আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টা হামলা
আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টা হামলা

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টা হামলা

Other

কাবুল হামলার পাল্টা জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় আইএসকের এক সদস্য নিহত হয়েছে। জঙ্গীগোষ্ঠীটি হামলার দায় স্বীকারের দিন না পেরুতেই এমন জবাব দিলো ওয়াশিংটন। এই পরিস্থিতিতে আফগানিস্তানে উদ্ধারকাজ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বৃটেন। আর অভিযান সমাপ্ত করেছে ইতালি।

এদিকে, কাবুল বিমানবন্দরে জোড়া বিস্ফোরণে মৃত্যর সংখ্যা বেড়ে ১৮৮ জনে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে, নারীদের কাজের সুযোগ দেয়ার পাশাপাশি সব দলের অংশগ্রহণে অন্তর্বর্তীকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনের পরিকল্পনা করছে তালেবান।  

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শুক্রবারই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন কাবুল বিমানবন্দরে হামলাকারীদের ক্ষমা করবেন না তিনি। কঠিন জবাব দিবেন। এই সতর্কতাবার্তার ১ দিনও পার হয়নি। শনিবার  আইএসকের ঘাটি আফগানিস্তানের নানগারহার প্রদেশে এ ড্রোন হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।   এতে বিমানবন্দরে হামলার পরিকল্পনাকারীদের একজন নিহত হয় বলে দাবি যুক্তরাষ্ট্রের।

এই  পরিস্থিতিতে শনিবার আফগানিস্তানের বেসামরিক নাগরিকদের উদ্ধারকাজ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে ব্রিটেন। একইদিন আফগানিস্তানে উদ্ধারকাজ শেষ করেছে ইতালি।

এদিকে বিমানবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণ কাবুলবাসির জন্য যেন নতুন বিপদের বার্তা দিচ্ছে। বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা। চিরচেনা সেই আফগানদের কান্না আবারো যেন ফিরে এসেছে। খাদ্যের অভাবে এরিমাঝে রাস্তায় জড়ো হচ্ছে মানুষ। জাতিসংঘ বলছে, আফগানিস্তানে সংঘাত এড়াতে দেশটির পাঁচ লাখেরও বেশি নাগরিক সীমান্ত অতিক্রম করে অন্য দেশে যেতে পারে।

তালেবানের একাধিক সুত্র জানিয়েছে অংশগ্রহণমূলক তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনের পরিকল্পনা করছে তারা । এই সরকারে দেশের সব নৃগোষ্ঠী ও উপজাতি থেকে উঠে আসা নেতাদের নেওয়া হবে। নতুন সরকারের জন্য এরই মধ্যে প্রায় এক ডজন নেতার নাম আলোচনায় এসেছে। তালেবানের সহ প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা বারাদার নতুন সরকারের প্রধান হতে পারেন বলৈ শোনা যোচ্ছে ।

একদিকে তালেবান যখন আফগানের মসনদে বসতে যাচ্ছে ঠিক এমন সময় কাবুলে আবারো হামলার আশঙ্কা বাড়ছে। আগামী কয়েকটি দিন সবচেয়ে বিপজ্জনক বলে বাইডেনকে এরিমাঝে সতর্ক করেছে মার্কিন প্রশাসন। বিশ্লেষকরা বলছেন, কাবুল হামলা যে তালেবান শাসনের দূর্বলতার শুরু তা জানান দিয়েছে আইএস।   যুক্তরাষ্ট্রের জন্যও চ্যালেঞ্জের বার্তা দিচ্ছে,  এরিমাঝে এমন ঘটনায় বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছে বাইডেন সরকার।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত