সূরা ইয়াসিন বুঝে পড়ার উপকারিতা
সূরা ইয়াসিন বুঝে পড়ার উপকারিতা

সূরা ইয়াসিন বুঝে পড়ার উপকারিতা

অনলাইন ডেস্ক

পবিত্র কোরআনুল কারিমের ৩৬তম সূরা হল সূরা ইয়াসিন। এই সূরাকে কুরআনের হৃদয় বলা হয়েছে। সূরাটিতে রয়েছে ৮৩টি আয়াত, পাঁচটি রুকু এবং ৭টি মুবিন। সূরা ইয়াসিনের ফজিলত সম্পর্কে হাদিসের অনেক বর্ণনা রয়েছে।

এ সূরা নিয়মিত তেলাওয়াত ও আমলের রয়েছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ফজিলত।

সূরা ইয়াসিন বুঝে পড়ায় রয়েছে অনেক উপকারিতা। এ সূরায় মানুষকে পরকালের প্রস্তুতির দিকে আহবান করে। আর পরকালভীতিই মানুষকে সৎকর্মে উদ্বুদ্ধ করে এবং অবৈধ বাসনা ও হারাম কাজ থেকে বিরত রাখে।

সুতরাং দেহের সুস্থতা যেমন অন্তরের সুস্থতার ওপর নির্ভরশীল তেমনি ঈমানের সুস্থতা পরকালের চিন্তার ওপর নির্ভরশীল।

হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘প্রত্যেক বস্তুরই একটা হৃদয় থাকে আর কুরআনের হৃদয় হলো সূরা ইয়াসিন।   যে ব্যক্তি সূরা ইয়াসিন একবার পড়বে, মহান আল্লাহ তাকে দশবার পুরো কুরআন পড়ার সওয়াব দান করবেন। ’ (তিরমিজি) 

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আরও বলেছেন, 'সূরা ইয়াসিন কুরআনের রূহ বা হৃৎপিণ্ড। যে ব্যক্তি আল্লাহ ও পরকালের কল্যাণ লাভের জন্য সূরা ইয়াসিন পাঠ করবে তার জন্য রয়েছে মাগফিরাত বা ক্ষমা। '

আরও পড়ুন


রোহিঙ্গারাও সব ধরনের নাগরিক অধিকার ভোগ করবে: মিয়ানমার

আফগান নাগরিকদের দেশত্যাগে উৎসাহ দেবেন না: তালেবান

সুমদ্রপাড়ে স্বচ্ছ পোশাকে শ্রাবন্তী, কী বললেন মিমি!


এ সূরার নিয়মিত আমলকারীর প্রতি আল্লাহর সন্তুষ্টি থাকে। আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনকারীর কোনো গোনাহ থাকে না। সে দিক থেকে পরকালীন কল্যাণের জন্য সুরা ইয়াসিন বুঝে পড়া খুবই জরুরি।

মহান আল্লাহ তাআলা সকল মুসলিম মুমিনকে সূরা ইয়াসিন পড়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।

news24bd.tv রিমু