রাজধানীতে সাড়ে ৩ হাজার ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিত

রাজধানীতে সাড়ে ৩ হাজার ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিত

Other

রাজধানীতে প্রায় সাড়ে তিন হাজার ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিত করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ - রাজউক। দুপুরে, রাজধানীর সুত্রাপুরে হেলে পড়া ভবন ভাঙ্গার কাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের একথা জানান, সংস্থাটির চেয়ারম্যান এবিএম আমিন উল্লাহ নুরী। বলেন, সেপ্টেম্বরের শুরুতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তালিকাভুক্ত ঝুঁকিপূর্ণ ভবণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এদিকে সিটি করপোরেশন বলছে, আইনী জটিলতার কারণে ব্যবস্থা নিতে পারছে না তারা।

 

গেল ১৯ আগস্ট  দক্ষিণ সিটির সূত্রাপুরের কুলুটোলা এলাকার তনুগঞ্জ লেনে ১৯৯৫ সালে নির্মিত ছয়তলা এ বাড়িটি হেলে পড়ে পাশের একটি ভবনের ওপর। এরপর এ ভবনটি ভাঙ্গার নির্দেশ দেয় সংশ্লিষ্টরা। এরই ধারাবাহিকতা শনিবার সকালে এ ভবণটি ভাঙার কার্যক্রম শুরু হয়।

ঘটনাস্থলে আসেন রাজউক ও সিটি করপোরেশনের কর্তাব্যক্তিরা। এসময় রাজউক চেয়ারম্যান জানান, পুরান ঢাকায় শৃঙ্খলা আনতে হলে অধিকাংশ ভবণ ভেঙ্গে ফেলতে হবে। এছাড়া পুরো রাজধানীতে প্রাথমিকভাবে  প্রায় সাড়ে তিন হাজার ঝুঁকি পূর্ণ ভবনের তালিকা করেছে তারা।  

ঝুঁকিপূর্ন ভবনের বেশিরভাগই দক্ষিণ সিটির পুরান ঢাকাসহ এর আশেপাশের এলাকায়। তবে সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী জানান, প্রবিধি না থাকার কারণে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারছেন না।

রাজধানীর বনানীতে এফআর টাওয়ারে আগুন লেগে ২৬ জন নিহত হওয়ার পর ঝঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিত করে রাজউক। সে সময় ঢাকার বিভিন্ন এলাকার ২ লাখ ৪ হাজার ১০৬টি ভবনের মধ্যে শতকরা ৬৬.১১ শতাংশ অর্থাৎ ১ লাখ ৩৪ হাজার ৬২৫টি ভবন নিয়ম ভঙ্গ করে নির্মাণ করার প্রমাণ পায় সংস্থাটি।

আরও পড়ুন:


আম্পায়ার নাদির শাহ এখন ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করছে!

হত্যার হুমকি দিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ করে আসছিল আপন চাচা!

শ্রীপুরে মধ্যরাতে পোশাক শ্রমিককে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণ!

পুলিশ সদস্যের অবসরপ্রাপ্ত টাকা আত্মসাৎ, অতঃপর উদ্ধার...


NEWS24.TV / কামরুল

;