দেশের উৎপাদিত চিংড়ির ৩২ ভাগই বাগেরহাটের
দেশের উৎপাদিত চিংড়ির ৩২ ভাগই বাগেরহাটের
মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে মতবিনিময়

দেশের উৎপাদিত চিংড়ির ৩২ ভাগই বাগেরহাটের

Other

‘বেশি বেশি মাছ চাষ করি, বেকারত্ব দূর করি’ এই শ্লোগান নিয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে শনিবার দুপুরে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছে বাগেরহাট জেলা মৎস্য বিভাগ। মতবিনিময় সভায় জানান হয় বাগেরহাট জেলায় চিংড়ি, মিষ্টি পানির মাছ, সামুদ্রিক মাছ ও কাঁকড়া উৎপাদনের বার্ষিক পরিমান ১ লাখ ২১ হাজার ৬০১ মেট্রিক টন। এ জেলায় মাছ উৎপাদনের ৬০ ভাগই আসে গলদা ও বাগদা চিংড়ি খাত থেকে।

৭৪ হাজার ২২৮ দশমিক ৮ হেক্টর আয়তনের খামারগুলো থেকে গতবছর চিংড়ি উৎপাদন হয়েছে ৩৫ হাজার ৯৪২ মেট্রিক টন।

যা দেশের বার্ষিক চিংড়ি উৎপাদনের শতকরা ৩২ ভাগ।

বাগেরহাট প্রেসক্লাব মিলনায়তনে মতবিনিময় সভায় জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এ এস এম রাসেল আরো জানান, সুন্দরবনের বাগেরহাট জেলার অংশ থেকে প্রতি বছর ১৯ হাজার ৫২৯ মেট্রিক টন চিংড়ি, সাদা মাছ, সামুদ্রিক মাছ ও কাঁকড়া আহরিত হয়। ঘূর্ণিঝড় ইয়াস, আম্পান, অতিবৃষ্টি ও প্রবল জোয়ারে এবছর বাগেরহাট জেলা মাছ খামারীদের ৫৫ কোটি ২২ লাখ টাকার মাছের ক্ষতি হয়েছে।

মাছ উৎপাদনে আরো সক্ষমতা রয়েছে বলে জানিয়ে জেলার এই র্শীষ মৎস্য কর্মকর্তা জানান, এজন্য এবছর রাজস্ব খাতে
৫শ’ চাষী এবং উন্নয়ন খাতে ১৪৯৪ চাষীকে বিভিন্ন ধরনের মাছ ও চিংড়ি চাষের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে সপ্তাহব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানানো হয়।

মতবিনিময় সভায় বাগেরহাট সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা ফেরদাউস আনসারী, বাগেরহাট প্রেসক্লাবের প্রেসক্লাব সভাপতি নীহার রঞ্জন সাহা, সাধারণ সম্পাদক তালুকদার আব্দুল বাকী, সাবেক সভাপতি শেখ আহসানুল করিম, বাবুল সরদার, শওকত আলী বাবু, তরফদার রবিউল ইসলাম, মো. ইয়ামিন আলী, আলী আকবর টুটুল, অলীপ ঘটক, শেখ আজমল হোসেন, এস এস সোহান বক্তব্য দেন।

আরও পড়ুন: 


নদীতে নিখোঁজ যুবককে উদ্ধারে নেমে পানির নিচে ‘আটকে গেল’ ডুবুরি

জিয়ার জানাজায় বহু মানুষ ছিল, কফিনে লাশ ছিল না


news24bd.tv তৌহিদ