সারাদেশে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি, পানিবন্দি কয়েক লাখ মানুষ

অনলাইন ডেস্ক

সারাদেশে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি, পানিবন্দি কয়েক লাখ মানুষ

দেশের উত্তরাঞ্চলে যমুনা, ধরলাসহ সব নদ-নদীর পানি বেড়েছে। এতে করে গ্রামের পর গ্রাম প্লাবিত হচ্ছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে শত শত পরিবার। নষ্ট হয়েছে জমির ফসল। শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানিরও সংকট দেখা দিয়েছে। পর্যাপ্ত ত্রাণ সহায়তা না পাওয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

ভীষণ কষ্টে দিন কাটছে জামালপুরের চিনাডুলী ইউনিয়নের মানুষদের। দুমুঠো খাবারের জন্য প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করতে হচ্ছে তাদের। বন্যার পানিতে দাঁড়িয়েই শুকনো জায়গায় চুলা রেখে রান্না করছেন এ এলাকার মানুষ। গত তিন দিন ধরে এভাবেই কাটছে এলাকার বানভাসিদের দুর্ভোগ।

ভুক্তভোগীরা জানান, বন্যায় সব কিছু ডুবে গেছে। চারদিকে শুধু পানি আর পানি। রান্না করতে কষ্ট হয়। নিয়মিত রান্নাও করতে পারি না। যার কারণে অনেক বেলা না খেয়ে পার করতে হচ্ছে। আর সরকারের কাছ থেকেও পর্যাপ্ত ত্রাণ পাচ্ছি না।

এদিকে একই অবস্থা গাইবান্ধারও। ব্রহ্মপুত্র ফুঁসে উঠায় জেলার চার উপজেলার শতাধিক চরের কয়েক লাখ মানুষ কষ্টে দিন অতিবাহিত করছে। সবকিছু হারিয়ে আশ্রয়ের সন্ধানে ছুটছেন এদিক ওদিক অসহায় মানুষ।

আরও পড়ুন


নিজের প্রেম, বিয়ে ও ব্রেক আপ নিয়ে যা বললেন প্রভা

কানাডার নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থীদের নিয়ে লাইভ আলোচনা

ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ে গাছের ডালে আটকে গেল গরু!

সিলেট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে


বগুড়ার যমুনার পানিও লাগামহীনভাবে বাড়ছে। সারিয়াকান্দি ও ধুনটে উপজেলার লোকালয় এখন জনশূন্য। ভিটেমাটি ফেলে বাঁধের ওপর ঝুপড়ি এখন ভরসা।

টাঙ্গাইলের পরিস্থিতিও ভয়াবহ। বিপুল পরিমাণ ফসলি জমি এখন পানির নিচে। সিরাজগঞ্জেও মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন বানভাসিরা। গবাদিপশু মানুষ পোকামাকড়ের বসবাস একসঙ্গেই।

শুধু তাই নয় নদ-নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় কুড়িগ্রাম, ফরিদপুর, রাজবাড়ীসহ বিভিন্ন এলাকার হাজার হাজার মানুষ অসময়ের বন্যায় এখন পানিবন্দি।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

শতবর্ষী মায়ের অপেক্ষা, ৭০ বছর পর কুদ্দুস খোঁজ পেলেন পরিবারের

অনলাইন ডেস্ক

শতবর্ষী মায়ের অপেক্ষা, ৭০ বছর পর কুদ্দুস খোঁজ পেলেন পরিবারের

৭০ বছর পর আপন ঠিকানাসহ প্রিয়জনদের খুঁজে পেয়েছেন রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বারুইপাড়ার আব্দুল কুদ্দুস মুন্সী। কুদ্দুসের বয়স এখন ৮০। হারিয়ে গেয়েছিলেন ১০ বছর বয়সে।

পুলিশ সদস্য চাচার সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে রাজশাহীর বাগমারায় বেড়াতে এসে হারিয়ে যান তিনি। অনেক খোঁজা-খুঁজির পর তাকে পাওয়া না গেলে, সবাই মনে করেন সম্পত্তির লোভে পিতা-মাতার একমাত্র পুত্র সন্তান কুদ্দুসকে হত্যা করেছে তার চাচা।

স্বজনরা জানান, ছেলের আশায় এখনও পথ চেয়ে আছেন আব্দুল কুদ্দুসের শতবর্ষী মা। আর খুব শিগগিরই দেখা হতে যাচ্ছে মা-ছেলের।

১০ বছরের সেই ছোট্ট শিশুটি আজ ৮০ বছরের বৃদ্ধ। দিন দশেক আগে আইয়ূব আলী নামের পরিচিত একজনের ফেসবুক আইডিতে হারিয়ে যাওয়ার গল্প বলেন আব্দুল কুদ্দুস। সেখানে তিনি শুধু পিতা-মাতা ও নিজ গ্রাম বাড্ডার নাম বলতে পারেন। পরে ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা বাড্ডা গ্রামের বাসিন্দারা সাড়া দিতে থাকেন। একপর্যায়ে আব্দুল কুদ্দুসকে খুঁজে পান তার পরিবারের সদস্যরা।

আব্দুল কুদ্দুসের স্বজনরা জানান, এখনও জীবিত আছেন তার শতবর্ষী মা ও এক বোন। এরই মধ্যে মায়ের সাথে ভিডিও কলে কথাও বলেছেন আব্দুল কুদ্দুস। আর এত বছর পর নিজের পরিবার খুঁজে পাওয়ায় খুশি আব্দুল কুদ্দুসের স্ত্রী-সন্তানরাও।

আইয়ুব আলী বলেন, গত ১২ এপ্রিল আব্দুল কুদ্দুসের ৭০ বছর আগে হারিয়ে যাওয়ার একটি ভিডিও আমার ফেসবুক পেজে আপলোড করি। আর ফেসবুকে ওই পোস্টের উপরে লিখে ছিলাম যে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবিনগর থানার এই বৃদ্ধা আজ থেকে প্রায় ৭০ বছর আগে হারিয়ে গিয়ে পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন। কেউ যদি তার কথা শুনে চিনতে পারেন।

আব্দুল কুদ্দুস সাংবাদিকদের জানান, আমার পুলিশ চাচার সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে বাগমারা থানায় বেড়াতে এসে হারিয়ে যাই। তারপরে আত্রাই সিংসাড়া গ্রামে কোনভাবে চলে আসি। তারপরে বাগমারা বারুইপাড়া গ্রামে এক মেয়ের সাথে বিয়ে হয়। তিন ছেলে ও এক মেয়ে হয়। এ নিয়ে এখানেই আমার বসতবাড়ি হয়ে যায়।

আরও পড়ুন


ফের বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন কপিল শর্মা

শনিবার রাজধানীর যে সব মার্কেট ও দর্শনীয় স্থান বন্ধ

করোনা মোকাবিলায় জাতিসংঘে ৬ প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের পূর্ণ বিবরণ


তিনি আরও বলেন, আমার মায়ের সাথে ভিডিও কলে প্রথম যখন কথা বলি তখন আমার মা আমাকে বলে তুই আমার হারিয়ে যাওয়া আব্দুল কুদ্দুস বাবা। তোর ছোট বেলায় হাত কেটে গিয়েছিল। মায়ের মুখে এ কথা শুনার পরে আমি বলি, মা তোর কুদ্দুসের কোন হাত কেটে গিয়েছিল, তখন মা বলে বাম হাতের বুড়া আঙ্গুলের কেটে গিয়েছিল, তখন আমার মাথা খারাপ হয়ে যায়। আর বুঝতে পারি যে আমার মা সেই।

এদিকে হারিয়ে যাবার ৭০ বছর পর পরিবারের সাথে যোগাযোগের বিষয়টি আলোড়ন ফেলেছে আব্দুল কুদ্দুসের বর্তমান আবাস বাগমারার বারুইপাড়া গ্রামেও। চায়ের দোকান থেকে পাড়ামহল্লার মোড়ে মোড়ে মানুষের মুখে মুখে ফিরছে আব্দুল কুদ্দুসের গল্প।

সব ঠিক থাকলে আজ শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) মায়ের সাথে দেখা করতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া যাবেন আব্দুল কুদ্দুস মুন্সি। ৭০ বছর পর মা ফিরে পাবেন তার যক্ষের ধন, আর ছেলে পাবেন মায়ের পরশ।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ার স্কুলছাত্রের আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক


মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ার স্কুলছাত্রের আত্মহত্যা

মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় পরিবারের সঙ্গে অভিমান করে রাইয়ান (১৫) নামে এক স্কুলছাত্র আত্মহত্যা করেছে।

আজ সকালে বরিশালে নগ‌রের ব্রাউন কম্পাউন্ডের বাসভবন থেকে তার মর‌দেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। রাইয়ান বরিশাল জেলা স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।

প্রতিবেশীরা জানান, বেশ কয়েকদিন ধরেই রাইয়ান তার মা-বাবার কাছে মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার বায়না করছিল। তা না পেয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে।

আরও পড়ুন:


ফুটবলে ক্যারিশমা দেখিয়ে অষ্টমবারের মতো গিনেস বুকে বাংলাদেশের ফয়সাল

ইসরায়েলের আয়রন ডোমের জন্য ১০০ কোটি ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বব্যাপী স্থিতিশীল খাদ্য ব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!


কোতোয়ালি থানার এসআই সুলতান মাহমুদ বলেন, ব্রাউন কম্পাউন্ডের বাসিন্দা মো. শাহজাদার ছেলে রাইয়ান। গতকাল রাত ৩টার দিকে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে সে। মর‌দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

দেশের সবখানে উন্নয়নের ছোঁয়া পৌঁছে গেছে: খাদ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

দেশের সবখানে উন্নয়নের ছোঁয়া পৌঁছে গেছে: খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, দেশের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তার কল্যাণে দেশের সবখানে উন্নয়নের ছোঁয়া পৌঁছে গেছে।

আজ সকালে নিয়ামতপুর উপজেলার স্থায়ী মঞ্চে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের সুবিধাভোগীদের মধ্যে প্রণোদনা বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, শিক্ষার জন্য যত রকম প্রণোদনা দেওয়ার দরকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার তার সব কিছু দিয়ে যাচ্ছে। বর্তমান সরকার কৃষককে প্রণোদনার পাশাপাশি সার, বীজ ও কৃষি উপকরণও দিচ্ছে। ফলে আমাদের কৃষিতে বিপ্লব ঘটেছে। দেশে খাদ্যের কোনো অভাব নেই।

আরও পড়ুন:


ফুটবলে ক্যারিশমা দেখিয়ে অষ্টমবারের মতো গিনেস বুকে বাংলাদেশের ফয়সাল

ইসরায়েলের আয়রন ডোমের জন্য ১০০ কোটি ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বব্যাপী স্থিতিশীল খাদ্য ব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!


নিয়ামতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়া মারিয়া পেরেরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে নিয়ামতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদ আহম্মেদ, ভাইস চেয়ারম্যান আইউব হোসেন মণ্ডল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

জয়পুরহাটে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত ২

অনলাইন ডেস্ক


জয়পুরহাটে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত ২

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি ও কালাই উপজেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুইজন নিহত হয়েছেন। আজ দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, পাঁচবিবি উপজেলার ভিমপুরে সুবোধ রায় নিজ বাড়িতে বিদ্যুতের সংযোগ মেরামত করছিল। অসাবধানতার কারণে বিদ্যুতের তার শরীরে স্পর্শ করলে, বৈদ্যুতিক শকে তিনি গুরুতর আহত হন। পরিবারের সদস্যরা তাৎক্ষণিক তাকে দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত সুবোধ রায় পাঁচবিবি উপজেলার ভীমপুর গ্রামের শ্রী তরনী কান্ত রায়ের ছেলে।

আরও পড়ুন:


ফুটবলে ক্যারিশমা দেখিয়ে অষ্টমবারের মতো গিনেস বুকে বাংলাদেশের ফয়সাল

ইসরায়েলের আয়রন ডোমের জন্য ১০০ কোটি ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বব্যাপী স্থিতিশীল খাদ্য ব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!


এদিকে গোলাম আজম নামে এক নির্মাণ শ্রমিক কালাই উপজেলার ঝামুটপুর গ্রামের সামিউল ইসলামের নির্মাণাধীন ভবনে নির্মাণ শ্রমিক হিসাবে কাজ করছিলেন। এ সময় অসাবধানতাবশত নির্মাণাধীন ভবনের বৈদ্যুতিক সংযোগকৃত ছেঁড়া তারের সঙ্গে জড়িয়ে গুরুতর আহত হন গোলাম আজম। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কালাই উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পাঁচবিবি থানার ওসি পলাশ চন্দ্র দেব ও কালাই থানার ওসি সেলিম মালিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

নরসিংদীতে ১২ হাজার দুস্থ পরিবারের পাশে মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশন

মো. হৃদয় খান, নরসিংদী:

নরসিংদীতে ১২ হাজার দুস্থ পরিবারের পাশে মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশন

নরসিংদীর মনোহরদীতে ১২ হাজার অসহায়, দুস্থ পরিবারের মাঝে এক বস্তা করে চাল সরবরাহ করেছে মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশন। এ সময় চালের বস্তার পাশাপাশি প্রত্যেক পরিবারের জন্য ৪ টি করে মাস্ক ও যাতায়ত ভাড়া বাবদ দুইশত করে নগদ টাকা প্রদান করা হয়। 

আজ শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার মনোহরদী সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এই বিতরণকার্য অনুষ্ঠানের উদ্ধোধন করা হয়।

মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও থার্মেক্স গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল কাদির মোল্লার আয়োজনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শিল্পমন্ত্রী এ্যাডভোকেট নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন এমপি। সভাপতিত্ব করেন নরসিংদীর জেলা প্রশাসক আবু নইম মোহাম্মদ মারুফ খান। এছাড়া, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নরসিংদীর পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম, মনোহরদী পৌরসভার মেয়র আমিনুর রশিদ সুজন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এম এ কাসেম প্রমুখ।

মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশনের প্রশাসনিক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, প্রত্যেক পরিবারে ২৫ কেজির এক বস্তা চাল বিতরণ কার্যক্রমের আওতায় মনোহরদীতে ২,০১৫ বস্তা, নরসিংদী সদরে ২,৫৩০ বস্তা, বেলাবতে ১,২৪০ বস্তা, রায়পুরায় ৩,৮৭৫ বস্তা, পলাশে ১,২৪০ বস্তা ও শিবপুরে ১,৫৫০ বস্তাসহ মোট ১২,৪৫০ বস্তা চাল বিতরন করা হয়। 

পাশাপাশি চাল নিতে আসা প্রত্যেক পরিবারকে যাতায়াত ভাতা বাবদ ২০০ টাকা করে মোট ২৪ লাখ ৯০ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া, স্বাস্থ সুরক্ষার জন্য প্রত্যেক পরিবারের মধ্যে চারটি করে মাস্ক মিলিয়ে মোট ৪৯, ৮০০ মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। 

মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও থার্মেক্স গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল কাদির মোল্লা বলেন, আমি এই মাটির সন্তান। এখানকান মানুষের প্রতি আমি ঋনী। ইতিপূর্বে করোনার মহামারির শুরুর দিকে মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে নরসিংদী ১০০ শয্যা বিশিষ্ট জেলা হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপ্লাই সিষ্টেম ও হাইফো নজেল কনোলা স্থাপন করেছি আমরা। এছাড়া ওইসময় জেলার ৫০ হাজার পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণও করেছি। আজও চেষ্টা করেছি সকলের জন্য কিছু করতে। 

চাল ও মাস্ক বিতরণ কার্যক্রমে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন এমপি বলেন, করোনাকালে  আওয়ামী লীগ সরকার জনগনের পাশে ছিল। মজিদমোল্লা ফাউন্ডেশনকে ধন্যবাদ জানাই এই মহৎ উদ্যোগ নেয়ার জন্য। আশাকরি এই সহায়তা অনাথ ও নিম্ন আয়ের মানুষদের কষ্ট একটু হলেও লাঘব করবে।

পরবর্তী খবর