সেই জগতই হবে চির শান্তির, যেখানে সবাই সম্পদ করে নিবে ভাগাভাগি
সেই জগতই হবে চির শান্তির, যেখানে সবাই সম্পদ করে নিবে ভাগাভাগি

সেই জগতই হবে চির শান্তির, যেখানে সবাই সম্পদ করে নিবে ভাগাভাগি

Other

জন লেননের দুনিয়া কাপানো বিখ্যাত গান ইমাজিনের পঞ্চাশ বছর পুর্তি হলো কিছুদিন আগে। সত্তর দশকের তারুণ্য যা বিপুলভাবে সমাজতন্ত্রের ধারণার দিকে ঝুঁকে পড়েছিল তাদের চিন্তা স্বপ্ন আর কল্পনাকে মূর্ত করেছিল ইমাজিন গানটি। লেনন ইমাজিন গানের মধ্যে দিয়ে এমন এক ইউটোপিয়ার গল্প বলেছেন যেই ইউটোপিয়াতে যুদ্ধ নাই, বিভেদ নাই, দেশ নাই, সীমানা নাই, স্বর্গ নাই, নরক নাই, ধর্ম নাই, সম্পত্তি নাই, লোভ নাই। লেননের মতে, সেই জগতই হবে চির শান্তির যেখানে সবাই পৃথিবীর সমস্ত সম্পদ ভাগাভাগি করে নেবে।

কমিউনিষ্টরা এটাই বলতো। এমন একটা জগতের স্বপ্ন দেখাতো সবাইকে।  

গানটা শুরু হয় এভাবে, গাঢ় কুয়াশার মধ্যে দিয়ে আস্তে আস্তে দৃশ্যমান হয় দুই মানব মানবী। একজন লেনন আরেকজন লেননের জাপানি স্ত্রী ইয়োকো অনো। তারা হাটতে থাকে, আস্তে আস্তে কুয়াশা ফিকে হতে থাকে, তারপর ওরা একটা বিশাল বাড়ির ভিতরে ঢোকে লেনন পিয়ানো বাজিয়ে গান করতে থাকে আর ইয়োকো আনা একে একে বাড়ির বিশাল জানালা খুলে দিতে থাকে আর ঘরটা আলোয় আলোয় ভরে যায়। এ যেন অন্ধকার থেকে আলোয় আসা।   

অবশ্য এই পঞ্চাশ বছরে পদ্মা মেঘনা, ভোল্গায় অনেক পানি বয়ে গেছে। সমাজতন্ত্রের পতন হয়েছে। বামপন্থার পরাজয় হয়েছে। সমাজতান্তিক দেশগুলো আলোয় আলোয় ভরে ওঠার বদলে কঠোর স্বৈরতান্ত্রিক ব্যবস্থা বহাল রেখেছে, আদর্শের নামে কম্বোডিয়ার বামপন্থী কমিউনিষ্টরা গণহত্যা চালিয়েছে, লক্ষ লক্ষ মানুষকে বিরুদ্ধতাবাদীদেরকে সোভিয়েত কমিউনিষ্টরা সাইবেরিয়ায় শ্রম শিবিরে পাঠিয়েছে। সে যাই হোক, ইমাজিন গানটা শুনতে ভালো লাগে, খুব লিরিক্যাল। গানটার অলিটিক্যাল আবেদন ফুরিয়ে গেলেও আরো অনেকদিন ইতিহাসের স্মারক হিসেবে গানটা অনেকেই শুনবে।  

এই গানটার লিরিক লিখেছিলেন লেনন নিজেই। তবে এই গানটার লিরিকের ধারণা লেনন পেয়েছিলেন তার স্ত্রীর কাছে থেকে। তার স্ত্রী একটা বই লিখেছিলেন বাচ্চাদের ইসাল্ট্রেশন এবং ড্রয়িং শেখানোর জন্য নাম ছিল "গ্রেপফ্রুট" সেখানে ছন্দে ছন্দে ড্রইং শেখানোর জন্য ইয়োকো লিখছেন: 
Imagine the clouds dripping
Dig a hole in your garden to put them in
Imagine myself crying and using my tears to make myself stronger
লেনন এই বইয়ের প্রকাশনা আর বইয়ে সিগনেচার করা সহ নানা প্রমোশনের কাজও করেছিলেন। লেনন অবশ্য পরে এক রেডিও সাক্ষাতকারে এই গানটার লিরিকের ধারনা দেয়ার জন্য তার স্ত্রীর কাছে কৃতিজ্ঞতা জানান এবং এই ইমাজিন গানের লিরিককে যৌথ রচনা বলেই স্বীকৃতি দেন।  

লেনন ভেবেছিলেন, ধর্মহীন পৃথিবীতে কোন অশান্তি থাকবে না। কমিউনিষ্টদের নিয়ে সমস্যা এটাই তারা মনে করে মানুষ বোধ হয় বনের পশুর মতোই প্রাণী একটা যার শুধু আহার, নিদ্রা আর মৈথুন হলেই সুখী জীবন কাটাতে পারে। মানুষের যে একটাস্পিরিচুয়াল নিড বা চাহিদা আছে সেটা তাদের মাতগার কখনো ঢোকেনি জন্যই এতো মেধাবী আর সৃজনশীল মানুষ কমিউনিষ্টদের পক্ষে থাকলেও তাদের মতাদর্শ পরিত্যাক্ত হতে একশো বছরও লাগেনি।

লেখাটি শান্তা আনোয়ার- এর ফেসবুক থেকে নেওয়া (মতভিন্নমত বিভাগের লেখার আইনগত ও অন্যান্য দায় লেখকের নিজস্ব। এই বিভাগের কোনো লেখা সম্পাদকীয় নীতির প্রতিফলন নয়। )

 

আরও পড়ুন:


তিন বারের সাবেক চেয়ারম্যান, অর্থকষ্টে ‘আত্মহত্যার চেষ্টা’

শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে পুলিশের স্ত্রী আটক

গাজীপুরে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীদের চাপা নিহত ১

বাড়িতে ঢুকে নায়িকার গলায় ছুরি ধরে সর্বস্ব লুটে নিল দুর্বৃত্তরা


NEWS24.TV / কেআই

;