লকডাউন নিয়ে পরামর্শক কমিটি যা জানালো
লকডাউন নিয়ে পরামর্শক কমিটি যা জানালো

লকডাউন নিয়ে পরামর্শক কমিটি যা জানালো

অনলাইন ডেস্ক

দেশে মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সাথে মৃত্যুর সংখ্যা হু হু করে বৃদ্ধির ফলে কঠোর লকডাউনের সুপারিশ করে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। সেই অনুযায়ী লকডাউন ও দেয় সরকার। সরকারি নির্দেশনায় গত ২৩ জুলাই থেকে ১০ আগস্টের বিধিনিষেধ কঠোরভাবে পালিত না হলেও জনসমাবেশ হওয়ার মতো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ স্থান বন্ধ থাকায় সংক্রমণ হার কমার ক্ষেত্রে উন্নতি হয়। তবে সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার কোনোটিই স্বস্তিদায়ক অবস্থায় আসেনি।

এদিকে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঊর্ধ্বগতির মধ্যেই সরকার কঠোর লকডাউন শিথিল করায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। কমিটি বলছে, বিধিনিষেধ আরও ১-২ সপ্তাহ চলমান রাখতে পারলে এর পুরোপুরি সুফল পাওয়া যেত।

শুক্রবার (১৩ আগস্ট) রাতে কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ সহিদুল্লা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্বাস্থ্যবিধি শিথিল করার বিষয়ে সরকার তাড়াহুড়ো করেছে। যে কারণে সংক্রমণ আবারও বাড়তে পারে। সরকারের নেয়া সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার আহ্বান জানিয়েছে কমিটি।

এতে আরও বলা হয়েছে, ২৩ জুলাই থেকে ১০ আগস্টের বিধিনিষেধ কঠোরভাবে পালিত না হলেও জনসমাবেশ হওয়ার মতো বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ স্থান বন্ধ থাকায় সংক্রমণ হারে উন্নতি পরিলক্ষিত হয়। তবে সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার কোনোটাই স্বস্তিদায়ক অবস্থায় আসেনি। এ অবস্থায় সরকারের দ্রুত বিধিনিষেধ শিথিল করার/তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্তে সভা উদ্বেগ প্রকাশ করে।

আরও পড়ুন

সরকারি চাকরিপ্রার্থীদের বয়সে ছাড় দেয়ার প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর কাছে

পুলিশ সদরদপ্তর থেকে ৭১ কর্মকর্তাকে বদলি

টিকা ব্যবস্থাপনা নিয়ে নৈরাজ্য চলছে: মির্জা ফখরুল


 

জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি জীবিকা ও দেশে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সচল রাখতে সরকারের দায়িত্ব উপলব্ধি করে ও সরকারের অবদান কৃতজ্ঞতার সঙ্গে উল্লেখ করে।

সভা মনে করে বিধিনিষেধ শিথিলতার ক্ষেত্রে সরকার কিছুটা তাড়াহুড়ো করছে। এর ফলে সংক্রমণ আবারও বাড়তে পারে। তাতে অর্থনীতি আরও বেশি হুমকির মুখে পড়বে।

news24bd.tv/আলী

;