আফগানিস্তানে ফেলে আসা মার্কিন নাগরিকদের কী হবে?
আফগানিস্তানে ফেলে আসা মার্কিন নাগরিকদের কী হবে?

আফগানিস্তানে ফেলে আসা মার্কিন নাগরিকদের কী হবে?

অনলাইন ডেস্ক

সেনা প্রত্যাহারের সময়সীমা শেষ হয়ে যাওয়ার পরও মার্কিন বাহিনী আফগানিস্তানে থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেট জো বাইডেন। দেশটিতে আটকে পড়া মার্কিন নাগরিকদের দেশে ফেরানোর প্রয়োজনেই এমন করা হতে পারে বলে জানিয়েছন তিনি। খবর বিবিসির।

যদিও এ মাসের মধ্যেই আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনাদের ফিরে আসার কথা ছিলো, কিন্তু এখনো প্রায় ১৫ হাজার মার্কিন নাগরিক দেশটিতে অবস্থান করছেন।

তাদের নিরাপদে সেখান থেকে বের করে আনাকেই এখন অগ্রাধিকার দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন বাইডেন।

এবিসি নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বাইডেন বলেন, কাবুলের টালমাটাল অবস্থা এড়ানো যেতো না। এছাড়া এখনও ১০ থেকে ১৫ হাজার মার্কিনিকে উদ্ধার করতে হবে। সেইসাথে ৫০ থেকে ৬০ হাজার আফগানকেও উদ্ধার করতে হবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন:

আবারও কেঁপে উঠলো আফগানিস্তান

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী আজ থেকে চলছে শতভাগ গণপরিবহন

মেসিকে জড়িয়ে আবারও বিতর্কে শার্লি এবদো

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম নিয়ন্ত্রণে আসছে নতুন আইন, কী ভাবছেন বিশেষজ্ঞরা?


এদিকে বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন এত বিপুল পরিমাণ মানুষকে উদ্ধারে নিজেদের সক্ষমতার ব্যাপারে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। আটকে পড়া মার্কিনিদের উদ্ধারে দেশটির সেনাবাহিনী সক্ষম কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে অস্টিন বলেন, এত বিপুল সংখ্যক মানুষকে নিয়ে আসার সক্ষমতা আমাদের নেই।

পেন্টাগন জানিয়েছে, এ পর্যন্ত ৫ হাজার মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে কাবুল থেকে। তবে একদিনে ৯ হাজার মানুষকে সরিয়ে আনার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

news24bd.tv/ নকিব