আত্মীয়-স্বজন মারা গেলে যে আমল
আত্মীয়-স্বজন মারা গেলে যে আমল

আত্মীয়-স্বজন মারা গেলে যে আমল

অনলাইন ডেস্ক

পৃথিবীর চিরন্তন সত্য মৃত্যু। প্রত্যেকটি জীবকেই মৃত্যুবরণ করতে হবে। তাই সৎ আমল নিয়ে ঈমানের সঙ্গে মৃত্যু সবার কাম্য।

কোনো মানুষের মৃত্যু হলে করণীয় : কারো মৃত্যুর সংবাদ শুনতে পেলে কী করতে হবে তা অনেকেই জানেন না।

কারো মৃত্যুর সংবাদ শোনার পর ‘ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন’ পড়তে হয়। মৃত ব্যক্তির আশপাশে অবস্থান করলে মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে তার হাত-পা সোজা করতে হয়। তারপর চোখ-মুখ বন্ধ করে দিতে হয়। তারপর খাটিয়ার ওপর মরদেহ রেখে পুরো শরীর চাদর দিয়ে ঢেকে দিতে হয়। মরদেহ যত দ্রুত সম্ভব কাফন-দাফনের জন্য ব্যবস্থা করতে হবে। (মুসলিম, হাদিস : ৯১৮; তিরমিজি, হাদিস : ১/২০৬; ফাতাওয়া শামি : ২/১৯৩, ৩/১৫১-১৫২)

এছাড়া কেউ মারা গেলে চওড়া পট্টি দিয়ে চোয়াল বেঁধে দেয়া (ব্যক্তিবিশেষের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য) এবং চোখ বন্ধ করে দেয়া মুস্তাহাব। (মুসলিম, হাদিস : ১৫২৮)

চোখ বন্ধ করার সময়ের দোয়া : মরদেহের চোখ বন্ধ করা গুরুত্বপূর্ণ। এ কারণে মৃত্যুর পর আশপাশে থাকা লোকদের দায়িত্ব হলো মরদেহের চোখ বন্ধ করার ক্ষেত্রে বেশি সময় না নেয়া। চোখ বন্ধ করার সময় এই দোয়াটি পড়তে হয়-

উচ্চারণ : বিসমিল্লাহি ওয়া আলা মিল্লাতি রাসুলিল্লাহ, আল্লাহুম্মা ইয়াসসির আলাইহি আমরাহু ওয়া সাহহিল আলাইহি মা-বাদাহু, ওয়াস আদহু বি-লিকাইকা, ওয়াজআল মা খারাজা ইলাইহি মিনমা খারাজা মিনহু।

অর্থ : আল্লাহর নামে আরম্ভ করছি এবং রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর নিয়ে আসা দ্বীন অনুযায়ী। হে আল্লাহ! তার বিষয়াদি সহজ করে দিন এবং পরের বিষয়গুলোও তার জন্য সহজ করে দিন। আপনার সঙ্গে সাক্ষাতের সৌভাগ্য দান করুন তাকে। তার কাছে আগন্তুক বস্তুগুলোকে প্রস্থানকৃত বস্তু থেকে উত্তম করে দিন। (তিরমিজি, হাদিস : ৯৬৭)

মৃত ব্যক্তির হাতদ্বয় সিনার ওপর থাকবে না, তার দুই পাশে রাখতে হবে। (সুনানে কুবরা, হাদি : ৬৮৪৯, মুসান্নাফে ইবনে আবি শায়বা : ৩/২৪১)

মরদেহ গোসলের আগে পাশে উচ্চস্বরে পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত করা মাকরুহ। (আবদুর রাজ্জাক : ৩/৩৮৬)

এছাড়া মৃত্যুর খবর প্রচার করা এবং দ্রুত দাফনকার্য সম্পন্নের ব্যবস্থা করা মুস্তাহাব। (বুখারি, হাদিস : ১১৬৮, আবু দাউদ, হাদিস : ২৮৪৭)

news24bd.tv/এমি-জান্নাত