সর্বনাশা মাদকে সয়লাব এখন দেশের অভিজাত এলাকা
সর্বনাশা মাদকে সয়লাব এখন দেশের অভিজাত এলাকা

সর্বনাশা মাদকে সয়লাব এখন দেশের অভিজাত এলাকা

Other

সর্বনাশা মাদকে সয়লাব এখন দেশের অভিজাত এলাকাও। সম্প্রতি গুলশান, বনানী, উত্তরায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর বেশ কয়েকটি অভিযানে দেখা যায় আবাসিক ফ্ল্যাটে মিনিবার গড়ে চলছে মাদকের রমরমা কারবার। দেশের অনুমোদিত ক্লাব, বারগুলো ছাপিয়ে আবাসিক ফ্ল্যাটে আসর বসিয়েছে এক শ্রেণীর সিন্ডিকেট চক্র। যেখানে বিত্তশালীদের কৌশলে ব্ল্যাকমেইলিং করে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে কোটি টাকা।

মাদকের এমন সর্বনাশা থেকে রক্ষায় অভিযান ও নজরদারি বাড়ানোর তাগিদ বিশেষজ্ঞদের।

মাদকের বিষ অজপাড়া গাঁ থেকে ছড়িয়েছে শহর-মফস্বলের অলিগলি। ধারণা ছিল, ব্যবহারের গন্ডি নিম্ন, নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণী পর্যন্ত। সে পরিকল্পনায় রাষ্ট্র ও যুদ্ধ ঘোষণা করে চালিয়েছে অভিযান।

কিন্তু চাঞ্চল্যের তৈরি হয় সম্প্রতি অভিজাত পাড়ার চাকচিক্যে ঠাসা ফ্ল্যাটে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে। উচ্চবিত্তের মুখোশে থাকা, চিত্র তারকা, মডেলদের মত এক শ্রেণীর সিন্ডিকেট চক্র আবাসিক ফ্ল্যাটগুলোতে বসিয়েছে উচ্চ নেশাদ্রব্য আইস, এলএসডিসহ মাদক ও মদের মিনিবার। অভিযোগ রয়েছে, উঠতি তরুণ ও বিত্তশালীদের নেশার প্রলোভনে ব্ল্যাকমেইলি করে হাতিয়ে নিত কোটি টাকা।  

আরও পড়ুন


তালেবানের অগ্রাভিযানের মুখে আফগান সেনাপ্রধান বরখাস্ত

আবারও পরীমণিকে নিয়ে মুখ খুললেন তসলিমা নাসরিন

চুরি যাওয়া গরু খুঁজে পেল মালিককে

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় শিশুসহ ১৬ জনের মৃত্যু

যুব সমাজ ধ্বংসের নতুন ফাঁদ পেতে নাইট ক্লাবের আদলে গড়ে তোলা এসব আসরে ড্যান্স পার্টির নামে চলত অবৈধ কর্মকাণ্ড। সম্প্রতি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী অভিযানে রাজধানীতেই শোবিজের নায়িকা, মডেল, প্রযোজক থেকে শুরু করে এই চক্রের এক ডজনেরও বেশি নারী-পুরুষকে আটক করা হয়। উদ্ধার করা হয় পর্ণোগ্রাফি তৈরির সরঞ্জামও।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মাদকের গ্যাং কালচার তৈরি করে সমাজকে নষ্ট করছে চক্রটি। তাই এই চক্রের মূলোৎপাটনে বাড়াতে হবে অভিযান।  

একই সঙ্গে সমাজের সকলেরই সহযোগীতাও জরুরী বলে মনে করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

news24bd.tv রিমু