মডেল নায়লা নাঈমসহ যাদের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফির অভিযোগ
মডেল নায়লা নাঈমসহ যাদের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফির অভিযোগ

মডেল নায়লা নাঈমসহ যাদের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফির অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকাই ছবির আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনির বনানীর বাসায় সুনির্দিষ্ট কিছু অভিযোগের’ ভিত্তিতে অভিযান চালাচ্ছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। অভিযোগ প্রমাণ হলে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করা হতে পারে। র‌্যাবের তরফ থেকে এ কথা জানানো হয়েছে।

জানা যায়, মডেল পিয়াসা, মৌ, নায়লা নাঈম, নায়িকা-পরীমনিসহ অন্তত ১২ জনের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি এবং ব্ল্যাকমেইলিংয়ের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ রয়েছে।

পরীমণির বিরুদ্ধেও এমন কোনো অভিযোগ আছে কিনা সেটি এখনও পুরোপুরি নিশ্চিত করা হয়নি।

পরীমনির বাসায় অভিযান শেষে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানান র‍্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

এর আগে বিকেল ৪টার দিকে পরীমণির লাইভে এসে বলেন, ২০ মিনিট ধরে আমার বাসার গেটে ধাক্কাচ্ছে কারা যেন। তারা বলছেন তারা পুলিশ। অথচ আমি বনানী থানায় যোগাযোগ করলে তারা বলেন, আমাদের থানায় থেকে কোনো পুলিশ যায়নি। তিনি বলেন, আমি ডিবি অফিসে ফোন করেছি, বনানী থানায় ফোন করেছি। হারুন ভাইকে (মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার) ফোন করলে তিনি বলেন, তদন্তের স্বার্থে পুলিশ যেতে পারেন। আমি বলেছি আপনি কনফার্ম না করলে আমি দরজা খুলবো না। পরে তিনি ফোন করে বলেন, আমাদের এখান থেকে কেউ যায়নি। আমি জানি না কারা গেছে।

পরীমনি বলেন, শুরু থেকেই আমাকে মেরে ফেলার ভয় পাচ্ছি। আমাকে কেউ মারতে চান। কেউ এসে পুলিশের পরিচয় দিয়ে এসে যদি আমাকে খুন করতে আসেন তাহলে আমি কী করবো। তদন্ত করতে এলে আমাকে পরিচয় দিক। তাহলে আমাকে পরিচয় দিতে হবে। যদি সত্যি পুলিশ হয় তাহলে আমি অবশ্যই দরজা খুলবো।

আরও পড়ুন


গুনাহ হয়ে গেলে যে দোয়া পড়বেন

যে দুটি খারাপ অভ্যাস ত্যাগের বিনিময়ে জান্নাত

আজ যাদের জন্মদিন


 

পরবর্তী সময়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের পরিচয় নিশ্চিত করার পর দরজা খোলেন পরীমণি। এরপর আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে সহযোগিতা করার জন্য র‍্যাব কর্মকর্তাদের অনুরোধের প্রেক্ষিতে লাইভ বন্ধ করেন তিনি।

news24bd.tv/আলী