গাজীপুরে কারখানায় শ্রমিকদের কর্মবিরতি-বিক্ষোভ

শেখ সফিউদ্দিন জিন্নাহ্, গাজীপুর:

গাজীপুরে কারখানায় শ্রমিকদের কর্মবিরতি-বিক্ষোভ

গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভার বেড়াইদেরচালা এলাকায় কাজের মুজুরি কম দেয়া, শ্রমিকদের সাথে কর্মকর্তাদের অসৌজন্যমূলক আচরণসহ নানা দাবি পূরণে এস কিউ সেলসিয়াস লিঃ নামের একটি কারখানার শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করেছে।

আজ রোববার (২২আগষ্ট) সকালে কাজে যোগ না দিয়ে তারা কারখানার মূল ফটকের সামনে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। কর্মবিরতির ঘটনায় কারখানায় ১দিনের জন্য ছুটি ঘোষণা করে কারখানা কর্তৃপক্ষ। 

কারখানার শ্রমিকরা জানান, হঠাৎ করেই কাজের মুজুরি কমিয়ে দেয়া, অতিরিক্ত কাজের (ওভার টাইম) মুজুরি না দেয়া, দুপুরের খাবারের সুযোগ না দেয়া, শ্রমিকদের নিম্নমানের টিফিন সরবরাহ ও কারখানার অভ্যন্তরে শ্রমিকদের সাথে কর্মকর্তাদের দুর্ব্যবহারের ঘটনায় শ্রমিক অসন্তোষ তৈরি হয়েছে। 

কারখানাটি বিভিন্ন সময় আন্তর্জাাতিক মানদণ্ড অনুসরণের কথা বিভিন্ন ভাবে প্রচার করলেও কারখানায় শ্রমিকদের নূন্যতম সম্মান নেই। এছাড়াও মানবসম্পদ বিভাগে স্থানীয় কয়েকজনকে নিয়োগ দিয়েছেন মালিকপক্ষ। তাদের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের বিভিন্নভাবে ভীতি প্রদর্শণ, নারী শ্রমিকদের হয়রানী ও  গালিগালাজের অভিযোগ রয়েছে। তদন্ত করে কারখানার অসাধু কর্মকর্তাদের অপসারণ চায় শ্রমিকরা। 

কারখানার প্যাকিং বিভাগের শ্রমিক খাইরুল ইসলাম বলেন, হঠাৎ করেই কোন ঘোষণা না দিয়েই আমাদের কাজের মুজুরি কমিয়ে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বর্তমান পরিস্থিতিতে এমনিতেই আমাদের চলতে কষ্ট হচ্ছে। বেতন কমিয়ে দেয়ায় কি করে আমরা চলব।

লিংকিং বিভাগের শ্রমিক ফরিদ মিয়া বলেন, আমাদের ১৪ ঘন্টা কাজ করিয়ে মুজুরির সময় দেয়া হয় ১০ ঘন্টার। ছুটির দিনও কাজ করানো হয় শ্রমিকদের। অতিরিক্ত কাজ করানোর পর শ্রমিকদের কোন মুজুরি দেয়া হয় না। শ্রমের মুুজুরি দিতে তারা নানাভাবে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে। প্রতিবাদ করলে চাকুরিচ্যুতির হুমকি ও ভয়ভীতি দেখানো হয়। এ কারখানায় এখন আর কাজের সঠিক পরিবেশ নেই।

এ বিষয়ে কারখানার মানবসম্পদ বিভাগের কর্মকর্তা কাজী ইকবাল হোসেন বলেন, শ্রমিকদের দাবী যৌক্তিক। তাদের সাথে কথা হয়েছে, বাৎসরিক বোনাসের টাকা আগামীকাল দিয়ে দেয়া হবে। এছাড়াও অন্যান্য দাবীর বিষয়ে তাদের সাথে কথা হয়েছে।

গাজীপুর শিল্পাঞ্চল পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার রুহুল আমীন বলেন, সকাল থেকেই কারখানায় বিভিন্ন দাবী নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শণ করেছে শ্রমিকরা। পরে তাদের দাবি বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সাথে কথা হয়। তারা যৌক্তিক দাবীগুলো মেনে নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। আগামীকাল সকাল থেকে কারখানায় শ্রমিকদের যোগ দেয়ার কথা রয়েছে।

আরও পড়ুন


বরিশাল সদরের সেই ইউএনওর বিরুদ্ধে ২ মামলার আবেদন

মাহফুজ আনাম ও তার স্ত্রীর সম্পদের উৎস জানতে চাই: অধ্যাপক হীরেন্দ্রনাথ বিশ্বাস

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ, বোনের হাতে বোন খুন

যশোরের ঝিকরগাছা ব্রিজ নির্মাণের প্রতিবাদে মানবন্ধন


NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

সিন্ডিকেট দৌরত্বে আরেক দফা বাড়লো চালের দাম

নয়ন বড়ুয়া জয়, চট্টগ্রাম

চাল আমদানির পরও চট্টগ্রামে চাল সিন্ডিকেটের চালবাজিতে আরেক দফা বেড়েছে সব ধরনের চালের দাম। সপ্তাহ ব্যবধানে চালের দাম বস্তাপ্রতি পাইকারিতে বেড়েছে দেড়শ টাকা পর্যন্ত। এর প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারে। 

কিছুদিন আগেও চাল আমদানির খবরে চট্টগ্রামের সবচেয়ে বড় চালের মোকাম পাহাড়তলী এবং চাক্তাই খাতুনগঞ্জে কমেছে সর ধরনের চালের দাম। এখনও আমদানি চালের পাশাপাশি দেশীয় চালে ভরপুর চালের মোকাম। তবুও নানা অজুহাতে আবারো বেড়েছে সব ধরনের চালের দাম। পাইকাররা বলছেন উত্তরবঙ্গের সিন্ডিকেটের কারণে প্রভাব পড়েছে বাজারে।

পাইকারি বাজারের চেয়ে খুচরা বাজারে বিশাল ফারাক থাকায় মহা বিপাকে ক্রেতারা। আর খুচরা ব্যবসায়ীরা বলছেন পাইকারী বাজারের চালের দাম বেশি হওয়ায় বাড়তি দামে বিক্রি করছে তারা। তবে জেলা প্রশাসনের তদারকিতেও উঠে এসেছে চট্টগ্রামের চাল ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের নাম।

আরও পড়ুন:


ফুটবলে ক্যারিশমা দেখিয়ে অষ্টমবারের মতো গিনেস বুকে বাংলাদেশের ফয়সাল

ইসরায়েলের আয়রন ডোমের জন্য ১০০ কোটি ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বব্যাপী স্থিতিশীল খাদ্য ব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!


আমদানি করা পাইজাম চালের বস্তা বিক্রি হচ্ছে পাইকারিতে সাড়ে ২২শ থেকে ২৩ শ পর্যন্ত। আর দেশীয় পাইজাম বিক্রি হচ্ছে ২৪শ থেকে ২৫শ পর্যন্ত। যা এক সপ্তাহ আগে বস্তাপ্রতি ১শ থেকে দেড়শ টাকা পর্যন্ত কম ছিল। একই ভাবে বেড়েছে নাজিরশাইল সেদ্ধ এবং আতপ চালসহ সব ধরনের চালের দাম।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ইভ্যালী, ই-অরেঞ্জসহ নানা প্রতিষ্ঠান থেকে টাকা উদ্ধারে মরিয়া গ্রাহকরা

সুলতান আহমেদ

দিশেহারা এখন ইভ্যালী, ই অরেঞ্জ সহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগকারিরা। টাকা উদ্ধারে মরিয়া গ্রাহকরা আন্দোলন সংগ্রামও করছেন নিয়মিত। কিভাবে টাকা পাওয়া যাবে সেই প্রশ্নই আসছে ঘুরেফিরে। তবে ইতিহাস বলছে, এই ধরনের প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করে অর্থ ফিরে পাওয়ার নজির নেই। ইভালী, ই অরেঞ্জের গ্রাহকদের ক্ষেত্রেও কি ঘটবে তারই পুনরাবৃত্তি? 

চলতি শতাব্দির শুরুর দিকের কথা, যুব কর্মসংস্থান সোসাইটি বা যুবক নামের প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহককে অতি মুনাফার লোভ দেখিয়ে হাতিয়ে নেয় কোটি কোটি টাকা। ২০০৫ সালের দিকে তাদের কার্যক্রম নিয়ে গণমাধ্যমে লিখা ‍শুরু হলে তদন্তে নামে কেন্দ্রিয় ব্যাংক। ২০০৭ সালে তাদের কার্যক্রম বন্ধ করে বিনিয়োগকারিদের টাকা ফেরত দিতে নির্দেশনাও আসে। তবে ১৪ বছরেও ৩ লাখ ৪ হাজার গ্রাহক তাদের পাওণা ২,৬০০ কোটি টাকা ফেরত পায়নি। যদিও যুবকের কেনা জমির মূল্য বেড়ে এখন দাড়িয়েছে প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকা। 

একসময় পল্টন, কাকরাইল এলাকায় সরব ছিল ডেসটিনির গ্রাহকদের উপস্থিতিতে। ২০১২ সালে সেই প্রতিষ্ঠানের মালিকসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে ৪,১১৯ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া ও পাচারের অভিযোগে মামলা হয়। সেই মামলায় তারা রয়েছেন কারাগারে। তবে এখন পর্যন্ত কোন টাকা ফেরত পায়নি গ্রাহকরা। 

১০ মাসে স্বর্ণের ব্যবসা করে বিনিয়োগ দ্বিগুন করে দেয়ার প্রলোভন নিয়ে গ্রাহকের ৬ হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় ইউনিপে টু ইউ। প্রতারণার অভিযোগে তাদের কাছ থেকে জব্দ করা হয় ৪২০ কোটি টাকা। উচ্চ আদালতের রায়ের পরও এক টাকাও ফেরত পায়নি গ্রাহকরা।


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


 

প্রতারণার আধুনিকতম ভার্সন এই ইভ্যালী, ই অরেঞ্জ। তাদের টাকা ফেরত পেতে আন্দোলন সংগ্রাম অব্যাহত রেখেছে গ্রাহকরা। যদিও অ্যার্টনি জেনারেল বলছেন, প্রচলিত আইনে গ্রাহকের অর্থ ফিরে পাওয়ার সম্ভাবনা কম।

তবে সরকারের উচ্চ মহলের আন্তরিকতা থাকলে আংশিক হলেও গ্রাহকদের বিনিয়োগ ফিরেয়ে দেয়া সম্ভব বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

লাভের আশায় আলু মজুত করে লোকসানের কবলে পড়েছেন আলুচাষী ও মজুতদাররা

সেতু ইসলাম

আলু উৎপাদনে শীর্ষ জেলা মুন্সিগঞ্জের চাষীরা আগামীতে আলু চাষ করবে কি না এ নিয়ে শঙ্কা তৈরী হয়েছে। লাভের আশায় আলু মজুত করে এখন বড় লোকসানের কবলে পড়েছেন মুন্সিগঞ্জের আলুচাষী ও মজুতদাররা। 

খুচরা বাজারে আলুর ভালো দাম থাকলেও দাম কম পাইকারি বাজারে। এতে উৎপাদন ও হিমাগারে সংরক্ষণের খরচের চেয়ে বস্তাপ্রতি ৪শ থেকে ৫শ টাকা কম দামে বিক্রি করতে হচ্ছে আলু। 

আরও পড়ুন:


এক বছরের মধ্যে করোনা ভাইরাস মহামারি শেষ হবে: ব্যানসেল

ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!

টাঙ্গাই‌লে বাস- ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে নিহত ২


আলু মজুদ করে মাথায় হাত মুন্সিগঞ্জের চাষিদের। এবছর মুন্সিগঞ্জ জেলায় উৎপাদন হয়েছে প্রায় সাড়ে ১২ লাখ টন। এর মধ্যে ৭৪টি হিমাগারে সংরণ করা প্রায় ৫ লাখ ৮০ হাজার টন। পাইকারি বাজারে আলু বিক্রি হচ্ছে ১০ থেকে সাড়ে ১০ টাকায়। 

অথচ সব খরচ মিলিয়ে কেজি প্রতি খরচ হয়েছে ১৮ থেকে ১৯ টাকা। অর্থাৎ পাইকারি পর্যায়ে কেজি প্রতি কৃষকদের লোকসান ৭ থেকে ৯ টাকা। বস্তাপ্রতি লোকসান দাঁড়িয়ে ৪শ থেকে সাড়ে ৪শ টাকা।

আর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বলছে , যদি ন্যায্যমূল্যে টিসিবির পণ্যের সঙ্গে আলুকে অন্তর্ভুক্ত করা যায় এবং ভ্রাম্যমাণ আদলতের মাধ্যমে বাজার মনিটরিং করা হয় তাহলে কিছুটা সুফল পাবে কৃষক। এই সংকট থেকে উত্তরণের জন্য প্রশাসনে সহায়তার দাবি কৃষকদের।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

দাম বেড়েছে পোল্ট্রি মুরগি-ডিম, চড়া আটা-রসুনও

অনলাইন ডেস্ক

দাম বেড়েছে পোল্ট্রি মুরগি-ডিম, চড়া আটা-রসুনও

রাজধানীর খুচরা বাজারে সপ্তাহের ব্যবধানে অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে ব্রয়লার (পোল্ট্রি) মুরগি ও ডিমের দাম। কেজিতে ১০-২০ টাকা বেড়ে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৬০ থেকে সর্বোচ্চ ১৭০ টাকা। 

পাশাপাশি হালিতে ৩-৪ টাকা বেড়ে ফার্মের ডিম বিক্রি হচ্ছে ৪০-৪১ টাকা। এছাড়া সাতদিনের ব্যবধানে আটা, পাম অয়েল, আদা-রসুন ও দারুচিনি বাড়তি দরে বিক্রি হচ্ছে। 

বৃহস্পতিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার, নয়াবাজার ও মালিবাগ কাঁচাবাজার ঘুরে ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

এ দিন সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) দৈনিক বাজার মূল্য তালিকায় ব্রয়লার মুরগি ও ডিমের দাম বাড়ার চিত্র লক্ষ্য করা গেছে। 

টিসিবি বলছে, সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতি কেজি মুরগির দাম বেড়েছে ৬ দশমিক ৯০ শতাংশ। মাসের ব্যবধানে বেড়েছে ১৪ দশমিক ৮১ শতাংশ। এছাড়া গত বছর একই সময়ের তুলনায় বর্তমানে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি ৩৮ দশমিক ৭৪ শতাংশ বেশি দরে বিক্রি হচ্ছে। পাশাপাশি প্রতি হালি ডিম সপ্তাহের ব্যবধানে ৫ দশমিক ৪৮ শতাংশ বেশি দরে বিক্রি হচ্ছে। মাসের ব্যবধানে ও গত বছর একই সময়ের তুলনায় বিক্রি হচ্ছে ৬ দশমিক ৯৪ শতাংশ।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে খুচরা বাজারের ডিম কিক্রেতা আলী আহম্মেদ জানান, সরবরাহ কমায় ডিমের দাম হঠাৎ বেড়ে গেছে। সপ্তাহ আগে প্রতি হালি ফার্মের ডিম বিক্রি করেছি ৩৭-৩৮ টাকা, যা এখন বিক্রি করতে হচ্ছে ৪০-৪১ টাকা। একই ডিম মাসখানেক আগে বিক্রি করেছি ৩৫-৩৬ টাকা।

রও পড়ুন:


সেই বাংলা ছবি থেকে সানি লিওনের অংশটি বাদ

অনলাইনে পণ্য ডেলিভারির সময় নির্ধারণ করে দিলো মন্ত্রণালয়

ভ্রুন নষ্ট না করলে তালাক দেয়ার হুমকি স্বামীর

মানবতাবিরোধী মামলার আসামি শহীদুল্লাহ ফকির গ্রেপ্তার


NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি

অনলাইনে পণ্য ডেলিভারির সময় নির্ধারণ করে দিলো মন্ত্রণালয়

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইনে পণ্য ডেলিভারির সময় নির্ধারণ করে দিলো মন্ত্রণালয়

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় ডিজিটাল কমার্স সেল অনলাইনে কেনাকাটার বিষ‌য়ে গণবিজ্ঞপ্তি দি‌য়ে ক্রেতা ও বি‌ক্রেতা‌দের সতর্ক ক‌রে‌ছে।

গণবিজ্ঞপ্তি বলা হয়েছে, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে একই শহরের ভেতরে অগ্রিম অর্থ নেওয়ার ৫ দিনের ম‌ধ্যে ক্রেতাদের কাছে পণ্য ডেলিভারি দিতে হবে। আর ভিন্ন শহর বা গ্রামের ক্ষেত্রে পণ্য সরবারাহে সময় পা‌বে ১০ দিন।

গণবিজ্ঞপ্তি আরও বলা হ‌য়ে‌ছে, সম্প্রতি বিভিন্ন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ভােক্তা সাধারণের নানাভাবে প্রতারিত হওয়ার তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। এ সমস্যা নিরসনে সরকার ইতােমধ্যে ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা-২০২১ জারি করেছে। 

এ নির্দেশিকা অনুসারে অগ্রিম পরিশােধের ক্ষেত্রে ক্রেতা ও বিক্রেতা একই শহরে অবস্থান করলে ক্রয়াদেশ গ্রহণের পরবর্তী সর্বোচ্চ পাঁচ দিন এবং ভিন্ন শহরে বা গ্রামে অবস্থিত হলে সর্বোচ্চ ১০ (দশ) দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার বিধান রাখা হয়েছে।

এছাড়া গ্রাহকের সুরক্ষার স্বার্থে পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার পর পেমেন্ট গেটওয়ে হতে অর্থ ছাড়করণের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে অনলাইন পেমেন্ট অপেক্ষাকৃত নিরাপদ।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


এ অবস্থায় ডিজিটাল কমার্স পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান থেকে সতর্কতার সঙ্গে দ্রব্যাদি ক্রয়ের জন্য ক্রেতা সাধারণকে অনুরােধ ক‌রে‌ছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। একই সঙ্গে ডিজিটাল কমার্স প্রতিষ্ঠান ব্যবসায় পরিচালনায় ‘ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ২০২১’ এর ব্যত্যয় পরিলক্ষিত হলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট বন্ধ করাসহ অন্যান্য আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর