পদ্মা সেতু চালুর দিন থেকেই ট্রেন না চলার শঙ্কা মন্ত্রীর

পদ্মা সেতু চালুর দিন থেকেই ট্রেন না চলার শঙ্কা মন্ত্রীর

পদ্মা সেতু চালুর দিন থেকেই ট্রেন না চলার শঙ্কা মন্ত্রীর

অনলাইন ডেস্ক

আগামী বছরের জুন মাসে পদ্মা সেতু উদ্বোধনের সময় সড়ক পথের পাশাপাশি ও মাওয়া থেকে ভাঙ্গা অংশে রেল চালু করা নিয়ে অনিশ্চিয়তা দেখা দিয়েছে।  

সকালে প্রকল্প এলাকায় পরিদর্শনে আসেন রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন।  

এসময় তিনি সংবাদিকদের বলেন, পদ্মা সেতুতে রেল ট্র্যাক বসাতে অন্তত ছয় মাস সময় লাগবে। চলতি বছরের ডিসেম্বর বা আগামী বছরের জানুয়ারির মধ্যে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ যদি রেল ট্র্যাক বসানোর জন্য পদ্মা সেতু রেল মন্ত্রণালয়কে হস্তান্তর না করে তাহলে জুনের মধ্যে সড়ক ও রেলপথ একইসঙ্গে চালু করা সম্ভব না-ও হতে পারে।

তিনি বলেন, আগামী বছরের জুনে পদ্মা সেতু চালুর লক্ষ্য রয়েছে সরকারের। শুরু থেকেই পরিকল্পনা ছিল, যেদিন থেকে সেতু যানবাহন চলাচলের উন্মুক্ত করে দেয়া হবে, সেদিন থেকেই চলবে ট্রেন। এই লক্ষ্য নিয়েই বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ রেলওয়ে কাজ করে আসছিল।

আরও পড়ুন:


গ্রেপ্তার জামায়াত নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা, রিমান্ডে চায় পুলিশ

করোনায় আক্রান্ত জাপা মহাসচিব, হাসপাতালে ভর্তি

৭ বছর কারাদণ্ড হতে পারে নুসরাতের

দুদকের তৃতীয় দিনের রিমান্ডে পিকে হালদারের সহযোগী নাহিদা-শুভ্রা


রেলমন্ত্রী বলেন, সেতুর ওপর রেললাইন স্থাপনের জন্য এখনো সেতু কর্তৃপক্ষ রেলওয়েকে অনুমতি দেয়নি। সেতুর ওপর রেললাইন বসাতে অন্তত ছয়মাস সময় লাগবে। সেতু কর্তৃপক্ষ আগামী বছরের মার্চ মাস নাগাদ আমাদের কাজ শুরু করার জন্য প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে। তবে আমরা চাই কাজটি আগামী ডিসেম্বরে শুরু করে জুনের মধ্যে শেষ করতে।

মন্ত্রী আরো বলেন, যদি কোনো কারণে সেতুর উদ্বোধনী দিনে ট্রেন চলাচল শুরু করা সম্ভব না হয়, তাহলে আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে ঢাকা থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত অংশে ট্রেন চালুর নতুন লক্ষ্য ঠিক করা হবে।

news24bd.tv নাজিম