কোনাবাড়িতে সক্রিয় ডাকাত দলের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

মোহাম্মদ আল-আমীন, গাজীপুর

কোনাবাড়িতে সক্রিয় ডাকাত দলের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

গাজীপুরের কোনাবাড়ি এলাকায় (১ সেপ্টেম্বর) বুধবার রাত দেড়টার দিকে সরকার ফার্নিচার নামের একটি দোকানের পেছন থেকে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে তিনজন সক্রিয় ডাকাত সদস্যকে গ্রেপ্তার করে কোনাবাড়ি থানা-পুলিশ।

গ্রেপ্তার হলো- (১) নাটোর জেলার গুরুদাসপুর থানার গুরুদাসপুর গ্রামের রঞ্জন সাহার ছেলে মেহেদী হাসান (২০), মেহেদী হাসান এর পূর্বে হিন্দু ধর্মের অনুসারী ছিলেন পরে মুসলমান হয়ে কোনাবাড়ি এলাকার সবুজকানন আজিজ মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছিল, মাদারীপুর জেলার শিবচর থানার বাহাদুরপুর গ্রামের সফিক উদ্দিনের ছেলে রনি (২১), রনি কোনাবাড়ী পুকুরপাড় এলাকায় মাসুদের বাড়ির ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছিল এবং (৩) শেরপুর জেলার ঝিনাইগাঁতী থানার আবেদ আলীর ছেলে নূর মোহাম্মদ (২৪), নূর মোহাম্মদ কোনাবাড়ী পুকুরপাড় শহিদের বাড়ির ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছিল।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কোনাবাড়ি সরকার ফার্নিচার নামের একটি দোকানের পেছন থেকে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে তিনজন সক্রিয় ডাকাত সদস্যকে গ্রেপ্তার করে কোনাবাড়ি থানা-পুলিশ। ডাকাতি প্রস্তুতির কালে ডাকাতের একটি দল ছিল কিন্তু তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকীরা পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে দূত পালিয়ে যায়। এসময় গ্রেপ্তারদের কাছ থেকে দুটি চাকু ও দা উদ্ধার করা হয়েছে।

কোনাবাড়ী থানার অফিসার ইনর্চাজ ( ওসি) আবু সিদ্দিক জানান,কোনাবাড়ি সরকার ফার্নিচার দোকানের পেছনে ডাকাতি প্রস্তুতীকালে ডাকাত দলের একটি দলকে পুলিশ দেখে ফেলে। পরে তাদেরকে পুলিশ ধরতে গেলে তারা পালানোর চেষ্টা করে। পরে তিনজন ডাকাত সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং বাকিরা পালিয়ে যায়। পরে তিন ডাকাতকে ডাকাতি মামলা দিয়ে গাজীপুর জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

কুষ্টিয়ায় গ্রাম্য বিরোধে প্রতিপক্ষের গুলিতে নিহত ১

জাহিদুজ্জামান, কুষ্টিয়া:

কুষ্টিয়ায় গ্রাম্য বিরোধে প্রতিপক্ষের গুলিতে নিহত ১

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার আলামপুর ইউনিয়নের দরবেশপুর গ্রামে গ্রাম্য বিরোধে রাজু আহম্মেদ (৩৭) নামে এক ব্যাক্তিকে গুলি করে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। 

নিহত রাজু আহম্মেদ দরবেশপুর গ্রামের মুন্তা মণ্ডলের ছেলে। বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত ১ টার সময় এই ঘটনা ঘটে। আলামপুর ইউনিয়নের পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সিরাজ উদ্দিন সেখ এ খবর নিশ্চিত করেছেন। 

আরও পড়ুন:


এক বছরের মধ্যে করোনা ভাইরাস মহামারি শেষ হবে: ব্যানসেল

ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!

প্রেমের স্বীকৃতি না পেয়ে প্রেট্রোল ঢেলে আগুন দিলেন নারী!


চেয়ারম্যান মো.সিরাজ উদ্দিন সেখ জানান, কয়েক মাস ধরে ভাদালিয়া দরবেশপুর এলাকায় দুই গ্রুপের মধ্যে গ্রাম্য কোন্দল চলে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে সেখানে উত্তেজনা দেখা দেয়। 

গভীর রাতে বাড়ি ঘিরে ফেলে প্রতিপক্ষের লোকজন ঘুমন্ত রাজুকে ঘর থেকে বের করে গুলি করে। পরিবারের লোকজন তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

নিহত রাজু আহম্মেদ একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন।  

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

দুই নারীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতারের হুমকি দিয়ে টাকা আদায় : ৬ পুলিশ সাময়িক বরখাস্ত

অনলাইন ডেস্ক

দুই নারীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতারের হুমকি দিয়ে টাকা আদায় : ৬ পুলিশ সাময়িক বরখাস্ত

দুই নারী যাত্রীকে নাজেহাল ও অর্থ কেড়ে নেওয়ার অভিযোগে রাজশাহী শিরোইল বাস টার্মিনাল ফাঁড়ির শহর উপ-পরিদর্শক (এটিএসআই) নাসির উদ্দিন ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সেলিম রেজাসহ ছয় পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করেছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কমিশনার। বরখাস্ত হওয়া অন্য পুলিশ সদস্যরা হলেন- কনস্টেবল শঙ্কর, শাহ আলম, সারওয়ার ও রিপন। 

বৃহস্পতিবার রাতে এক আদেশে আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক তাদেরকে সাময়িক বরখাস্ত করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করেছেন। রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (সদর) ও নগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, বিভাগীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করায় তাদেরকে সাময়িক বরখাস্ত করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। 

পুলিশের সূত্র জানিয়েছে- নারায়ণগঞ্জ এবং কুমিল্লা থেকে দু’জন নারী বৃহস্পতিবার সকালে বাসে করে রাজশাহীতে তাদের এক আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে যান। তারা শিরোইল বাসস্ট্যান্ডে নামার পরপরই পুলিশ ফাঁড়ির এটিএসআই নাসিরসহ বাকি সদস্যরা তাদেরকে আটক করে। এরপর ওই দুই নারীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার দেখানোর হুমকি দেন ওই পুলিশ সদস্যরা। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


এ সময় তারা ভুক্তভোগীদের কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। বাধ্য হয়ে ওই দুই নারী তাদের পরিবারকে বিষয়টি জানান। এরপর পরিবারের সদস্যরা বিকাশের মাধ্যমে পুলিশকে এক লাখ টাকা দেন। এছাড়াও তাদের কাছ থেকে কিছু নগদ টাকাও ছিনিয়ে নেওয়া হয়। 

এ ঘটনার পর ওই দুই নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশ হেডকোয়ার্টারে অভিযোগ করা হয়। অভিযোগ পাওয়ার পরে পুলিশ হেডকোয়ার্টার থেকে রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনারকে বিষয়টি নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপর এটিএসআই নাসিরসহ ছয় পুলিশ সদস্য সাময়িক বরখাস্ত হন। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

চলন্ত ট্রেনে ডাকাতি, নিহত ২

জামালপুর প্রতিনিধি

চলন্ত ট্রেনে ডাকাতি, নিহত ২

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার ট্রেনে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ডাকাত দলের আক্রমনে ট্রেনের দুই যাত্রী নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে একজন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে কমিউটার ট্রানের ছাদে এই ঘটনা ঘটে। 

জামালপুর রেলওয়ে থানার এসআই মো: মিলন মিয়া ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার ট্রেনের ছাদে ১৫-২০ জন যাত্রী ভ্রমন করছিলেন। ট্রেনটি ময়মনসিংহের গফরগাঁও স্টেশন ছাড়ার পর ৪/৫ জনের একটি ডাকাত দল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর আক্রমন করে এবং তাদের কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। 

এ সময় কয়েকজন যাত্রীর সাথে ডাকাতদের ধস্তাধস্তির হয় এবং ডাকাতদের আক্রমনে তিন যাত্রী আহত হয়ে ট্রেনের ছাদে পড়ে থাকে। পরে ওই ট্রেনের যাত্রীরা পিয়ারপুর স্টেশনে ডাকাতির ঘটনা জানালে জামালপুর রেলওয়ে থানা পুলিশ জামালপুর স্টেশন থেকে আহত ওই তিন যাত্রীকে উদ্ধার করে জামালপুর জেনারেল হাসপাতারে নিয়ে আসে। 

এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক দুইজনকে মৃত ঘোষণা করে এবং আহত একজনকে হাসপাতালে ভর্তি করে। নিহতদের মধ্যে নাহিদ নামে একজনের বাড়ি দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সানন্দবাড়ি মিতালী বাজার এলাকায় এবং অপরজনের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পরকীয়া প্রেমিকের সাথে মিলে মা খুন করে প্রিয়াকে

অনলাইন ডেস্ক

পরকীয়া প্রেমিকের সাথে মিলে মা খুন করে প্রিয়াকে

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে আলোচিত নওরোজ আফরিন প্রিয়া (২১) হত্যা মামলায় প্রিয়ার মা তাহমিনা সুলতানা রুমি ও পরকীয়া প্রেমিক আ. হান্নান মিলে প্রিয়াকে হত্যা করেছে। 

বৃহস্পতিবার বিকালে তাহমিনা সুলতানা রুমি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

এর আগে জড়িত সন্দেহে বুধবার বিকালে রুমির প্রেমিক হান্নানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শাহরাস্তি মডেল থানা সূত্রে জানা যায়, নিহত প্রিয়ার মা তাহমিনা সুলতানা রুমি ও তার প্রেমিক দেবকরা গ্রামের মৃত মুনসুর আলী ভূঁইয়ার পুত্র মো. আ. হান্নান (৩১) মিলে প্রিয়াকে খুন করে।

এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রিয়া ও হান্নানদের বাড়ি পাশাপাশি। প্রিয়ার পিতা বিদেশে থাকার সুবাদে ৫-৬ বছর পূর্বে প্রিয়ার মা রুমির সঙ্গে হান্নানের অবৈধ পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে উঠে। তাদের নিষিদ্ধ প্রেমের রসায়ন লোকমুখে ছড়িয়ে গেলে প্রিয়া নিজেই একদিন আপত্তিকর অবস্থায় তাদের ধরে ফেলে। পরে বিষয়টি মামলা পর্যন্ত গড়ায়।

রও পড়ুন:


সেই বাংলা ছবি থেকে সানি লিওনের অংশটি বাদ

অনলাইনে পণ্য ডেলিভারির সময় নির্ধারণ করে দিলো মন্ত্রণালয়

ভ্রুন নষ্ট না করলে তালাক দেয়ার হুমকি স্বামীর

মানবতাবিরোধী মামলার আসামি শহীদুল্লাহ ফকির গ্রেপ্তার


রুমির স্বামী ইসমাইল হোসেন স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্কের বিষয়ে সৌদি আরব থেকে জানতে পেরে তার সাথে ছাড়াছাড়ির সিদ্ধান্ত নিলে স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকটি সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। এরপর হান্নান বিদেশে চলে যায়। হত্যাকাণ্ডের ১ মাস পূর্বে হান্নান দেশে আসে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক আসাদুল ইসলাম জানান, ঘটনায় জড়িত মামলার বাদী রুমি ও তার প্রেমিক আ. হান্নানকে কোর্টের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।
 
শাহরাস্তি মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল মান্নান জানান, তাহমিনা সুলতানা রুমি ও তার প্রেমিক আ. হান্নান মিলে প্রিয়াকে খুন করে। মেয়ে মায়ের পরকীয়া জেনে ফেলায় ২ জনে পরিকল্পনা করে প্রিয়াকে তাদের পথ থেকে  সরিয়ে দিয়েছে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

ঢাকায় মিললো ভয়ংকর মাদক আইসের সবচেয়ে বড় চালান

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকায় মিললো ভয়ংকর মাদক আইসের সবচেয়ে বড় চালান

রাজধানী থেকে ৫৬০ গ্রাম ভয়ংকর মাদক ক্রিস্টাল মেথ বা আইস ও ইয়াবা জব্দ করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (ডিএনসি)।

ডিএনসির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, জব্দ করা আইসের মূল্য প্রায় ৯০ লাখ টাকা। এটি এখন পর্যন্ত ঢাকায় আটক হওয়া আইসের সবচেয়ে বড় চালান।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. মেহেদী হাসান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে তেজগাঁওয়ে অবস্থিত মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কার্যালয়ে (উত্তর) আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও তিনি জানান।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর