তামিমের বিশ্বকাপ না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়ে মাশরাফির প্রতিক্রিয়া
তামিমের বিশ্বকাপ না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়ে মাশরাফির প্রতিক্রিয়া

তামিমের বিশ্বকাপ না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়ে মাশরাফির প্রতিক্রিয়া

অনলাইন ডেস্ক

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাংলাদেশ দল থেকে নিজেকে সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তামিম ইকবাল। গতকাল নিজের ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় তামিম বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে নিজেকে সরিয়ে নেয়ার কারণ জানালেন তিনি। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন ও বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানকে যে তিনি তার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছেন সেটাও ভিডিওর শুরুতেই জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

তামিমের যুক্তিগুলো মেনেও নিয়েছেন তারা।

আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমানে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলটাকে যে তামিমের মতো একজন শীর্ষ ক্রিকেটারকে ছাড়াই হচ্ছে, এটি একপ্রকার নিশ্চিতই।  

তামিমের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেসবুকে মতামত জানিয়েছেন সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। মাশরাফির মতে, ‘এটি পুরোপুরি তামিমের নিজের সিদ্ধান্ত এবং এ সিদ্ধান্তের প্রতি সকলের সম্মান জানানো উচিত। ’

মাশরাফি লিখেছেন, ‘কোনো সন্দেহ নেই তামিম বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন। ওর পরিসংখ্যানও তা-ই বলে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলার সব যোগ্যতাই ওর আছে। ক্রিকেট বোর্ড, টিম ম্যানেজমেন্ট সবাই ওকে টিমে রাখবে, এটা সবারই জানা। তামিম কেন এ সিদ্ধান্ত নিল, তার যুক্তিও আছে অনেক। ’

আরও পড়ুন:

যে দুইটি দোয়ায় মৃত্যু যন্ত্রণা হালকা হয়

টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে অনেক এগিয়েছে বাংলাদেশ

দেশে আসল ফাইজারের আরও ১০ লাখ টিকা

এবার আফগান ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কে যা বললেন পুতিন


ড্রেসিংরুমের পরিবেশের ওপর এই ঘটনার ভালো প্রভাব পড়বে বলে মনে করেন মাশরাফি, ‘কোনো কোনো সিদ্ধান্ত মানুষের জীবন পাল্টে দেয়। এ সিদ্ধান্তের পর তামিম যখন পরের ম্যাচে ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে মাঠে নামবে, তখন সৌম্য, লিটন, নাঈমরাই ওর জন্য জীবন বাজি রেখে খেলবে। কারণ, কেউ রাখুক আর না-ই রাখুক, তামিম ওদের কঠোর পরিশ্রমের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেছে। সবচেয়ে বড় বিষয়টা হচ্ছে, তামিমকে ড্রেসিংরুমে সবাই খুবই পছন্দ করে। কিন্তু ১৬টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ বা অনুশীলন ম্যাচ ছাড়া দলে ঢুকলে এবার ওকে সবাই কতটা স্বাগত জানাত, সেটি হয়তো ওকে ভাবিয়েছে। ’

মাশরাফি আরও বলেন ‘তামিম এখনো সেরাদের সেরা এবং সে সেরাদের সেরা হয়েই থাকবে। টি-টোয়েন্টিতে জোর করে খেলে অবশ্যই টেস্ট আর ওয়ানডেতে দলের সেরা ব্যাটসম্যানকে নিষ্প্রভ কেউ দেখতে চাইবে না। তামিমের এখনো অনেক ম্যাচ জেতানোর বাকি আছে। তামিম, তোমাকে আমরা অবশ্যই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মিস করব। ’

news24bd.tv/ নকিব

;