ওবায়দুল কাদেরের দুই ভাগিনাকে ফেসবুক লাইভে এসে হত্যার হুমকি

নোয়াখালী প্রতিনিধি

ওবায়দুল কাদেরের দুই ভাগিনাকে ফেসবুক লাইভে এসে হত্যার হুমকি

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ভাগিনা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের মুখপাত্র মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু ও স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদ সদস্য ও জনতা ব্যাংকের কর্মকর্তা ফখরুল ইসলাম রাহাতকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন রাসেল নামে মির্জা কাদেরের এক সমর্থক।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে শহীদ উল্যাহ রাসেল ওরফে কেচ্ছা রাসেল তার ফেসবুক লাইভে এসে এ হত্যার হুমকি দেয়।

রাসেল ওরফে কেচ্ছা রাসেল বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার অনুসারী ক্যাডারদের মধ্যে অন্যতম। চলতি বছরের মে মাসে বসুরহাট পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের করালিয়াতে অস্ত্র হাতে প্রতিপক্ষকে ধাওয়া ও গুলি করছেন এমন একটি ভিডিওচিত্র ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছিল। তার বিরুদ্ধে ২০-২২টি মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে।

নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ৪৮ মিনিট ৩০ সেকেন্ডের লাইভ ভিডিওটি প্রচার করেন শহীদ উল্যাহ রাসেল ওরফে কেচ্ছা রাসেল। লাইভে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে কেচ্ছা রাসেল বলেন, আমি বলতে চাই মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা আমেরিকায়। তিনি কোনো কিছুর সঙ্গে জড়িত নয়। মেয়রের কর্মীরা শান্তিপূর্ণভাবে পৌরসভাতে অবস্থান করছেন। আজকে যারা আবার ঘোলাটে পরিস্থিতি তৈরি করতেছে, এটার খেসারত কত ভয়ানক হবে সেটা কল্পনাও করতে পারবে না।

কোম্পানীগঞ্জ আওয়ামী লীগের মুখপাত্র মঞ্জুকে লক্ষ্য করে শহীদ উল্যাহ রাসেল বলেন- তুই পরিস্থিতি তৈরি কর, তোকে যেকোনো মুহূর্তে বাসা থেকে ধরে নিয়ে আসব, ওপেন ডিক্লেয়ার দিলাম। তুই এর জন্য প্রস্তুত থাক। কয়টারে গুলি করবি, তোর কাছে কত অস্ত্র আছে দেখা যাবে। বাংলার মানুষ দেখতে চায় তুই কত মানুষ হত্যা করতে পারস। ছাত্রলীগ নেতা রাহীম, শাকিল ও যুবলীগ নেতা রাজীবকে আজরাইল মাফ করলেও আমরা মাফ করব না।

এ ব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের মুখপাত্র ও সেতুমন্ত্রীর ভাগনে মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু বলেন, বসুরহাট পৌরসভার একটি কক্ষ থেকে লাইভে এসে অস্ত্রধারী কেচ্ছা রাসেল বিশ্রী ভাষায় আমাকে ও আমার খালাতো ভাই রাহাতকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। বিষয়টি সেতুমন্ত্রীসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এ অস্ত্রধারীর ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ ও হত্যার হুমকির ঘটনায় তাকে দ্রুত আইনের আওতায় নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন:


পরিমনির সরাসরি লাইভ দেখুন

চিত্রনায়িকা পরীমণি আটক হচ্ছেন!

পরীমণির বাসায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের হামলার দাবি, আতঙ্কে নায়িকা

পরীমণির বাসায় র‍্যাবের অভিযান, লাইভ শেষ


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

লাশ ফেলে পালিয়েছে স্বামীর পরিবার

মেহেদির রঙ মোছার আগেই লাশ হলেন রিমু

আব্দুল লতিফ লিটু, ঠাকুরগাঁও

মেহেদির রঙ মোছার আগেই লাশ হলেন রিমু

রিমু আক্তার (২২)

ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে রিমু আক্তার (২২) নামের এক গৃহবধূর লাশ রেখে পালিয়ে গেছে স্বামীর পরিবার।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) এই ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছে। মৃত রুমি আক্তার (২২) শহরের দক্ষিণ সালন্দর শান্তি নগরে তার স্বামী তামিম হোসেনের পরিবারের সঙ্গে বাস করতেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, রবিবার (২৬) সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় এক মৃত মেয়েকে নিয়ে কিছু মানুষ হাসপাতালে আসে। তবে কিছু সময় পরেই হাসপাতালের জরুরি ওয়ার্ডে লাশটি ফেলে তারা পালিয়ে যায়। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ থানায় খবর দেয়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে পেরেই অজ্ঞাত পরিচয়ের লাশ উদ্ধার করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি অপারেশন জিয়ারুল জিয়া। 

তিনি জানান, লাশটি থানায় আনার পর আমরা গৃহবধূর পরিবারের সন্ধান করতে থাকি। পরে মৃতের পিতার পরিবারের সন্ধান পেয়ে তাদের অবগত করা হয়। ঘটনাটিতে মামলা হয়েছে ও তদন্ত চলছে।

এই বিষয়ে নিহত গৃহবধূ রিমুর বাবা আলম হোসেন তিনি বলেন, অনেক আশা নিয়ে ১০ মাস আগে মেয়েটিকে বিয়ে দিয়েছি। তবে জামাই নেশা করে আসে মাঝে মাঝেই মেয়েকে নির্যাতন করতো। বেশ কয়েকবার জামাইকে বুঝিয়েছি। কোনো লাভ হয়নি। কিন্তু মেহেদীর রং না মুছতেই এবার তারা মেয়েটাকে মেরেই ফেল্লো। আমি এর বিচার চাই। জানিনা কার কাছে গেলে সঠিক বিচার।

এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে নিহতের স্বামীর তামিম হোসেনের বাসায় গেলে পরিবারের সদস্যদের পাওয়া যায়নি। মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার রাকিবুল ইসলাম চয়ন জানান, মেয়েটির শরীরে বেশ কিছু জায়গায় ক্ষত ও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। পোষ্ট মর্টেমের রিপোর্ট আসলে বিস্তারিত জানা যাবে।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীরুল ইসলাম জানান, মেয়েটির স্বামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বিচারপ্রার্থীকে ছুরিকাঘাত, লাখ টাকা ছিনতাই

অনলাইন ডেস্ক

বিচারপ্রার্থীকে ছুরিকাঘাত, লাখ টাকা ছিনতাই

নোমান হোসেন দুলাল নামে এক বিচারপ্রার্থীকে ছুরিকাঘাত করে তার কাছ থেকে দুর্বৃত্তরা এক লাখ টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। লক্ষ্মীপুরে জেলা জজ আদালত পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। আজ সোমবার রাত ৯টার দিকে  থানায় মামলা করেছেন ভুক্তভোগী। 

বেলা ১১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটলে এসময় আদালতে উপস্থিত বিচারপ্রার্থীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার পরপরই  এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করে বলে জানায় পুলিশ। আহত দুলাল সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের নন্দীগ্রামের মৃত আবদুস সাত্তারের ছেলে। আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও ভূক্তভোগীরা জানায়, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে সোমবার পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির তারিখ ছিল। এ লক্ষ্যে সকালে দুলাল ও তার ভাই বেলায়েত হোসেন রিপন আদালতে আসে। বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য পূর্ব নির্ধারিত হিসেব অনুযায়ী আড়াই লাখ টাকা তাদের সঙ্গে নিয়ে আসেন বলে জানান তারা। এরমধ্যে দুলালের কাছে ১ লাখ ও রিপনের কাছে দেড় লাখ টাকা ছিল।

ঘটনার সময় প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিতে গেলে অজ্ঞাত পরিচয়ের দুইজন লোক দুলালের ওপর হামলা করে টাকা নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এতে দুলাল তাদের বাঁধা দেয়। একপর্যায়ে ছুরি দিয়ে হাতে আঘাত করে হামলাকারীরা দুলালের কাছ থেকে টাকাগুলো নিয়ে পালিয়ে যায় বলে জানান দুলাল। পরে রিপনসহ আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। 

কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক দুলাল কিশোর মজুমদার বলেন, আহত দুলালকে নিয়ে এসে প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনাটি আমাকে জানানোর পর তাৎক্ষণিক আদালত এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। 

সদর মডেল থানার ওসি জসিম উদ্দিন জানান, ভূক্তভোগী থানায় মামলা করেছেন। বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর

রাজধানীতে নারীকে কুপিয়ে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীতে নারীকে কুপিয়ে হত্যা

রাজধানীর কদমতলীতে এক নারীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

আজ এ ঘটনা ঘটে। মরদেহটি পুরান ঢাকার স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মিটফোর্ড  হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা, মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

অনলাইন ডেস্ক

শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা, মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

চকলেট খাওয়ার লোভ দেখিয়ে প্রথম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে (৫) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে মাদ্রাসার এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। গতকাল রোববার দুপুরে মাদ্রাসা ছুটির পর ৫ বছর শিশুটি ভ্যানের জন্য একা দাঁড়িয়েছিল। তাকে মাদ্রাসার কক্ষে ডেকে নিয়ে চকলেটের লোভ দেখিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা করে ওই শিক্ষক। পরে শিশুটি বাড়ি ফিরে গেলে তার চেহারা দেখে সন্দেহ এবং একপর্যায়ে তাকে গোসল করানোর সময় তার গোপনাঙ্গ থেকে রক্তক্ষরণ হতে দেখেন তার মা।

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায়  এই ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি তার বাড়ির অন্যান্য লোকজনকে জানানোর পর তারা বিকালেই থানা পুলিশকে মৌখিকভাবে অবহিত করে চিকিৎসার জন্য প্রথমে ফরিদগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।  

চকলেট খাওয়ার লোভ দেখিয়ে প্রথম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে (৫) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে কওমি মাদ্রাসার এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। 

অভিযুক্ত শিক্ষক আবুল হোসেন উপজেলার পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের সাহাপুর গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে।

রও পড়ুন:

বিয়ের আগেই পাত্রের মাকে নিয়ে পালিয়ে গেল পাত্রীর বাবা!

বয়সকে পাত্তা না দিয়ে খেলেই যাবেন রোনালদো!

বিশ্বকাপের আগে কোহলিকে স্বস্তি দিলেন অশ্বিন

ইংরেজি শেখার জন্য বিয়ে করেছিলেন শেবাগ-যুবরাজ-হরভজন!!


 

এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বাহার মিয়া জানান, এই ঘটনায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ভুয়া চিকিৎসকের এক মাসের কারাদণ্ড

সামছুজ্জামান শাহীন, খুলনা

ভুয়া চিকিৎসকের এক মাসের কারাদণ্ড

খুলনার ডুমুরিয়ায় র‌্যাবের অ‌ভিযা‌নে তন্ময় অ‌ধিকারী (২৭ ) না‌মে এক ভুয়া চি‌কিৎসক‌কে আটক করা হয়েছে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাকে এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। সোমবার দুপুরে খুলনার ডুমু‌রিয়া বাজা‌রে অ‌ভিযান প‌রিচা‌লিত হয়।

ডুমু‌রিয়া উপ‌জেলা নির্বা‌হী অ‌ফিসার মো. আব্দুল ওয়াদুদ মে‌ডি‌কেল এন্ড ডেন্টাল কাউ‌ন্সিল অ্যাক্ট ২০১০ এর ২৯ (১১) ধারায় এ দণ্ডাদেশ দেন।

আরও পড়ুন: 


বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণে সময় বাঁচবে ৩ ঘণ্টা

দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে দুঃসময় যাচ্ছে: ফখরুল

প্রকাশ হলো এসএসসি ও এইচএসসির পরীক্ষার রুটিন

নিজের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দিলেন বাইকার


ভুয়া চি‌কিৎসক তন্ময়কে কারাগা‌রে পাঠানো হ‌য়ে‌ছে। ওই ভুয়া চি‌কিৎসক‌ গত বছর প্রেসক্রিপশনে শিশু ও ম‌হিলা বি‌শেষজ্ঞ লেখায় তাকে ১৫ দি‌নের কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জ‌রিমানা ক‌রে চেম্বার বন্ধ ক‌রে দেওয়া হয়। প‌রে তন্ময় আবারও ডুমু‌রিয়া বাজা‌রের ম‌নোয়ারা সুপার মার্কেটে চেম্বার খু‌লে রোগী দেখা শুরু ক‌রে। ক‌য়েক মাস আ‌গেও উপজেলা প্রশাসন থেকে তাকে রোগী না দেখ‌তে সতর্ক করা হয়।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর