যে কারণে ভেঙে পড়েছে আফগানিস্তানের ব্যাংকিং সেবা
যে কারণে ভেঙে পড়েছে আফগানিস্তানের ব্যাংকিং সেবা

যে কারণে ভেঙে পড়েছে আফগানিস্তানের ব্যাংকিং সেবা

অনলাইন ডেস্ক

যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে নগদ অর্থের জন্য হাহাকার লেগে গেছে। বেশিরভাগ মানুষের হাতে নেই নগদ অর্থ। তালেবান ক্ষমতা দখলের পর প্রায় দুই সপ্তাহ পার হলেও এখনো দেশটির ব্যাংকগুলোর কার্যক্রম পুরোদমে শুরু হয়নি। আর তাই ব্যাংকিং সেবা একেবারেই ভেঙে পড়েছে।

  

দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সূত্রে জানা গেছে, তালেবান দুইদিন আগেই আফগানিস্তানের ব্যাংকসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান খোলার নির্দেশ দিয়েছিল। কিন্তু নগদ অর্থ না থাকায় ব্যাংকগুলোর কার্যক্রম বন্ধ আছে।

আফগানিস্তানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একজন কর্মী নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক মার্কিন সংবাদ মাধ্যমকে জানান, কারো কাছে নগদ অর্থ নেই। অনেক পরিবারেরই নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনার জন্য পর্যাপ্ত অর্থ নেই। ব্যাংকে নগদ অর্থের মজুদ না থাকায় অনেকের চেকও ব্যাংকে আটকে আছে।

সবকিছু মিলিয়ে আফগানিস্তানে মারাত্মক অর্থনৈতিক ও মানবিক সংকট সৃষ্টি হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:


খালেদা জিয়ার বিদেশ যেতে হলে জেলে যেতে হবে: আইনমন্ত্রী

এরশাদ নিজেই জিয়াউর রহমানের বডি কেরি করেছেন: ফখরুল

ভক্তদের সতর্ক করলেন মাহি


আফগানিস্তানের অর্থনীতি বৈদেশিক মুদ্রা আর আন্তর্জাতিক সাহায্যের ওপর অনেকাংশে নির্ভরশীল। কিন্তু কাবুলে মার্কিন সমর্থিত সরকারের পতনের পর সেসব বন্ধ হয়ে গেছে। যা দেশটির অর্থনীতির জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।   

বিশ্বব্যাংক জানিয়েছে, অনুদান থেকে পাওয়া অর্থ দিয়েই আফগানিস্তানের মোট ব্যয়ের ৭৫ শতাংশ মেটানো হয়।

news24bd.tv নাজিম