যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় আফগানিস্তান জুড়ে আতঙ্ক

যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় আফগানিস্তান জুড়ে আতঙ্ক

অনলাইন ডেস্ক

কাবুল আইএসকের হামলার পাল্টা জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলা আতঙ্ক আফগানিস্তান জুড়ে সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় কাবুলে আফগানিস্তানের বেসামরিক নাগরিকদের উদ্ধারকাজ বন্ধ করছে বিভিন্ন দেশ। কাবুল বিমানবন্দরে নজরদারি চলায় দেশ ছাড়তে পাকিস্তান সীমান্তের দিকে ঝুঁকছে আফগানরা।  

মর্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শুক্রবারই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন কাবুলের বিমানবন্দরে হামলাকারীদের ক্ষমা করবেন না তিনি।

কঠিন জবাব দিবেন। এই সতর্কতাবার্তার একদিনও পার হয়নি। শনিবার  আইএসকের ঘাটি আফগানিস্তানের নানগারহার প্রদেশে এ ড্রোন হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র।   এতে বিমানবন্দরে হামলার পরিকল্পনাকারীদের একজন নিহত হয়। পেন্টাগণের দাবি, কাবুল বিমানবন্দর এখনো মার্কিন সেনাদের নিয়ন্ত্রণে।

এই পরিস্থিতিতে শনিবার আফগানিস্তানের বেসামরিক নাগরিকদের উদ্ধারকাজ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে ব্রিটেন। একইদিন আফগানিস্তানে উদ্ধারকাজ শেষ করেছে ইতালি। তবে ৩১ আগস্টের মধ্যে আফগানদের স্থানান্তরে যুক্তরাষ্টের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। যদিও এখনো  ফের হামলা হতে পারে বলে সতর্ক করে মার্কিন নাগরিকসহ সবাইকে বিমানবন্দর এড়িয়ে চলার আহ্বান জানিয়েছে। এই ঘটনায় আফগানিস্তানের মানুষ এখন পাকিস্তানের সীমান্ত দিয়ে দেশ ছাড়ার চেষ্টা চালাচ্ছে।

এদিকে, বিমানবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণ কাবুলবাসির জন্য যেন নতুন বিপদের বার্তা দিচ্ছে। বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা। চিরচেনা সেই আফগানদের কান্না আবারো যেন ফিরে এসেছে। খাদ্যের অভাবে এরিমধ্যে রাস্তায় জড়ো হচ্ছে মানুষ। জাতিসংঘ বলছে, আফগানিস্তানে সংঘাত এড়াতে দেশটির পাঁচ লাখেরও বেশি নাগরিক সীমান্ত অতিক্রম করে অন্য দেশে যেতে পারে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, আফগানিস্তানে চরমপন্থী ও জঙ্গীদের উত্থানে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ চুম্বক হিসেবে কাজ করেছে।

আরও পড়ুন:


মুনিবুর বদলি হলেও যতদিন ইচ্ছে কর্মস্থলে থাকবেন: বরিশাল জেলা প্রশাসক

জরুরি অবতরণ করা বিমানের সেই ক্যাপ্টেন নওশাদ ‘ক্লিনিক্যালি ডেড’

ঢাবিতে ছাত্রদলের মিছিলে ছাত্রলীগের হামলা, আহত ১০


আমরা যদি আফগানিস্তানের গেল ২/৩ দশকের দিকে তাকাই দেখবো শুধু এই দেশটি নয়, পুরো মধ্যপ্রাচ্যে পশ্চিমা সেনাদের উপস্থিতি চরমপন্থীদের উত্থানের সুযোগ করে দিয়েছে। মূলত যুদ্ধের নামে অশান্তি ও বিশৃঙ্খতা জঙ্গীদের সেখানে জায়গা করে দিয়েছে।

তারা একমাত্র স্থীতিশীলতায় পারে আফগানিস্তানসহ মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি ফেরাতে।

news24bd.tv নাজিম

;