নোয়াখালীতে প্রকাশ্যে গুলি, একে অপরকে দুষছেন আওয়ামী লীগ নেতারা
নোয়াখালীতে প্রকাশ্যে গুলি, একে অপরকে দুষছেন আওয়ামী লীগ নেতারা

নোয়াখালীতে প্রকাশ্যে গুলি, একে অপরকে দুষছেন আওয়ামী লীগ নেতারা

Other

পুরোনো কমিটি বাতিল ও নতুন কমিটি গঠন নিয়ে নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে উত্তপ্ত পরিবেশ বিরাজ করছে। এরই মধ্যে মাইজদী উপজেলায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার সময় অস্ত্র হাতে তিন যুবকের গুলি করার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।  

রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময়ের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, অস্ত্রধারী এক যুবক প্রতিপক্ষের দিকে গুলি করছেন এবং বাকি দুইজন প্রতিপক্ষদের ধাওয়ার মুখে অস্ত্র হাতে অন্য সহযোগীদের সঙ্গে দৌঁড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন। সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে অস্ত্রধারীদের ভিডিওটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় স্থানীয় নেতারা একে অপরকে দায়ী করছেন। আর পুলিশ বলছে, অস্ত্রধারীরা যে পক্ষেরই হোক, ছাড় দেবে না পুলিশ।  

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ৩৮ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটিতে দেখা যায়- অস্ত্র হাতে বেশ কয়েকজন যুবক দৌড়াচ্ছে এবং প্রকাশ্যে গুলি ছুঁড়ছে। দৃশ্যটি নোয়াখালী জেলা শহর মাইজদী জিলা স্কুলের সামনে প্রধান সড়কের।

 

এ ঘটনায় নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ একরামুল করিম চৌধুরী সমর্থক নোয়াখালী শহর আওয়ামী লীগ সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু ও আওয়ামী লীগ নেতা  একেএম সামছুদ্দিন জেহানের অভিযোগ, রোববার বিকালে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে তাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে হঠাৎ করেই দক্ষিণ দিক থেকে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিহাব উদ্দিন শাহিনের লোকজন অস্ত্র নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় প্রতিহত করতে তারা ধাওয়া দিলে গুলি করতে করতে চলে যায় অস্ত্রধারীরা।  

তবে গুলি ছোড়া যুবকরা তার কর্মী নয় বলে জানান নোয়াখালী সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি শিহাব উদ্দিন শাহিন। উল্টো তিনি সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী ও তার সমর্থকদেরই দায়ী করেন।  

নোয়াখালীতে প্রকাশ্যে অস্ত্রের ঝনঝনানি ভবিষ্যতে বড় ধরনের সংঘাতের আশঙ্কা করছেন সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)-এর সভাপতি মোল্লা হাবিবুর রাছুল মামুন।  

এদিকে, পুলিশ বলছে, ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি থেকে অস্ত্রধারীদের পরিচয় নিশ্চিত করতে মাঠে কাজ করছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক টিম।  

দোষীদের খুব শিগগির আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দিয়েছেন পুলিশ সুপার শহিদুল ইসলাম।  

news24bd.tv নাজিম