শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ: ঠাকুরগাঁওয়ে মাদ্রাসার খেলার মাঠেই ধান চাষ!

আব্দুল লতিফ লিটু, ঠাকুরগাঁও

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ: ঠাকুরগাঁওয়ে মাদ্রাসার খেলার মাঠেই ধান চাষ!

স্কুল-মাদ্রাসা বন্ধের সুযোগে খেলার মাঠেই করা হয়েছে ধান চাষ। নষ্ট হয়েছে শিক্ষার্থীদের খেলাধুলার পরিবেশ। অভিযোগ উঠেছে, এ কাজে সহায়তা করছেন, অত্র মাদ্রাসার সুপার। জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থার আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন।

ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ ইউনিয়নের চন্দন চহট আলহাজ ইমারউদ্দিন দাখিল মাদ্রাসা মাঠে এখন ধান চাষের দৃশ্য চোখে পড়বে।

সম্প্রতি করোনাকালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার সুযোগ নিয়ে শিক্ষার্থীদের খেলার মাঠে রোপন করা হয়েছে ধান। যাতে নষ্ট হচ্ছে শিক্ষার্থীদের খেলা-ধুলার পরিবেশ। অভিযোগ উঠেছে, এ কাজে সহায়তা করছেন মাদ্রাসার সুপার মমতাজ আলী। জড়িত রয়েছেন মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতিও।

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর এক অভিভাবক বলেন, দেড় বছর যাবত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। ছেলে-মেয়েরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে পারছে না। আর সেই সুযোগে মাদ্রাসার মাঠে ধান চাষ করা কর্তৃপক্ষের ঠিক হয়নি। এতে মাদ্রাসার মাঠে খেলাধুলার পরিবেশ নষ্ট হয়েছে।

চন্দন চহট আলহাজ ইমারউদ্দিন দাখিল মাদ্রাসার সুপার মমতাজ আলী জানান, ১৯৯৫ সালে আমরা মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা করি। এরপর থেকে স্থানীয়দের সহযোগীতায় মাদ্রাসার কার্যক্রম চালিয়ে আসছি। শিক্ষক-কর্মচারিদের বেতন দিতে পারি না। অফিস সহকারি অনুরোধে করোনাকালে প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারণে ধান চাষের অনুমতি দিয়েছি। তাছাড়া মাদ্রাসা বন্ধের কারণে শিক্ষার্থীরা খেলাধুলাতো করে না।

আরও পড়ুন


জিয়াউর রহমান কোথায় যুদ্ধ করেছে, এমন নজির নাই: প্রধানমন্ত্রী

‘চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়ার লাশ নাই, ওখানে এতো নাটক কেন?’

বাবা ও জাপানি মা একমত হলে দুই শিশুকে হোটেলে রাখার সিদ্ধান্ত: হাইকোর্ট

পরীমণির জামিন শুনানি হবে আজই


মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেনের কাছে ধান রোপনের বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, মাদ্রাসা যেহেতু এমপিও ভুক্ত হয়নি। করোনার জন্য বন্ধও রয়েছে। তাই ফেলে না রেখে অফিস কর্মচারি ধান রোপন করেছেন এতে সমস্যা তো দেখছি না।

রাণীশংকৈল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির বলছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাঠে ধান চাষ করার কোনো বিধান নেই। মাঠটি খেলার জন্য শিক্ষার্থীদের জন্য উম্মুক্ত থাকবে। ‘বিষয়টি আপনাদের মাধ্যমে জানলাম। এ বিষয়ে মাদ্রাসার সুপারকে ডেকে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

শিক্ষার্থীদের খেলা-ধুলার পরিবেশ ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

গুরুদাসপুরে মহিলা ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম

নাটোর প্রতিনিধি:

গুরুদাসপুরে মহিলা ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা ইউনিয়ন পরিষদের ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত ইউপি সদস্য মোছা. মর্জিনা খাতুন(৪৮) কে কুপিয়ে রক্তাক্ত করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশি মৃত লজের আলীর ছেলে আব্দুল বারীর বিরুদ্ধে। বুধবার সকাল আনুমানিক ৬টার দিকে শিকারপুর নদীর উত্তরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জেরে গত ১৯ অক্টোবর মঙ্গলবার ইউপি সদস্য মর্জিনার ছেলেকে মারপিট করে একটি হাত ভেঙ্গে দেয় প্রতিবেশি আব্দুল বারী, শাহাদত হোসেন, বুদ্দু মোল্লাসহ বেশ কয়েকজন। 

বুধবার সকালে বাড়ির সামনের রাস্তা দিয়ে হাঁটছিল ইউপি সদস্য মর্জিনা বেগম। হাঁটা অবস্থায় অভিযুক্ত ব্যক্তিরা অতর্কিত ভাবে তার শরিরে এলাপাথারিভাবে পিটিয়ে জখম করে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার বাম পায়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। 

আরও পড়ুন


লক্ষ্মীপুরে খোঁজ মিলছে না দুই কিশোরীর

আশুগঞ্জে অজ্ঞাত গাড়ির চাপায় দুই চালকল শ্রমিক নিহত

তিস্তার সব গেট খুলে দেওয়ায় বড় বন্যার আশঙ্কা

প্রবাল দ্বীপ সেন্ট মার্টিন ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা


আহত ইউপি সদস্য মর্জিনা বেগম জানান, তার ছেলে ও তাকে হত্যা চেষ্টার জন্য এই হামলা চালানো হয়েছে। তিনি অপরাধীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানান।

অভিযুক্ত আব্দুল বারীর মুঠোফন বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো.আব্দুল মতিন জানান, ইউপি সদস্যের ছেলেকে মারপিটের ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। ইউপি সদস্যকে মারপিট করার ঘটনায় সরেজমিনে তদন্ত চলছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে আইনআনুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে বিয়ে করা সেই তরুণী এখন নিজের বাড়ি

অনলাইন ডেস্ক

কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে বিয়ে করা সেই তরুণী এখন নিজের বাড়ি

পটুয়াখালীতে কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে জোর করে বিয়ে করা সেই তরুণী ইশরাত জাহান পাখি অবশেষে নিজের বাবার বাড়িতে ফিরে গেছেন।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে ওই তরুণী তার বাবার বাড়িতে ফিরে যায়। এদিকে তার দাবি অনুযায়ী স্বামী নাজমুলসহ ৩ জনকে আসামি করে পাখির পক্ষ থেকে গত ১২ অক্টোবর পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে যৌতুক মামলা করা হয়।

এ বিষয়ে পাখির আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘পাখির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরেই তাদের বিয়ে হয়েছে। কিন্তু বিয়ের পর নাজমুল নানা অজুহাতে পাখির পরিবারের কাছে যৌতুক দাবি করেন। এ ঘটনায় পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. আমিরুল ইসলাম মামলাটি গ্রহণ করে আসামিদের আগামী ৬ ডিসেম্বর আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।


আরও পড়ুন

লক্ষ্মীপুরে খোঁজ মিলছে না দুই কিশোরীর

আশুগঞ্জে অজ্ঞাত গাড়ির চাপায় দুই চালকল শ্রমিক নিহত

তিস্তার সব গেট খুলে দেওয়ায় বড় বন্যার আশঙ্কা

প্রবাল দ্বীপ সেন্ট মার্টিন ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা


এদিকে পাখির বিরুদ্ধে মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, গত ২৭ সেপ্টেম্বর ঢাকায় ইশরাত জাহান পাখির সঙ্গে নাজমুলের বিয়ে হয়। একই দিন নাজমুল তাকে অপহরণ করে বিয়ে করা হয়েছে বলে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। একই মানুষ একই দিনে দুই জায়গায় থাকতে পারেন না। এ বিষয় আমার ক্লায়েন্ট পাখি আইনিভাবে মোকাবিলা করবেন।

পটুয়াখালী সদর থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান জানান, আদালতের নির্দেশে অভিযোগটি এজাহার হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্ত করে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত 

পরবর্তী খবর

পাঁচ বছরের শিশু ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে যুবক আটক

দিনাজপুর প্রতিনিধি:

পাঁচ বছরের শিশু ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে যুবক আটক

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ৫ বছরের শিশু ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে এক যুবক কে আটক করেছে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ। অভিযুক্ত যুবক আব্দুল্লাহ ইবনে আজাদ (২৪) পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের চকচকা গ্রামের আবুল কালাম আজাদের পুত্র।

মামলা বিবরণে জানা যায়, সোমবার বেলা ১২টার সময় আব্দুল্লাহ ইবনে আজাদ পাঁচ বছরের ঐ শিশুটিকে পাখি দেখানোর বাহানায় গ্রামের পার্শবর্তী ধানক্ষেতে অসৎ উদ্দেশ্যে নিয়ে যায়।

এ সময় শিশুটির পরনের কাপড় খোলার সময় সে জোরে চিৎকার করলে এলাকার লোকজন ঘটনাস্থলে হাজির হয়। এর আগেই লোকজনের উপস্থিতি টের পেয়ে আব্দুল্লাহ সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

আরও পড়ুন


লক্ষ্মীপুরে খোঁজ মিলছে না দুই কিশোরীর

আশুগঞ্জে অজ্ঞাত গাড়ির চাপায় দুই চালকল শ্রমিক নিহত

তিস্তার সব গেট খুলে দেওয়ায় বড় বন্যার আশঙ্কা

প্রবাল দ্বীপ সেন্ট মার্টিন ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা


ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ আশ্রাফুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার শিশুর পিতা বাদী হয়ে ফুলবাড়ী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলায় দায়ের করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে গভীর রাতে আব্দুল্লাহ ইবনে আজাদকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। আজ বুধবার সকালে তাকে দিনাজপুরে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

সামাজিক দ্বন্দ্বে শৈলকুপায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ভেঙ্গে দিল প্রতিপক্ষরা

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ

সামাজিক দ্বন্দ্বে শৈলকুপায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ভেঙ্গে দিল প্রতিপক্ষরা

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলায় গত ২৬ জুলাই সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের দু গ্রুপের সহিংসতায় প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত হন দামুকদিয়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে রাশিদুল ইসলাম ওরফে উকিল মৃধা (৪৬)।

এ হত্যাকাণ্ডের পরপরই গ্রামটিতে ব্যাপক লুটপাট ও বাড়ি ঘর ভাঙচুর শুরু হয়। এ পর্যন্ত প্রায় শতাধিক বাড়িতে লুটপাট ও ভাঙ্গচুর করা হয়েছে।

জানা গেছে, হত্যা পরবর্তী সময়ে রাতেই সহিংসতার আশঙ্কায় এক পক্ষ বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। এলাকায় আইন শৃঙ্খলারক্ষার্থে থানা পুলিশ একটি অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করে পালাক্রমে বিভিন্ন অফিসার ও ফোর্স ডিউটি করতো। কিছুদিন আগে ওই গ্রাম থেকে পুলিশ প্রত্যাহার করা হলে প্রতিপক্ষরা শুরু করে তান্ডব। এ তান্ডবে রেহাই পায়নি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ঘরও।

আরও পড়ুন


ভারতের ঢলে বন্যার কবলে তিস্তাপাড়ের মানুষ, আতঙ্কে ঘর ছাড়ছে সবাই

উঠতি নায়িকার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে যে আলাপ হতো আরিয়ানের

বিএনপি নিজেরাই রাজনৈতিকভাবে সাম্প্রদায়িক: ওবায়দুল কাদের

তিন সহোদরের মারামারি, মামলা দিল প্রতিবেশি দুই সরকারি চাকরিজীবীকে


কাসেদ আলির পুত্র আবু কালাম ও ছলিম উদ্দিন শেখের পুত্র ওহিদুল ইসলাম দুলুর ঘরের জানালা-দরজা, ভেতরের বৈদ্যুতিক ওয়্যারিংয়ের তার ও সরঞ্জামাদি এবং ঘরে থাকা কাপড়-চোপড় আসবাবপত্র ও নগদ টাকা লুট করে নেয় প্রতিপক্ষরা।

শৈলকুপা থানার বিদায়ী অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম জানান, এ ব্যাপারে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের আটকের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

ভারতের ঢলে বন্যার কবলে তিস্তাপাড়ের মানুষ, আতঙ্কে ঘর ছাড়ছে সবাই

আব্দুর রশিদ শাহ, নীলফামারী

ভারতের ঢলে বন্যার কবলে তিস্তাপাড়ের মানুষ, আতঙ্কে ঘর ছাড়ছে সবাই

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বুধবার (২০ অক্টোবর) ভোর ৬টা থেকে তিস্তা নদীর পানি নীলফামারী ডিমলার ডালিয়া তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্টে বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

তিস্তার পানি হঠাৎ বেড়ে যাওয়ায় আশে পাশের মানুষের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। ভেঙ্গে গেছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ফ্লাট বাইপাস রাস্তাটিও। 

ভারি বর্ষণ, উজানের ঢল ও ভারতের গজলডোবার সব কয়টি গেট খুলে দেওয়ায় হু হু করে বাড়ছে তিস্তার পানি। ডিমলা উপজেলার ডালিয়া পয়েন্টে সকাল থেকেই তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে উপজেলার টেপাখড়িবাড়ী, গয়াবাড়ী, ছোটখাতা, বাইশ পুকুর, ছাতুনামাসহ তিস্তা নদীবেষ্টিত এলাকা তলিয়ে গেছে। এ কারণে রেড অ্যালার্ট জারি করে মানুষজনকে নিরাপদে সরে যাওয়ার জন্য ঘোষণা দিয়েছে তিস্তা অববাহিকায় পানি উন্নয়ন বোর্ড।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের পানি পরিমাপক নূরুল ইসলাম জানান, উজানের পাহাড়ি ঢলে মঙ্গলবার রাত থেকে তিস্তা নদীর পানি বাড়তে থাকে। বুধবার ভোর ৬টা থেকে তিস্তার পানি ৫৩ দশমিক ২০ সেন্টিমিটার অর্থাৎ বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার (বিপৎসীমা ৫২ দশমিক ৬০ সেন্টিমিটার) ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানির গতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে তিস্তা ব্যারেজের ৪৪টি জলকপাট খুলে রাখা হয়েছে।

ডিমলা উপজেলার পূর্বছাতনাই ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ খান জানান, এলাকার জিরো পয়েন্টে তিস্তার ডান তীর ও গ্রোয়েন বাঁধ হুমকির মুখে পড়েছে। বিশেষ করে গ্রোয়েন বাঁধটির উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। ওই গ্রোয়েনটি বিধ্বস্ত হলে ডান তীর বাঁধসহ এলাকার শত শত বাড়ি তিস্তা নদীতে ভেসে যাবে।

আরও পড়ুন


উঠতি নায়িকার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে যে আলাপ হতো আরিয়ানের

বিএনপি নিজেরাই রাজনৈতিকভাবে সাম্প্রদায়িক: ওবায়দুল কাদের

তিন সহোদরের মারামারি, মামলা দিল প্রতিবেশি দুই সরকারি চাকরিজীবীকে

আবাসিক হোটেলে ‘অসামাজিক কাজ’, ৯ তরুণ-তরুণী গ্রেপ্তার


টেপাখড়িবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক জানান, পরিস্থিতি খুব খারাপ। তিস্তা বাজার, তেলিরবাজার, দোলাপাড়া, চরখড়িবাড়ি এলাকা তলিয়ে গেছে। চরের ফসলের জমি সব পানির নিচে। ঘরবাড়ি ছেড়ে মানুষজন গবাদি পশুসহ নিরাপদে সরে গেছে।

খালিশা চাপানী ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান সরকার বলেন, কার্তিক মাসের এমন হঠাৎ বন্যা এলাকাবাসীকে পথে বসিয়ে দিচ্ছে। এলাকার ছোটখাতা, বাইশপুকুর, সুপারীপাড়া গ্রাম এখন নদীতে পরিণত হয়েছে।

এদিকে, তিস্তার পানির বৃদ্ধির কারনে ভেঙ্গে  গেছে বাঁধ। ভেঙে যাওয়ার কারণে তলিয়ে গেছে চাষাবাদকৃত বিভিন্ন ফসল ও হুমকিতে পড়েছে কয়েক গ্রামের বাড়িঘর  ও রাস্তাঘাট।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর