ভালো থাকার অভিনয় করে করে ক্লান্ত হয়ে যাচ্ছি
ভালো থাকার অভিনয় করে করে ক্লান্ত হয়ে যাচ্ছি

ভালো থাকার অভিনয় করে করে ক্লান্ত হয়ে যাচ্ছি

Other

অন এভারেজ ৬০টা সিঁড়ি। আমার বেলায় হয়তো কিছু কম অথবা বেশি হবে। তার মধ্যে অর্ধেক পার করেছি। তবু মনে হচ্ছে ভালো থাকার অভিনয় করে করে ক্লান্ত হয়ে যাচ্ছি।

 

কে ভালো আছে? যাদের সাথে চলি, বাঁচি, প্রায় সবাইকে দেখেছি কেউ ভালো নেই। মা ফোন দেন, নিদারুণ মিথ্যেটা প্রতিদিন বলি 'ভালো আছি'।

প্রতিদিন মানুষের সমুদ্রে সাঁতরাই, একটা ঢেউও ভালো নেই। কি অসহায়ের মতো মানুষ ভালো থাকার অভিনয় করে যাচ্ছে! 

হাসি পায়, ঠা ঠা করে হাসতে গিয়ে জিভে কামড় দেই, আমি যে ভালো নেই এই সত্যটাকেও তো আমি গোপন করেই রাখি। বন্ধু বান্ধব সার্কেলে ইমেজ ধরে রাখতে অনেককেই দেখেছি ভালো থাকার অভিনয় করে যেতে।  

আসলে সবাই একা। ভর দুপুরে আমার মতো অনেকেই নিজের ছায়ার দৈর্ঘ্য মাপতে পারেনা। মানুষের অজস্র ব্যস্ততা দেখে মনে হয়, একটু ব্যস্ত হলে খারাপ হত না।  

আমার দুদ্দাড় করে শহর ছেড়ে বেরিয়ে পড়তে ইচ্ছে করে,ইচ্ছে করে কারো পায়ের কাছে বসে শুনি "কী হবে গতি,বিশ্বপতি শান্তি কোথায় আছে....?" 

আমার হাই প্রোফাইল ক্যারিয়ার নিয়ে বাঁচার চেষ্টা করতে ইচ্ছে করেনা, মরার পরে অনেকদিন বেঁচে থাকতে ইচ্ছে করেনা,আমার ভালো থাকতে ইচ্ছা করে। খুব বেশি ইচ্ছে করে।

আরও পড়ুন:


খালেদা জিয়ার বিদেশ যেতে হলে জেলে যেতে হবে: আইনমন্ত্রী

এরশাদ নিজেই জিয়াউর রহমানের বডি কেরি করেছেন: ফখরুল

ভক্তদের সতর্ক করলেন মাহি


যদিও ইচ্ছেটা নিদারুণ সুন্দর। জানি না কিসের মায়া বা পিছুটান আমাকে আটকাচ্ছে? আমি বুঝি জীবনের কাছে চাওয়া কমিয়ে দিলে ভাল থাকা যায়।  

ভালো থাকা চাওয়াটা কী খুব বেশি চাওয়া? কখনো কখনো 'হাসি বহন করা বা চুপ থাকা বা সহানুভূতিশীল' হওয়াও ক্লান্তিকর। প্রায়শই মনে হয় 'মৃত্যুটা' কখন এসে বলবে, চলো এখন তাহলে যাওয়া যাক। (নোট: এখানে আমি বলতে ব্যাক্তি আমি না। )

(সোশ্যাল মিডিয়া বিভাগের লেখার আইনগত ও অন্যান্য দায় লেখকের নিজস্ব। এই বিভাগের কোনো লেখা সম্পাদকীয় নীতির প্রতিফলন নয়। )

news24bd.tv নাজিম