চাচীকে বিয়ে করায় আ.লীগ নেতাকে বহিষ্কারের দাবি
চাচীকে বিয়ে করায় আ.লীগ নেতাকে বহিষ্কারের দাবি

চাচীকে বিয়ে করায় আ.লীগ নেতাকে বহিষ্কারের দাবি

অনলাইন ডেস্ক

দুই সন্তানসহ চাচীকে বিয়ে করার অভিযোগে টাঙ্গাইলের সখীপুরে বহুরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শরীফুল ইসলামকে দল থেকে বহিষ্কার ও তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী।

পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে ওই মানববন্ধনে বুলবুল আহমেদের সভাপতিত্বে শরীফুল ইসলামকে দল থেকে অবিলম্বে বহিষ্কার ও তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানানো হয়। এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্য দেন মোতালেব সরকার, সাইফুল ইসলাম, মহিলা আওয়ামী নেত্রী কানিজ ফাতেমা বিউটি, ছাত্রলীগ নেতা সিকদার সুজন, হৃদয় হাসান, সাব্বির আহমেদ, কাউছার আহমেদ রিগান প্রমুখ ।

উপজেলার কালিদাস পানাউল্লাহপাড়া গ্রামের রাইজ উদ্দিনের ছেলে ইমান আলীর সাথে নলুয়া মোল্লাপাড়া গ্রামের আমির মোল্লার মেয়ে স্কুল শিক্ষক রহিমা আক্তার রুমির বিয়ে হয়।

বিয়ের কয়েক বছর পরই ভাসুর হাজী আবদুল ছবুর মুন্সীর ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা শরিফুল ইসলামের সঙ্গে পরকীয়া জড়িয়ে পড়েন রহিমা। পরে ২০১৯ সালে চাচীকে দিয়ে চাচাকে ডিভোর্স করান শরীফুল।

তবে এ ব্যাপারে সখীপুর থানার সেকেন্ড অফিসার আমিনুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, বাধা সৃষ্টি করতে নয়, মানববন্ধনে আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে পুলিশ রাখা হয়েছিল।


আরও পড়ুন:

নিজেকে দলে রেখে সর্বকালের সেরা ওয়ানডে একাদশ সাজালেন সাকিব

চুল কেটে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে জায়গা করে নিলেন তরুণী

'আমি গরীব ঘরের সন্তান, আমাকে নিয়ে আর খেলবেন না', শ্যামলের অনুরোধ

রোনালদোকে ছাড়া প্রথম ম্যাচেই হারলো জুভেন্টাস


চলতি মাসে ভাতিজা বহুরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শরীফুল ইসলাম দুই সন্তানসহ চাচী রহিমা আক্তার রুমিকে বিয়ে করেন। এই ঘটনা বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশিত হলে এলাকা ও ইউনিয়বাসীর মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত

;