শেখ কামাল তরুণ প্রজন্মের কাছে আজও অনুপ্রেরণা : ওবায়দুল কাদের

অনলাইন ডেস্ক

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় ছেলে, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক এবং ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শহীদ শেখ কামালের ৭২তম জন্মবার্ষিকী আজ। ১৯৪৯ সালের ৫ আগস্ট তিনি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন।

দিনটি উপলক্ষ্যে বনানী কবরস্থানে শ্রদ্ধা জানিয়েছে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো। এ সময় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ কামাল তরুণ প্রজন্মের কাছে আজও অনুপ্রেরণা হয়েই আছেন। 

এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ অ্যাকশনে বিশ্বাস করে। ভূঁইফোর সংগঠনগুলোকে কোনো রকম ছাড় দেয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন:


পাবনায় মেডিকেল ছাত্রীকে খালি সিরিঞ্জ পুশের অভিযোগ

হলি আর্টিজানের ঘটনায় সিনেমা, জাহান কাপুরের অভিষেক

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও অস্ট্রেলিয়াকে হারালো টাইগাররা

রাজের বাসায় বিকৃত যৌনাচারের সরঞ্জামাদি,চলত পর্নোগ্রাফি (ভিডিও)


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

সেই চালককে মোটরসাইকেল উপহার দেবেন গোলাম রাব্বানী

অনলাইন ডেস্ক

সেই চালককে মোটরসাইকেল উপহার দেবেন গোলাম রাব্বানী

রাজধানীতে ‘মামলা দেওয়ায়’ নিজের মোটরসাইকেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে প্রতিবাদের ঘটনায় সেই পাঠাও চালককে একটি মোটরসাইকেল উপহার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর সাবেক জিএস গোলাম রাব্বানী। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাতে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে গোলাম রাব্বানী এ ঘোষণা দেন।

তিনি লেখেন, ‘টিম পজেটিভ বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে শেখ হাসিনার ভালোবাসার উপহার হিসেবে শওকত আলমকে একটি ভালো মানের মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করছি।’

গোলাম রাব্বানী তার ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ওই ঘটনার বিষয়ে লেখেন, ‘করোনা দুর্যোগে শওকত আলম সোহেলের ছোট্ট ব্যবসা বন্ধ হয়ে যায়। পরে জীবিকার তাগিদে কয়েকমাস যাবত পাঠাও রাইডার হিসেবে রাস্তায় নামেন। চরম অর্থনৈতিক এই দৈন্যদশার মাঝে ‘মরার উপর খাঁড়ার ঘা...’
 
তিনি বিষয়টি সবাইকে অনুধাবন করার অনুরোধ জানিয়ে লিখেন, ‘একটা মানুষ কতটা কষ্ট পেলে, কতটা অসহায়ত্ব তাকে গ্রাস করলে ক্ষোভে-দুঃখে উপার্জনের একমাত্র অবলম্বন, মোটরসাইকেলটি আগুনে পুড়িয়ে দেয়। আপনাদের মানবিক হৃদয় দিয়ে সেটা অনুধাবনের চেষ্টা করুন!’

গোলাম রাব্বানী তাকে একটি মোটরসাইকেল উপহারের ঘোষণা দিয়ে জানান, ‘আমি টিম পজেটিভ বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে 'দেশরত্ন শেখ হাসিনার ভালোবাসার উপহার' হিসেবে শওকত আলম ভাইকে একটি ভালো মানের মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করছি। তার সাথে ফোনে কথা হয়েছে, তাকে অফিসে আসতে বলা হয়েছে। সরাসরি কথা বলে দ্রুততম সময়ে মোটরসাইকেল হস্তান্তর করা হবে ইনশাআল্লাহ।’

এর আগে, একই ঘটনায় সেই ব্যক্তিকে একটি মোটরসাইকেল উপহার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ময়মনসিংহের আনসারুল হক নামে এক স্কুল শিক্ষক। তিনিও ফেসবুক স্ট্যটাসে  লিখেছেন, আজকে একটি খবর ভাইরাল হয়েছে আমরা সবাই জানি। এক ভাই মামলা সংক্রান্ত ব্যাপারে রাগে ক্ষোভে তার একমাত্র আয়ের উৎস পাঠাও চালানোর মোটরবাইকটি আগুনে পুড়িয়ে ফেলেছেন যা আদৌ ঠিক হয়নি। হয়তো রাগ কমে যাওয়ার পর এখন খুবই অনুশোচনা হচ্ছে! যাই হোক, আমার এই বাইকটি তাকে আপাতত গিফট করে দিতে চাচ্ছি।

রও পড়ুন:

কুকুরের মাংস নিষিদ্ধ হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ায়

ইউটিউবারদের আয়ের উপর কর, মিশরে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

দুধের ব্যবসা করছেন রোনালদোর সাবেক সতীর্থ


প্রসঙ্গত, ‘মামলা দেওয়ায়’ সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানীর বাড্ডা লিংক রোডে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে প্রতিবাদ করেন শওকত আলম সোহেল। আগে থেকেই ওই মোটরসাইকেলটিকে একটি মামলা দেওয়া ছিল। কাগজপত্রে ‘সামান্য ত্রুটি’ থাকায় পুলিশ ফের মামলা দেওয়ায় মনের কষ্টে এ কাণ্ড ঘটিয়েছেন ওই বাইকার।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

প্রধানমন্ত্রীকে জাপা চেয়ারম্যানের অভিনন্দন

অনলাইন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রীকে জাপা চেয়ারম্যানের অভিনন্দন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিনে অভিনন্দন জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদে বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি। 

সোমবার এক অভিনন্দন বার্তায় সরকার প্রধান শেখ হাসিনার সাফল্য, সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন জিএম কাদের। 

অভিনন্দন বার্তায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আশা প্রকাশ করে বলেন, দেশ ও মানুষের কল্যাণে সব উদ্যোগে জাতীয় পার্টি ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবে। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে এগিয়ে যাবে। তার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড আরও গতিশীল হবে। বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও মানবাধিকার পরিস্থিতি আরও উন্নত হবে। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ থেকে চিরতরে বিতাড়িত হবে ক্ষুধা, দারিদ্র্য ও দুর্নীতি।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

শেখ হাসিনা ছোটবেলা থেকেই সংগ্রামী ও সাহসী: আমু

নিজস্ব প্রতিবেদক

শেখ হাসিনা ছোটবেলা থেকেই সংগ্রামী ও সাহসী: আমু

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু বলেন, শেখ হাসিনা ছোট বেলা থেকেই সংগ্রামী ও সাহসী ছিলেন। আমরা যখন ১৯৬২ সালে হামিদুর রহমান শিক্ষা কমিশন রিপোর্টের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করি তখন তিনি আজিমপুর গার্লস স্কুলের ছাত্রী। তিনি সেখানকার ছাত্রীদের নিয়ে মিছিল-মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করতেন। তিনি ১৯৬৬ সালে বঙ্গবন্ধুর ৬ দফা আন্দোলনের অন্যতম অগ্রসৈনিক ছিলেন। ৭৫’ পরবর্তী সময়ে স্বৈরশাসক জিয়াউর রহমান দেশে যখন একটি অরাজকতা পরিবেশ সৃষ্টি করেছেন, বঙ্গবন্ধুর খুনী ও যুদ্ধাপরাধীদেরকে রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব দিয়েছে, যখন কোনো আইনের শাসন ছিল না সেই দুর্বিসহ সময়ে ১৯৮১ সালের ১৭ই মে তিনি দেশে ফেরেন আলোর দিশারী হয়ে।

আজ সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা’র ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি।

ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট মিলনায়তনের এ সভাটি বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি যুবলীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, যুবলীগই ছিল শেখ হাসিনার একমাত্র ভ্যানগার্ড এবং এই যুবলীগই সার্বক্ষণিক শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করেছে। প্রত্যেকটি আন্দোলন সফল করতে যুবলীগের ত্যাগ-তিতিক্ষা ছিল অপরিসীম।

তিনি আরও বলেন-আমি মনে করি বঙ্গবন্ধু’র জন্ম না হলে যেমন বাংলাদেশ সৃষ্টি হতো না, তেমনি শেখ হাসিনার জন্ম না হলে বঙ্গবন্ধু’র স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশের প্রত্যাশা বাংলার মানুষ করতে পারতো না। আমরা যদি শেখ হাসিনাকে না পেতাম তাহলে আমরা বাঙালিরা, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকেরা বাংলার মানুষের কাছে আসামির কাঠগড়ায় থাকতাম।

তিনি আরও বলেন, শেখ হাসিনার প্রতি মানুষের এত অগাধ বিশ্বাস ও ভালোবাসা কেন কারণ মানুষের যে ৫টি মৌলিক চাহিদা রয়েছে, আজকে শেখ হাসিনা’র সরকার মানুষকে তা দিতে পেরেছে।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন, ১৯৮১ সালে যেদিন শেখ হাসিনা দেশে ফিরলেন সেদিন নির্বাসন থেকে বাংলাদেশ অস্তিত্বে ফিরল। ১৯৭২ সালের ১৭ জানুয়ারি মার্কিন সাময়িকী টাইম পত্রিকায় বাংলাদেশের ওপর একটি প্রচ্ছদ প্রতিবেদনে বঙ্গবন্ধু একটি আবক্ষ ছবি প্রকাশিত হয়েছিল। সেখানে ডান পাশে লেখা ছিল বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ সমার্থক। ১৯৮১ সালের ১৭ই মে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমে বাংলাদেশ ফিরে পেয়েছিলাম। কারণ ’৭৫ পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ ছিনতাই হয়ে গিয়েছিল। আমরা শেখ হাসিনার জন্মদিন পালন করছি এ জন্যই যে, তাঁর কাছে আমাদের অশেষ দায়, অশেষ ঋণ।

আরও পড়ুন: 


বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণে সময় বাঁচবে ৩ ঘণ্টা

দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে দুঃসময় যাচ্ছে: ফখরুল

প্রকাশ হলো এসএসসি ও এইচএসসির পরীক্ষার রুটিন

নিজের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দিলেন বাইকার


তিনি শেখ হাসিনার গুণাবলী সম্পর্কে বলতে গিয়ে বলেন, শেখ হাসিনার শক্তিগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো তাঁর সম্মোহনী শক্তি, তিনি সাহসী। শেখ হাসিনা সাহসী না হলে বঙ্গবন্ধুর খুনীদের বিচার হতো না, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হতো না। তিনি সাহসী না হলে পদ্মা সেতু নিজেদের অর্থায়নে তৈরি হতো না। সিদ্ধান্ত গ্রহণে সাহসী হওয়ায় শেখ হাসিনাকে অভিবাদন জানাই।

সভাপতির বক্তব্যে যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্ম না নিলে আমরা আজ একটা মানচিত্র পেতাম না, একটা পতাকা পেতাম না, জাতীয় সংগীত পেতাম না; শেখ হাসিনা জন্ম না নিলে আমরা গণতন্ত্র পেতাম না, সামাজিক ন্যায় বিচার পেতাম না, অর্থনৈতিক মুক্তি পেতাম না, ভোট ও ভাতের অধিকার পেতাম না এবং একটা মর্যাদাশীল দেশ  পেতাম না। শেখ হাসিনা দেশে ফিরে দলকে সুসংগঠিত করা, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করা এবং ১৫ই আগস্টের হত্যাকাণ্ডের বিচার করার সংগ্রামে নেমেছিলেন। দলকে সুসংগঠিত করার জন্য তিনি সকল দুঃখ-কষ্ট বুকে নিয়ে রাত-দিন পরিশ্রম করে সমগ্র দেশ সফর করে বেড়িয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের জন্য, গণতন্ত্রের জন্য এবং জাতির পিতার হত্যার বিচারের জন্য শেখ হাসিনাকে কঠোর পরিশ্রম আর সংগ্রাম করতে হয়েছে। পুড়ে পুড়ে খাটি হয়েছেন তিনি। তাঁর জীবনের সংগ্রাম এবং স্বজন হারানোর অভিজ্ঞতা তাকে শুধু একজন ত্যাগী জননেত্রী হিসেবেই সৃষ্টি করেনি, বিশ্বের একজন অন্যতম সফল রাষ্ট্রনায়ক হিসেবেও প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

আন্দোলন করে সরকার হঠানোর দিবাস্বপ্ন দেখছে বিএনপি: কাদের

অনলাইন ডেস্ক

আন্দোলন করে সরকার হঠানোর দিবাস্বপ্ন দেখছে বিএনপি: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আন্দোলন করে সরকার হঠানোর দিবাস্বপ্ন দেখছে বিএনপি। অতীতের মতো যদি আগুন সন্ত্রাসের পুনরাবৃত্তি করা হয় তাহলে বিএনপি আবারও পিছিয়ে যাবে।

আজ সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা  বলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক উপকমিটি এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

তিনি বলেন, বিএনপি ও তার দোসরেরা দেশের উন্নয়ন দেখে না, কারণ তারা দিনের আলোতে রাতের অন্ধকার দেখে। আগামীতে যখন এক এক করে দেশের সব মেগা প্রকল্প চালু হবে, বিএনপি তখন চোখে সরষে ফুল দেখবে।

আগামী জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কিন্তু, বিএনপির নেতা কে? বাংলাদেশের রাজনীতিতে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনার বিকল্প কে? টেমস নদীর ওপারে থেকে একজন পলাতক আসামিকে নেতা নির্বাচন করলে জনগণ তা মেনে নেবে না।’

৭৫ পরবর্তী বাংলাদেশের রাজনীতিতে সবচেয়ে ঝুঁকিময় রাজনীতিকের নাম শেখ হাসিনা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এখনও ষড়যন্ত্রের বুলেট তাঁর পিছু ছাড়েনি। তবুও বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা এগিয়ে যাচ্ছেন বাবার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে।

আরও পড়ুন:


ছেলের জন্মদিনে শাকিব খানের আবেগঘন স্ট্যাটাস

দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে দুঃসময় যাচ্ছে: ফখরুল

অনিবন্ধিত সুদের ব্যবসা বন্ধের নির্দেশ

জার্মানিতে মেরকেলের দলকে হারিয়ে মধ্য বামপন্থী দলের বিজয়


কৃষি ও সমবায় বিষয়ক উপকমিটির চেয়ারম্যান কৃষিবিদ ড. মির্জা আবদুল জলিলের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব ফরিদুন্নাহার লাইলীর সঞ্চালনায় সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী এবং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

আপনি দিনের ভোট রাত্রে করেন, লজ্জা নেই: রিজভী

অনলাইন ডেস্ক

আপনি দিনের ভোট রাত্রে করেন, লজ্জা নেই: রিজভী

ষড়যন্ত্র তত্ত্বের মহামারিতে আক্রান্ত হয়ে বসে আছেন ওবায়দুল কাদের সাহেব। এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেছেন, তারা এত অন্যায়-অবিচার করেছেন যে এখন এসব কথা বলে জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে চায়। এমন কোনো ওষুধ নাই এই মহামারি থেকে ওবায়দুল কাদের সাহেবকে বাঁচাবে।

আজ সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সেপ্টেম্বর দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অবসরপ্রাপ্ত আ স ম হান্নান শাহের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণসভায় রিজভী আরও বলেন, আওয়ামী লীগের নেতারা প্রায়ই বলেন বিএনপি পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসতে চায়। সব দরজা যখন বন্ধ হয়ে যায় তখন বিএনপি গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনার জন্য সামনের দরজা দিয়ে হোক আর যে দরজাই হোক কাঠের লোহার দরজা ভেদ করে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।

শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন সেখানে আন্দোলন হয়েছে। তাই তিনি বলেছেন দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। দেশে যখন ভোট চুরি হয়, দুর্নীতি হয়, মা বোনরা ধর্ষণের শিকার হয় তখন ভাবমূর্তি নষ্ট হয় না? প্রধানমন্ত্রী আপনার কি লজ্জা নেই? আপনি দিনের ভোট রাত্রে করেন?’ বলেন রিজভী।

আরও পড়ুন: 


বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেলপথ নির্মাণে সময় বাঁচবে ৩ ঘণ্টা

দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে দুঃসময় যাচ্ছে: ফখরুল

প্রকাশ হলো এসএসসি ও এইচএসসির পরীক্ষার রুটিন

নিজের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দিলেন বাইকার


রিজভী বলেন, হান্নান শাহ প্রমাণ করেছেন সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে থাকলে অন্যায়কারীরা পরাজিত হন। ফখরুদ্দিন-মঈন উদ্দীন পরাজিত হয়েছেন। আজকে হান্নান শাহ আমাদের মাঝে নেই কিন্তু তিনি বিজয়ী হয়েছেন গণতন্ত্রের পক্ষে। সেই সময় যদি আন্দোলন অব্যাহত না থাকতো তাহলে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে আজও কারাগারে থাকতে হতো। সেই সময় ব্রিগেডিয়ার হান্নান শাহসহ কিছু লোক আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছেন বলে তারা মুক্তি পেয়েছেন। কিন্তু সেই আন্দোলনের ধারা অব্যাহত নেই।

তিনি আরো বলেন, এখন আওয়ামী লীগ নতুন করে ষড়যন্ত্র করছে কিছু মিডিয়ার সাহায্যে যে ইভ্যালির টাকা লন্ডনে গিয়েছে এরকম মিথ্যা প্রচার তারা চালানোর চেষ্টা করছে এর বিরুদ্ধে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে আবারও গর্জে উঠতে হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর