আগামী এক সপ্তাহে আরও এক কোটি টিকা দেয়া হবে : হানিফ

অনলাইন ডেস্ক

আগামী এক সপ্তাহে আরও এক কোটি টিকা দেয়া হবে : হানিফ

করোনা দুর্যোগকালে আওয়ামী লীগই জনগণের সংকটে পাশে দাঁড়িয়েছে অথচ বিএনপি টেলিভিশনের সামনে বসে মিথ্যাচার করে জাতিকে বিভ্রান্ত করছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবউল আলম হানিফ। 

তিনি বলেন, গতকাল বিএনপি বলেছে, টিকা নিয়ে নাকি সরকার ধোয়াসা সৃষ্টি করেছে। সরকারের পক্ষ থেকে টিকা নিয়ে কোন বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা হয় নাই। আমাদের সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা করোনার টিকা আবিষ্কারের পর থেকে মানুষকে টিকার আওতায় আনতে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। ইতোমধ্যে এক কোটি মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহে আরও এক কোটি টিকা দেয়া হবে। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ডিসেম্বরের মধ্যেই দেশের অধিকাংশ মানুষকে টিকা দেয়া হবে এবং সেই লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে।

শনিবার (৭ আগস্ট) সকাল ১২ টায় রাজধানীর উত্তরখানের কাচকুড়া শিক্ষা কমপ্লেক্সে অসহায় ও দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। শোকাবহ আগস্ট উপলক্ষে ঢাকা মহানগর উওর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এই আলোচনা সভা ও ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় -দরিদ্রের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

করোনা মহামারীতে মানুষকে সচেতন করার উদ্দেশ্যে হানিফ বলেন,করোনা থেকে রক্ষা পাওয়ার সবচেয়ে বড় উপায় হচ্ছে মাস্ক ব্যবহার করা। আমরা যখনই কথা বলি তখন আমাদের থুতু ও লালার সূক্ষকণিকা আশেপাশের লোকজনকে সংক্রমিত করে।  এক্ষেত্রে করোনা আক্রান্ত রোগীর লালা -থুতু আশেপাশে সুস্থ মানুষের সাথে মিশলে সুস্থ মানুষও এ ভাইরাসে সংক্রামিত হচ্ছেন। কাজেই মাস্ক পরা থাকলে আমাদের লালা -থুতু মাস্ক এর ভিতরে আটকে যাচ্ছে। ফলে আশেপাশের লোকজন সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। ঘরের বাইরে যেখানে যাওয়া হোক না কেন মাস্ক পরা অবশ্যই বাধ্যতামূলক করতে হবে। এছাড়া বাড়ির নিকটস্থ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে টিকা নিতে হবে। টিকা দেয়া হলেও আমাদের মাস্ক পরিধান করতে হবে। টিকার দেয়ার পরে মাস্ক পরিধান করলে সংক্রমিত হবে না জনগণ।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এক বক্তব্যের প্রেক্ষিতে হানিফ এমপি বলেন ,মির্জা ফখরুল বলেছেন বিএনপি কোটি কোটি মানুষকে করোনা মহামারীতে সহায়তা করেছে। তার এ বক্তব্য শুনে আমি অবাক হয়ে গেলাম। আপনাদের কোন নেতাকর্মী কোন এলাকায় গিয়ে জনগণকে সহায়তা করেছে বলেন তো? স্বপ্নের মাধ্যমে জনগণকে সহায়তা করছেন, সেটা আবার বলে বেড়াচ্ছেন।

‘বিএনপি' নিয়ে তিনি বলেন, এ দলটি নিয়ে কথা বলার কোন রুচি আমার ছিল না। তারপরেও এই দলের একজন নেতা টিকা নিয়ে গতকাল বিভ্রান্তিকর একটি তথ্য দিয়েছেন। এরা ক্ষমতায় থাকাকালে জনগণের সম্পদ লুট করেছে, সন্ত্রাস-নাশকতা করেছে। হাওয়া ভবনে থেকে তারেক রহমানসহ বিএনপি যে দুর্নীতি করেছে সেই জন্য জনগণ তাদের নির্বাসনে পাঠিয়ে দিয়েছে। তাদের এখন কোন সাংগঠনিক অস্তিত্ব নেই। এরা এখন মিডিয়ার সামনে বসে মিথ্যাচার করে।

বক্তব্যের শুরুতে হানিফ শোকের মাস আগস্টকে স্মরণ করে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ করেন। 

সমাজের বিত্তশালীদের উদ্দেশ্যে হানিফ বলেন, আপনারা যার যার অবস্থান থেকে এসে অসহায় জনগণের পাশে এই কঠিন সময়ে দাঁড়ান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, শেখ হাসিনা যতদিন ক্ষমতায় আছেন ততদিন কোন মানুষ না খেয়ে থাকবে না। কাজেই আমাদেরকে অসহায় মানুষকে খুঁজে বের করে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা এই সংকট কাটিয়ে উঠবো ইনশাল্লাহ।

আরও পড়ুন:


আবারও বাড়ল লকডাউন

জানানো হলো দোকানপাট খোলার তারিখ

টিকা নেওয়া ছাড়া কেউ অফিস-দোকান-ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আসতে পারবে না


 

উত্তরখান ইউনিয়ন পরিষদ আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং উত্তরখান থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জয়নাল আবেদীন এবং উত্তরখান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আতিউর রহমান মিলনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব হাবিব হাসান এমপি, সহ-সভাপতি মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক রানা প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক এসএম তোফাজ্জল হোসেন, শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক খসরু চৌধুরী, সাংস্কৃতিক সম্পাদক এডভোকেট রোকেয়া সুলতানা পলি ,দপ্তর সম্পাদক উইলিয়াম প্রলয় সমাদ্দার বাপ্পি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মিনহাজুল ইসলাম মিজু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক নাজমুল আলম ভূঁইয়া জুয়েল, শ্রম সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম মজনু, সহদপ্তর সম্পাদক আব্দুল আউয়াল শেখ, কার্যনির্বাহী সদস্য মো. মিজানুর রহমান চাঁন, আতাউর রহমান খান বোরহান, হিমাংশু কিশোর দত্ত ও আফরোজা খন্দকারসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পরিবেশ রক্ষায় ঐক্যবদ্ধতা পৃথিবীকে বাঁচাবে : তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

পরিবেশ রক্ষায় ঐক্যবদ্ধতা পৃথিবীকে বাঁচাবে :  তথ্যমন্ত্রী

পরিবেশ রক্ষায় ঐক্যবদ্ধতা পৃথিবীকে আরো বেশি দিন বাঁচিয়ে রাখতে সহায়ক হবে বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং পরিবেশ গবেষক ড. হাছান মাহমুদ। 

শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর র‍্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে রোটারি ইন্টারন্যাশনাল এবং ট্রিপল নাইন গ্লোবাল সংস্থা দু'টির যৌথ আয়োজনে ফ্রেন্ডস অভ আর্থ এবং মিস আর্থ বাংলাদেশ দু'টি পরিবেশবান্ধবতা সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, মানব সম্প্রদায়ের একমাত্র ধারক এই পৃথিবী গ্রহকে বাঁচিয়ে রাখতে তার প্রকৃতি ও পরিবেশ রক্ষার বিকল্প নেই। এই কাজে প্রয়োজন সকলের সম্মিলিত উদ্যোগ। 

তিনি বলেন, উন্নয়নশীল বিশ্বে নারীরা সরাসরি প্রকৃতি ও পরিবেশের সাথে সম্পৃক্ত। পরিবেশের ক্ষতিতে তারা সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হন। তাই এক্ষেত্রে নারীদের সচেতনভাবে এগিয়ে আসার  বিকল্প নেই। 

রোটারি ডিস্ট্রিক্ট গভর্নর মোতাসিম বিল্লাহ ফারুকীর সভাপতিত্বে মিস আর্থ বাংলাদেশ এর ন্যাশনাল ডিরেক্টর নায়লা বারী ও প্রধান উপদেষ্টা নোমান রবিনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পরিবেশ গবেষক ড. এ আতিক রহমান। 


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


অনুষ্ঠানে পাটের আঁশ থেকে পলিথিনের বিকল্প আবিস্কারক ড. মোবারক আহমেদ খান, প্রকৃতি ও জীবন সংগঠনের কর্ণধার আব্দুল মুকিত মজুমদার, আবদুল্লাহ আবু সাঈদ,   রোটারি ডিস্ট্রিক্ট গভর্নর মোতাসিম বিল্লাহ ফারুকী, পরিবেশরক্ষা সংগঠক নায়লা বারী এবং ড. এস আই খানকে ফ্রেন্ডস অভ নেচার এবং উম্মে জমিলাতুন নাইমাকে প্রথম মিস আর্থ বাংলাদেশ সম্মানে ভূষিত করেন অতিথি ও আয়োজকবৃন্দ। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ইসিতে সরকারের একটা ‘শয়তান’ থাকলে সেখানে ফেরেস্তাও অসহায়!

অনলাইন ডেস্ক

ইসিতে সরকারের একটা ‘শয়তান’ থাকলে সেখানে ফেরেস্তাও অসহায়!

দেশে এখন প্রয়োজন একটাই দাবী শেখ হাসিনা সরকারের পতন। এটার মধ্যে অন্য কোনো মসলা না লাগানো ভালো বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

শুক্রবার দুপুরে এক আলোচনা সভায় এই মন্তব্য করেন তিনি।ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ের মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম দলের উদ্যোগে ‘নির্দলীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবি’ শীর্ষক এই আলোচনা সভা হয়।

নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন সম্পর্কে এই বিএনপি নেতা বলেন, নির্বাচন কমিশন। পাঁচটি ফেরেস্তা দিয়ে যদি একটা নির্বাচন কমিশন হয়। আর সরকারে যদি একটা ‘শয়তান’ থাকে তাহলে ফেরেস্তাও অসহায়, কিছু করার নাই। সুতরাং নির্বাচন কমিশন কী হবে না হবে- এই তর্কে সময় দেওয়ার প্রয়োজন নাই।

বিএনপির এই নেতা বলেন,দেশে এত সমস্যা, সব সমস্যা নিয়ে কথা না বলে যেই সমস্যা সমাধানের যে অন্তরায় তাকে যদি আমরা পদত্যাগ করাতে পারি, তাকে যদি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা থেকে সরাতে পারি, তাহলে জনগণই সব সমস্যা সমাধানের পথ তৈরি করবে। সুতরাং আমাদের সব চিন্তা-চেতনা-সামর্থ্য একত্রিত করে আমরা একদফায় থাকি। অন্য কোনো দাবি, অন্য কোনো দফা নয়।

সরকারপ্রধান শেখ হাসিনার উদ্দেশে তিনি বলেন, জোর করে ক্ষমতায় থাকা যায়, কিন্তু ক্ষমতা থেকে যাওয়ার পথটা যদি সুন্দর না হয় পরিণতি ভয়াবহ হয়। অনেক কিছু করছেন। আপনি যদি স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করে আহ্বান করেন গণতন্ত্রের পথে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের, তাহলে আপনার বিরুদ্ধে খ্যাপা মানুষগুলো কিছু সময়ের জন্য হলেও শান্ত হবে। কারণ বাংলাদেশের মানুষ ক্ষমা করতে পারে, তারা খুব একটা এক্সট্রিম না।


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


 

গয়েশ্বর বলেন, দীর্ঘ দিনের লড়াইয়ে যে কষ্ট আছে আমাদের সেটা যার জন্য লড়াই করছি, সেই কাজ যদি আপনি এগিয়ে দেন, তাহলে আমাদের রুষ্ট মনোভাবটা পরবর্তী পর্যায়ে প্রতিফলিত নাও হতে পারে। সেটাই হলো সবচেয়ে উত্তম পথ।

সংগঠনের সভাপতি জনি হোসেন সরকারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, ছাত্র দলের সদ্য কারামুক্ত ছাত্রদলের সাবেক নেতা ইসহাক সরকার, কৃষক দলের সাবেক নেতা রাকিকুল ইসলাম রিপন প্রমুখ নেতারা বক্তব্য দেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আবারও শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে : বদিউল আলম

অনলাইন ডেস্ক

দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আবারও শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে : বদিউল আলম

দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রাষ্ট্রক্ষমতায় আনতে হবে বলে জানিয়েছেন যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ বদিউল আলম।  

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঝালকাঠি শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি কথা বলেন।

বদিউল আলম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রক্ষমতায় আছেন বলেই দেশে আজ ধারাবাহিক উন্নয়ন হচ্ছে। বিশ্বব্যাংকের মুখে চুনকালি দিয়ে দেশের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু বাস্তবে রূপ দিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা। তাই দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রাষ্ট্রক্ষমতায় আনতে হবে।  

প্রধানমন্ত্রীকে আবার রাষ্ট্রক্ষমতায় আনতে হলে সারা দেশের তৃণমূলের যুবলীগকে আরও শক্তিশালী, সুশৃঙ্খল, নেতৃত্ব সৃষ্টি ও সুসংগঠিত হতে হবে বলেও জানান তিনি।   

যুবলীগের এই নেতা বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ এখন মানবিক যুবলীগ। করোনাকালীন প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিলের তদারকিতে দেশের অসহায়দের মাঝে ত্রাণ সহায়তা, চিকিৎসাসেবা, করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেছে যুবলীগ। পাশাপাশি বৃক্ষরোপণ, প্রান্তিক কৃষক পরিবারের ধান কাটাসহ নানামুখী সামাজিক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।  


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


ঝালকাঠি জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক রেজাউল করিম জাকিরের সভাপতিত্বে এবং সদস্য মো. কামাল শরীফের সঞ্চালনায় বর্ধিত সভায় আরও বক্তব্য দেন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মো. মাজহারুল ইসলাম, যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মানিক লাল ঘোষ, সাইদুর রহমান জুয়েল, মো. তানিন তালুকদার প্রমুখ। যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ইমরান হোসেন মিয়াসহ জেলা যুবলীগ ও চার উপজেলার নেতারা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।  

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সরকার-প্রশাসনের চারদিকে দুর্নীতির চোরাবালি তৈরি হয়েছে: ইনু

অনলাইন ডেস্ক

সরকার-প্রশাসনের চারদিকে দুর্নীতির চোরাবালি তৈরি হয়েছে: ইনু

শুধু বাইরের শত্রুই নয়, ঘরের শত্রু ঘরকাটা ইঁদুর-উইপোকাদের মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীকে সতর্ক হতে বলেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

তিনি বলেন, শত্রুদের ষড়যন্ত্র এবং বন্ধুদের সমালোচনার পার্থক্য সরকার ও প্রধানমন্ত্রীকে বুঝতে হবে।

আজ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। জাসদের জাতীয় কমিটি দুই দিনব্যাপী এক সভার আয়োজন করে। সভায়  তিনি সভাপতিত্ব করেন।

ইনু বলেন, একদিকে বিএনপি তাদের পুরাতন সঙ্গী জামায়াত জঙ্গিদের সঙ্গে নিয়ে অসাংবিধানিক সরকার আনার অস্বাভাবিক রাজনীতির পথে থেকেই নতুন করে জল ঘোলা করা শুরু করেছে। সরকার প্রশাসনিক ও আইনগতভাবে জঙ্গিদের কাবু করলেও জঙ্গিদের বিরুদ্ধে সর্বব্যাপী রাজনৈতিক লড়াইয়ের ঘাটতির কারণে জঙ্গিবাদের উৎপাদন ও পুনরুৎপাদন অব্যাহত রয়েছে। জঙ্গিবাদীরা বাংলাদেশ রাষ্ট্র-সংবিধান-মুক্তিযুদ্ধকে চ্যালেঞ্জ করছে। 

জাসদ সভাপতি বলেন, সরকার-প্রশাসনের চারদিকে দুর্নীতির চোরাবালি তৈরি হয়েছে। দুর্নীতির সিন্ডিকেট সরকারকে ঘিরে ফেলছে। গুন্ডাতন্ত্রের দাপট চলছে। জাতীয় অর্থনীতির সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং এত উন্নয়নের পরও নীতি-কাঠামোগত দুর্বলতা এবং মুক্তবাজার অর্থনীতির মোহ থেকে বের হতে না পারায় সামাজিক-অর্থনৈতিক বৈষম্য ভয়ংকরভাবে বেড়েই চলেছে।

আরও পড়ুন:


ফুটবলে ক্যারিশমা দেখিয়ে অষ্টমবারের মতো গিনেস বুকে বাংলাদেশের ফয়সাল

ইসরায়েলের আয়রন ডোমের জন্য ১০০ কোটি ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বব্যাপী স্থিতিশীল খাদ্য ব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!


এ সময় জঙ্গিবাদ-দুর্নীতির সিন্ডিকেট-গুন্ডাতন্ত্র-বৈষম্য মোকাবিলায় সব গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ রাজনৈতিক অবস্থান গ্রহণ করার আহ্বান জানান ইনু।

সভায় দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, কার্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট রবিউল আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসংঘ সফর নিয়ে রিজভীর সমালোচনা

অনলাইন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসংঘ সফর নিয়ে রিজভীর সমালোচনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাতিসংঘ সফর নিয়ে কড়া সমালোচনা করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। 

তিনি বলেন, জাতিসংঘে আপনি (প্রধানমন্ত্রী) রোহিঙ্গাদের কথা বলেন না। তাহলে আপনি সেখানে কিসের কথা বলতে গেছেন? দেশের স্বার্থে জনগণের স্বার্থে আজকে দেশের যে সঙ্কট রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য যে উদ্যোগ থাকার দরকার ছিল, যে কূটনৈতিক তৎপরতা থাকার দরকার ছিল সেই কূটনৈতিক তৎপরতা আপনি দেখাতে পারেননি। আপনি চারিদিক থেকে ব্যর্থ।

আজ দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক স্মরণ সভায় এসব কথা বলেন তিনি। ছাত্রদল নেতা প্রয়াত নিশতাক আহমেদ রাখীর স্মরণে রাজশাহী ইউনিভার্সিটি ন্যাশনালিস্ট এক্স স্টুডেন্ট’স অ্যাসোসিয়েশন (রুনেসা) শোক সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।

আরও পড়ুন:


ফুটবলে ক্যারিশমা দেখিয়ে অষ্টমবারের মতো গিনেস বুকে বাংলাদেশের ফয়সাল

ইসরায়েলের আয়রন ডোমের জন্য ১০০ কোটি ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বব্যাপী স্থিতিশীল খাদ্য ব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!


সরকার ভীতি ও শঙ্কা থেকেই করোনার অজুহাতে দীর্ঘদিন দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে রেখেছিল বলে মন্তব্য করে রিজভী বলেন, আপনারা বিশ্ববিদ্যালয় প্রায় দুই বছর বন্ধ রাখলেন সেই সঙ্গে স্কুল কলেজ ও বন্ধ রাখলেন। এখন ৫ অক্টোবর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তারা নাকি খুলবেন এবং ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সবাইকে নাকি টিকা নিতে হবে এবং টিকা কার্ড নিয়ে সবাইকে নাকি যেতে হবে। তারপর বলছেন, সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নজরদারিতে থাকবে। কি চলছে দেশে? শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নজরদারিতে থাকবে কেন? তাহলে এতদিন আপনারা যে করোনার অজুহাতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখলেন এইটা তাহলে রাজনৈতিক উদ্দেশে। এইটা করোনার বিষয় নয়, একধরনের ভীতি থেকে, এক ধরনের শঙ্কা থেকে। কারণ আপনার মনের মধ্যে দুর্বলতা, আপনি নিশিরাতের প্রধানমন্ত্রী। আপনার সরকার নিশিরাতের। পুলিশ-র‌্যাব দিয়ে আপনি দেশ চালাচ্ছেন। এজন্যই আপনারা আতঙ্কিত যে কখন কী হয়ে যায়।

সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ বাহাউদ্দিন বাহারের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিলে বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল খালেক, ওলামা দলের আহ্বায়ক শাহ মো. নেছারুল হক, আমিনুল ইসলাম, মৎসজীবী দলের সদস্য সচিব আব্দুর রহিম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর