাংলাদেশের ইনিংস। ব্যাটিংয়ে নেমে কচ্ছপ গতিতে রান তোলে টিম বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ে ছিল না চিরাচরিত টি-টোয়েন্টি মেজাজ।

দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন সাকিব। এছাড়া নাঈম শেখ ৩০ এবং আফিফ করেন ২৩ রান। আর অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর ব্যাট থেকে আসে ২০ রান।   

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে হ্যাজেলউড ৪ ওভারে ২৪ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন। এছাড়া স্টার্ক ২টি এবং জাম্পা ও টাই নেন ১টি করে উইকেট।    

সম্পর্কিত খবর