পদ্মা সেতুতে ধাক্কা দেয়া ফেরির মাস্টার ও সুকানি বরখাস্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক

পদ্মা সেতুতে ধাক্কা দেয়া ফেরির মাস্টার ও সুকানি বরখাস্ত

নির্মানাধীন পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা দেয়া রো রো ফেরি বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীরের ভারপ্রাপ্ত মাস্টার কর্মকর্তা ও ইনল্যান্ড মাস্টার অফিসার দেলোয়ারুল ইসলাম এবং হুইল সুকানী আবুল কালাম আজাদকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিএ)।

তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা রুজু করা হবে বলেও জানানো হয়েছে। সোমবার এক অফিস আদেশে এ সিদ্ধান্তের কথা জানায় রাষ্ট্রীয় সংস্থাটি। যা মঙ্গলবার নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ‘কর্তৃপক্ষের অনুমোদনক্রমে কর্মচারী চাকুরী প্রবিধানমালা-১৯৮৯ এর ৪৬(১) ধারা মোতাবেক তাদেরকে চাকুরী হতে সাময়িক বরখাস্ত করে ডিসিপিএম (ফ্লিট) দপ্তরে নিয়মিত হাজিরা থাকার নির্দেশ প্রদান করা হলো।'

তবে বরখাস্তকালীন সময়ে তারা বিধি মোতাবেক খোরাকী ভাতা পাবেন বলেও জানানো হয়েছে।

অফিস আদেশে আরও বলা হয়েছে, সোমবার আনুমানিক সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটে সংস্থার রো-রো ফেরি বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে চলাচলের সময় ফেরিটি পদ্মা সেতুর ১০ নং পিলারের সঙ্গে ধাক্কা খায়।

আরও পড়ুন


স্ত্রী মিতু হত্যা মামলায় সাবেক এসপি বাবুলের জামিন নামঞ্জুর

পদ্মা সেতুর নিচ দিয়ে ভারী যানবাহন নিয়ে ফেরি চলাচল বন্ধ ঘোষণা

আদালতে পরীর চিৎকার: ‘আমি নির্দোষ, আমাকে ফাঁসানো হয়েছে’

আদালতে অঝরে কাঁদলেন পরীমণি


ফেরিতে কর্মরত ভারপ্রাপ্ত মাস্টার অফিসার এবং হুইল সুকানী দক্ষতার সাথে ফেরিটি পরিচালনা করলে দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হতো মর্মে প্রতীয়মান হয়েছে বিআইডব্লিউটিএ এর কাছে।

অফিস আদেশে আরও বলা হয়েছে, ‘দায়িত্বপূর্ণ কর্মচারী হিসেবে ফেরিটি অত্যন্ত সাবধানতার সঙ্গে পরিচালনা করা তাদের উচিত ছিল। পদ্মা সেতুর নীচে এ ধরণের দুর্ঘটনা কোনমতেই কাম্য নয়। তাদের এমন কার্যকলাপ কর্মচারী চাকুরী নিয়ম শৃঙ্খলার পরিপন্থী ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। তাদের এহেন কার্যকলাপ অনক্ষতার পরিচয় বহন করে।’

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

চড়তেন দামি গাড়িতে

ইভ্যালি থেকে রাসেল-শামীমা বেতন নিতেন ১০ লাখ টাকা

অনলাইন ডেস্ক

ইভ্যালি থেকে রাসেল-শামীমা বেতন নিতেন ১০ লাখ টাকা

ইভ্যালির কর্মচারীদের বেতন বন্ধ থাকলেও পদাধিকার বলে মাসে পাঁচ লাখ টাকা করে বেতন নিতেন রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমা নাসরিন।

ইভ্যালি থেকে কেনা অডি ও রেঞ্জ রোভার গাড়ি নিজেরা ব্যক্তিগতভাবে ব্যবহার করতেন। গত শুক্রবার দুপুরে র‌্যাব সদর দপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য দেন।

তিনি বলেন, বিপুল সংখ্যক গ্রাহক তৈরি করে একটি ব্র্যান্ডভ্যালু তৈরির পরিকল্পনা ছিল ইভ্যালির সিইও রাসেলের। ব্র্যান্ডভ্যালুকে কাজে লাগিয়ে কোনো আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের কাছে দায়সহ বিক্রি করে দিতেন। 

আরও পড়ুন:


সোমবার যে আমলটি করলে মনের আশা পূরণ হবে!

ট্রফি জয়ের ঘোষণা দিয়ে বিশ্বকাপে যাব: তামিম

ইউপি নির্বাচনী সহিংসতায় বৃদ্ধা নিহত, আহত ৩


এছাড়া, তিনবছর পূর্ণ হলে শেয়ার মার্কেটে অন্তর্ভুক্ত হয়ে দায় চাপানোর পরিকল্পনা নেন রাসেল। সর্বশেষ দায় মেটাতে ব্যর্থ হলে দেওলিয়া ঘোষণার পরিকল্পনাও ছিল তার।

সংবাদ সম্মেলনে খন্দকার আল মঈন বলেন, রাসেলের ব্যবসায়িক অপকৌশলের মধ্যে অন্যতম হলো নতুন গ্রাহকের ওপর দায় চাপিয়ে পুরনো গ্রাহকদের আংশিক অর্থ বা পণ্য ফেরত দেওয়া। যার তার এই দায় ট্রান্সফারের দুরভীসন্ধিমূলক অপকৌশল চালিয়ে তিনি এভাবে প্রতারণা করে আসছিলেন। 

প্রতিষ্ঠানটির নেটওয়ার্কে যত গ্রাহক তৈরি হয় তার দায় ততই বাড়তে থাকে। রাসেল জেনেশুনেই এই অপকৌশল চালিয়ে যাচ্ছিলেন। ইভ্যালি ছাড়াও রাসেলের আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এর মধ্যে ই-ফুড, ই-খাত ও ই-বাজার অন্যতম।

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রাসেল জানিয়েছে— বিদেশি একটি ই-কমার্সের কৌশল ১:২ আলোকে প্রথম তিনি তার ইভ্যালির কার্যক্রম শুরু করেন। প্রথম তিনি একটি ব্র্যান্ড তৈরির পরিকল্পনা করেছিলেন। 

পরবর্তী সময় কোনো আন্তর্জাতিক বা দেশীয় বড় প্রতিষ্ঠানে তার কোম্পানি দায়সহ বিক্রি করে দেওয়ার একটি পরিকল্পনা ছিল তার। একইভাবে তিন বছর পূর্ণ হলেই শেয়ার মার্কেটে অন্তর্ভুক্তি  হওয়ার পরিকল্পনা ছিল। সর্বশেষ দায় মেটাতে না পারলে নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করার একটি পরিকল্পনা নিয়েছিলেন। 

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ইভ্যালির সিইও রাসেল ও তার স্ত্রী-প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। 

তাদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে ‌র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে চালু হওয়া ইভ্যালি এখনো কোনো লাভ করতে পারেনি। অথচ তার অফিস পরিচালনা ও স্টাফদের বেতন বাবদ ব্যয় ছিল প্রায় ৫ কোটি টাকা। যার পুরোটাই গ্রাহকের কষ্টার্জিত বিনিয়োগের অর্থে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

চলতি বছরে তিন লাখেরও বেশি বাংলাদেশিকে ভিসা দিয়েছে ভারত

অনলাইন ডেস্ক

চলতি বছরে তিন লাখেরও বেশি বাংলাদেশিকে ভিসা দিয়েছে ভারত

চলতি বছরের বিগত ছয় মাসে তিন লাখ বাংলাদেশিকে ভিসা ইস্যু করেছে ভারতীয় হাইকমিশন। এগুলোর বেশির ভাগই মেডিকেল ও মেডিকেল অ্যাটেনডেন্ট ভিসা।

চলতি বছরের শুরুর দিকে করোনা পরিস্থিতি সহনশীল থাকলেও মার্চের শেষ দিক থেকে পরিস্থিতি খারাপ হতে থাকে।তবে করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে বর্তমানে পর্যটক ভিসা দেওয়া বন্ধ রেখেছে দেশটি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, এই মহামারীর মধ্যেও ছয় মাসে তিন লাখ ভারতীয় ভিসা থেকে ধারণা করা যায় কতসংখ্যক বাংলাদেশি চিকিৎসার জন্য ভারতে যায়। গত বছর মার্চ থেকে ভারত সারা বিশ্বে পর্যটক ভিসা দেওয়া স্থগিত রেখেছে। এখন বাংলাদেশ থেকে যারা ভারতে যাচ্ছে তাদের বেশির ভাগই মেডিকেল চিকিৎসার জন্য রোগী ও তাদের ‘অ্যাটেনডেন্ট’রা। 

আরও পড়ুন:


সোমবার যে আমলটি করলে মনের আশা পূরণ হবে!

ট্রফি জয়ের ঘোষণা দিয়ে বিশ্বকাপে যাব: তামিম

ইউপি নির্বাচনী সহিংসতায় বৃদ্ধা নিহত, আহত ৩


এদিকে, বর্তমানে পর্যটক ভিসা থাকলেও যেহেতু দেশটিতে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে, তাই এখন শর্ত সাপেক্ষে এই ক্যাটাগরির ভিসা দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করছে ভারত।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ সরকার ঘোষিত কঠোর বিধি-নিষেধকালে ভারতীয় ভিসা আবেদনকেন্দ্রগুলোও বন্ধ ছিল। বিধি-নিষেধ প্রত্যাহারের পরপরই আবেদনকেন্দ্রগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ভিসা আবেদনকেন্দ্রগুলো বন্ধ থাকার সময়ও জরুরি মেডিকেল ভিসা দেওয়া হয়েছে। জরুরি প্রয়োজনে ভিসার জন্য অনেকে ভারতীয় হাইকমিশনের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করেছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে সেই ভিসা আবেদনগুলো দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে হয়েছে। সেই সময় ভারতের সঙ্গে নিয়মিত ফ্লাইট বন্ধ থাকায় অনেক ক্ষেত্রে রোগীদের এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে করে নিয়ে যেতে হয়েছে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

স্থগিত ১৬০ ইউনিয়ন ও ৯ পৌরসভায় চলছে ভোটগ্রহণ

অনলাইন ডেস্ক

স্থগিত ১৬০ ইউনিয়ন ও ৯ পৌরসভায় চলছে ভোটগ্রহণ

দেশে প্রথম ধাপের স্থগিত ১৬০ ইউনিয়ন পরিষদ ও ষষ্ঠ ধাপের স্থগিত ৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে আজ। সকাল ৮টা থেকে এই ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে টানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত। 

অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ নির্বাচন হবে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। 

আরও পড়ুন:


ঘরের মাঠে ২-১ গোলে পিএসজি'র জয়

পাকিস্তানের কাছ থেকে ১২টি জঙ্গিবিমান কিনবে আর্জেন্টিনা

রাজধানীর যেসব মার্কেট বন্ধ থাকবে আজ


ইসি জানিয়েছে, ১৬০ ইউপিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন ৪৪ জন, চেয়ারম্যান পদে মোট প্রার্থী রয়েছেন ৫০০ জন। সংরক্ষিত ওয়ার্ডে প্রার্থী ১ হাজার ৯৪৮ জন এবং সাধারণ ওয়ার্ডে প্রার্থী রয়েছেন ৬ হাজার ২৮৪ জন। এদিকে নয় পৌরসভার মধ্যে তিনটি পৌরসভায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। আর বাকি পৌরসভায় মেয়র পদের লড়াইয়ে রয়েছেন ২৭ জন। এর আগে প্রথম ধাপের ২১ জুন ২০৪টি ইউনিয়নে নির্বাচন হয়েছিল। এই ২০৪ ইউপিতে ২৮ জন আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

news24bd.tv রিমু 

পরবর্তী খবর

নিউইয়র্কে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

নিউইয়র্কে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্কে পৌঁছেছেন। জাতিসংঘের ৭৬তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে তিনি সেখানে গিয়েছেন। জাতিসংঘের অধিবেশনের সাইডলাইনে বেশ কয়েক বিশ্বনেতার সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী। 

এর আগে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি চাটার্ড ফ্লাইট প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে হেলসিঙ্কি-ভ্যানটা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে নিউইয়র্কের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

জাতিসংঘ অধিবেশন এবং নিউইয়র্কে অন্যান্য অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের পর প্রধানমন্ত্রীর ২৫-৩০ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটন ডিসি সফরের কথা রয়েছে। 

আরও পড়ুন:


সোমবার যে আমলটি করলে মনের আশা পূরণ হবে!

ট্রফি জয়ের ঘোষণা দিয়ে বিশ্বকাপে যাব: তামিম

ইউপি নির্বাচনী সহিংসতায় বৃদ্ধা নিহত, আহত ৩


সফর শেষে শেখ হাসিনা ৩০ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটন থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা হবেন এবং হেলসিঙ্কিতে যাত্রাবিরতির পর ১ অক্টোবর দেশে ফিরবেন।

২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রধানমন্ত্রীর ইতালি সফরের দেড় বছর পরে এটি তার প্রথম বিদেশ সফর।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

বৃহস্পতিবার সারাদেশে বিক্ষোভের ডাক সাংবাদিক সমাজের

আলী তালুকদার

বৃহস্পতিবার সারাদেশে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে সাংবাদিক সমাজ। বিএফআইইউর তলবি চিঠিতে ১১ শীর্ষ সাংবাদিকদের ব্যাংক হিসাবের প্রতিবাদে রোববার জাতীয় প্রেসক্লাব চত্ত্বরে এক সমাবেশে সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা এই ডাক দেন।

এসময় সাংবাদিক নেতারা বলেন, সংগঠনকে লক্ষ্য করে যেভাবে তথ্য চাওয়া হয়েছে, সেটি গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ।

রোববার জাতীয় প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে ১১ শীর্ষ সাংবাদিক নেতার ব্যাংক হিসাবে চাওয়ার প্রতিবাদে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয় প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংবাদিক নেতারা এই সমাবেশের আয়োজন করে।

শীর্ষ সংগঠনগুলোর নেতারা প্রতিবাদ সমাবেশে বলেন, এই ঘটনা সাংবাদিক ও রাষ্ট্রের সাথে গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। বলেন, জনসম্মুখে সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব প্রকাশ করতে হবে। 

সমাবেশে জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বলেন, সংবাদপত্রের স্বাধীনতাকে ঠেকিয়ে রাখার জন্যই সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাবে চাওয়া। 

জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি বলেন, একটি গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে সাংবাদিক সমাজকে মুখোমুখি দাড় করানো হচ্ছে বলেন জানান তিনি।

বিএফইউজের সভাপতি বলেন সংগঠন ও রাজনৈতিক মতকে সামনে রেখে যেভাবে হিসাব চাওয়া হয়েছে তা নজিরবিহীন।

আন্দোলনের ধারাবাহিতকায় আগামী বৃহস্পতিবার ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে বলে জানায় সাংবাদিক নেতারা।

আরও পড়ুন:


পাঁচ বিভাগে বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টির আশঙ্কা

এই হচ্ছে বিএনপি, আর সব দোষ আওয়ামী লীগের?

রাজপথে নামার আহ্বান মোশাররফ-মান্নার

বাগেরহাটে ৩ ঘণ্টা পর প্লাইউড ফ্যাক্টরির আগুন নিয়ন্ত্রণে


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর