খুলনা জেনারেল হাসপাতালের বহির্বিভাগে আবারও চিকিৎসা সেবা ​চালু হয়েছে
খুলনা জেনারেল হাসপাতালের বহির্বিভাগে আবারও চিকিৎসা সেবা ​চালু হয়েছে

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের বহির্বিভাগে আবারও চিকিৎসা সেবা ​চালু হয়েছে

Other

খুলনায় করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণহীনভাবে বাড়লে হাসপাতালে চাপ সামলাতে গত ২০ জুন থেকে খুলনা জেনারেল হাসপাতালে করোনা ইউনিট চালু করা হয়। একইসাথে হাসপাতালে জরুরি বিভাগসহ সব ধরনের সাধারণ চিকিৎসাসেবা বন্ধ রাখা হয়। তবে বর্তমানে খুলনায় করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু হার কমেছে। ফলে প্রায় আড়াই মাস পর ৪ সেপ্টেম্বর থেকে হাসপাতালের বহির্বিভাগে আবারও সাধারণ রোগীর চিকিৎসাসেবা ​চালু হয়েছে।

 

খুলনায় করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু ক্রমেই কমছে। একই সাথে কমছে হাসপাতালে রোগীর ভর্তি সংখ্যা। গত ৪ সেপ্টেম্বর খুলনায় ৩২২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২২ জনের করোনা শনাক্ত হয়। সংক্রমনের হার মাত্র ৪ শতাংশ। একই দিনে খুলনার সরকারি-বেসরকারি চারটি করোনা হাসপাতালে ৪৮৫টি শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি ছিল ১১২ জন। এসব হাসপাতালে শয্যা খালি রয়েছে ৭৬ শতাংশ।

এদিকে অব্যাহতভাবে হাসপাতালে করোনা রোগী কমতে থাকায় শনিবার থেকে খুলনা জেনারেল হাসপাতালের বহির্বিভাগে আবারও সাধারণ রোগীর চিকিৎসা চালু হয়েছে। সরেজমিনে দেখা যায়, প্রথম দিনে হাসপাতালে জরুরি বিভাগ ও বহির্বিভাগে অসংখ্য রোগী ভিড় করেন। বহির্বিভাগে মেডিসিন, ইএনটি  গাইনী, সার্জারীসহ বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

এদিকে চিকিৎসকরা বলছেন, করোনাকালে খুলনা জেনারেল হাসপাতালে করোনা ইউনিট চালু করায় সাধারণ রোগীরা ভোগান্তিতে ছিল।
এখন সরকারি হাসপাতালে পুনরায় চিকিৎসাসেবা চালু হওয়ায় জরুরি হার্টের, পেসার ডায়াবেটিসসহ বিভিন্ন রোগে চিকিৎসা নিতে পারছেন রোগীরা।

এদিকে জেলা সিভিল সার্জন জানান, জেনারেল হাসপাতাল খুলনার গুরুত্বপূর্ন চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘদিন করোনা ইউনিট চালু থাকায় এখানে সাধারণ চিকিৎসা বন্ধ ছিল। এখন করোনা আক্রান্ত রোগীর ভর্তি কমে যাওয়ায় আবারও সাধারণ চিকিৎসা চালু হয়েছে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আগামী ৬ সেপ্টেম্বর থেকে খুলনা জেনারেল হাসপাতালের আন্ত:বিভাগে রোগী ভর্তি শুরু হবে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত