ছেলেকে না পেয়ে বিএনপি নেতাকে গুলি করে কুপিয়ে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

ছেলেকে না পেয়ে বিএনপি নেতাকে গুলি করে কুপিয়ে হত্যা

তুচ্ছ ঘটনার জেরে নোয়াখালীর সদর উপজেলায় এক বিএনপির নেতাকে গুলি করে কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহত হারুনুর রশীদ ওরফে হারুন মোল্লা (৪৫) উপজেলার আন্ডারচর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এবং একই ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম মাইজচরা গ্রামের মৃত নছিবুল হকের ছেলে।

শুক্রবার রাত আটটার দিকে উপজেলার আন্ডারচর ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের চৌকিদার হাটের পশ্চিমে তালতলা নামক স্থানে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আরও অন্তত দু’জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

নিহতের ভাই আমিনুল হক জানান, কয়েক দিন আগে নিহতের ছেলে সজিবের সাথে স্থানীয় কয়েকজনের বাকবিতন্ডা হয়। এ তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে ১৫-২০ জনের সংঘবদ্ধ অস্ত্রধারীরা আজ সন্ধ্যার পর থেকে সজিবকে খুঁজতে থাকে। এ খবর পেয়ে তার বাবা বিএনপি নেতা হারুনুর রশীদ মোল্লা ছেলেকে বাঁচানোর জন্য মোটরসাইকেল নিয়ে রাত পৌনে ৮টার দিকে স্থানীয় চৌকিদার বাজারের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। যাত্রা পথে তিনি তালতলা পৌঁছলে অস্ত্রধারীদের মুখোমুখি পড়ে যান। এ সময় অস্ত্রধারীরা তাকে গুলি করে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। এ সময় তার সাথে থাকা ভাতিজা রমিজ উদ্দিনকেও মারাত্মক জখম করে হামলাকারীরা। তবে তার আরেক ভাই ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে প্রাণে রক্ষা পায়। এরপর স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা বিএনপি নেতা হারুনুর রশীদ মোল্লাকে মৃত ঘোষণা করেন। 
    
নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আকরামুল হাসান হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন,বিষয়টি পুলিশ খতিয়ে দেখছে। পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

আরও পড়ুন:

যতক্ষণ না পুলিশ আসবে, মিডিয়া আসবে লাইভ চলবে: পরীমনি

আবারও মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

একসঙ্গে দুই ছেলে ও দুই মেয়ের জন্ম


 

উল্লেখ্য, নিহত হারুনুর রশীদ মোল্লা ২০১১ সালে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে আন্ডারচর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিলেন এবং ২০১৬ সালে তিনি ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ইভ্যালির এমডি ও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

অনলাইন ডেস্ক

ইভ্যালির এমডি ও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

দেশের আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ রাসেল ও চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় প্রতারণা মামলা দায়ের করেছেন এক গ্রাহক।

আজ বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মহানগর পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. আসাদুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গতকাল বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার পূর্বগ্রাম এলাকার বাসিন্দা মো. আরিফ বাকের এই মামলাটি দায়ের করেছেন।

প্রতারণার এই মামলায় ইভ্যালি এমডি মোহাম্মদ রাসেলকে এক নম্বর আসামি ও চেয়ারম্যান শামীমাকে দুই নম্বর আসামি করা হয়েছে। ইভ্যালির আরও বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাকে ‘অজ্ঞাতনামা’ দেখিয়ে মামলায় আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বাদী আরিফ বাকের অভিযোগ করেছেন, ইভ্যালির অনলাইন প্লাটফর্মে ৩ লাখ ১০ হাজার ৫৯৭ টাকার পণ্য অর্ডার করেও নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তা পাননি তিনি। নিরুপায় হয়ে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ করেন তিনি।

লিখিত অভিযোগে আরও বলা হয়, গত ২৯ মে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হয়ে অভিযোগকারী আরিফ বাকের ও তার বন্ধুরা চলতি বছরের মে ও জুন মাসে কিছু পণ্য অর্ডার করেন। পণ্যের অর্ডার বাবদ সব মূল্য বিকাশ, নগদ ও সিটি ব্যাংকের কার্ডের মাধ্যমে পরিশোধ করেন তারা।

আরও পড়ুন


করোনা শুরুর পর প্রথম বিদেশ সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

পরীর পাহাড়ের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করবে জেলা প্রশাসন

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের কাছে জিম্মি হচ্ছে রাষ্ট্র

কারওয়ান বাজার ও গুলশান-২ নিয়ে মহাপরিকল্পনা ডিএনসিসির


পণ্যগুলো ৭ থেকে ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে ডেলিভারি ও নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে পণ্য সরবরাহে ব্যর্থ হলে প্রতিষ্ঠান সমপরিমাণ টাকা ফেরত দিতে অঙ্গীকারাবদ্ধ ছিল। কিন্তু ওই সময়সীমার মধ্যে পণ্যগুলো ডেলিভারি না পাওয়ায় বহুবার ইভ্যালির কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধিকে ফোন করা হয়। সর্বশেষ গত ৫ সেপ্টেম্বর যোগাযোগ করে অর্ডার করা পণ্যগুলো পাওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন আরিফরা।

একপর্যায়ে ইভ্যালি পণ্য প্রদান ও টাকা প্রদানে ব্যর্থ হওয়ার পর ৯ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির ধানমন্ডির অফিসে যান আরিফ ও তার বন্ধুরা।

মামলার এজাহারে আরিফ বলেন, ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ রাসেলের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তারা উত্তেজিত হয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি করেন। একপর্যায়ে অফিসের অভ্যন্তরে থাকা ইভ্যালির রাসেল উত্তেজিত হয়ে তার রুম থেকে বেরিয়ে এসে আমাকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করেন এবং আমাদের পণ্য অথবা টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানান। আমাদের ভয়ভীতি ও হুমকিসহ চরম দুর্ব্যবহার করেন। এতে আমরা আতঙ্কে দিনাতিপাত করছি। পণ্যগুলো বুঝে না পাওয়ায় আমি আর্থিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

সিলেটে মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে প্রিন্সিপাল আটক

অনলাইন ডেস্ক

সিলেটে মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে প্রিন্সিপাল আটক

সিলেটের বিয়ানীবাজারে এক মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে শিক্ষক হাফেজ আব্দুর রহিমকে (৫৫) আটক করেছে বিজিবি। তিনি পৌরসভার ফতেহপুর এলাকার হযরত হায়দর শাহ (রহঃ) হাফিজিয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল। বুধবার দুপুরে বিজিবি সদস্যরা তাকে আটক করে। রাতে তাকে বিয়ানীবাজার থানায় হস্তান্তর করা হয়।

জানা যায়, বিয়ানীবাজার বিজিবি ৫২ ব্যাটালিয়নের এক সৈনিকের ছেলে ওই মাদ্রাসার ছাত্র (১৫)। সম্প্রতি সে মাদ্রাসায় যাওয়া বন্ধ করে দেয়। কারণ জানতে চাইলে সে বলাৎকারের বিষয়টি বাবাকে জানায়। পরে ওই বিজিবি সদস্য ঘটনাটি ৫২ ব্যাটলিয়নের দায়িত্বশীলদের জানালে বুধবার দুপুরে মাদ্রারাসার প্রিন্সিপাল হাফেজ আব্দুর রহিমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিজিবি সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়। 

পরে ঘটনার সত্যতা ও বলাৎকারের শিকার ওই ছাত্রের মৌখিক জবানবন্দী শেষে গতকাল রাত ৮টার দিকে তাকে বিয়ানীবাজার থানায় হস্তান্তর করা হয়।

বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিল্লোল রায় বলেন, বিজিবি মাদ্রাসার প্রিন্সিপালকে থানায় হস্তান্তর করেছে। এ ঘটনায় ছাত্রের বাবা থানায় মামলা করেছেন। সেই মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

আরও পড়ুন:


আইএস বধূ শামীমা বাংলাদেশে নয়, ফিরতে চান ব্রিটেনে

করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় আবারও ১০ হাজারের কাছাকাছি মৃত্যু

রদ্রিগোর গোলে ইন্টার মিলানকে হারাল রিয়াল মাদ্রিদ

চট্টগ্রামের উপকূলে মিলল তিনটি মৃত ডলফিন!


NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

সোহাগ পরিবহনের বাস থেকে ৫৮টি স্বর্ণের বার জব্দ

অনলাইন ডেস্ক

দুবাই থেকে বিমানে আসা অবৈধ স্বর্ণের বার বাসে করে নেয়া হচ্ছিল সাতক্ষীরা সীমান্তে। এমন তথ্যে সোহাগ পরিবহনের এক বাসে অভিযান চালিয়ে ৫৮টি স্বর্ণের বার জব্দ করা হয়েছে। বাজার মূল্য প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা। মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর মালিবাগের এই অভিযানে বাসচালকসহ তিনজনকে আটক করেছে কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। 

সংস্থার মহাপরিচালক জানান, এসব স্বর্ণ বিদেশ থেকে এনে বাংলাদেকে ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহার করে পাশের দেশে পাচার করা হচ্ছিল।

রাজধানীর মালিবাগ থেকে সাতক্ষীরার উদ্দেশে যাচ্ছিল সোহাগ পরিবহনের ওই বাস। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর সংলগ্ন ট্রাফিক সিগনাল এলাকায় পৌঁছলে শুল্ক গোয়েন্দা টিম গাড়িতে উঠে তল্লাশি শুরু করে। এতে নেতৃত্ব দেন শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. ইফতেখার আলম ভূঁইয়া। 

দীর্ঘক্ষণ তল্লাশি শেষে আনুমানিক বুধবার সকাল ৯টার দিকে বাসের চালকের সিটের নিচে সুকৌশলে লুকানো অবস্থায় ৫৮টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়। যার ওজন ছয় দশমিক ৭২ কেজি। আনুমানিক বাজার মূল্য প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকা। কাকরাইলের আইডিইবি ভবনে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের প্রধান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানান সংস্থার মহাপরিচালক। 


বিয়ে ছাড়াই আবারও মা হচ্ছেন কাইলি জেনার

বলিউড পরিচালক বিশাল ভরদ্বাজের প্রস্তাবে মিমের না!

দেশমাতা, আমাকে কি একটু নিরাপত্তা দিতে পারেন


 

এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে ৩ জনকে। তারা হলেন, গাড়িচালক শাহাদাৎ হোসেন, হেলপার ইব্রাহিম ও গাড়ির সুপারভাইজার তাইকুল ইসলাম। শুল্ক গোয়েন্দার অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জানান, এসব স্বর্ণ বিদেশ থেকে এনে বাংলাদেকে ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহার করে পাশের দেশে পাচার করা হচ্ছিল।

স্বর্ণবার উদ্ধারের ঘটনায় কাস্টমস আইন অনুযায়ী বিভাগীয় মামলা দায়ের করে নেয়া হবে পরবর্তী ব্যবস্থা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

নিখোঁজের চারদিন পর মিলল শিশু মিনহাজের মরদেহ

অনলাইন ডেস্ক

নিখোঁজের চারদিন পর মিলল শিশু মিনহাজের মরদেহ

কুমিল্লার বরুড়ায় নিখোঁজের চারদিন পর মিলল মোসা. মিনহাজ আক্তার (৭) নামে এক স্কুলছাত্রীর মরদেহ। খালপাড় থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

শিশু মিনহাজ আক্তার চান্দিনা উপজেলার হারং গ্রামের মো. ফজলুল হকের মেয়ে এবং বরুড়া উপজেলার জটাসার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী।

আরও পড়ুন: 


সরকারি আটায় রুটি তৈরি করা কারখানায় অভিযান চলছে

বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ফজলুল হক আছপিয়া চলে গেলেন

ঘাস সংগ্রহ করতে নাগর নদী পার হচ্ছিল মৃত দুই নারী

নীলফামারীতে বিমান কোস্টার সার্ভিস উদ্বোধন


নিহতের পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চিতড্ডা ইউনিয়নের ওড্ডা গ্রামের সরফুল বেগমের স্বামী ফজলুল হকের সাথে প্রায় ৩ বছর আগে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এরপর সরফুল বেগম তার দুই কন্যা সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে বাবার বাড়িতে বসবাস করে আসছেন। শিশু মিনহাজ গত ১১ সেপ্টেম্বর বিকেল প্রায় ৩টার দিকে বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। এলাকায় মাইকিংসহ বিভিন্নভাবে খোঁজাখুঁজি করেও সন্ধান মেলেনি। বুধবার ওই এলাকার বিশকর্মা নামক খালের পাড়ে মিনহাজের মরদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা।

বরুড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইকবাল বাহার মজুমদার জানান, ‌‘ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। লাশ অর্ধগলিত। ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত বলা যাবে।’

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

দিনে দুপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টা : আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

দিনে দুপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টা : আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টার  অভিযোগ উঠেছে  এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে। সিদ্দিকুর রহমান সিকদার (৫০) নামে আ.লীগ নেতাকে মঙ্গলবার রাতে গ্রামের বাড়ি থেকে  গ্রেফতার করে পুলিশ। সিদ্দিকুর রহমান কেওতা গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলী সিকদারের ছেলে। তিনি শুক্তাগড় ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।

গৃহবধূ বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে রাজাপুর থানায় মামলা দায়ের করলে গ্রামের বাড়ি থেকে অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার শুক্তাগড় ইউনিয়নের কেওতা গ্রামে মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে কেওতা মাদ্রাসার সামনের একটি দোকানে বিকাশ থেকে টাকা তুলতে যান ওই নারী। এ সময় সিদ্দিকুর রহমান তাকে কাজ শেষে বাড়িতে গিয়ে কথা শুনতে বলেন। ওই গৃহবধূ সিদ্দিকের বাড়িতে যায়। এ সময় ঘরে কেউ ছিল না। পরে ঘরের দরজা বন্ধ করে ওই নারীর শ্লীলতাহানি ঘটায় এবং ধর্ষণচেষ্টা করেন সিদ্দিক।


বিয়ে ছাড়াই আবারও মা হচ্ছেন কাইলি জেনার

বলিউড পরিচালক বিশাল ভরদ্বাজের প্রস্তাবে মিমের না!

দেশমাতা, আমাকে কি একটু নিরাপত্তা দিতে পারেন


 

কৌশলে সিদ্দিকের ঘর থেকে ওই নারী বেরিয়ে আসেন। পরে ইউনিয়ন পরিষদের নারী ইউপি সদস্যসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বিষয়টি জানালেও তারা এ ঘটনার বিচার করতে অপারগতা প্রকাশ করেন। পরে নিরুপায় হয়ে ওই নারী মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা করেন।

রাজাপুর থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, গৃহবধূকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর