চলে যাচ্ছি নেটওয়ার্কের বাইরে, স্ট্যাটাস দিয়ে তরুণের আত্মহত্যা
চলে যাচ্ছি নেটওয়ার্কের বাইরে, স্ট্যাটাস  দিয়ে তরুণের আত্মহত্যা

চলে যাচ্ছি নেটওয়ার্কের বাইরে, স্ট্যাটাস দিয়ে তরুণের আত্মহত্যা

Other

‘সবাই মাফ করে দিয়েন, চলে যাচ্ছি নেটওয়ার্কের বাইরে, অনেক স্বপ্ন ছিল, কিন্তু হায়াত কম। কি আর করার...’ নিজের ফেসবুক ওয়ালে এমন একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়ে শেরপুরের শ্রীবরদীতে আত্মহত্যা করেছেন রেদোয়ান আহমেদ (১৯) নামে এক তরুণ।  

মায়ের কাছে মোটরসাইকেল কেনার টাকা চেয়ে না পেয়ে ১ সেপ্টেম্বর বুধবার ভোররাতে উপজেলার গোসাইপুর ইউনিয়নের শংকরঘোষ এলাকায় ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যার ওই ঘটনা ঘটে।  

রেদোয়ান স্থানীয় ফজলুল করিমের ছেলে এবং শেরপুর শহরের ডা. সেকান্দর আলী কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

খবর পেয়ে বুধবার সকালে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানা-পুলিশ।  

মৃতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রেদোয়ান আহমেদ কয়েকদিন যাবত তার মা রেখা আক্তারের কাছে মোটরসাইকেল কেনার টাকা চেয়ে আসছে। তার মা টাকা দিতে অস্বীকার করায় সে কিছুদিন যাবত হতাশায় ছিল এবং নিজের ফেসবুক ওয়ালে হতাশা প্রকাশ করে বিভিন্ন পোস্ট শেয়ার ও স্ট্যাটাস দিচ্ছিল।  

আরও পড়ুন

খুলে দেয়া হয়েছে সুন্দরবন

সিরিয়ায় মার্কিন ঘাঁটিতে আবারও রকেট হামলা

ভারতে রহস্যময় রোগে মারা যাচ্ছে শিশুরা


সর্বশেষ মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২ টা ৩৪ মিনিটে একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দেয় এবং রাতের কোন একসময় বাড়ির পাশে কাঠাল গাছের ডালের সাথে গলায় রশি বেঁধে ঝুলে আত্মহত্যা করে। পরে সকালে আশপাশের লোকজন তাকে ঝুলতে দেখে থানায় খবর দেয়।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবুল হাসেম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু হয়েছে। তবে আবেদনের প্রেক্ষিতে নিহতের পরিবারের কাছে বিনা ময়নাতদন্তে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

news24bd.tv/আলী