সক্রিয় পাচারকারী চক্র, চাকরির প্রলোভনে টার্গেট দরিদ্র নারীরা

নাঈম আল জিকো

ভারতে পাচার হওয়া মেয়েকে উদ্ধারের চেস্টায় একই চক্রের হাতে বিক্রি হলেন মা। পরে তাদের হাত থেকে পালিয়ে তিন মাস মেয়েকে খুঁজতে কখনও কলকাতা কখনও চষে বেড়িয়েছেন দিল্লির অলিগলি। অবশেষে পশ্চিম বঙ্গ ও বিহারের সীমান্তবর্তি এলাকা কিশানগঞ্জের নিষিদ্ধ পল্লি থেকে উদ্ধার করেন মেয়েকে। এমনি লোমহর্শক ঘটনা ঘটেছে রাজধানীর মিরপুর শাহপরান বস্তিতে। 

এভাবেই নিজের ভারতে পাচার হয়ে যাওয়ার কথা বলছিলেন এই কিশোরী। ১৫ জানুয়ারী বিউটি পার্লারে চাকুরির নামে প্রতিবেশি মামা নাগিন সোহাগ ও কাল্লুর সাথে বাসা থেকে বেড়িয়ে যায় সে। কিন্তু সাতক্ষিরায় পৌছালে বিল্লাল নামে এক ব্যক্তির কাছে এই কিশোরীকে বিক্রি করে দেয় কাল্লু ও সোহাগ। পরে তাকেসহ আরো তিনটি মেয়েকে অবৈধভাবে নিয়ে যাওয়া হয় ভারতে। সেখান থেকে বাসে করে তাকে নেয়া হয় কিশানগঞ্জের নিষিদ্ধ পল্লিতে। চালানো হয় অমানবিক নির্যাতন।

মেয়েকে ফিরে পেতে মরিয়া বাবা-মা নিখোঁহের দুই দিন পর পল্লবী থানায় অভিযোগ দেন। এরপরও কোন সমাধান না পেলে নিজেই ভারত থেকে মেয়ে কে আনার সিদ্ধান্ত নেন। পরিচয় গোপন করে চাকরির খোজে  কাল্লুর কাছেই যান তিনি। একই ভাবে ১ লাখ ২০ হাজার টাকায় কাল্লু মাকেও বিক্রি করে দেয় দালালদের হাতে। পাচার হয় ভারতে। কিন্তু সেই দালালদের কাছ থেকে পালাতে সক্ষম হন মা। এরপর খুঁজতে শুরু করেন মেয়েকে। পরে মিথুন নামে ভারতীয় এক ব্যক্তির মাধ্যম্যে মেয়ের সন্ধান পান মা। পরে কিশানগঞ্জ জনপ্রতিনিধির সহায়তার সেই পল্লি থেকে উদ্ধার করেন মেয়েকে।

মেয়েকে নিয়ে দেশে ফিরতেও পরেন বিপাকে। সীমান্ত পার হওয়ার সময় বিএসএফের কাছে ধরা পরেন মা ও মেয়ে। পরে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বিজিবির কাছে হস্তান্কর করা হয় তাদের। 

আরও পড়ুন:

যতক্ষণ না পুলিশ আসবে, মিডিয়া আসবে লাইভ চলবে: পরীমনি

আবারও মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

একসঙ্গে দুই ছেলে ও দুই মেয়ের জন্ম


 

দেশে ফিরে আসামীদের ধরতে আবারো পল্লবী থানা পুলিশের কাছে গেলেও মামলা নেয়নি তারা বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী পরিবারের। এ বিষয়ে, মিরপু্র উপ-পুলিশ কমিশনার বরাবর চিঠি দিলেও সে বিষয়ে কিছুই জানেনা পুলিশের এই কর্মকর্ত।

স্থানীয়দের অভিযোগ নাগিন সোহাগ ও কাল্লুর এই মামা-ভাগ্নে চক্রের ফাঁদে পা দিয়ে পাচার হয়েছে এই বস্তি প্রায় অর্ধ শত নারী পাচারের শিকার হয়েছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

দুই নারীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতারের হুমকি দিয়ে টাকা আদায় : ৬ পুলিশ সাময়িক বরখাস্ত

অনলাইন ডেস্ক

দুই নারীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতারের হুমকি দিয়ে টাকা আদায় : ৬ পুলিশ সাময়িক বরখাস্ত

দুই নারী যাত্রীকে নাজেহাল ও অর্থ কেড়ে নেওয়ার অভিযোগে রাজশাহী শিরোইল বাস টার্মিনাল ফাঁড়ির শহর উপ-পরিদর্শক (এটিএসআই) নাসির উদ্দিন ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সেলিম রেজাসহ ছয় পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করেছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কমিশনার। বরখাস্ত হওয়া অন্য পুলিশ সদস্যরা হলেন- কনস্টেবল শঙ্কর, শাহ আলম, সারওয়ার ও রিপন। 

বৃহস্পতিবার রাতে এক আদেশে আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক তাদেরকে সাময়িক বরখাস্ত করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করেছেন। রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (সদর) ও নগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, বিভাগীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করায় তাদেরকে সাময়িক বরখাস্ত করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। 

পুলিশের সূত্র জানিয়েছে- নারায়ণগঞ্জ এবং কুমিল্লা থেকে দু’জন নারী বৃহস্পতিবার সকালে বাসে করে রাজশাহীতে তাদের এক আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে যান। তারা শিরোইল বাসস্ট্যান্ডে নামার পরপরই পুলিশ ফাঁড়ির এটিএসআই নাসিরসহ বাকি সদস্যরা তাদেরকে আটক করে। এরপর ওই দুই নারীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার দেখানোর হুমকি দেন ওই পুলিশ সদস্যরা। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


এ সময় তারা ভুক্তভোগীদের কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। বাধ্য হয়ে ওই দুই নারী তাদের পরিবারকে বিষয়টি জানান। এরপর পরিবারের সদস্যরা বিকাশের মাধ্যমে পুলিশকে এক লাখ টাকা দেন। এছাড়াও তাদের কাছ থেকে কিছু নগদ টাকাও ছিনিয়ে নেওয়া হয়। 

এ ঘটনার পর ওই দুই নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশ হেডকোয়ার্টারে অভিযোগ করা হয়। অভিযোগ পাওয়ার পরে পুলিশ হেডকোয়ার্টার থেকে রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনারকে বিষয়টি নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপর এটিএসআই নাসিরসহ ছয় পুলিশ সদস্য সাময়িক বরখাস্ত হন। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

চলন্ত ট্রেনে ডাকাতি, নিহত ২

জামালপুর প্রতিনিধি

চলন্ত ট্রেনে ডাকাতি, নিহত ২

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার ট্রেনে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ডাকাত দলের আক্রমনে ট্রেনের দুই যাত্রী নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে একজন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে কমিউটার ট্রানের ছাদে এই ঘটনা ঘটে। 

জামালপুর রেলওয়ে থানার এসআই মো: মিলন মিয়া ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার ট্রেনের ছাদে ১৫-২০ জন যাত্রী ভ্রমন করছিলেন। ট্রেনটি ময়মনসিংহের গফরগাঁও স্টেশন ছাড়ার পর ৪/৫ জনের একটি ডাকাত দল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর আক্রমন করে এবং তাদের কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। 

এ সময় কয়েকজন যাত্রীর সাথে ডাকাতদের ধস্তাধস্তির হয় এবং ডাকাতদের আক্রমনে তিন যাত্রী আহত হয়ে ট্রেনের ছাদে পড়ে থাকে। পরে ওই ট্রেনের যাত্রীরা পিয়ারপুর স্টেশনে ডাকাতির ঘটনা জানালে জামালপুর রেলওয়ে থানা পুলিশ জামালপুর স্টেশন থেকে আহত ওই তিন যাত্রীকে উদ্ধার করে জামালপুর জেনারেল হাসপাতারে নিয়ে আসে। 

এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক দুইজনকে মৃত ঘোষণা করে এবং আহত একজনকে হাসপাতালে ভর্তি করে। নিহতদের মধ্যে নাহিদ নামে একজনের বাড়ি দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সানন্দবাড়ি মিতালী বাজার এলাকায় এবং অপরজনের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পরকীয়া প্রেমিকের সাথে মিলে মা খুন করে প্রিয়াকে

অনলাইন ডেস্ক

পরকীয়া প্রেমিকের সাথে মিলে মা খুন করে প্রিয়াকে

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে আলোচিত নওরোজ আফরিন প্রিয়া (২১) হত্যা মামলায় প্রিয়ার মা তাহমিনা সুলতানা রুমি ও পরকীয়া প্রেমিক আ. হান্নান মিলে প্রিয়াকে হত্যা করেছে। 

বৃহস্পতিবার বিকালে তাহমিনা সুলতানা রুমি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

এর আগে জড়িত সন্দেহে বুধবার বিকালে রুমির প্রেমিক হান্নানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শাহরাস্তি মডেল থানা সূত্রে জানা যায়, নিহত প্রিয়ার মা তাহমিনা সুলতানা রুমি ও তার প্রেমিক দেবকরা গ্রামের মৃত মুনসুর আলী ভূঁইয়ার পুত্র মো. আ. হান্নান (৩১) মিলে প্রিয়াকে খুন করে।

এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রিয়া ও হান্নানদের বাড়ি পাশাপাশি। প্রিয়ার পিতা বিদেশে থাকার সুবাদে ৫-৬ বছর পূর্বে প্রিয়ার মা রুমির সঙ্গে হান্নানের অবৈধ পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে উঠে। তাদের নিষিদ্ধ প্রেমের রসায়ন লোকমুখে ছড়িয়ে গেলে প্রিয়া নিজেই একদিন আপত্তিকর অবস্থায় তাদের ধরে ফেলে। পরে বিষয়টি মামলা পর্যন্ত গড়ায়।

রও পড়ুন:


সেই বাংলা ছবি থেকে সানি লিওনের অংশটি বাদ

অনলাইনে পণ্য ডেলিভারির সময় নির্ধারণ করে দিলো মন্ত্রণালয়

ভ্রুন নষ্ট না করলে তালাক দেয়ার হুমকি স্বামীর

মানবতাবিরোধী মামলার আসামি শহীদুল্লাহ ফকির গ্রেপ্তার


রুমির স্বামী ইসমাইল হোসেন স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্কের বিষয়ে সৌদি আরব থেকে জানতে পেরে তার সাথে ছাড়াছাড়ির সিদ্ধান্ত নিলে স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকটি সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। এরপর হান্নান বিদেশে চলে যায়। হত্যাকাণ্ডের ১ মাস পূর্বে হান্নান দেশে আসে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক আসাদুল ইসলাম জানান, ঘটনায় জড়িত মামলার বাদী রুমি ও তার প্রেমিক আ. হান্নানকে কোর্টের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।
 
শাহরাস্তি মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল মান্নান জানান, তাহমিনা সুলতানা রুমি ও তার প্রেমিক আ. হান্নান মিলে প্রিয়াকে খুন করে। মেয়ে মায়ের পরকীয়া জেনে ফেলায় ২ জনে পরিকল্পনা করে প্রিয়াকে তাদের পথ থেকে  সরিয়ে দিয়েছে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

ঢাকায় মিললো ভয়ংকর মাদক আইসের সবচেয়ে বড় চালান

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকায় মিললো ভয়ংকর মাদক আইসের সবচেয়ে বড় চালান

রাজধানী থেকে ৫৬০ গ্রাম ভয়ংকর মাদক ক্রিস্টাল মেথ বা আইস ও ইয়াবা জব্দ করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (ডিএনসি)।

ডিএনসির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, জব্দ করা আইসের মূল্য প্রায় ৯০ লাখ টাকা। এটি এখন পর্যন্ত ঢাকায় আটক হওয়া আইসের সবচেয়ে বড় চালান।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. মেহেদী হাসান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে তেজগাঁওয়ে অবস্থিত মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কার্যালয়ে (উত্তর) আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও তিনি জানান।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

নান্দাইলে অজ্ঞাত বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:

নান্দাইলে অজ্ঞাত বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায় অজ্ঞাত (৬৫) এক বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে পালিয়েছে দুবৃত্তরা। 

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন ধান ক্ষেত থেকে এ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। 

রও পড়ুন:


জন্মদিনে সৃজিতের কাছে কী চাইলেন মিথিলা?

বায়ু দূষণের তালিকায় বাংলাদেশ প্রথম, ঢাকা তৃতীয়

৪৫ মিনিট পর হাসপাতালে অলৌকিকভাবে বেঁচে উঠলেন নারী!

গাড়ি সাইড দেয়ায় ব্যবসায়ীকে মারধর করলেন এমপি রিমন!


নান্দাইল থানার ওসি মিজানুর রহমান আকন্দ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, স্থানীয়দের খবর নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে নিহতের নাম-পরিচয় এখনো জানা যায়নি। হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি পাশেই ফেলে রেখে গেছে খুনিরা। 

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর