যে ‌‘কঠোর নিয়মে’ বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস করবে আফগান ছাত্র-ছাত্রীরা
যে ‌‘কঠোর নিয়মে’ বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস করবে আফগান ছাত্র-ছাত্রীরা

যে ‌‘কঠোর নিয়মে’ বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস করবে আফগান ছাত্র-ছাত্রীরা

অনলাইন ডেস্ক

আফগানিস্তানে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হওয়ার পর ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপাড়ার সুযোগ করে দিতে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে যাচ্ছে তালেবান। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাসে ছাত্র-ছাত্রী একই ক্লাসে অধ্যয়ন করবে। তবে মানতে হবে নতুন নিয়ম। তা হলো- ক্লাসের মাঝখানে কালো পর্দা রাখতে হবে।

পর্দার একপাশে ছাত্র, অপর পাশে ছাত্রী রেখে ক্লাস করাবেন শিক্ষকরা।

বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রীদের নেকাব পরে আসতে হবে। এছাড়া ছাত্রদের সঙ্গে ছাত্রীরা একসঙ্গে ক্লাস করতে পারবেন না। আর যদি করতে হয় তাহলে ক্লাসরুম পর্দা দিয়ে ভাগ করে ছাত্র ও ছাত্রীকে আলাদা বসাতে হবে।

শনিবার রাতে তালেবানের উচ্চশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক নির্দেশে এসব বলা হয়েছে বলে বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

নির্দেশে বলা হয়েছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের ক্লাস অবশ্যই নারী শিক্ষক নেবেন। যদি তা সম্ভব না হয়, তাহলে সচ্চরিত্রের বয়স্ক পুরুষরা ছাত্রীদের ক্লাস নিতে পারবেন। এসব নির্দেশ বেসরকারি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।

আগামীকাল সোমবার আফগানিস্তানে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে যাচ্ছে। এর আগেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীদের বিষয়ে বিধিনিষেধ দিল তালেবান।

আরও পড়ুন:


পর্ন ভিডিও বানানোর সেই কাহিনী জানালেন পরী

৪ রানে জয় পেল বাংলাদেশ

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার অভিযোগে মেয়র তাপসের কুশপুত্তলিকা দাহ

 নাটোরে সড়কে গেল মুক্তিযোদ্ধার প্রাণ

গয়েশ্বর বললেন, আওয়ামী লীগ ফুল স্টপ হয়ে যাবে

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে বলা হয়েছে, সুযোগ-সুবিধার ওপর ভিত্তি করে ছাত্রীদের নারী শিক্ষক নিয়োগ দিতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে। ছাত্রী ও ছাত্রদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢোকার ও বের হওয়া পথ আলাদা হতে হবে।

মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে আরও বলা হয়েছে, ক্লাসে ছাত্রী আলাদা পড়াশোনা করবেন। ছাত্রদের ক্লাস শেষ হওয়ার পাঁচ মিনিট আগে তাদের পড়াশোনা শেষ করতে হবে। যাতে ক্লাসের বাইরে ছাত্র ও ছাত্রীদের একত্রিত না হতে পারেন। ছাত্ররা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছেড়ে বের না হওয়া পর্যন্ত ওয়েটিং রুমে অপেক্ষা করবেন ছাত্রীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপক বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীদের বিষয়ে যেসব নির্দেশাবলি দেয়া হয়েছে তা কার্যকর করা কঠিন হয়ে পরবে। কারণ আমাদের পর্যাপ্ত নারী শিক্ষক বা বাড়তি ক্লাস নেই। তবে তালেবান নারীদের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছে, এটা বেশ ইতিবাচক পদক্ষেপ।

news24bd.tv তৌহিদ

সম্পর্কিত খবর