ভারতের উপহারের ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স পেট্রাপোলে

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের উপহারের ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স পেট্রাপোলে

মহামারী করোনাভাইরাস যৌথভাবে মোকাবিলার অংশ হিসেবে বাংলাদেশকে দেওয়া ভারতের উপহারের ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স আজ বৃহস্পতিবার পেট্রাপোলে পৌঁছেছে। বেনাপোল স্থলবন্দরের আনুষ্ঠানিকভাবে ছাড়পত্র পাওয়ার পর খুব শিগগির অ্যাম্বুলেন্সগুলো ঢাকায় পৌঁছাবে।

 ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশন আজ বৃহস্পতিবার এক বার্তায় এ তথ্য জানিয়েছে।

ভারতীয় হাইকমিশন জানিয়েছে, ১০৯টি অ্যাম্বুলেন্সের বাকিগুলো সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে পর্যায়ক্রমে পৌঁছাবে। এই অ্যাম্বুলেন্সগুলো কোভিড মহামারি মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকারের ব্যাপক প্রচেষ্টাকে সমর্থন করার উদ্দেশ্যে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:


পরীমনি কাণ্ডে থমথমে ‘সুনসান এফডিসি’

প্রজ্ঞাপন জারি, রোববার ব্যাংক বন্ধ


 

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ বছরের ২৬ ও ২৭ মার্চ বাংলাদেশ সফরের সময় এ দেশের স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়ন বিশেষ করে কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলার যৌথ প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ সরকারকে ১০৯টি লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্স উপহার দেওয়ার ঘোষণা করেছিলেন। পেট্রাপোলে যে ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স পৌঁছেছে, ওগুলো তারই অংশ।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ভাষাসৈনিক আহমদ রফিকের পাশে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়

অনলাইন ডেস্ক

ভাষাসৈনিক আহমদ রফিকের পাশে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়

বিশিষ্ট ভাষাসৈনিক, বুদ্ধিজীবী, গবেষক, প্রাবন্ধিক আহমদ রফিকের পাশে দাঁড়িয়েছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

আজ সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদের নির্দেশনায় মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে অসুস্থ আহমদ রফিকের হাতে তিন লক্ষ টাকার চেক তুলে দেয়া হয়। সহযোগিতার জন্য আহমদ রফিক এসময় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে বলেন, আহমদ রফিক একাধারে বরেণ্য ভাষাসংগ্রামী, বুদ্ধিজীবী, লেখক, প্রাবন্ধিক ও গবেষক। তিনি আমাদের মহান মনীষী। ভাষা আন্দোলনে প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ করেছেন। বাঙালির প্রতিটি আন্দোলনে তাঁর ভূমিকা ছিল অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। সৃষ্টিশীল লেখা ও গবেষণা ছাড়াও তিনি জাতীয় ক্ষেত্রে অনন্য ভূমিকা পালন করেছেন। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে তার অসামান্য অবদান রয়েছে। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

কে এম খালিদ বলেন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় আহমদ রফিকের পাশে আছে। ভবিষ্যতেও তাঁর সুচিকিৎসাসহ যেকোন সহায়তার প্রয়োজনে মন্ত্রণালয় পাশে থাকবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক

‘কুয়াকাটা হবে আন্তর্জাতিক মানের সীবীচ’

অনলাইন ডেস্ক

‘কুয়াকাটা হবে আন্তর্জাতিক মানের সীবীচ’

প্রধানমন্ত্রী দক্ষিনাঞ্চলের মানুষের কথা চিন্তা করেন বলেই পায়রা বন্দর ও পদ্মা সেতু হয়েছে। এখানে এখন অনেক বিদেশী আসবে।আমরা কুয়াকাটা সীবিচটাকে আরো ভালো মানের করতে চাই। এটা একটি আন্তর্জাতিক মানের নান্দনিক সীবিচ হবে বলে জানিয়েছেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কর্নেল (অব.)জাহিদ ফারুক।

বৃহষ্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর)বিকেলে সাগরকন্যা কুয়াকাটার সৈকত পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.)জাহিদ ফারুক এসব কথা বলেন। 

তিনি আরও বলেন,কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের জন্য আমাদের প্রকল্প চলমান রয়েছে।কক্সবাজার বীচের জন্যও আমাদের প্রকল্প আছে।আর এখানে ৯৫০ কোটি টাকার মতো একটি প্রকল্প চলমান আছে। 

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন,নদী শাসনসহ যে কোন কাজে জনগনের সহযোগীতা প্রয়োজন। বিগত সময়ে এখানে যে জিও ব্যাগ ফেলা হয়েছিলো,সেগুলোকে লোহা দিয়ে,সাইকেলের চাবি,সিগারেটের আগুন দিয়ে ছিদ্র করে দিয়েছিলো। আমাদের যারা প্রকৌশলী রয়েছেন তাদের আন্তর্জাতিক মানের সীবিচ তৈরি করার অভিজ্ঞতার জন্য মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলীদের নিয়ে নেদারল্যান্ডে পরিদর্শনে গেছেন।তারা সেখানকার সীবিচ দেখে এসেছে এবং সেই গুনগতমানে কক্সবাজার এবং কুয়াকাটায় কাজ করবো। রাতারাতি কোন কাজ করলে হবে না তা টেকসই হবে না। সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রকল্প পাশ ও কাজ করতে চাই।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

এ-সময় উপস্থিত ছিলেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) রোকন উদ-দৌলা, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক ফজলুর রশিদ,পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আলমগীর হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান,অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী নুরুল ইসলাম সরকার, তত্তাবোধক প্রকৌশলী মজিবুর রহমান, নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃআরিফ হোসেন কুয়াকাটা পৌরসভার সাবেক মেয়ের আ. বারেক মোল্লা প্রমূখ।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

মোটরসাইকেলে শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার পথে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

মোটরসাইকেলে শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার পথে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

ফাইল ছবি

সুনামগঞ্জের টাংগুয়ার হাওরে বনভোজন শেষে মোটরসাইকেলে করে স্ত্রীকে নিয়ে পাবনায় শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার পথে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসের নিচে চাপা পড়ে স্বামী-স্ত্রী নিহত হয়েছেন।

সিরাজগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট সাইফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কের কামারখন্দ উপজেলার সীমান্ত বাজার এলাকার এ দুর্ঘটনা ঘটে। এদিকে, দুর্ঘটনার পর বাসের চালক ও তার সহকারী পালিয়ে গেছে। বাস ও মোটরসাইকেলটি জব্দ করা হয়েছে বলেও জানান ট্রাফিক সার্জেন্ট সাইফুল ইসলাম।

নিহতরা হলেন- সৈয়দ আব্দুল্লাহ (৩০) ও কেয়া খাতুন (২১)। তাদের বাড়ি চট্টগ্রামে বলে জানা গেছে।

ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট সাইফুল ইসলাম জানান, সুনামগঞ্জের টাংগুয়ার হাওরে বনভোজন শেষে মোটরসাইকেলে করে স্ত্রীকে নিয়ে পাবনায় শ্বশুরবাড়ি যাচ্ছিলেন আব্দুল্লাহ। পথে তার মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঢাকাগামী একটি বাসের নিচে চলে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই আব্দুল্লাহ এর মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

আহত নারীকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়ায় পাঠানো হলে পথে তার মৃত্যু হয়। লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে বলে জানা তিনি।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সেতু উদ্বোধন হলেই কুয়াকাটা পর্যন্ত ফেরিবিহীন যোগাযোগ

রাহাত খান, বরিশাল

একটি সেতু পাল্টে দিয়েছে গোটা এলাকার চেহারা। যে সেতু স্বপ্নেও কোন দিন ভাবেননি স্থানীয়রা সেই সেতু এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়। বরিশাল-পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কের ২৬তম কিলোমিটার অংশে লেবুখালীর পায়রা নদীর উপর নির্মিত পায়রা সেতুর কারনে ভাগ্য বদলেছে স্থানীয়দের। এর ফলে দেশের সর্বদক্ষিনের কুয়াকাটা পর্যন্ত ফেরী বিহীন যোগাযোগ স্থাপিত হবে, বাড়বে সড়ক যোগাযোগ এবং সৃস্টি হবে কর্মসংস্থানের- এমনটি প্রত্যাশা সংশ্লিস্টদের। 

১ হাজার ১শ’ ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে দেশের অন্যতম নান্দনিক ‘পায়রা সেতুর’ মূল অবকাঠামো নির্মান শেষ হয়েছে অনেক আগেই। এখন চলছে সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ। যে কোন সময় প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের অপেক্ষায়। 

এই সেতুর বদৌলতে পাল্টে গেছে পুরো এলাকার চেহারা। সেতুর দুই পাশের ঢালে গড়ে উঠেছে অসংখ্য দোকানপাঠ-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। অনেকটাই শহরের রূপ ধারন করেছে এক সময়ের অবহেলিত লেবুখালী। আগামীতে এই এলাকা আরও জমজমাট হবে এমন আশায় সেতুর দুই তীরে হিড়িক পড়েছে জমি কেনার। কয়েক গুণ বেড়ে গেছে জমির দাম। একটি সেতুর কারনে পাল্টে গেছে স্থানীয়দের জীবনমান। বদলেছে ভাগ্য।
বরিশাল সড়ক বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, প্রধানমন্ত্রীর উপহারের এই সেতুর কারনে আমূল পাল্টে যাবে দক্ষিনের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। একটি বর্নাঢ্য অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সেতু উদ্বোধনের প্রহর গুনছেন তারা।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

গত মঙ্গলবার বিকেলে এই সেতু উদ্বোধনের সব শেষ প্রস্তুতি পরিদর্শন করেন বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার। পরিদর্শন শেষে তিনি বলেন, এই সেতু শুধু যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন-ই নয়, কর্মসংস্থান, পর্যটনের বিকাশ এবং দেশের সামগ্রীক অর্থনৈতিক বিকাশে (জিডিপি) গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রাখবে। 

কুয়েত ফান্ড ফর আরব ইকোনমিক ডেভলপমেন্ট, কেএফএইডি এবং ওপেক ফান্ড ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভলপমেন্টের, ওএফআইডি যৌথ অর্থায়নে ২০১৬ সালের ২৪ জুলাই এই সেতু নির্মান কাজ শুরু হয়। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

অবশেষে প্রেমিকাকে বিয়ে করতে বাধ্য হলো সেই ছাত্রলীগ নেতা

অনলাইন ডেস্ক

অবশেষে প্রেমিকাকে বিয়ে করতে বাধ্য হলো সেই ছাত্রলীগ নেতা

রংপুরের পীরগাছা উপজেলার ছাওলা ইউনিয়নের শিবদেব গ্রামের ইট ভাটার মালিক মৃত মিঠু মিয়ার মেয়ে তুলি আক্তার ও শিবদেব ভবানীপুর গ্রামের মো. আজিজুল হকের ছেলে মেহেদী হাসান রিপন দীর্ঘদিন ধরে প্রেম করে আসছিলেন। প্রেমের টানে রিপন গতকাল সোমবার রাতে তুলির সঙ্গে দেখা করতে যান। রিপন ছাওলা ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পাওটানাহাট মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক।

ওই রাতে রিপন তুলির পরিবারের কাছে ধরা পড়লে রিপন তুলির পরিবারের কাছে কথা দিয়ে আসেন তুলিকে তিনি বিয়ে করবেন। কিন্তু রিপন কথা না রেখে পালিয়ে যান। পালিয়ে গিয়েও শেষ রক্ষা হলো না তার। কারণ এদিকে তুলি আক্তার বিয়ের দাবিতে রিপনের বাড়িতে অবস্থান শুরু করেন। অর্ধদিবস অবস্থান করার পর দুই পরিবারের সমঝোতায় বিয়ের রেজিস্ট্রি সম্পন্ন হয়েছে। 


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


 

মঙ্গলবার রাতে দুই পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে ৯ লাখ টাকা দেনমোহরে এ বিয়ের রেজিস্ট্রি সম্পন্ন হয়।  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ছাওলা ইউনিয়নের জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক মো. শামসুজ্জোহা চঞ্চল। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর