সব জেলায় ৱ্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা বাড়ানোর পরামর্শ

সব জেলায় ৱ্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা বাড়ানোর পরামর্শ

Other

সংক্রমণের হার যখন ঊর্ধ্বমুখি ছিল, তখন কমিউনিটি পর্যায়ে বিস্তার হার জানতে শুরু হয়েছিল করোনার ৱ্যাপিড এন্টিজেন পরীক্ষা। আগস্টের শেষ দিকে এসে দেখা দেয় কীট সংকট। ফলে অনেক জেলায়  বন্ধ হয় ৱ্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা । যেসব জেলায় এখনো চালু আছে, সেগুলোতেও কেবল উপসর্গ থাকলে পরীক্ষা করা হচ্ছে।

এমন পরিস্থিতিতে,  কীট সংকট কাটিয়ে র‌্যাপিড পরীক্ষা চালু রাখার তাগিদ দিয়েছেন জনস্বাস্থ্যবিদরা।  

রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁয় যখন সংক্রমণের হার ছিল ঊর্ধ্বমুখি। তখন রাজশাহীতে শুরু হয়েছিল ৱ্যাপিড এন্টিজেন পরীক্ষা। কীট সংকটে তা বন্ধ হয়েছে ২৮ আগস্ট থেকে।

দ্রুত ফল পেতে ৱ্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা শুরু হলেও কীটের অভাবে দেশের অন্য জেলাগুলোতেও তা বন্ধের উপক্রম হয়েছে।

করোনার সংক্রমণ কমিউনিটি পর্যায়ে কতোটুকু ছড়িয়েছে, তা জানতে জনবহুল এলাকায় ৱ্যাপিড এন্টিজেন পরীক্ষা শুরু হয়। মানুষ যেভাবে রাস্তায় বেড়িয়েছে, তাতে এই পরীক্ষা আরও বাড়ানো প্রয়োজন-বলছেন এই জনস্বাস্থ্যবিদ।

সংক্রমণের হার ও রোগী চিহ্নিত করতে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন জনস্বাস্থ্যবিদ চিন্ময় কান্তি দাস।

কীট সংকট কাটিয়ে দেশের সব জেলায় ৱ্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন জনস্বাস্থ্যবিদরা।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত