হুইপ সামশুলের ভাই নবাবের বাড়ির কেয়ারটেকার অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেপ্তার
হুইপ সামশুলের ভাই নবাবের বাড়ির কেয়ারটেকার অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেপ্তার

হুইপ সামশুলের ভাই নবাবের বাড়ির কেয়ারটেকার অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর ভাই মুজিবুল হক চৌধুরী নবাবের বাড়ির কেয়ারটেকার মো. কায়েসকে ১টি দেশি এলজি, ১ রাউন্ড কার্তুজসহ গ্রেপ্তার করেছে কোতোয়ালী থানা পুলিশ।   

মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) বেলা পৌনে ২টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বক্সিরহাট মেসার্স কেসি বণিক জুয়েলার্সের সামনে থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অস্ত্র ব্যবসার সঙ্গে জড়িত আরও ২ জনকে হালিশহর থানার মুহুরী পাড়ার উত্তর আবাসিক এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।   
গ্রেপ্তার মো. কায়েস (২৩) পটিয়া উপজেলার শোভনদণ্ডী ইউনিয়নের শোভনদণ্ডী এলাকার ২ নম্বর ওয়ার্ডের চৌধুরী বাড়ির মো. ফিরোজের ছেলে।

তিনি হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর ছোটভাই মুজিবুল হক চৌধুরী নবাবের বাড়ির কেয়ারটেকার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।  

অন্যরা হলেন- ডবলমুরিং থানার ২৭ নম্বর ওয়ার্ড সিডিএ ২৬ নম্বর বাদশা মিঞার বাড়ির সামছুল আলমের ছেলে নজরুল ইসলাম আনু (২৫) ও সদরঘাট থানার দারোগারহাট রোড পূর্ব মাদারবাড়ী, মুক্তিযোদ্ধা গলি লালু মিঞার বাড়ির লালু মিঞার ছেলে সাজ্জাদ হোসেন সজীব (২৭)।   

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার বেলা পৌনে ২টার দিকে বক্সিরহাটের মেসার্স কেসি বণিক জুয়েলার্সের সামনে থেকে অভিযান চালিয়ে ১টি দেশি এলজি, ১ রাউন্ড কার্তুজসহ মো.কায়েসকে গ্রেপ্তার করা হয়।  

 তিনি আরও বলেন, তারা উভয়ে বর্তমানে হালিশহর থানার মুহুরী পাড়ার উত্তর আবাসিক এলাকায় আছে। তার দেওয়া তথ্যমতে মুহুরী পাড়ার উত্তর আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে নজরুল ইসলাম আনু ও সাজ্জাদ হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে থানায় নিয়মিত মামলা করা হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন উপ-পরিদর্শক (এসআই) জানান, মো. কায়েস প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় থেকে অস্ত্রের ব্যবসা করেন। মো. কায়েস পেশায় অস্ত্র ব্যবসায়ী। কায়েস অস্ত্র ও কার্তুজ নজরুল ইসলাম আনু ও সাজ্জাদ হোসেন সজীবের কাছ থেকে কিনেছেন। অস্ত্রশস্ত্র তিনি কম দামে কিনে বিভিন্ন আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্যদের কাছে বেশি দামে বিক্রি করেন। আদালতে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। রিমান্ডে প্রভাবশালী কাদের ছত্রছায়ায় অস্ত্র ব্যবসার করছে, সেটার তদন্ত করা হবে।