পরীমনির বাসায় ভয়ঙ্কর সব মাদক (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

পরীমনির বাসায় ভয়ঙ্কর সব মাদক (ভিডিও)

রাজধানীর বনানীর বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদকসহ আটক ঢাকাই ছবির আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনিকে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদরদফতরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।  পরীমনির বাসায় অভিযান চলিয়ে নতুন মাদক এলএসডি, মদ ও আইস উদ্ধার করেছে র‌্যাব। আইনশৃঙ্খলার বাহিনীর দায়িত্বশীল সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

 র‌্যাবের এক কর্মকর্তা জানান, অভিযানে প্রথম দিকে পরীমণি র‍্যাবকে সহযোগিতা করেননি। তবে পরে তার ঘর তল্লাশি করে ফ্ল্যাটের কেবিনেট থেকে বিদেশি মদ, লাইসার্জিক অ্যাসিড ডাইইথ্যালামাইড (এলএসডি) এবং আইস উদ্ধার করা হয়েছে। পরে তার ড্রয়িং রুমের কাভার্ড, শো-কেস, ডাইনিং রুম, বেডরুমের সাইড টেবিল এবং টয়লেট থেকে বিপুল সংখ্যক মদের বোতল উদ্ধার করা হয়েছে। 

পরীমণির বাসায় এমন কোনো জায়গা নেই যেখানে মদ নেই। তার কাছে দেশি-বিদেশি নামিদামি ব্র্যান্ডের মদ ছিল, যা বাংলাদেশে খুব কমই আমদানি হয়।

বুধবার (৪ আগস্ট) রাত ৮টা ১০ মিনিটে পরীমনিকে তার বাসা থেকে বের করে একটি সাদা মাইক্রোবাসে র‌্যাব সদরদফতরের দিকে নিয়ে যাওয়া হয়। 


বুধবার (৪ আগস্ট) রাত ৮টা ১০ মিনিটে পরীমনিকে তার বাসা থেকে বের করে একটি সাদা মাইক্রোবাসে র‌্যাব সদরদফতরের দিকে নিয়ে যাওয়া হয়।

বুধবার বিকালে এ চিত্রনায়িকার বাসায় অভিযান চালানো হয়। র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক খন্দকার আল মঈন বলেন, সুনির্দিষ্ট কিছু অভিযোগের ভিত্তিতে চিত্রনায়িকা পরীমণির বাসায় র‍্যাব অভিযান পরিচালনা করেছে। 

এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লাইভে এসেছিলেন চিত্রনায়িকা পরীমণি।

লাইভে এসে পরীমণি বলেন, 'শুরু থেকেই আমাকে মেরে ফেলার ভয় পাচ্ছি। আমাকে কেউ মারতে চান। কেউ এসে পুলিশের পরিচয় দিয়ে এসে যদি আমাকে খুন করতে আসেন তাহলে আমি কি করব। তদন্ত করতে এলে আমাকে পরিচয় দিক। তাহলে আমাকে পরিচয় দিতে হবে। যদি সত্যি পুলিশ হয় তাহলে আমি অবশ্যই দরোজা খুলব।'

তিনি বলেন, আমার বাসার গেটে এসে তারা দরোজা ধাক্কাচ্ছে। পরিচয় জানতে চাইলে তারা বলছেন, তারা পুলিশ। আমি ডিবি অফিসে ফোন করেছি, বনানী থানায় ফোন করেছি। ওসি হারুণ ভাইকে ফোন করলে তিনি বলেন, আমাদের এখান থেকে কেউ যায়নি। তবে তদন্তের স্বার্থে পুলিশ যেতে পারেন। দরোজা খুলতে পারো। আমি বলেছি আপনি কনফার্ম না করলে আমি দরোজা খুলব না।

এরআগে গত ১৩ জুন প্রথমে ফেসবুক পোস্টে ও পরে বাসায় সংবাদ সম্মেলনে পরীমণি অভিযোগ করেন, ৯ জুন উত্তরার বোট ক্লাবে তাকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা চালান জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আবাসন ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তার সহযোগীরা। এ ঘটনায় পরদিন সাভার থানায় ছয়জনকে আসামি করে মামলা করেন তিনি।

আরও পড়ুন:

যতক্ষণ না পুলিশ আসবে, মিডিয়া আসবে লাইভ চলবে: পরীমনি

আবারও মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

একসঙ্গে দুই ছেলে ও দুই মেয়ের জন্ম


 

এর পরদিন নাসির উদ্দিন, অমিসহ পাঁচজনকে উত্তরা থেকে আটক করে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। অভিযানে ওই বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মদ-বিয়ার ও ইয়াবা জব্দ করা হয়। ওই দিন রাতেই বিমানবন্দর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে ডিবি পুলিশ। পরীমণিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা মামলার প্রধান আসামি নাসির ১৫ দিন কারাভোগের পর মুক্তি পান।

 ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ব্রাজিলিয়ান মডেলকে বিয়ে করতে ৪ কোটি টাকা সাধলেন আরব শেখ!

অনলাইন ডেস্ক

ব্রাজিলিয়ান মডেলকে বিয়ে করতে ৪ কোটি টাকা সাধলেন আরব শেখ!

ক্রিস গ্যালেরা। বয়স ৩৩। পেশায় মডেল। জাতীয়তা ব্রাজিলিয়ান। এই তার পরিচয়। তবে সম্প্রতি আলোচনায় এসেছেন নিজেকেই নিজে বিয়ে করে। বিয়ের পোশাকে চার্চের সামনে দাঁড়ানো তার ছবিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

নিজেকেই নিজে বিয়ে করার কারণ হিসেবে অবশ্য পুরুষদের প্রতি বিরক্ত হয়ে গিয়েছিলেন বলে জানান তিনি। তবে তার ভাইরাল ছবিতে চোখ আটকে যায় এক আরব শেখের! 

তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে করা একজনের অনুরোধে চোখ আটকে যায় ক্রিসের। একটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমকে ক্রিস জানান, এক আরব শেখের বিয়ের প্রস্তাব পেয়েছেন তিনি। ওই আরব শেখ ক্রিসকে ‘নিজেকে ডিভোর্স’ দিয়ে তাকে বিয়ে করতে বলেছেন।

রও পড়ুন:

একাধিক পদে নিয়োগ দেবে বেক্সিমকো

বিয়ের আগেই পাত্রের মাকে নিয়ে পালিয়ে গেল পাত্রীর বাবা!

বিশ্বকাপের আগে কোহলিকে স্বস্তি দিলেন অশ্বিন

ইংরেজি শেখার জন্য বিয়ে করেছিলেন শেবাগ-যুবরাজ-হরভজন!!


ওই গণমাধ্যমকে ক্রিস জানান, আবর শেখ আমাকে বিয়ে করার জন্য পাঁচ লাখ মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪ কোটি ২৬ লাখ টাকা) যৌতুক দিতে চেয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য ক্রিস ওই আরব শেখের সঙ্গে একবার কথাও বলেছেন।

তার প্রস্তাবে অবশ্য সাড়া দেননি ক্রিস। নিজেকে নিয়েই সুখে আছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

'যৌন হেনস্তার' দৃশ্যে রঞ্জিতকেই পছন্দ করতেন নায়িকারা!

অনলাইন ডেস্ক

'যৌন হেনস্তার' দৃশ্যে রঞ্জিতকেই পছন্দ করতেন নায়িকারা!

বলিউডের ভিন্নধর্মী অভিনেতা রঞ্জিত বেদী। বলিউডের সবচেয়ে বেশি 'ধর্ষণ' দৃশ্যে অভিনয় করেছেন তিনি। একসময় তো তার নামই হয়ে গিয়েছিল ‘রেপ স্পেশালিস্ট’। কোনো ছবিতে ধর্ষণ অথবা যৌন হেনস্তার দৃশ্য থাকলে নায়িকারা নাকি তাকে নেয়ার জন্য পরিচালকদের পরামর্শ দিতেন। 

তবে এখন নাকি কাজই পাচ্ছেন না প্রায় ২০০টির ওপর হিন্দি ছবিতে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করা এই অভিনেতা, জানালেন কপিল শর্মা শো-তে এসে। শো-তে তিনি নিজের অভিনয় জীবন এবং ত্তর ও আশি দশকের চলচ্চিত্র জগতের ছবিটি তুলে ধরলেন। জানান, ‘শর্মিলি’ ছবিতে রাখি গুলজারের সঙ্গে তার দৃশ্য দেখে বাবা-মা তাকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছিলেন।

রঞ্জিতের কথায়, ‌‘রাখির চুল ধরে টানছি, শাড়ি টেনে ছিঁড়ে দিচ্ছি। এসব দেখে মা-বাবা বলেছিল, আমি বাবার নাম খারাপ করছি। এমনকি অমৃতসরে আমাদের দেশের বাড়ির প্রতিবেশীদের সমালোচনায় আগেভাগেই ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন তারা।’ 

তাও নায়িকারা রঞ্জিতের সঙ্গে কাজ করতেই বেশি স্বচ্ছন্দ ছিলেন। বিশেষ করে ধর্ষণ অথবা যৌন হেনস্তার দৃশ্যগুলোতে রঞ্জিতের ওপরই বেশি ভরসা রাখতেন নায়িকারা।

রও পড়ুন:

একাধিক পদে নিয়োগ দেবে বেক্সিমকো

বিয়ের আগেই পাত্রের মাকে নিয়ে পালিয়ে গেল পাত্রীর বাবা!

বিশ্বকাপের আগে কোহলিকে স্বস্তি দিলেন অশ্বিন

ইংরেজি শেখার জন্য বিয়ে করেছিলেন শেবাগ-যুবরাজ-হরভজন!!


তিনি সাক্ষাৎকারে রসিকতা করে বলেন, যেদিন থেকে নায়িকারা ছোট পোশাক পরা শুরু করলেন, সেদিন থেকে আমার আর প্রয়োজন পড়ল না সিনেমায়। ছোট পোশাক টেনে খুলে ফেলা তো আর দরকার পড়ত না!

সূত্র: টাইমস নাও।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

ডিভোর্সের পর ভরণপোষণ বাবদ কত কোটি টাকা পাচ্ছেন সামান্থা?

অনলাইন ডেস্ক

ডিভোর্সের পর ভরণপোষণ বাবদ কত কোটি টাকা পাচ্ছেন সামান্থা?

বিনোদনজগতে চলছে ভারতের দক্ষিণী অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু আর নাগা চৈতন্য আক্কিনেনির বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে আলোচনা। সেই সঙ্গে আলোচনা চলছে তাদের টাকাপয়সার হিসেব নিয়েও, বিশেষ করে বিবাহবিচ্ছেদের পর সামান্থা ভরণপোষণ বাবদ কত টাকা পাচ্ছেন তা নিয়ে চলছে রসালো আলোচনা।

ভারতের একটি জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমের সূত্রমতে, বিবাহবিচ্ছেদ হলে ভরণপোষণ বাবদ অন্তত ৫০ কোটি রুপি পাবেন সামান্থা, যা তাদের বিয়ের খরচের চেয়ে পাঁচগুণ বেশি। ২০১৭ সালে যখন তারা বিয়ে করেছিলেন সামান্থা-নাগা, সেই আয়োজনে ব্যয় হয়েছিল প্রায় ১০ কোটি রুপি।

অনেকেই বলছেন, আগামী ৭ অক্টোবর বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দেবেন সামান্থা ও নাগা। ২০১৭ সালের এই দিনে বিয়ে করেছিলেন তারা। যদিও বিচ্ছেদ ইস্যুতে এখনও পর্যন্ত সরাসরি কিছুই বলেননি এ দম্পতি।

কিন্তু তাদের এক ঘনিষ্ঠ সূত্র দাবি করেছে, বিয়ের পর সামান্থার অভিনয় করা পছন্দ করছে না নাগা পরিবার। তার ওপর ‘ফ্যামিলি ম্যান টু’ সিরিজে খোলামেলা রূপে অভিনয় করেছেন সামান্থা। এর ফলে চৈতন্য এবং তার বাবা নাগার্জুনা বেজায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন। সেজন্যই সামান্থার বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেওয়া।

বিয়ের পর নিজের নামের শেষে ‘আক্কিনেনি’ পদবি ব্যবহার করা শুরু করলেও কিছুদিন আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের নাম থেকে ‘আক্কিনেনি’ পদবি মুছে ফেলেন এ অভিনেত্রী। সেখান থেকেই মূলত শুরু হয় তাদের সম্পর্ক ভাঙনের গুঞ্জন শুরু হয়। দিন দিন সেই গুঞ্জন জোড়ালো হয়ে উঠেছে।  

রও পড়ুন:

একাধিক পদে নিয়োগ দেবে বেক্সিমকো

বিয়ের আগেই পাত্রের মাকে নিয়ে পালিয়ে গেল পাত্রীর বাবা!

বিশ্বকাপের আগে কোহলিকে স্বস্তি দিলেন অশ্বিন

ইংরেজি শেখার জন্য বিয়ে করেছিলেন শেবাগ-যুবরাজ-হরভজন!!


ভারতের দক্ষিণী মেগাস্টার নাগার্জুনার পুত্র নাগা চৈতন্য। ২০০৯ সালে ‘জোশ’ সিনেমার মধ্য দিয়ে তিনি অভিনয় জীবন শুরু করেন। অন্যদিকে সামান্থার ক্যারিয়ার শুরু হয় নাগার বিপরীতে ২০১০ সালের ‘ইয়ে মায়া চেসাভ’ সিনেমা দিয়ে। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়েই তাদের প্রেম হয়। সাত বছর প্রেমের বিয়ে করেছিলেন তারা।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

বড় সারপ্রাইজ নিয়ে হাজির রচনা ব্যানার্জি

অনলাইন ডেস্ক

বড় সারপ্রাইজ নিয়ে হাজির রচনা ব্যানার্জি

বড় সারপ্রাইজ নিয়ে খুব দ্রুতই হাজির হবেন কয়েকদিন আগেই ঘোষণা করেছিলেন রচনা ব্যানার্জি। কথা দিয়ে কথা রাখলেনও। কিন্তু তার সেই বড় চমক দেখে রীতিমতো ক্ষুব্ধ একাংশের মানুষ। 

অভিনেত্রী, সঞ্চালিকা রচনা ব্যানার্জি অনলাইনে শাড়ির ব্যবসা শুরু করেছেন। 'রচনা’স ক্রিয়েশন তার বুটিকের নাম। সম্প্রতি নিজের বুটিকের সম্ভার দেখাতে একটি লাইভ করেছিলেন তিনি। প্রথম লাইভেই হাজার হাজার লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার। সেলেব্রিটির কাছ জিনিস কেনার মজা উপভোগও করছিলেন কয়েকজন।

আরও পড়ুন:


প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহরে হামলার মামলার আসামি গ্রেপ্তার

কাল লাখ লাখ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বন্ধ হয়ে যাবে!

আত্মহত্যা ছাড়া আর কোনো পথ দেখছি না: শাকিল


কিন্তু এই দেখেই রীতিমতো রেগে ফুঁসে উঠলেন ছোট ব্যবসায়ী থেকে ছোট ছোট বুটিকের মালিকেরা। তাদের সকলের দাবি, অভিনেত্রীর চড়া দামে শাড়ি বিক্রি। সেই শাড়ি কমদামে বিক্রি করলেও অনেকেই ভরসা করে কেনেন না। তিনি তারকা হয়েও কেন এই পথে আসবেন! তারকারাও যদি এই পথে এসে ব্যবসা শুরু করেন, তাহলে তারা কীভাবে ব্যবসা করে সংসার চালাবেন?

যদিও এতকিছুর পরেও অভিনেত্রী নিজের তরফ থেকে কোনও মন্তব্য করেননি। কিন্তু তার সমর্থনে এগিয়ে এসেছেন আরও বহু মানুষ। তাদের যুক্তি, তারকা হয়েও ব্যবসা করা যাবে না এমনটা কোথাও লেখা নেই। সর্বোপরি, করোনার প্রভাব সকলের উপরেই পড়েছে। এর আগে লোপামুদ্রা মিত্র, সুদীপা চ্যাটার্জিরাও শাড়ির বুটিক খুলেছেন। দাম যাই হোক, আর পাঁচজনের তাদের বুটিকও রমরমিয়ে চলছে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

২০০ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের মুখে জ্যাকুলিন

অনলাইন ডেস্ক

২০০ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের মুখে জ্যাকুলিন

এক বা দুই লাখ নয়, একদম ২০০ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় গোয়েন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হচ্ছে বলিউডের গ্ল্যামাড় কুইন জ্যাকুলিন ফার্নান্ডেজকে। 

গত শনিবার এই নিয়ে দ্বিতীয়বার ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট এর গোয়েন্দারা জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন জ্যাকলিনকে। প্রতারক সুকেশ চন্দ্রশেখরকে জ্যাকুলিনই নাকি যুক্ত করিয়েছিলেন। তবে প্রথমবার জেরার পর জ্যাকুলিন জানান, তিনি নিজেও প্রতারণার শিকার। 

আরও পড়ুন:


প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহরে হামলার মামলার আসামি গ্রেপ্তার

কাল লাখ লাখ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বন্ধ হয়ে যাবে!

আত্মহত্যা ছাড়া আর কোনো পথ দেখছি না: শাকিল


 

ভারতের মুম্বাই মহারাষ্ট্রের একজন বড়সড় প্রতারক সুকেশ চন্দ্রশেখর। ভারতের বহু নামী ব্যবসায়ীর টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। একাধিকবার সুকেশের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করাও হয়েছে। রানব্যাক্সির মতো বড় কোম্পানির প্রোমোটার শিবিন্দর সিং ও মালবিন্দর সিংও ২০০ কোটি টাকার প্রতারণার শিকার হয়েছেন। এছাড়াও অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র, প্রতারণা, তোলাবাজির অভিযোগ রয়েছে সুকেশের বিরুদ্ধে। জেরার পর জ্যাকুলিনের সঙ্গে সুকেশের যোগাযোগ আরও খতিয়ে দেখার চেষ্টায় রয়েছেন গোয়েন্দারা। 

বর্তমানে রোহিনী জেলে আছে সুকেশ। গোয়েন্দাদের ধারণা, জেলে বসেই এই কার্যকলাপ সে চালায়। সুকেশ চন্দ্রশেখর ও তার প্রেমিকা লীনা পালের কথায় ফেঁসে ২০০ কোটি টাকা খুইয়েছেন বলে জানিয়েছেন জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ। প্রথমবার জিজ্ঞাসাবাদের পর সুকেশের বিষয়ে আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য গোয়েন্দাদের জানান অভিনেত্রী। গোয়েন্দা বিভাগের মতে, জ্যাকুলিনের তরফে দেওয়া তথ্য এই মামলার সমাধান করতে সাহায্য করতে পারে। 

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর