২৩ আগস্ট: ইতিহাসে আজকের এই দিনে

অনলাইন ডেস্ক

২৩ আগস্ট: ইতিহাসে আজকের এই দিনে

আজ সোমবার, ২৩ আগস্ট ২০২১। গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ২৩৫তম (অধিবর্ষে ২৩৬তম) দিন। বছর শেষ হতে আরো ১৩০ দিন বাকি রয়েছে। এক নজরে দেখে নিন, ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলী:
১৭৯৯ - নেপোলিয়ন মিসর ত্যাগ করে ফ্রান্সের উদ্দেশে যাত্রা করেন।
১৮২১ - মেক্সিকো স্বাধীনতা ঘোষণা করে।
১৮৭৫ - বাংলার প্রথম অভিনেত্রী-নাট্যকার গোলাপের [সুকুমারী দত্ত] সাহায্যার্থে তার রচিত ‘অপূর্ব সতি’ মঞ্চস্থ হয়। এটিই বাংলার প্রথম ফিল্মী-সহায়তা অভিনয় রজনী।
১৯১৪ - জাপান জার্মানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে।
১৯২১ - প্রথম ফয়সল ইরাকের বাদশা পদে অভিষিক্ত হন ।
১৯৩৯ - হিটলারের নেতৃত্বে জার্মানী এবং ষ্ট্যালিনের নেতৃত্বে রাশিয়ার মধ্যে যুদ্ধ বিরতি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।
১৯৪২ - স্তালিনগ্রাদের ঐতিহাসিক যুদ্ধ শুরু হয়।
১৯৪৪ - রুমানিয়ার সামরিক শাসক উৎখাত ।
১৯৬২ - বাংলাদেশে প্রথম প্রাকৃতিক গ্যাসের সন্ধান পাওয়া যায়।
১৯৭৩ - বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় আইভরি কোস্ট।
১৯৯১ - “ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন” প্রতিষ্ঠিত হয়।
১৯৯১ - রুশ প্রজাতন্ত্রে কমিউনিস্ট পার্টিকে নিষিদ্ধ করেন।
১৯৯১ - সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রাসাদ ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হয় এবং গর্বাচেভ পুনরায় ক্ষমতা ফিরে পান।
২০১৬ - আজকের দিনে ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় কলকাতার রাজভবনে আকাশবাণী মৈত্রী চ্যানেলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

জন্ম:
১৭৭০ - দার্শনিক হেগেলের জন্ম।
১৭৭৩ - জার্মান দার্শনিক জ্যাকব এফ ফ্রাইসের জন্ম।
১৮৫২ -রাধাগোবিন্দ কর ব্রিটিশ ভারতের একজন খ্যাতনামা চিকিৎসক ।(মৃ.১৯/১২/১৯১৮)
১৯০৮ - রুশ-ফরাসি নাট্যকার আর্থার আদমভের জন্ম।
১৯২৩ - এডগার কড, ইংরেজ কম্পিউটার বিজ্ঞানী।
১৯৩১ - নোবেলজয়ী [১৯৭৮] মার্কিন অণুজীববিজ্ঞানী হ্যামিলটন ও থানেল স্মিথের জন্ম।

আরও পড়ুন


মেক্সিকোর পূর্বাঞ্চলীয় উপকূলে ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে নিহত ৮

আফগানিস্তানের পুনর্গঠনে তুরস্ককে প্রয়োজন: তালেবান

তরকারিতে বেশি তেল পড়ে গেলে কী করবেন জেনে নিন

পদ্মার ভাঙনে দিশেহারা মুন্সিগঞ্জের বাসিন্দারা, পানির নিচে তিন গ্রাম


মৃত্যু:

৬৩৪ - ইসলামের প্রথম খলিফা হজরত আবু বকর সিদ্দিক [রা.] ইন্তেকাল করেন।
১৮০৬ - চার্লস অগাস্টিন কুলম্ব, ফরাসি পদার্থবিজ্ঞানী।
১৮৮৬ - পণ্ডিত দ্বারকানাথ বিদ্যাভূষণ বাঙালি শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক এবং সমাজসেবক।(জ.১৮১৯)
১৯৪৪ - দ্বিতীয় আবদুল মজিদ, সর্বশেষ উসমানীয় খলিফা।
১৯৭৫ - অমল হোম, বাঙালি সাংবাদিক এবং সাহিত্যিক।(জ.১০/১১/১৮৯৩)
১৯৮৭ - সমর সেন, ভারতীয় বাঙালি কবি এবং সাংবাদিক।(জ.১০/১০/১৯১৬)
২০১৮ - প্রথিতযশা প্রবীণ ভারতীয় সাংবাদিক কুলদীপ নায়ার।(জ.১৯২৩)
২০১৯ -
অধ্যাপক মোজাফফর আহমদ, বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ
কারী আব্দুল গণী, বাংলাদেশি ইসলামি পণ্ডিত ও কারী

দিবস:
আন্তর্জাতিক দাস প্রথা বিলোপ দিবস

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

শুক্রবার রাজধানীর যেসব মার্কেট ও দর্শনীয় স্থান বন্ধ থাকবে

অনলাইন ডেস্ক

শুক্রবার রাজধানীর যেসব মার্কেট ও দর্শনীয় স্থান বন্ধ থাকবে

আজ শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সাপ্তাহিক ছুটির দিন। এদিন অনেকেই কেনাকাটা করতে বা ঘুরতে যেতে চান। এর আগে এক নজরে দেখে নিন আজ রাজধানীর কোনো কোনো এলাকার দোকানপাট, মার্কেট ও দর্শনীয় স্থান বন্ধ থাকবে।

যেসব এলাকার দোকানপাট বন্ধ:
বাংলাবাজার, পাটুয়াটুলী, ফরাশগঞ্জ, শ্যামবাজার, জুরাইন, করিমউল্লাহবাগ, পোস্তগোলা, শ্যামপুর, মীরহাজীরবাগ, দোলাইপাড়, টিপু সুলতান রোড, ধূপখোলা, গেণ্ডারিয়া, দয়াগঞ্জ, স্বামীবাগ, ধোলাইখাল, জয়কালী মন্দির, যাত্রাবাড়ীর দক্ষিণ-পশ্চিম অংশ, ওয়ারী, আহসান মঞ্জিল, লালবাগ, কোতোয়ালি থানা, বংশাল, নবাবপুর, সদরঘাট, তাঁতীবাজার, লক্ষ্মীবাজার, শাঁখারীবাজার, চাঁনখারপুল, গুলিস্তানের দক্ষিণ অংশ।

যেসব মার্কেট বন্ধ থাকবে: 
আজিমপুর সুপার মার্কেট, গুলিস্তান হকার্স মার্কেট, ফরাশগঞ্জ টিম্বার মার্কেট, শ্যামবাজার পাইকারি দোকান, সামাদ সুপার মার্কেট, রহমানিয়া সুপার মার্কেট, ইদ্রিস সুপার মার্কেট, দয়াগঞ্জ বাজার, ধূপখোলা মাঠ বাজার, চকবাজার, বাবুবাজার, নয়াবাজার, কাপ্তানবাজার, রাজধানী সুপার মার্কেট, দয়াগঞ্জ সিটি করপোরেশন মার্কেট, ইসলামপুর কাপড়ের দোকান, ছোট কাঁটারা, বড় কাঁটারা হোলসেল মার্কেট, শরীফ ম্যানশন, ফুলবাড়িয়া মার্কেট, সান্দ্রা সুপার মার্কেট।

বন্ধ থাকবে যেসব দর্শনীয় স্থান: 
সামরিক জাদুঘর : এটি বিজয় সরণিতে অবস্থিত। প্রতিদিন সকাল ১০টা ৩০ মিনিট থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত খোলা থাকে। বৃহস্পতি ও শুক্রবার সাপ্তাহিক বন্ধ।

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর, আগারগাঁও : বৃহস্পতি ও শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির জন্য বন্ধ থাকে। শনি থেকে বুধবার প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা থাকে। প্রবেশমূল্য জনপ্রতি ৫ টাকা। এ ছাড়া শনি ও রবিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে ১০ টাকার টিকিটের বিনিময়ে টেলিস্কোপে আকাশ পর্যবেক্ষণ করা যায়।

শিশু একাডেমি জাদুঘর: শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা থাকে। 

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

এক বছর ধরে একই নম্বরের টিকেট কেটে অবশেষে লটারি জয়!

অনলাইন ডেস্ক

এক বছর ধরে একই নম্বরের টিকেট কেটে অবশেষে লটারি জয়!

অধ্যাবসায়ের চরম দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন এক আমেরিকান তরুণী। টানা এক বায়ান্ন সপ্তাহ ধরে একই নম্বরের টিকিট কেটে অবশেষে মিলল পুরষ্কার। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

ঘটনা যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান রাজ্যের। ওই তরুণীর নাম জানা যায়নি। তবে তিনি ওকল্যান্ড কাউন্টির বাসিন্দা। মিশিগানলটারি.কম নামের একটি লটারি সংস্থা থেকে অনলাইনে টিকিট কিনতেন তিনি। 

সংবাদমাধ্যমকে তরুণী বলেন, ‘‘এক বছর আগে থেকে প্রতি সপ্তাহে আমি টিকিট কিনি। প্রতি বার একই নম্বরের টিকিট কিনি। অনলাইনেই খেলা হয়। এই সপ্তাহে জ্যাকপটে আমার টিকিটের নম্বর দেখে প্রথমে বিশ্বাস করতে পারিনি। সঙ্গে সঙ্গে সংস্থায় ফোন করি। ওরা জানায়, আমি জ্যাকপট পেয়েছি।’’

রও পড়ুন:

জন্মদিনে সৃজিতের কাছে কী চাইলেন মিথিলা?

বায়ু দূষণের তালিকায় বাংলাদেশ প্রথম, ঢাকা তৃতীয়

৪৫ মিনিট পর হাসপাতালে অলৌকিকভাবে বেঁচে উঠলেন নারী!

গাড়ি সাইড দেয়ায় ব্যবসায়ীকে মারধর করলেন এমপি রিমন!


ইতিমধ্যেই তার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা পড়েছে বলে জানিয়েছেন তরুণী। সেই টাকা দিয়ে কী করবেন তা এখনও ঠিক করে না উঠতে পারলেও পরিবারের সঙ্গে বেড়াতে যেতে চান বলেই সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন তিনি।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

'হানি' বা 'সুইটি' ডাকলে চাকরি থাকবে না

অনলাইন ডেস্ক

'হানি' বা 'সুইটি' ডাকলে চাকরি থাকবে না

আপনার পরিচিত কারো অফিসের নারী সহকর্মীকে নিজের দেয়া কোন নাম কিংবা আদরের কোন ডাক দেয়ার অভ্যাস থাকলে তাকে সতর্ক করে দিন। কারণ এই অভ্যাস বিপদ ডেকে আনতে পারে। এমনকি হারাতে হতে পারে চাকরিও। 

এমনই এক ঘটনা ঘটেছে ইংল্যান্ডের ম্যানচেষ্টারে। মাইক হার্টল নামে ওই ব্যক্তি তার নারী সহকর্মীদেরকে প্রায়ই 'সুইটি', 'হানি', 'বেবস' ইত্যাদি বলতেন। ফলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়ে। আর এই অপরাধে তাকে চাকরিচ্যুত করে কর্তৃপক্ষ। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

মাইক আদালতের দ্বারস্থ হলেও তিনি যা করেছেন তা যে অপরাধের পর্যায়ে পড়ে সেটিই তাকে মনে করিয়ে দেয়া হয়েছে। আদালত জানিয়ে দেয় সংস্থার সিদ্ধান্তই বহাল থাকবে।

রও পড়ুন:

জন্মদিনে সৃজিতের কাছে কী চাইলেন মিথিলা?

বায়ু দূষণের তালিকায় বাংলাদেশ প্রথম, ঢাকা তৃতীয়

৪৫ মিনিট পর হাসপাতালে অলৌকিকভাবে বেঁচে উঠলেন নারী!

গাড়ি সাইড দেয়ায় ব্যবসায়ীকে মারধর করলেন এমপি রিমন!


তবে মাইক কোন খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে ওই নামে ডাকতেন না বলে আদালতে আত্মরক্ষার চেষ্টা করেন। তিনি অভিযোগ করেন তাকে অন্যায়ভাবে চাকরি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। তিনি শুধু নারীদের নন, পুরুষ সহকর্মীদেরকেও মেট, প্যাল ইত্যাদি বলে ডাকেন। তবে তার কোন কথাই কানে নেয়নি আদালত।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

এক ডালে সবচেয়ে বেশি টমেটো ফলানোর বিশ্বরেকর্ড!

অনলাইন ডেস্ক

এক ডালে সবচেয়ে বেশি টমেটো ফলানোর বিশ্বরেকর্ড!

এক ডালে সর্বোচ্চ সংখ্যক টমেটোর চাষ করে রেকর্ড গড়েছেন ৪৩ বছর বয়সীব্রিটিশ নাগরিক ডগলাস স্মিথ। পেশায় তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার কর্মকর্তা ডগলাস টমেটো গাছের একটি ডালে টমেটো ফলিয়েছেন ৮৩৯টি। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বীজ থেকে প্রথমে টমেটো গাছের চারা বানান স্মিথ। পরে সেই চারাগাছের যত্ন নিয়েই সাফল্য অর্জন করেন তিনি। তার সাফল্যের রাস্তায় পৌঁছনোর কথা পড়তে যতটা সহজ মনে হচ্ছে, বাস্তবে তা ছিল না।

শুধুমাত্র ছুটির দিনেই গাছের দেখভাল করার সময় পেতেন তিনি। প্রতি সপ্তাহে ওই ছুটির দিনে তিন থেকে চার ঘণ্টা বাঁধা থাকত গাছের জন্য। টমেটোগুলো তোলার সময় স্থানীয় পুলিশকেও খবর দিয়েছিলেন স্মিথ। যাতে সত্যিই যে গাছের একটি ডালে এতগুলো টমেটো ফলেছিল, তার প্রমাণ থেকে যায়।

রও পড়ুন:

লালন শাহ সেতুতে বাসচাপায় শ্রমিকের মৃত্যু

বায়ু দূষণের তালিকায় বাংলাদেশ প্রথম, ঢাকা তৃতীয়

৪৫ মিনিট পর হাসপাতালে অলৌকিকভাবে বেঁচে উঠলেন নারী!

গাড়ি সাইড দেয়ায় ব্যবসায়ীকে মারধর করলেন এমপি রিমন!

স্মিথের আগে টমেটো ফলানোর রেকর্ড ছিল গ্রাহাম ট্যান্টার নামে এক ব্যক্তির। ১১ বছর আগে গাছের এক ডালে তিনি টমেটো ফলিয়েছিলেন ৪৪৮টি। তার রেকর্ড প্রায় দ্বিগুণ ব্যবধানে ভাঙলেন ডগলাস। তবে এর আগে ব্রিটেনের সবচেয়ে বড় টমেটো গাছ বানানোর রেকর্ডও রয়েছে ডগলাসের ঝুলিতে।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

১৭ বছর পর বিচ্ছেদ, আনন্দে ডিভোর্স পার্টি দিলেন নারী!

অনলাইন ডেস্ক

১৭ বছর পর বিচ্ছেদ, আনন্দে ডিভোর্স পার্টি দিলেন নারী!

বিয়ে নামক সামাজিক প্রথা ক্ষেত্রবিশেষে ভিন্ন আচরণ করতে পারে। ৪৫ বছর বয়সী যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা সোনিয়া গুপ্তের জীবনে হয়তো বিয়েটা বিভীষিকার মতোই ছিলো। না হলে কী তিনি বিচ্ছেদের আনন্দে ডিভোর্স পার্টি দিয়ে বসেন!

১৭ বছরের বিবাহিত জীবনের শেষ উপলক্ষে পরিবারের সদস্য ও বন্ধুদের আমন্ত্রণ জানিয়ে পার্টি দিয়েছেন সোনিয়া। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি দুই সন্তানের জননী। পার্টিতে তাকে ঝলমলে রঙিন পোশাকের ওপর 'ফাইনালি ডিভোর্স' লেখা সাটিন স্যাশ পরতে দেখা গেছে। পার্টিতে আসা সবাইকেই ঝলমলে পোশাক পরে আসতে বলেন তিনি।

২০০৩ সালে ভারতে বিয়ে হয় সোনিয়ায়। বিয়ের পরই তিনি অনুধাবন করেন, তার বিবাহিত জীবন সুখের নয়। এরপর বহু বছর ধরে বিয়ে টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করেন তিনি। 

বিয়ে ভাঙার ব্যাপারে সোনিয়া বলেন, আমি যখন ডিভোর্সের সিদ্ধান্তের ব্যাপারে আমার পরিবারকে জানাই, তারা আমার এই সিদ্ধান্ত একদমই মেনে নেয়নি। কিন্তু আমার দুই ছেলে আর বন্ধুরা আমাকে সব সময় সমর্থন জানিয়েছেন।

রও পড়ুন:

লালন শাহ সেতুতে বাসচাপায় শ্রমিকের মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ঢাকার যে এলাকায় মার্কেট বন্ধ

মাল্টা চাষে মডেল উজিরপুরের কৃষক শ্যামল, বছরে লাখ টাকা আয়

গাড়ি সাইড দেয়ায় ব্যবসায়ীকে মারধর করলেন এমপি রিমন!


নিজের ব্যক্তিত্বের আঙ্গিকেই পার্টির থিম ঠিক করেছিলেন সোনিয়া। তিনি নিজেকে একজন খোলামনের মানুষ হিসেবে অভিহিত করেছেন। কিন্তু তার স্বামী ছিলেন পুরোপুরি তার বিপরীত।  বিয়ের শুরু থেকেই ভীষণ মনমরা থাকতেন সোনিয়া। তিনি জানতেন তাদের জুটি একদম মানায় না। 

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর