‘বঙ্গমাতা বাঙালি জাতির অহংকার‌’
‘বঙ্গমাতা বাঙালি জাতির অহংকার‌’

‘বঙ্গমাতা বাঙালি জাতির অহংকার‌’

অনলাইন ডেস্ক

চীনের কুনমিংয়ে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯১তম জন্মবার্ষিকী যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করা হয়েছে।  

অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গমাতার প্রতি যথাযথ  শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হয় এবং পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত ও দোয়া করা হয়। বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাষ্ট্রপ্রতি এবং প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক প্রেরিত বাণী পাঠ করা হয়।

কনসাল জেনারেল  এ এফ এম আমিনুল ইসলাম বঙ্গমাতার প্রতি যথাযথ শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে তার জীবনী পাঠ করেন এবং  আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

তিনি বলেন, দেশ ও মানুষের কল্যাণে বঙ্গবন্ধুর চিন্তাধারা বাস্তবায়নে বঙ্গমাতা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। বাঙালির প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিব বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে তাকে পরামর্শ ও সহযোগিতা দিয়েছেন।  

আরও পড়ুন: 

সেপ্টেম্বরে ‘খুলছে’ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করবে নাসিরের পরিবার 

আবারও আসতে পারে ‘কঠোর লকডাউন’: ওবায়দুল কাদের


 

তিনি সাংসারিক দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুকে প্রেরণা, শক্তি ও সাহস যুগিয়ে স্বাধীনতা এবং মুক্তির সংগ্রামকে সঠিক লক্ষ্যে নিয়ে যেতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। দেশ ও জাতির জন্য তার অপরিসীম ত্যাগ, সহযোগিতা ও বিচক্ষণতার কারণেই জাতি তাকে বঙ্গমাতা উপাধিতে ভূষিত করেছে। বঙ্গমাতা বাঙালি জাতির অহংকার এবং নারী সমাজের প্রেরণার উৎস।

news24bd.tv/আলী